alt

অর্থ-বাণিজ্য

এলডিসি গ্র্যাজুয়েশনের পর বাণিজ্য সহায়তা করবে জাপান : বাণিজ্যমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : রোববার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩

বাণিজ্যমন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা টিপু মুনশি বলেছেন, ‘জাপান বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র। জাপানের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। বাংলাদেশের বড় উন্নয়ন সহযোগি জাপান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে।

অনেক গুলোর কাজ এখন শেষ পর্যায়ে। জাপানও এখানে বিনিয়োগ করেছে। জাপানের কাছ থেকে আরও বড় ধরনের বিনিয়োগ আশা করে বাংলাদেশ। জাপানও বাংলাদেশকে সহায়তা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।’ বাণিজ্যমন্ত্রী রোববার (২৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে তার অফিস রুমে ঢাকায় নবনিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত আইওয়ামা কিমিনোরির সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় এসব কথা বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আগামী ২০২৬ সালে বাংলাদেশ এলডিসি গ্রাজুয়েশন করবে, তখন বিভিন্ন দেশ থেকে বাণিজ্য সুবিধা পেতে পিটিএ বা এফটিএ এর মতো বাণিজ্য চুক্তি করার জন্য আমরা কাজ করছি। তখন বাংলাদেশকে অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। বাণিজ্য সুবিধা বৃদ্ধির জন্য সংশ্লিস্ট বিষয়ে জাপানের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা ও দক্ষ ন্যাগোসিয়েশনের সুবিধার্থে একটি জয়েন্ট স্টার্ডি গ্রুপ কাজ করার জন্য প্রস্তুত। এলডিসি গ্রাজুয়েশনরে পর এফটিএ বা পিটিএ এর মতো বাণিজ্য সহযোগিতা চুক্তি করে উভয় দেশের ব্যবসা, বাণিজ্য ও বিনিযোগ বৃদ্ধিরে জন্য কাজ করা হবে। জাপান ইতোমধ্যে এ বিষয়ে ব্যাপক আগ্রহ প্রকাশ করেছে, সেই মোতাবেক কাজ চলছে। উভয় দেশের ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীরা সফর বিনিময় করলে বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত সহজ হবে।’

জাপানের রাষ্ট্রদূত আইওয়ামা কিমিনোরি বলেন, ‘জাপান সরকার বাংলাদেশকে ব্যবসা-বাণিজ্য, বিনিয়োগ এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নে অধিক গুরত্ব দিয়ে থাকে। আগামী ২০২৬ সালে বাংলাদেশের এলডিসি গ্রাজুয়েশনের পর জাপান বাংলাদেশের পাশে থাকবে। জাপানের অনেক বিনিয়োগ আছেন এখানে, বাংলাদেশের সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও বৃদ্ধি করতে আগ্রহী জাপান। জাপান বাংলাদেশ ইকোনমিক পার্টনারশিপ এগ্রিমেন্ট (ইপিএ) স্বাক্ষরের জন্য করণীয় ঠিক করতে সরকারি কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করছে জাপান। বাংলাদেশও একই ধরনের দক্ষ কর্মকর্তা ও বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গ্রুপ গঠন করলে কাজ অনেক সহজ হবে। এতে দক্ষ এবং অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রতিনিধি থাকবে। যাতে সঠিকভাবে এ বিষয়ে এগিয়ে যাওয়া যায়। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সঠিক সময়েই এলডিসি গ্রাজুয়েশন পরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার প্রস্তুতি শুরু করেছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে জাপানের সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।’ এ সময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (এফটিএ) নূর মো. মাহবুবুল হক উপস্থিত ছিলেন। পরে বাণিজ্যমন্ত্রী জাপান-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির নবনির্বাচিত পরিচালনা পর্ষদের সদস্যগণের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এর আগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিভিন্ন বাণিজ্য সংগঠনকে লাইসেন্স হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন।

ছবি

রমজানে পুঁজিবাজারে লেনদেনের নতুন সময়সূচি

ছবি

ব্যালট ছিনতাই ও পুলিশের মামলায় খোকন-কাজলের জামিন

ছবি

জুন থেকে রিজার্ভ গণনার আইএমএফ পদ্ধতি

ছবি

আসছে রমজান, বাড়ছে রেমিট্যান্স, ১৭ দিনে এলো প্রত্যাশার চেয়ে বেশি

৯ শতাংশ সুদহার তুলে নিচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক

অতি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলতে ফি না নেয়ার নির্দেশ

বাণিজ্য সম্প্রসারণে ভারত চেম্বার ও বাংলাদেশ চেম্বারের মধ্যে সমঝোতা

শিক্ষক-স্বাস্থ্যকর্মীদের আবাসন পূরণ করবে ‘স্বপ্ননীড়’

বিক্রির চাপে শেয়ারবাজারে পতন

ছবি

স্কিন’ মেকআপ ফেস্টিভ্যাল

রোজা উপলক্ষ্যে ৯০ টাকায় চিনি ও ৪৫ টাকায় চাল বিক্রি করছে দেশবন্ধু গ্রুপ

ছবি

দেশে ৩ লাখ ভোজ্যতেল ও সোয়া ২ লাখ টন চিনি মজুত রয়েছে

ছবি

আসছে রমজান, বাড়ছে প্রবাসী আয়

ছবি

রমজানে জাল টাকা রোধে সতর্ক থাকতে বলল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

ছবি

শিক্ষক-স্বাস্থ্যকর্মীদের আবাসন পুরণ করবে ‘স্বপ্ননীড়’

ছবি

ব্যাংক এশিয়ার লভ্যাংশ ঘোষণা

ছবি

বাড়ল স্বর্ণের দাম, ভাঙল সব রেকর্ড

ছবি

জানুয়ারিতে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে এক লাখ ৫৯৩ কোটি টাকা লেনদেন

ছবি

পণ্য বহুমুখীকরণে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চায় বিজিএমইএ

ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ

এমপ্লয়িদের জন্য রেশন ব্যবস্থা চালু করলো এসএমএস

ব্যাংক বাঁচাতে রিজার্ভ থেকে অর্থ ধার দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

রমজান সামনে : অস্থির বাজার

মূলধন কমলো সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা, ১০ কোম্পানিতেই ৩৮ শতাংশ লেনদেন

মোট ঋণের ২৫ শতাংশ দিতে হবে সিএমএসএমই খাতে

টেকসই সাপ্লাই চেইন তৈরিতে সহযোগিতা চায় বিজিএমইএ

মূল্যস্ফীতি মোকাবিলায় কর্মীদের সর্বোচ্চ বেতন বাড়ালো জাপান

ছবি

কেটে ফেলে দেয়া চুলে কোটি টাকার ব্যবসা

পুঁজিবাজারে দরপতন থামলো

বাড়ছে খেলাপি ঋণের পরিমাণ

বাংলাদেশে পরিবর্তন আসবে না মাহিন্দ্রার চলমান ব্যবসায়

যোগাযোগ অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের অধিকতর উন্নয়ন সম্ভব

ছবি

স্ত্রীর করা মামলায় সিটি ব্যাংকের চেয়ারম্যান কারাগারে

ছবি

ইসলামী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের জন্য নির্ধারিত জামি কিনে নিল বাংলাদেশ ব্যাংক

ছবি

কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে মোটা অংকের ঋণ নিচ্ছে ক্রেডিট সুইস

ছবি

সিমটেক্স ইন্ডাস্টিজের পর্ষদে আসছে নতুন নেতৃত্ব

tab

অর্থ-বাণিজ্য

এলডিসি গ্র্যাজুয়েশনের পর বাণিজ্য সহায়তা করবে জাপান : বাণিজ্যমন্ত্রী

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

রোববার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩

বাণিজ্যমন্ত্রী বীরমুক্তিযোদ্ধা টিপু মুনশি বলেছেন, ‘জাপান বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র। জাপানের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। বাংলাদেশের বড় উন্নয়ন সহযোগি জাপান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে।

অনেক গুলোর কাজ এখন শেষ পর্যায়ে। জাপানও এখানে বিনিয়োগ করেছে। জাপানের কাছ থেকে আরও বড় ধরনের বিনিয়োগ আশা করে বাংলাদেশ। জাপানও বাংলাদেশকে সহায়তা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।’ বাণিজ্যমন্ত্রী রোববার (২৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে তার অফিস রুমে ঢাকায় নবনিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত আইওয়ামা কিমিনোরির সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় এসব কথা বলেন। বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আগামী ২০২৬ সালে বাংলাদেশ এলডিসি গ্রাজুয়েশন করবে, তখন বিভিন্ন দেশ থেকে বাণিজ্য সুবিধা পেতে পিটিএ বা এফটিএ এর মতো বাণিজ্য চুক্তি করার জন্য আমরা কাজ করছি। তখন বাংলাদেশকে অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। বাণিজ্য সুবিধা বৃদ্ধির জন্য সংশ্লিস্ট বিষয়ে জাপানের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা ও দক্ষ ন্যাগোসিয়েশনের সুবিধার্থে একটি জয়েন্ট স্টার্ডি গ্রুপ কাজ করার জন্য প্রস্তুত। এলডিসি গ্রাজুয়েশনরে পর এফটিএ বা পিটিএ এর মতো বাণিজ্য সহযোগিতা চুক্তি করে উভয় দেশের ব্যবসা, বাণিজ্য ও বিনিযোগ বৃদ্ধিরে জন্য কাজ করা হবে। জাপান ইতোমধ্যে এ বিষয়ে ব্যাপক আগ্রহ প্রকাশ করেছে, সেই মোতাবেক কাজ চলছে। উভয় দেশের ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীরা সফর বিনিময় করলে বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত সহজ হবে।’

জাপানের রাষ্ট্রদূত আইওয়ামা কিমিনোরি বলেন, ‘জাপান সরকার বাংলাদেশকে ব্যবসা-বাণিজ্য, বিনিয়োগ এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নে অধিক গুরত্ব দিয়ে থাকে। আগামী ২০২৬ সালে বাংলাদেশের এলডিসি গ্রাজুয়েশনের পর জাপান বাংলাদেশের পাশে থাকবে। জাপানের অনেক বিনিয়োগ আছেন এখানে, বাংলাদেশের সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও বৃদ্ধি করতে আগ্রহী জাপান। জাপান বাংলাদেশ ইকোনমিক পার্টনারশিপ এগ্রিমেন্ট (ইপিএ) স্বাক্ষরের জন্য করণীয় ঠিক করতে সরকারি কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের নিয়ে একটি জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠন করছে জাপান। বাংলাদেশও একই ধরনের দক্ষ কর্মকর্তা ও বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গ্রুপ গঠন করলে কাজ অনেক সহজ হবে। এতে দক্ষ এবং অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রতিনিধি থাকবে। যাতে সঠিকভাবে এ বিষয়ে এগিয়ে যাওয়া যায়। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সঠিক সময়েই এলডিসি গ্রাজুয়েশন পরবর্তী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার প্রস্তুতি শুরু করেছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে জাপানের সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।’ এ সময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (এফটিএ) নূর মো. মাহবুবুল হক উপস্থিত ছিলেন। পরে বাণিজ্যমন্ত্রী জাপান-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির নবনির্বাচিত পরিচালনা পর্ষদের সদস্যগণের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এর আগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিভিন্ন বাণিজ্য সংগঠনকে লাইসেন্স হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন।

back to top