alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

সুবর্ণচরে মা- মেয়েকে ধর্ষনঃ প্রধান আসামি আওয়ামী লীগ সভাপতিকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরন

নোয়াখালী প্রতিনিধি : সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নোয়াখালীর সুবর্নচরের মা- মেয়েকে ধর্ষনের ঘটনায় রিমান্ডে আনা চরওয়াপদা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খায়ের মুনসীকে ৪ দিন রিমান্ডে জিগ্যাসাবাদ শেষে সোমবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরন করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার থেকে সোমবার পর্যন্ত একটানা জিজ্ঞাসাবাদে ও মুখ খুলতে রাজী হয়নি আবুল খায়ের মুনসীয়া মেম্বার।

নোয়াখালী পুলিশ সূএ জানায়, ৫ ফেব্রুয়ারী গ্রেপ্তারের পর আবুল খায়ের মুনসীয়া মেম্বার ও তার সহযোগী মেহেরাজ জুডিশিয়াল আদালতের হাকিমের নিকট স্বিকোরক্তিমুলক জবানবন্দি দিতে রাজী হয়। পুলিশ ৬ ফ্রেব্রুয়ারী আবুল খায়ের মুনসীয়া ও মেহেরাজকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করার জন্য নোয়াখালীর সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালতের হাকিমের নিকট আবেদন করেন। কিন্তু আদালতে পাঠালে মেহেরাজ জুডিশিয়াল আদালতের হাকিমের নিকট স্বিকোরক্তি মুলক জবানবন্দি দেন।কিন্তু আবুল খায়ের তার আইনজীবির সাথে কথা বলার পর স্বিকোরক্তিমুলক জবানবন্দি দিতে অস্বীকার করে। তদন্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের মুনসীয়াকে ৪ দিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে ও স্বিকোরক্তি মুলক জবানবন্দি আদায় করতে ব্যার্থ হন।

এ দিকে ধর্ষক মেহেরাজ ও ধর্ষক হারুন জুডিশিয়াল আদালতের হাকিমের নিকট স্বিকোরক্তি মুলক জবানবন্দি দিয়েছে এবং দুজনই ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট স্বীকার করেছে তারা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল খায়ের মুনসীয়ার নেতৃত্বে এ ঘটনা ঘটিয়েছে এবং প্রথমে আবুল খায়ের ভিকটিমের মাকে ধর্ষন করেছে, পরে হারুন মাকে ও মেহেরাজ মেয়েকে ধর্ষন করেছে।

গত ৫ ফ্রেব্রয়ারী স্বামীর অবর্তমানে মা ও মেয়ে ঘরে ঘুমিয়ে ছিল। গভীর রাতে ঘরে সিঁধ কেটে ডুকে মায়ের হাত পা বেঁধে বিবস্ত্র করে আবুল খায়ের ও হারুন মাকে পালা ক্রমে ধর্ষন করে এবং মেহেরাজ অন্য কক্ষে গিয়ে মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। এ ব্যাপারে ভিকটিম বাদি হয়ে চরজব্বার থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই আসামীদের গ্রেফতার করে।এবং ঘটনার সাথে জড়িত দুই আসামী স্বিকোরক্তি মুলক জবানবন্দি দেয়।

ছবি

রাজধানীতে চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলায় ২ আসামী গ্রেপ্তার

ছবি

রাতে সড়কে ওঁৎ পেতে থাকে তারা, অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে করতো ছিনতাই

ছবি

সেনজেন ভিসায় লোক পাঠানোর নামে প্রতারণা, বিমান কর্মচারীসহ গ্রেপ্তার ৫

ছবি

যাবজ্জীবন সাজায় দণ্ডিত জি কে শামীমের জামিন বহাল

ছবি

পরীমনির মাদক মামলা চলবে

ছবি

চার বিমানযাত্রীর কাছে মিলল ২ কেজি সোনার বার ও পাউডার

ছবি

শিশু আয়ানের মৃত্যু: তদন্ত প্রতিবেদনে হাইকোর্টের ‘অসন্তুষ্ট, পুন:তদন্তে নতুন কমিটি

ছবি

মোবাইল চুরির পর চোর হয়ে যেতেন প্রবাসী বন্ধু

ছবি

কিশোর গ্যাং-মাদকের বিরুদ্ধে‘অলআউট অ্যাকশনে’ যাবো ঃ র‌্যাব ডিজি

ছবি

আবারো পেছালো ৩৫ বছর আগের সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলার রায়

ছবি

৩৫ বছর আগে খুন হওয়া সগিরা মোর্শেদের মামলার রায় আবার পেছাল

ছবি

দরবেশ বাবা পরিচয়দানকারি নতুন প্রতারক চক্রের সন্ধান ১৯ সদস্য গ্রেফতার,স্বীকারোক্তি : একজন নারী ডাক্তার থেকে ২৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এই চক্র

মাদ্রাসার শিক্ষকদের এমপিওভূক্তির আশ্বাস দিয়ে ৪ কোটি টাকা আত্মসাৎ, গ্রেফতার দুই বাটপারের স্বীকারোক্তি

ছবি

ফরিদপুরে অস্ত্র মামলায় রুবেল ও তার সহযোগীর কারাদণ্ড

ছবি

চার মাদ্রাসার শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ, শিক্ষকের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

চালক-হেলপারের সহায়তায় বাসে ছিনতাই করে ‘বমি পার্টি’র সদস্যরা

ছবি

সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা ফজলুল করিম হত্যায় বিচার কার্যক্রম শুরু

ছবি

তরুণীকে ব্ল্যাক মেইল,ধর্ষণ,ভিডিও ভাইরালের হুমকি অবশেষে গ্রেফতার,স্বীকারোক্তি

ছবি

রেলের টিকিট কালোবাজারে বিক্রি আরেক বুকিং সহকারী গ্রেপ্তার

ছবি

গৃহকর্মীর মৃত্যুঃ সাংবাদিক আশফাক ও স্ত্রী ৪ দিনের রিমান্ডে

ছবি

জামালপুরে কলেজছাত্র লিটন হত্যা মামলায় ৭ জনের যাবজ্জীবন

ছবি

এনআইডি জালিয়াতি: সাবরিনার বিচার শুরুর আদেশ

ছবি

মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগরে নিরব হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন ও প্রতিবাদ মিছিল

জামালপুরে বীরমুক্তিযোদ্ধাকে ভুয়া বাবা বানিয়ে সরকারি চাকরি করার অভিযোগ

রূপগঞ্জে সংঘর্ষে নারী ও শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ১০

ছবি

সাজা বাতিল চেয়ে পিকে হালদারের বান্ধবীর হাইকোর্টে আপিল

ছবি

শ্রীনগরে এসএসসি পরিক্ষার্থী নীরব হত্যার ঘটনায় ৯ জন গ্রেফতার

হারুন আদালতে জবানবন্দি দিতে অস্বীকার করায় ৪ দিনের রিমান্ডে

ছবি

জাবিতে গণধর্ষণ পরিকল্পনাকারীসহ ২ জন গ্রেপ্তার

পাথরঘাটায় আদালতের আদেশ অমান্য করে ধান কাটার অভিযোগ

সুবর্নচরে মা - মেয়ে ধর্ষনঃ আওয়ামী লীগ সভাপতির ৪ দিনের রিমান্ড মন্জুর

বদলগাছীতে মাদক সেবনের দায়ে ছাত্রলীগনেতাসহ দুজনের জেল

ছবি

সুবর্ণচরে মা-মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণ, আ’লীগ নেতা আবুল খায়ের মুন্সি গ্রেপ্তার

ডলারে আয়ের লোভনীয় ফাঁদ, কয়েক মাসে চক্র ৬-৭ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে

ছবি

কুমিল্লার সেই বিচারককে সাজা থেকে অব্যাহতি

ভোটের রাতে সুবর্ণচরে ধর্ষণ : ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড, ছয়জনের যাবজ্জীবন

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

সুবর্ণচরে মা- মেয়েকে ধর্ষনঃ প্রধান আসামি আওয়ামী লীগ সভাপতিকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরন

নোয়াখালী প্রতিনিধি

সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নোয়াখালীর সুবর্নচরের মা- মেয়েকে ধর্ষনের ঘটনায় রিমান্ডে আনা চরওয়াপদা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খায়ের মুনসীকে ৪ দিন রিমান্ডে জিগ্যাসাবাদ শেষে সোমবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরন করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার থেকে সোমবার পর্যন্ত একটানা জিজ্ঞাসাবাদে ও মুখ খুলতে রাজী হয়নি আবুল খায়ের মুনসীয়া মেম্বার।

নোয়াখালী পুলিশ সূএ জানায়, ৫ ফেব্রুয়ারী গ্রেপ্তারের পর আবুল খায়ের মুনসীয়া মেম্বার ও তার সহযোগী মেহেরাজ জুডিশিয়াল আদালতের হাকিমের নিকট স্বিকোরক্তিমুলক জবানবন্দি দিতে রাজী হয়। পুলিশ ৬ ফ্রেব্রুয়ারী আবুল খায়ের মুনসীয়া ও মেহেরাজকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করার জন্য নোয়াখালীর সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালতের হাকিমের নিকট আবেদন করেন। কিন্তু আদালতে পাঠালে মেহেরাজ জুডিশিয়াল আদালতের হাকিমের নিকট স্বিকোরক্তি মুলক জবানবন্দি দেন।কিন্তু আবুল খায়ের তার আইনজীবির সাথে কথা বলার পর স্বিকোরক্তিমুলক জবানবন্দি দিতে অস্বীকার করে। তদন্ত কর্মকর্তা আবুল খায়ের মুনসীয়াকে ৪ দিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে ও স্বিকোরক্তি মুলক জবানবন্দি আদায় করতে ব্যার্থ হন।

এ দিকে ধর্ষক মেহেরাজ ও ধর্ষক হারুন জুডিশিয়াল আদালতের হাকিমের নিকট স্বিকোরক্তি মুলক জবানবন্দি দিয়েছে এবং দুজনই ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট স্বীকার করেছে তারা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল খায়ের মুনসীয়ার নেতৃত্বে এ ঘটনা ঘটিয়েছে এবং প্রথমে আবুল খায়ের ভিকটিমের মাকে ধর্ষন করেছে, পরে হারুন মাকে ও মেহেরাজ মেয়েকে ধর্ষন করেছে।

গত ৫ ফ্রেব্রয়ারী স্বামীর অবর্তমানে মা ও মেয়ে ঘরে ঘুমিয়ে ছিল। গভীর রাতে ঘরে সিঁধ কেটে ডুকে মায়ের হাত পা বেঁধে বিবস্ত্র করে আবুল খায়ের ও হারুন মাকে পালা ক্রমে ধর্ষন করে এবং মেহেরাজ অন্য কক্ষে গিয়ে মেয়েকে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। এ ব্যাপারে ভিকটিম বাদি হয়ে চরজব্বার থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই আসামীদের গ্রেফতার করে।এবং ঘটনার সাথে জড়িত দুই আসামী স্বিকোরক্তি মুলক জবানবন্দি দেয়।

back to top