alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

রমেক হাসপাতাল থেকে গোপনে

রোগীদের বেড নিজের বাড়িতে নিয়ে যাবার সময় জনতার কাছে ধরা খেলেন চিকিৎসক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক রংপুর : বুধবার, ১৬ জুন ২০২১
image

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের রোগীদের ব্যবহৃত বেড কতৃপক্ষকে না জানিয়ে গোপনে বাড়িতে নিয়ে যাবার সময় এক চিকিৎসককে হাতেনাতে আটক করেছে এলাকাবাসি। এ ঘটনা নিয়ে হাসপাতালে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে রংপুর নগরীর বুড়িরহাট রোড এলাকার কমিউনিটি প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে এ ঘটনাটি ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের পরিচালক ডা, রেজাউল ইসলাম।

অভিযুক্ত ওই চিকিৎসকের নাম একেএম শাহীনুর রহমান। তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগের মেডিকেল অফিসার। পাচ বছর ধরে হাসপাতালে চাকরি করছেন। তার গ্রামের বাড়ি রংপুরের পীরগঞ্জে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসি জানান বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে একঠি ভ্যানে করে হাসপাতালের রোগীদের জন্য ব্যাবহৃত বেড নিয়ে যাবার জন্য এলাকাবাসির সন্দেহ হয়। তারা ভ্যানটিকে আটক করে। এ সময় ডা, শাহীনুর রহমান স্বীকার করে বেডটি সে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে যাচ্ছেন। অনুমতি পত্র বা কোন বৈধ কাগজ পত্র আছে কিনা জানতে চাইলে চিকিৎসকের সাথে এলাকাবাসির কথাকাটাকাটি ও বাক বিতন্ডা হয়। এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হলে এ প্রতিনিধি খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে গেলে

বেড নিয়ে যাওয়া চিকিৎসক ডা, শাহীনুর রহমান জানান, তার মা দেড় মাস ধরে হাসপাতালের হৃদরোগ বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছে। শারীরিক অবস্থা খুব একটা ভালো না। বর্তমানে তার মাকে কেবিনে রাখা হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে নেওয়ার কথা চলছিল। বাড়িতে যাতে বেডে থাকতে অসুবিধা না হয়, একারণে হাসপাতালের স্টোর রুমে পড়ে থাকা পুরাতন বেডটি লিখিত দিয়ে তিনি গ্রহণ করে বাসায় নিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু স্থানীয়দের সন্দেহ হওয়াতে তা আটক করে কোন প্রমান পত্র দেখাতে না পারায় এলাকাবাসিদের উপস্থিতিতে বেডটি হাসপাতালে ফেরত দেয়া হয় বলে জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, আমি দীর্ঘ পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে হাসপাতালে নবম গ্রেডের কর্মকর্তা হিসেবে রয়েছি। হাসপাতালের সম্পদ নষ্ট হোক, এমনটা কখনো করিনি। শুধুমাত্র মানবিক দিক থেকে নিজের মায়ের থাকার সুবিধার কথা চিন্তা করে স্টোর কিপার বেলাল ও ৩০নং ওয়ার্ড ইনচার্জ মমতাকে অবগত করে মুচলেকার মাধ্যমে বেডটি নিয়েছিলাম। আমার অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল না। তবে আজকের ঘটনার পর অনুভব করছি, আইনগত ভাবে এটা নেওয়া আমার ঠিক হয়নি।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের স্টোর কিপার বেলাল হোসেন এবং ৩০নং ওয়ার্ড ইনচার্জ মমতার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাদের পাওয়া যায়নি। তবে নাম না প্রকাশের শর্তে একজন সিনিয়র স্টাফ নার্স বলেন, মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকেই বেডটি তিনি নিয়ে যাচ্ছিলেন। তবে আইনগত ভাবে তার বেড নিয়ে যাওয়া সঠিক হয়নি বলে জানান তিনি।

সার্বিক বিষয়ে জানতে হাসপাতালের পরিচালক ডা. রেজাউল করিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন হাসপাতাল থেকে সরকারী বেড নিয়ে যাওয়ার আগে তাকে জানানো হয়নি। তবে ওই চিকিৎসক তার মায়ের জন্য স্টোর কিপার ও ওয়ার্ড ইনচার্জকে অবগত হাসপাতালের পুরাতন একটি বেডটি বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছিলেন বলে শুনেছি। পুরো ঘটনা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানান। তবে তাঁর অনুমতি ছাড়াই হাসপাতাল থেকে বেডটি বাহিরে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বলে স্বীকার করেন পরিচালক।

ছবি

মিথ্যাচার, অপপ্রচারের অভিযোগে হেলেনা জাহাঙ্গীর গ্রেফতার

ছবি

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় পাওয়া মদ-ক্যাসিনো নিয়ে যা বললেন তার মেয়ে

ছবি

দেশে ফেরার সময় বাংলাদেশি নারীকে ক্যাম্পে ধর্ষণ, বিএসএফ সদস্য গ্রেফতার

ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে র‌্যাব

ছবি

মুনিয়ার ‘আত্মহত্যায় প্ররোচনা’ মামলা: নিয়মিত আদালত চালু হলে পুলিশের প্রতিবেদনের ওপর শুনানি

ছবি

প্রেমিকাকে হত্যার পর মরদেহের ওপর যা লিখে গেলেন প্রেমিক

চাঁদাবাজির মামলায় ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

ছবি

দুর্নীতি মামলায় ওসি প্রদীপ দম্পতির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

ছবি

বিমানে নানা কৌশলে ঢাকায় আসছে ইয়াবা

ছবি

সুবর্ণচরে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

ছবি

ফতুল্লায় যুবক খুন, ছুরিসহ আটক ১

ছবি

পদ্মা সেতুর পিলারে ফেরির ধাক্কা দেয়া সেই মাস্টার আটক

হাসপাতালে করোনা রোগীর ছুরিকাঘাতে দুই নার্স ও ওয়ার্ডবয় আহত

ট্রলার ভাড়া বিবাদে বৃদ্ধকে হত্যা

শৈলকুপায় জমি বিবাদে গৃহবধূ নির্যাতন, বাইক ভাংচুর-টাকা লুট

ছবি

মুনিয়ার ‘আত্নহত্যা’: বসুন্ধরার আনভীরকে অব্যাহতি দিয়ে পুলিশের প্রতিবেদন

ছবি

রূপগঞ্জে আগুন: হাসেম ও তার বাকি দুই ছেলের জামিন

গোমস্তাপুরে অস্ত্রসহ আটক ১

আশুলিয়ায় শিশু ধর্ষণ মামলা

ছবি

কক্সবাজারে আশু আলী বাহিনীর প্রধান আশু আলী নিহত

ছবি

হরিদেবপুরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তার

ভেড়ামারায় শিশুকে ধর্ষণ অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

রূপগঞ্জে পুলিশ পরিচয়ে অপহরণ ও মুক্তিপণ মামলা নেয়নি পুলিশ

ছবি

ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

ছবি

টেকনাফে র‌্যাবের সাথে গোলাগুলিতে রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত

ছবি

গরুর হাটে ব্যবসায়ীকে মারধর করে ৮ লাখ টাকা লুটে নেওয়ার অভিযোগ

ছবি

বগুড়ায় চাঞ্চল্যকর গৃহবধুকে গণধর্ষণ ঘটনার প্রধান আসামী রাব্বিসহ ৪জন গ্রেফতার

ছবি

কাশিমপুর কারাগারে জেএমবি সদস্যের ফাঁসি কার্যকর

ছবি

কুষ্টিয়ায় বিষ দিয়ে কৃষকের দুটি গরু হত্যা

গোদাগাড়ীতে জমি বিবাদে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

চেকপোস্ট বসিয়ে ছিনতাই করত ওরা

৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণ ও হত্যা

ছবি

২২ বছর সাজা খেটে বেরিয়েই ফের হত্যাচেষ্টা

স্ত্রী-সন্তানকে হত্যা করে মাটিচাপা

নিরাপদ ডটকমের সিইও শাহরিয়ার খান গ্রেপ্তার

ছবি

রুপগঞ্জের অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ৬ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

রমেক হাসপাতাল থেকে গোপনে

রোগীদের বেড নিজের বাড়িতে নিয়ে যাবার সময় জনতার কাছে ধরা খেলেন চিকিৎসক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক রংপুর
image

বুধবার, ১৬ জুন ২০২১

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের রোগীদের ব্যবহৃত বেড কতৃপক্ষকে না জানিয়ে গোপনে বাড়িতে নিয়ে যাবার সময় এক চিকিৎসককে হাতেনাতে আটক করেছে এলাকাবাসি। এ ঘটনা নিয়ে হাসপাতালে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে রংপুর নগরীর বুড়িরহাট রোড এলাকার কমিউনিটি প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে এ ঘটনাটি ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের পরিচালক ডা, রেজাউল ইসলাম।

অভিযুক্ত ওই চিকিৎসকের নাম একেএম শাহীনুর রহমান। তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগের মেডিকেল অফিসার। পাচ বছর ধরে হাসপাতালে চাকরি করছেন। তার গ্রামের বাড়ি রংপুরের পীরগঞ্জে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসি জানান বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে একঠি ভ্যানে করে হাসপাতালের রোগীদের জন্য ব্যাবহৃত বেড নিয়ে যাবার জন্য এলাকাবাসির সন্দেহ হয়। তারা ভ্যানটিকে আটক করে। এ সময় ডা, শাহীনুর রহমান স্বীকার করে বেডটি সে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে যাচ্ছেন। অনুমতি পত্র বা কোন বৈধ কাগজ পত্র আছে কিনা জানতে চাইলে চিকিৎসকের সাথে এলাকাবাসির কথাকাটাকাটি ও বাক বিতন্ডা হয়। এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হলে এ প্রতিনিধি খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে গেলে

বেড নিয়ে যাওয়া চিকিৎসক ডা, শাহীনুর রহমান জানান, তার মা দেড় মাস ধরে হাসপাতালের হৃদরোগ বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছে। শারীরিক অবস্থা খুব একটা ভালো না। বর্তমানে তার মাকে কেবিনে রাখা হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়িতে নেওয়ার কথা চলছিল। বাড়িতে যাতে বেডে থাকতে অসুবিধা না হয়, একারণে হাসপাতালের স্টোর রুমে পড়ে থাকা পুরাতন বেডটি লিখিত দিয়ে তিনি গ্রহণ করে বাসায় নিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু স্থানীয়দের সন্দেহ হওয়াতে তা আটক করে কোন প্রমান পত্র দেখাতে না পারায় এলাকাবাসিদের উপস্থিতিতে বেডটি হাসপাতালে ফেরত দেয়া হয় বলে জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, আমি দীর্ঘ পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে হাসপাতালে নবম গ্রেডের কর্মকর্তা হিসেবে রয়েছি। হাসপাতালের সম্পদ নষ্ট হোক, এমনটা কখনো করিনি। শুধুমাত্র মানবিক দিক থেকে নিজের মায়ের থাকার সুবিধার কথা চিন্তা করে স্টোর কিপার বেলাল ও ৩০নং ওয়ার্ড ইনচার্জ মমতাকে অবগত করে মুচলেকার মাধ্যমে বেডটি নিয়েছিলাম। আমার অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল না। তবে আজকের ঘটনার পর অনুভব করছি, আইনগত ভাবে এটা নেওয়া আমার ঠিক হয়নি।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের স্টোর কিপার বেলাল হোসেন এবং ৩০নং ওয়ার্ড ইনচার্জ মমতার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাদের পাওয়া যায়নি। তবে নাম না প্রকাশের শর্তে একজন সিনিয়র স্টাফ নার্স বলেন, মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকেই বেডটি তিনি নিয়ে যাচ্ছিলেন। তবে আইনগত ভাবে তার বেড নিয়ে যাওয়া সঠিক হয়নি বলে জানান তিনি।

সার্বিক বিষয়ে জানতে হাসপাতালের পরিচালক ডা. রেজাউল করিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন হাসপাতাল থেকে সরকারী বেড নিয়ে যাওয়ার আগে তাকে জানানো হয়নি। তবে ওই চিকিৎসক তার মায়ের জন্য স্টোর কিপার ও ওয়ার্ড ইনচার্জকে অবগত হাসপাতালের পুরাতন একটি বেডটি বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছিলেন বলে শুনেছি। পুরো ঘটনা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানান। তবে তাঁর অনুমতি ছাড়াই হাসপাতাল থেকে বেডটি বাহিরে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বলে স্বীকার করেন পরিচালক।

back to top