alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

গণপূর্ত ভবনে ঠিকাদার আওয়ামীলীগ নেতাদের অস্ত্রের মহড়া

আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, পাবনা : বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১
image

পাবনায় গণপূর্ত ভবনে অস্ত্র নিয়ে ঠিকাদার আওয়ামী লীগ নেতাদের মহড়ার ঘটনায় প্রদর্শিত দুটি শটগানের লাইসেন্স বাতিল করেছে জেলা প্রশাসন। বুধবার (১৬ জুন) বিকেলে লাইসেন্স বাতিলের পর বৃহঃস্পতিবার সকালে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের চিঠি দেয়া হয়েছে। পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সম্প্রতি, পাবনা গণপূর্ত ভবনে কয়েকজন ঠিকাদার আওয়ামী লীগ নেতাদের অস্ত্র নিয়ে প্রবেশের ঘটনা তদন্তে অস্ত্র আইনের শর্ত ভঙ্গ হয়েছে জানিয়ে প্রতিবেদন দিয়েছে পুলিশ। বৈধ অস্ত্রের অবৈধ ব্যবহার হওয়ায় লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশও করা হয় তদন্ত প্রতিবেদনে। এর প্রেক্ষিতে এম আর খান মামুন ও শেখ আনোয়ার হোসেন লালুর নামে ইস্যুকৃত শটগানের লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।

পাবনার পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান জানান, পাবনা গণপূর্ত বিভাগে ঠিকাদার আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রবেশের ঘটনা জানার পরই বিষয়টি তদন্ত শুরু করে জেলা পুলিশ। গণপূর্ত বিভাগের কর্মকর্তারা লিখিত অভিযোগ না করলেও পুলিশ নিজ উদ্যোগে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে বিষয়টি তদন্ত শুরু করে। ঠিকাদারদের প্রদর্শিত অস্ত্রও জব্দ করা হয়। সিসিটিভি ফুটেজ পর্যালোচনা ও সংশ্লিষ্ট সকলের সাথে কথা বলে, অস্ত্র আইনের শর্ত বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। আমরা বৈধ অস্ত্রের অবৈধ ব্যবহারের প্রমাণ মেলায় প্রদর্শিত অস্ত্র গুলোর লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশ করা হয়। জেলা প্রশাসন লাইসেন্স বাতিল করায় জব্দকৃত অস্ত্রগুলি সরকারের সম্পত্তি হিসেবে বিবেচিত হবে।

প্রসঙ্গত, গত ৬ জুন দুপুরে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাজী ফারুক হোসেন , পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এম আর খান মামুন এবং জেলা যুব লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য শেখ লালুর নেতৃত্বে প্রায় ২৫ থেকে ৩০ জনের একটি দল একাধিক আগ্নেয়াস্ত্র হাতে নিয়ে গণপূর্ত ভবনে প্রবেশ করে নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়ারুল আজিমকে খুঁজতে থাকেন। তারা আগ্নেয়াস্ত্র নিয়েই উপ সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমানের কক্ষে যান এবং কিছুক্ষণ পর তারা বের হয়ে যান। জেলা আইনশৃংখলা কমিটির বৈঠকে বিষয়টি উত্থাপন হলে, জেলা জুড়ে সমালোচনা শুরু হয়। ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশ আগ্নেয়াস্ত্র গুলি জব্দ করে। এ ঘটনায় নেতৃত্ব দেয়া দুই আওয়ামী লীগ নেতাকে ফারুক হোসেন ও এম আর খান মামুনকে দল থেকে অব্যহতি দিয়ে কেন স্থায়ী বহিস্কার করা হবে না জানতে চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিস প্রদান করেছে জেলা আওয়ামীলীগ।

এদিকে, একই অভিযোগে পাবনা জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য শেখ আনোয়ার হোসেন ওরফে শেখ লালুকে যুবলীগ থেকে বহিস্কারের সুপারিশ করেছে পাবনা জেলা যুবলীগ।

ছবি

শুল্কমুক্ত পণ্য খোলাবাজারে বিক্রি, গ্রেপ্তার ১১

ছবি

হেলেনা জাহাঙ্গীরকে ছেড়ে দেওয়ার আহ্বান সেফুদার

ছবি

মিথ্যাচার, অপপ্রচারের অভিযোগে হেলেনা জাহাঙ্গীর গ্রেফতার

ছবি

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় পাওয়া মদ-ক্যাসিনো নিয়ে যা বললেন তার মেয়ে

ছবি

দেশে ফেরার সময় বাংলাদেশি নারীকে ক্যাম্পে ধর্ষণ, বিএসএফ সদস্য গ্রেফতার

ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে র‌্যাব

ছবি

মুনিয়ার ‘আত্মহত্যায় প্ররোচনা’ মামলা: নিয়মিত আদালত চালু হলে পুলিশের প্রতিবেদনের ওপর শুনানি

ছবি

প্রেমিকাকে হত্যার পর মরদেহের ওপর যা লিখে গেলেন প্রেমিক

চাঁদাবাজির মামলায় ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

ছবি

দুর্নীতি মামলায় ওসি প্রদীপ দম্পতির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

ছবি

বিমানে নানা কৌশলে ঢাকায় আসছে ইয়াবা

ছবি

সুবর্ণচরে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

ছবি

ফতুল্লায় যুবক খুন, ছুরিসহ আটক ১

ছবি

পদ্মা সেতুর পিলারে ফেরির ধাক্কা দেয়া সেই মাস্টার আটক

হাসপাতালে করোনা রোগীর ছুরিকাঘাতে দুই নার্স ও ওয়ার্ডবয় আহত

ট্রলার ভাড়া বিবাদে বৃদ্ধকে হত্যা

শৈলকুপায় জমি বিবাদে গৃহবধূ নির্যাতন, বাইক ভাংচুর-টাকা লুট

ছবি

মুনিয়ার ‘আত্নহত্যা’: বসুন্ধরার আনভীরকে অব্যাহতি দিয়ে পুলিশের প্রতিবেদন

ছবি

রূপগঞ্জে আগুন: হাসেম ও তার বাকি দুই ছেলের জামিন

গোমস্তাপুরে অস্ত্রসহ আটক ১

আশুলিয়ায় শিশু ধর্ষণ মামলা

ছবি

কক্সবাজারে আশু আলী বাহিনীর প্রধান আশু আলী নিহত

ছবি

হরিদেবপুরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তার

ভেড়ামারায় শিশুকে ধর্ষণ অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

রূপগঞ্জে পুলিশ পরিচয়ে অপহরণ ও মুক্তিপণ মামলা নেয়নি পুলিশ

ছবি

ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

ছবি

টেকনাফে র‌্যাবের সাথে গোলাগুলিতে রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত

ছবি

গরুর হাটে ব্যবসায়ীকে মারধর করে ৮ লাখ টাকা লুটে নেওয়ার অভিযোগ

ছবি

বগুড়ায় চাঞ্চল্যকর গৃহবধুকে গণধর্ষণ ঘটনার প্রধান আসামী রাব্বিসহ ৪জন গ্রেফতার

ছবি

কাশিমপুর কারাগারে জেএমবি সদস্যের ফাঁসি কার্যকর

ছবি

কুষ্টিয়ায় বিষ দিয়ে কৃষকের দুটি গরু হত্যা

গোদাগাড়ীতে জমি বিবাদে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

চেকপোস্ট বসিয়ে ছিনতাই করত ওরা

৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণ ও হত্যা

ছবি

২২ বছর সাজা খেটে বেরিয়েই ফের হত্যাচেষ্টা

স্ত্রী-সন্তানকে হত্যা করে মাটিচাপা

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

গণপূর্ত ভবনে ঠিকাদার আওয়ামীলীগ নেতাদের অস্ত্রের মহড়া

আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স বাতিল

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, পাবনা
image

বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১

পাবনায় গণপূর্ত ভবনে অস্ত্র নিয়ে ঠিকাদার আওয়ামী লীগ নেতাদের মহড়ার ঘটনায় প্রদর্শিত দুটি শটগানের লাইসেন্স বাতিল করেছে জেলা প্রশাসন। বুধবার (১৬ জুন) বিকেলে লাইসেন্স বাতিলের পর বৃহঃস্পতিবার সকালে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের চিঠি দেয়া হয়েছে। পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সম্প্রতি, পাবনা গণপূর্ত ভবনে কয়েকজন ঠিকাদার আওয়ামী লীগ নেতাদের অস্ত্র নিয়ে প্রবেশের ঘটনা তদন্তে অস্ত্র আইনের শর্ত ভঙ্গ হয়েছে জানিয়ে প্রতিবেদন দিয়েছে পুলিশ। বৈধ অস্ত্রের অবৈধ ব্যবহার হওয়ায় লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশও করা হয় তদন্ত প্রতিবেদনে। এর প্রেক্ষিতে এম আর খান মামুন ও শেখ আনোয়ার হোসেন লালুর নামে ইস্যুকৃত শটগানের লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে।

পাবনার পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান জানান, পাবনা গণপূর্ত বিভাগে ঠিকাদার আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রবেশের ঘটনা জানার পরই বিষয়টি তদন্ত শুরু করে জেলা পুলিশ। গণপূর্ত বিভাগের কর্মকর্তারা লিখিত অভিযোগ না করলেও পুলিশ নিজ উদ্যোগে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে বিষয়টি তদন্ত শুরু করে। ঠিকাদারদের প্রদর্শিত অস্ত্রও জব্দ করা হয়। সিসিটিভি ফুটেজ পর্যালোচনা ও সংশ্লিষ্ট সকলের সাথে কথা বলে, অস্ত্র আইনের শর্ত বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। আমরা বৈধ অস্ত্রের অবৈধ ব্যবহারের প্রমাণ মেলায় প্রদর্শিত অস্ত্র গুলোর লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশ করা হয়। জেলা প্রশাসন লাইসেন্স বাতিল করায় জব্দকৃত অস্ত্রগুলি সরকারের সম্পত্তি হিসেবে বিবেচিত হবে।

প্রসঙ্গত, গত ৬ জুন দুপুরে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাজী ফারুক হোসেন , পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এম আর খান মামুন এবং জেলা যুব লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য শেখ লালুর নেতৃত্বে প্রায় ২৫ থেকে ৩০ জনের একটি দল একাধিক আগ্নেয়াস্ত্র হাতে নিয়ে গণপূর্ত ভবনে প্রবেশ করে নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়ারুল আজিমকে খুঁজতে থাকেন। তারা আগ্নেয়াস্ত্র নিয়েই উপ সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমানের কক্ষে যান এবং কিছুক্ষণ পর তারা বের হয়ে যান। জেলা আইনশৃংখলা কমিটির বৈঠকে বিষয়টি উত্থাপন হলে, জেলা জুড়ে সমালোচনা শুরু হয়। ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশ আগ্নেয়াস্ত্র গুলি জব্দ করে। এ ঘটনায় নেতৃত্ব দেয়া দুই আওয়ামী লীগ নেতাকে ফারুক হোসেন ও এম আর খান মামুনকে দল থেকে অব্যহতি দিয়ে কেন স্থায়ী বহিস্কার করা হবে না জানতে চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিস প্রদান করেছে জেলা আওয়ামীলীগ।

এদিকে, একই অভিযোগে পাবনা জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য শেখ আনোয়ার হোসেন ওরফে শেখ লালুকে যুবলীগ থেকে বহিস্কারের সুপারিশ করেছে পাবনা জেলা যুবলীগ।

back to top