alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

যাত্রাবাড়ী থেকে অপহরণ, লাশ মিললো কালীগঞ্জে

বাকী বিল্লাহ : শনিবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২২

একটি বিদেশি জাহাজে শেফ বা বাবুর্চির চাকরি করতেন জয়নাল আবেদীন। বাড়ি মাগুরায়। ছুটিতে চট্টগ্রাম থেকে যাচ্ছিলেন বাড়ি। রাত ৮টার দিকে বাসযোগে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন তিনি। রাত সাড়ে ৯টার দিকে তিনি মোবাইল ফোনে স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন। স্ত্রীকে জানান, বাসটি তখন চট্টগ্রামের সীতাকু- অতিক্রম করছে।

পরদিন ভোর সাড়ে ৫টার দিকে জয়নালের মোবাইল ফোন থেকে তার স্ত্রীর কাছে ফোন আসে। কিন্তু অন্য পাশে অপরিচিত কণ্ঠ। ওই ব্যক্তি জানায়, জয়নালকে অপহরণ করা হয়েছে। তাকে সুস্থ ফেরত পেতে হলে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। জয়নালের মায়ের সঙ্গেও কথা বলে অজ্ঞাত ওই ব্যক্তি। পরে জয়নালের স্ত্রী ও তার ভাই মারুফ হোসেন অজ্ঞাত ওই ব্যক্তি ও তার সহযোগীদের সঙ্গে কথা বলে ৫০ হাজার টাকা দিতে রাজি হন। অপহরণকারীরা একটি বিকাশ নম্বর পাঠায়। এরপর আসামিদের চাহিদামত প্রথমে বিকাশের মাধ্যমে ২০ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেন তারা।

পরে বিষয়টি মাগুরা থানা পুলিশকে জানালে তারা মোবাইল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে জয়নালের অবস্থান চিহ্নিত করে। তার অবস্থান নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের পারটেক্স নামে এক প্রতিষ্ঠানের কারখানায় বলে জানতে পারে পুলিশ। পরে পুলিশ জানায়, জয়নালকে অপহরণকারীরা হত্যা করেছে এবং তার লাশ উদ্ধার করা হয় গাজীপুরের কালীগঞ্জ সড়কের কাছে। ঘটনাটি ২০১৫ সালে ৮ অক্টোবরের। ওই ঘটনায় পর গত ৯ অক্টোবর ২০১৫ নিহতের ভাই ইছহাক আলী কালীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি আড়াই বছরেরও বেশি সময় (২০১৫ সালের ৯ অক্টোবর থেকে ২০১৮ সালের ১ মে পর্যন্ত) তদন্ত করে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ। তদন্ত কর্মকর্তাও পরিবর্তন করা হয়। কিন্তু তারা কোন কূল-কিনারা করতে পারেননি। রহস্য উদ্ঘাটন করতে না পেরে আদালতে চূড়ান্ত রিপোর্ট পেশ করে পুলিশ।

তবে আদালত চূড়ান্ত রিপোর্ট গ্রহণ না করে মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেয় গাজীপুর জেলা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেসটিগেশন পিবিআইকে।

পিবিআইয়ের তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক হাফিজুর রহমান সংবাদকে জানান, পিবিআই ২০১৮ সালের ২০ ডিসেম্বর মামলাটির তদন্তভার গ্রহণ করে। আলোচিত এ ঘটনাটি তারা মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে এবং যে বিকাশ নম্বরে টাকা পাঠানো হয়েছে তার ক্লু ধরে রহস্য উদ্ঘাটন করে। এরপর ঘটনায় জড়িত রাসেল খান ও আমজাদকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা ঘটনায় জড়িত আরও চারজনের নাম বলেছে। মোট অভিযুক্ত ছয়জন। তার মধ্যে পাঁচ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অভিযুক্ত দুইজন আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বলেন, আরও এক আসামিকে গ্রেপ্তার করে শীঘ্রই চার্জশিট দেয়া হবে। হত্যাকা-ে ব্যবহৃত মাইক্রোবাসসহ অন্যান্য আলামত জব্দ করা হয়েছে।

ছবি

ডিমের পিকআপে ডাকাতি, যেভাবে গ্রেপ্তার ৬ ডাকাত

লালমনিরহাটে আ.লীগ নেতার ছেলের নেতৃত্বে ৪ সাংবাদিকের ওপর হামলা

ছবি

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ

ছবি

জন্মদিন পালনের কথা বলে এনে নারী চিকিৎসককে খুন : র‍্যাব

ছবি

হোটেল থেকে নারী চিকিৎসকের লাশ উদ্ধার: ছেলেবন্ধু গ্রেপ্তার

ছবি

ডেল্টা লাইফের গুরুত্বপূর্ণ নথির ফটোকপি গাড়িযোগে পাচারের চেষ্টা

ছবি

জঙ্গি নেতা রাজীব গান্ধীর সহযোগী আফজাল গ্রেপ্তার

ছবি

ইন্টারন্যাশনাল লিজিং এর সাবেক এমডি রাশেদুলের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা

ছবি

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে যুগ্ম সচিবের বিরুদ্ধে মামলা

ছবি

‘জজ মিয়ার’ জন্য ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে নোটিশ

কর ফাঁকি : মদিনার ৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায় কামরাঙ্গীরচরে গ্রেপ্তার চারজন রিমান্ডে

ছবি

নারায়ণগঞ্জে মানব পাচার আইনে চারজনের যাবজ্জীবন

ছবি

বাংলাদেশের দুই বোনকে ভারতের যৌনপল্লীতে বিক্রি

ছবি

রোহিঙ্গা শিবিরে দুই রোহিঙ্গা নেতাকে হত্যা

প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি : নড়াইলে স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা গ্রেফতার

বগুড়ায় ছুরিকাঘাতে স্কুল ছাত্র হত্যা

২৬ মামলার আসামি স্বেচ্ছাসেবকদল নেতা গ্রেফতার

তিন দিন আগে বাস ডাকাতির পরিকল্পনা করে মূলহোতা ডাকাত রতন

সখীপুরে জমি বিরোধে ভাতিজাদের হাতে চাচা খুন

ছবি

নওগাঁয় সরকারী সম্পত্তি ব্যক্তি মালিকানায় খাজনা-খারিজের অভিযোগ

ছবি

দলবদ্ধ ধর্ষণ ছাড়াও একাধিক নারীর শ্লীলতাহানি করে ডাকাত দল

ছবি

সিন্ডিকেটের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার, স্বীকারোক্তি

বগুড়ায় অবৈধ মজুদ রাখা ১২ হাজার বস্তা সার ও ২টিট্রাক আটক

ছবি

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট

ছবি

খালাসের পরও কনডেম সেলে ৭ বছর : বিচারবিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ

বগুড়ায় চাঁদাবাজীর অভিযোগ সোর্সসহ পুলিশ সদস্য ঘেরাও, পুলিশের এস আই ক্লোজড

বখাটের উৎপাতে ছাত্রীর মাদ্রাসায় যাওয়া বন্ধ, ব‍্যবস্থা নেয়নি ইউএনও

ছবি

আদালত ঘুরে এলাকায় আজিজুল, ফুলের মালা দিয়ে বরণ

ছাত্রদল,স্বেচ্ছাসেবকদলের ৫ নেতা গাঁজা ও ইয়াবা সহ গ্রেফতার।

রূপগঞ্জে বিএনপি নেতার কার্যালয়ে ‘জয়বাংলা শ্লোগান দিয়ে’ হামলা

ছবি

এসএসএফের নামে প্রতিষ্ঠান খুলে কোটি টাকার প্রতারণা : গ্রেফতার ৬

ছবি

অস্ত্র মামলায় নূর হোসেনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়া থেকে ঢাকাগামী চলন্ত বাসে ডাকাতি-সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

‘মোল্লা শামিমকে পেলেই তদন্ত ক্লোজ করবে পুলিশ’

ছবি

এমপি জাফর পত্নী শাহেদার অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

যাত্রাবাড়ী থেকে অপহরণ, লাশ মিললো কালীগঞ্জে

বাকী বিল্লাহ

শনিবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২২

একটি বিদেশি জাহাজে শেফ বা বাবুর্চির চাকরি করতেন জয়নাল আবেদীন। বাড়ি মাগুরায়। ছুটিতে চট্টগ্রাম থেকে যাচ্ছিলেন বাড়ি। রাত ৮টার দিকে বাসযোগে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন তিনি। রাত সাড়ে ৯টার দিকে তিনি মোবাইল ফোনে স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন। স্ত্রীকে জানান, বাসটি তখন চট্টগ্রামের সীতাকু- অতিক্রম করছে।

পরদিন ভোর সাড়ে ৫টার দিকে জয়নালের মোবাইল ফোন থেকে তার স্ত্রীর কাছে ফোন আসে। কিন্তু অন্য পাশে অপরিচিত কণ্ঠ। ওই ব্যক্তি জানায়, জয়নালকে অপহরণ করা হয়েছে। তাকে সুস্থ ফেরত পেতে হলে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। জয়নালের মায়ের সঙ্গেও কথা বলে অজ্ঞাত ওই ব্যক্তি। পরে জয়নালের স্ত্রী ও তার ভাই মারুফ হোসেন অজ্ঞাত ওই ব্যক্তি ও তার সহযোগীদের সঙ্গে কথা বলে ৫০ হাজার টাকা দিতে রাজি হন। অপহরণকারীরা একটি বিকাশ নম্বর পাঠায়। এরপর আসামিদের চাহিদামত প্রথমে বিকাশের মাধ্যমে ২০ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেন তারা।

পরে বিষয়টি মাগুরা থানা পুলিশকে জানালে তারা মোবাইল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে জয়নালের অবস্থান চিহ্নিত করে। তার অবস্থান নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের পারটেক্স নামে এক প্রতিষ্ঠানের কারখানায় বলে জানতে পারে পুলিশ। পরে পুলিশ জানায়, জয়নালকে অপহরণকারীরা হত্যা করেছে এবং তার লাশ উদ্ধার করা হয় গাজীপুরের কালীগঞ্জ সড়কের কাছে। ঘটনাটি ২০১৫ সালে ৮ অক্টোবরের। ওই ঘটনায় পর গত ৯ অক্টোবর ২০১৫ নিহতের ভাই ইছহাক আলী কালীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি আড়াই বছরেরও বেশি সময় (২০১৫ সালের ৯ অক্টোবর থেকে ২০১৮ সালের ১ মে পর্যন্ত) তদন্ত করে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ। তদন্ত কর্মকর্তাও পরিবর্তন করা হয়। কিন্তু তারা কোন কূল-কিনারা করতে পারেননি। রহস্য উদ্ঘাটন করতে না পেরে আদালতে চূড়ান্ত রিপোর্ট পেশ করে পুলিশ।

তবে আদালত চূড়ান্ত রিপোর্ট গ্রহণ না করে মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেয় গাজীপুর জেলা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেসটিগেশন পিবিআইকে।

পিবিআইয়ের তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক হাফিজুর রহমান সংবাদকে জানান, পিবিআই ২০১৮ সালের ২০ ডিসেম্বর মামলাটির তদন্তভার গ্রহণ করে। আলোচিত এ ঘটনাটি তারা মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে এবং যে বিকাশ নম্বরে টাকা পাঠানো হয়েছে তার ক্লু ধরে রহস্য উদ্ঘাটন করে। এরপর ঘটনায় জড়িত রাসেল খান ও আমজাদকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা ঘটনায় জড়িত আরও চারজনের নাম বলেছে। মোট অভিযুক্ত ছয়জন। তার মধ্যে পাঁচ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অভিযুক্ত দুইজন আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বলেন, আরও এক আসামিকে গ্রেপ্তার করে শীঘ্রই চার্জশিট দেয়া হবে। হত্যাকা-ে ব্যবহৃত মাইক্রোবাসসহ অন্যান্য আলামত জব্দ করা হয়েছে।

back to top