alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

ভূমি দখল, মাদক কারবারসহ নানা অপকর্মে জড়িত কবির : র‍্যাব

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : শুক্রবার, ২০ মে ২০২২

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় পুলিশ কনস্টেবলের কবজি বিচ্ছিন্ন করার ঘটনার মূল আসামি কবির আহমদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ছয়টি মামলা রয়েছে। এখন তাঁর বিরুদ্ধে আরও তিনটি মামলা হবে।

আজ শুক্রবার বেলা ১১টায় এক সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ কথা জানান। চট্টগ্রাম নগরের চান্দগাঁও এলাকায় র‍্যাব-৭-এর ক্যাম্পে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

খন্দকার আল মঈন বলেন, ভূমি দখল, মাদক কারবারসহ নানা অপকর্মে জড়িত ছিলেন কবির। এলাকার কেউ তাঁর অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে তাঁর ওপর চড়াও হতেন তিনি।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় কবিরকে (৩০) গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানায় র‍্যাব। সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, লোহাগাড়া উপজেলার বড়হাতিয়া ইউনিয়নের পাহাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে কবিরকে গ্রেপ্তার করে। অভিযানে কবিরের সহযোগী কফিল উদ্দিনও গ্রেপ্তার হন।

খন্দকার আল মঈন বলেন, পুলিশ কনস্টেবলের কবজি বিচ্ছিন্ন করার ঘটনার পর কবির বান্দরবানের দক্ষিণ হাঙর এলাকায় গা ঢাকা দেন। তাঁর আত্মগোপনের বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী জেনে গেছে বলে তিনি আঁচ করতে পেরেছিলেন। পরে কবির সেখান থেকে লোহাগাড়ার বড়হাতিয়া ইউনিয়নের একটি দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় যান। গতকাল রাতে র‍্যাবের গোয়েন্দা শাখা ও র‍্যাব-৭ কবিরকে ধরতে অভিযান শুরু করে। সন্ধ্যা সাতটার দিকে অভিযান শুরু হয়। র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কবির গুলি ছোড়েন। তাঁর গুলিতে র‍্যাবের সিপাহি মো. আকরাম আহত হন। পরে র‍্যাবও গুলি চালায়। এতে কবিরের পায়ে গুলি লাগে। অভিযান শেষ হয় রাত ১০টায়।

র‍্যাবের মুখপাত্র বলেন, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় কবিরকে ধরা হয়। তাঁর সহযোগী কফিলও ধরা হয়। তাঁদের কাছ থেকে অস্ত্র, গুলি ও মাদক উদ্ধার করা হয়। পুলিশের ওপর হামলায় ব্যবহৃত দা-ও উদ্ধার করা হয়। পরে কবিরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

খন্দকার আল মঈন বলেন, কবিরের অপকর্মের বিরুদ্ধে কেউ কথা বললে তাঁর ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করতেন তিনি।

র‍্যাব জানায়, কবিরের বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র, হত্যাচেষ্টা, মারধরসহ বিভিন্ন অভিযোগে ছয়টি মামলা রয়েছে। তাঁর সহযোগী কফিলের বিরুদ্ধে ছয়টির বেশি মামলা রয়েছে। তিনি একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। কবির ও কফিলের বিরুদ্ধে নতুন মামলা হবে।

পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, লোহাগাড়ার পদুয়া এলাকার বাসিন্দা মো. আবুল হোসেন গত ২৪ মার্চ মারামারির অভিযোগে থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় পদুয়ার লালারখিল এলাকার আলী হোসেনের ছেলে কবিরকে ২ নম্বর আসামি করা হয়।

গত রোববার সকাল ১০টার দিকে লোহাগাড়া থানার উপপরিদর্শক ভক্ত চন্দ্র দত্তের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল কবিরকে গ্রেপ্তারের জন্য লালারখিল এলাকার বাড়িতে অভিযানে যায়। এ সময় কবির গ্রেপ্তার এড়াতে দা নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালান।

দায়ের কোপে কনস্টেবল মো. জনি খানের বাঁ হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বর্তমানে তিনি ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

অর্থ আত্মসাৎ : গাজীপুরের সাবেক মেয়র জাহাঙ্গিরের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু

ছবি

ভারতে আশ্রয় নিয়েছিল শেখ হাসিনা হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি পিন্টু

ছবি

পদ্মা সেতু নিয়ে গুজবের শিকার রেনুর পরিবার কেমন আছে

ছবি

মোবাইলের আইএমইআই নম্বর পরিবর্তন করে বেশি দামে বিক্রি করত তারা

হাতিয়ার মেঘনাপাড় থেকে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার

১৮ বছর পর গৃহবধূ গণধর্ষণ মামলার রায় : ২ জনের যাবজ্জীবন

ছবি

মুক্তিযোদ্ধা হোসেন হত্যা: ৬ জেএমবির ফাঁসির রায়

ছবি

অর্থ আত্মসাৎ: ওয়াসার এমডিসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন

র‌্যাবকে ঘুষ দিতে গিয়ে মামলার আসামি

মহাসড়কে ব্যারিকেড দিয়ে সোয়াবিন ভর্তি ট্রাক ছিনতাই

ছবি

১৫ পর কৃষক হত্যার রায়, ৮ জনের যাবজ্জীবন

ময়মনসিংহের ছোট ভাইয়ের দায়ের কোপে বড় ভাই নিহত

ছবি

‘এমন আচরণ রাষ্ট্রের জন্য কলঙ্ক’

সিরাজগঞ্জে হেরোইন বহনের দায়ে দু’জনের যাবজ্জীবন

ছবি

সাতক্ষীরায় আ. লীগ নেতা মোশাররফ হোসেন গুলিবিদ্ঘধ, হাসপাতালে ভর্তি

পাবনা জেনারেল হাসপাতালে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সামগ্রী ক্রয়ে দুর্নীতি!

ছবি

নন্দীগ্রামের জীবন কুমারের আত্মহত্যায় প্ররোচনাকারীদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেপ্তার

ছবি

হানিফের হেলপার নিহতের ঘটনায় শতাব্দীর বাসচালক গ্রেপ্তার

নোয়াখালীতে অটোরিকশা চোর চক্রের ৯সদস্য গ্রেপ্তার

পুলিশ পরিচয়ে বিদেশ ফেরত যাত্রীর গাড়িতে ডাকাতি সর্বস্ব লুট

ছবি

ড. কামালের কর ফাঁকি নিয়ে রিটের আদেশ ২১ জুন

ছবি

উত্তরা থেকে ‘ধর্ষক’ গ্রেপ্তার

সাইবার অপরাধ বাড়ছে, ৬ মাসে ৪ হাজার অভিযোগ

যুক্তরাস্ট্টে দোকানের সামনেই গুলি করে নোয়াখালীর মাহফুজ হত্যা

ছবি

ঋন নিয়ে আত্মসাত: পিকে সহ ২৩ জনের নামে চার্জশিট দিচ্ছে দুদক

ছবি

চিকিৎসক বুলবুল হত্যা: প্রধান আসামি রিপন গ্রেপ্তার

ছবি

দুই মামলায় স্থায়ী জামিন পেলেন খালেদা জিয়া

মহেশখালীতে হিন্দু পাড়ায় পরাজিত মেম্বার প্রার্থীর হামলায় আহত - ৭

ছবি

জাজিরায় ভোটে পরাজিত প্রার্থীর হামলা; পুলিশের গুলিতে শিশু সহ আহত ৩

ছবি

দুদকের মামলায় ময়মনসিংহের সাবেক ওসি কারাগারে

বগুড়ার নন্দীগ্রামে স্ত্রী ও সম্বন্ধীর প্রতারণার শিকার হয়ে যুবকের আত্মহত্যা

ছবি

ভবন হস্তান্তর : তুরিন আফরোজকে শোকজ

ছবি

হাইকোর্ট বলছে, অর্থ পাচারের মাস্টারমাইন্ড খন্দকার মোহতেশাম

লালমনিরহাটে বিকাশ এজেন্ট হত্যাকান্ড : প্রধান আসামী গাজীপুর থেকে গ্রেফতার

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হেডমাঝি হত্যার মূলহোতাসহ ২ জন গ্রেপ্তার

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

ভূমি দখল, মাদক কারবারসহ নানা অপকর্মে জড়িত কবির : র‍্যাব

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

শুক্রবার, ২০ মে ২০২২

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় পুলিশ কনস্টেবলের কবজি বিচ্ছিন্ন করার ঘটনার মূল আসামি কবির আহমদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ছয়টি মামলা রয়েছে। এখন তাঁর বিরুদ্ধে আরও তিনটি মামলা হবে।

আজ শুক্রবার বেলা ১১টায় এক সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন এ কথা জানান। চট্টগ্রাম নগরের চান্দগাঁও এলাকায় র‍্যাব-৭-এর ক্যাম্পে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

খন্দকার আল মঈন বলেন, ভূমি দখল, মাদক কারবারসহ নানা অপকর্মে জড়িত ছিলেন কবির। এলাকার কেউ তাঁর অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করলে তাঁর ওপর চড়াও হতেন তিনি।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় কবিরকে (৩০) গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানায় র‍্যাব। সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, লোহাগাড়া উপজেলার বড়হাতিয়া ইউনিয়নের পাহাড়ি এলাকায় অভিযান চালিয়ে কবিরকে গ্রেপ্তার করে। অভিযানে কবিরের সহযোগী কফিল উদ্দিনও গ্রেপ্তার হন।

খন্দকার আল মঈন বলেন, পুলিশ কনস্টেবলের কবজি বিচ্ছিন্ন করার ঘটনার পর কবির বান্দরবানের দক্ষিণ হাঙর এলাকায় গা ঢাকা দেন। তাঁর আত্মগোপনের বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী জেনে গেছে বলে তিনি আঁচ করতে পেরেছিলেন। পরে কবির সেখান থেকে লোহাগাড়ার বড়হাতিয়া ইউনিয়নের একটি দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় যান। গতকাল রাতে র‍্যাবের গোয়েন্দা শাখা ও র‍্যাব-৭ কবিরকে ধরতে অভিযান শুরু করে। সন্ধ্যা সাতটার দিকে অভিযান শুরু হয়। র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কবির গুলি ছোড়েন। তাঁর গুলিতে র‍্যাবের সিপাহি মো. আকরাম আহত হন। পরে র‍্যাবও গুলি চালায়। এতে কবিরের পায়ে গুলি লাগে। অভিযান শেষ হয় রাত ১০টায়।

র‍্যাবের মুখপাত্র বলেন, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় কবিরকে ধরা হয়। তাঁর সহযোগী কফিলও ধরা হয়। তাঁদের কাছ থেকে অস্ত্র, গুলি ও মাদক উদ্ধার করা হয়। পুলিশের ওপর হামলায় ব্যবহৃত দা-ও উদ্ধার করা হয়। পরে কবিরকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

খন্দকার আল মঈন বলেন, কবিরের অপকর্মের বিরুদ্ধে কেউ কথা বললে তাঁর ওপর অত্যাচার-নির্যাতন করতেন তিনি।

র‍্যাব জানায়, কবিরের বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র, হত্যাচেষ্টা, মারধরসহ বিভিন্ন অভিযোগে ছয়টি মামলা রয়েছে। তাঁর সহযোগী কফিলের বিরুদ্ধে ছয়টির বেশি মামলা রয়েছে। তিনি একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী। কবির ও কফিলের বিরুদ্ধে নতুন মামলা হবে।

পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, লোহাগাড়ার পদুয়া এলাকার বাসিন্দা মো. আবুল হোসেন গত ২৪ মার্চ মারামারির অভিযোগে থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় পদুয়ার লালারখিল এলাকার আলী হোসেনের ছেলে কবিরকে ২ নম্বর আসামি করা হয়।

গত রোববার সকাল ১০টার দিকে লোহাগাড়া থানার উপপরিদর্শক ভক্ত চন্দ্র দত্তের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল কবিরকে গ্রেপ্তারের জন্য লালারখিল এলাকার বাড়িতে অভিযানে যায়। এ সময় কবির গ্রেপ্তার এড়াতে দা নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালান।

দায়ের কোপে কনস্টেবল মো. জনি খানের বাঁ হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। বর্তমানে তিনি ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

back to top