alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

জন্মদিন পালনের কথা বলে এনে নারী চিকিৎসককে খুন : র‍্যাব

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২

পরিবারকে না জানিয়ে দুই বছর আগে জান্নাতুল নাঈম সিদ্দিককে বিয়ে করেছিলেন রেজাউল করিম রেজা। একাধিক নারীর সঙ্গে রেজাউলের সম্পর্ক রাখার বিষয় নিয়ে তাঁদের মধ্যে ঝগড়া হতো। এর জেরেই পরিকল্পিতভাবে জান্নাতুলকে খুন করেন রেজাউল। ঘটা করে জন্মদিন পালনের কথা বলে আবাসিক হোটেলে এনে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয় তাঁকে।

নারী চিকিৎসক জান্নাতুল নাঈম হত্যার ঘটনায় রেজাউলকে গ্রেপ্তারের পর এসব তথ্য জানিয়েছে র‍্যাব। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে চট্টগ্রাম মহানগরীর মুরাদপুর এলাকা থেকে রেজাউলকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। হত্যাকাণ্ডের সময় রেজাউলের পরিহিত রক্তমাখা গেঞ্জি, মোবাইল ও ব্যবহৃত ব্যাগ এবং নিহত নারীর ব্যবহৃত মুঠোফোন উদ্ধার করা হয়।

এর আগে গত বুধবার রাতে রাজধানীর পান্থপথের ফ্যামিলি সার্ভিস অ্যাপার্টমেন্ট

আবাসিক হোটেল থেকে জান্নাতুল নাঈম সিদ্দিকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তাঁর শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত ও জখমের চিহ্ন দেখা গেছে। জান্নাতুল রাজধানীর মগবাজার কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করেছেন। তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গাইনি বিষয়ের একটি কোর্সে পড়াশোনা করছিলেন। এ ঘটনায় বুধবার একটি হত্যা মামলা করেন নিহত নারীর বাবা চিকিৎসক শফিকুল আলম।

রেজাউলকে গ্রেপ্তারের পর আজ শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সেখানে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ২০১৯ সালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জান্নাতুল নাঈম সিদ্দীকের সঙ্গে রেজাউলের পরিচয় হয়। এর সূত্র ধরেই তাঁদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরিবারের কাউকে না জানিয়ে ২০২০ সালের অক্টোবরে তাঁরা বিয়ে করেন। এ কারণে তাঁরা স্বামী–স্ত্রীর পরিচয়ে বিভিন্ন সময়ে আবাসিক হোটেলে অবস্থান করতেন তাঁরা।

রেজাউলের সঙ্গে একাধিক নারীর সম্পর্ক ছিল উল্লেখ করে র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, বিষয়টি জান্নাতুল জেনে যান। এই নিয়ে তাঁদের মধ্যে বিভিন্ন সময় বাগ্‌বিতণ্ডাও হয়। জান্নাতুন বিভিন্ন সময়ে কাউন্সেলিং বা আলাপচারিতার মাধ্যমে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এদিকে রেজাউল জান্নাতুলকে সমস্যা মনে করছিলেন। সুবিধাজনক সময়ে নির্জন স্থানে নিয়ে জান্নাতুলকে হত্যার পরিকল্পনা করেন তিনি। এ কারণে একটি ছুরি তিনি কয়েক দিন ধরে নিজের কাছে রাখছিলেন।

খন্দকার আল মঈন বলেন, আজ জান্নাতুলের জন্মদিন। এবারের জন্মদিন খুবই ঘটা করে একটি রেস্টুরেন্টে উদ্‌যাপনের পরিকল্পনার কথা জানান রেজাউল। বুধবার জন্মদিন উদ্‌যাপনের কথা বলে পান্থপথের ‘ফ্যামিলি অ্যাপার্টমেন্টে’ নামে একটি হোটেলে জান্নাতুলকে নিয়ে যান রেজাউল। রেজাউলের সঙ্গে বিভিন্ন নারীর সম্পর্ক থাকার বিষয়টি নিয়ে আবারও তাঁদের মধ্যে কথা–কাটাকাটি, বাগ্‌বিতণ্ডা ও ধস্তাধস্তি হয়। এ সময় রেজাউল তাঁর ব্যাগ থেকে ধারালো ছুরি বের করে জান্নাতুলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে। পরে জান্নাতুলের গলা কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করেন তিনি।

র‌্যাব জানায়, স্ত্রীকে হত্যার পর রেজাউল গোসল করে রক্তমাখা জামা ও জান্নাতুলের মুঠোফোন ব্যাগে নিয়ে ওই কক্ষ বাইরে থেকে তালাবন্ধ করে পালিয়ে যান। হোটেল থেকে বেরিয়ে প্রথমে মালিবাগের বাসায় যান। বাসা থেকে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে বের হয়ে একটি হাসপাতালে গিয়ে হাতের ক্ষত স্থান সেলাই করে এবং প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। আরামবাগ বাসস্ট্যান্ড থেকে বাসযোগে চট্টগ্রামে গিয়ে মুরাদপুরে আত্মগোপন করেন। এক নিকটাত্মীয়ের মাধ্যমে একটি মেসে উঠেছিলেন তিনি।

হত্যার অভিযোগ থেকে কীভাবে মুক্তি পেতে পারেন—এ বিষয়ে একাধিক আইনজীবীর সঙ্গে যোগাযোগ করছিলেন তিনি। এ কারণে তাঁর অবস্থান শনাক্ত করা সহজ হয়েছে বলে জানান র‍্যাবের এক কর্মকর্তা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, রেজাউল ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ ও এমবিএ সম্পন্ন করেন। এমবিএ চলাকালে তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত ছিলেন। ২০২২ সালের জুনে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সিনিয়র এক্সিকিউটিভ হিসেবে যোগদান করেন।

ফরিদপুরে দুই হাজার কোটি টাকা মানিলন্ডারিং মামলা, বরকতের সহযোগী হিটার মাষ্টার সাইফুল কারাগারে

ছবি

অজ্ঞান করে ৩০০ প্রবাসীর সর্বস্ব লুট, গ্রেপ্তার চার

ধর্মীয় উসকানিমূলক স্ট্যাটাস ফেইসবুকে : বেগমগঞ্জে তরুণ আটক

কালীগঞ্জে যুবকের ৭ টুকরা লাশ, পরিচায় পাওয়া যায়নি

ছবি

তিনশ প্রবাসীকে অচেতন করে সর্বস্ব লুট, মূলহোতাসহ ৪ জন গ্রেফতার

ছবি

পাচারকারি চক্র নানা ভাবে হুমকি দিচ্ছে, মামলার খরচের টাকাও নেই নাহিদের

লক্ষ্মীপুরে যুবলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

ছবি

বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ড নিয়ে কটূক্তি: ফুয়াদের ৭ বছর জেল

ছবি

কর্মচারীকে জুতাপেটার অভিযোগে ভূঞাপুরের এসি ল্যান্ডকে বদলি

ছবি

আদালতে ক্যাসিনো-কাণ্ডে গ্রেপ্তার সেলিম প্রধানের জামিন চাইলেন রুশ স্ত্রী

ছবি

আইনজীবী অসুস্থ : পেছাল খালেদা জিয়ার নাইকো মামলার চার্জ শুনানি

নোয়াখালীতে কিশোর গ্যাংয়ের ২৩ সদস্য আটক

সখীপুরে তিন গরু চোর গ্রেপ্তার

বগুড়ার শেরপুরে এক সন্ত্রাসীকে কুপিয়ে হত্যা

শিবালয়ে চাল লুটপাটকারী পুরস্কৃত, অভিযোগকারীরা বহিস্কৃত

ছবি

একাত্তরের রাজাকার খলিলকে ধরা হলো যেভাবে

ছবি

জামিন পেলেন ক্রিকেটার আল আমিন

ছবি

১০ বছরে ৫ শতাধিক চুরি করেছে ‘স্পাইডারম্যান’ বিল্লাল

ছবি

ঝুমন দাসের জামিন ফের নামঞ্জুর

ছবি

ডিসি অফিসের আট কর্মচারীসহ ১১ জনের ৭ বছরের জেল

মুন্সীগঞ্জে হাসপাতালে ভর্তি কিশোরীকে ধর্ষণ, ওয়ার্ড বয় গ্রেফতার

ঘোড়াঘাটে মাদকাসক্ত ছেলের ৬ মাসের কারাদন্ড

ছবি

গভীর ষড়যন্ত্র হয়েছে, আমি নির্দোষ: জিকে শামীম

ছবি

স্বর্ণ চোরাচালান মামলা, চীনা নাগরিকের ৭ বছর কারাদণ্ড

ছবি

বনজ কুমারের বিরুদ্ধে বাবুল আক্তারের মামলার আবেদন খারিজ

ময়মনসিংহে মোটর সাইকেলের সাথে ধাক্কা লাগায় সিএনজি চালককে পিটিয়ে হত্যা

ছবি

জি কে শামীম ও ৭ দেহরক্ষীর যাবজ্জীবন, প্রথম মামলার রায়

সখীপুরে ভূমিহীন নারীর চেক নিয়ে প্রতারণা

ছবি

গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা, গ্রেপ্তার এক

ছবি

আজ জি কে শামীমসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে রায়

ছবি

এক দশক পর ধরা পড়লেন ফাঁসির আসামি

ভোলায় স্ত্রীকে উক্তত্যের প্রতিবাদ করায় পুলিশ কনস্টেবলকে কূপিয়ে জখম

ধামইরহাটে সরকারী রাস্তা দখল করে স্থাপনা নির্মানের অভিযোগ

ড্রাইভার দেলোয়ার হোসেনকে অবশেষে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

কারাগারে আটক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী মান্নানের নামে আরো ১ টি মামলা দায়ের

সাভারে ছুরিকাঘাতে যুবকের মৃত্যু

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

জন্মদিন পালনের কথা বলে এনে নারী চিকিৎসককে খুন : র‍্যাব

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২

পরিবারকে না জানিয়ে দুই বছর আগে জান্নাতুল নাঈম সিদ্দিককে বিয়ে করেছিলেন রেজাউল করিম রেজা। একাধিক নারীর সঙ্গে রেজাউলের সম্পর্ক রাখার বিষয় নিয়ে তাঁদের মধ্যে ঝগড়া হতো। এর জেরেই পরিকল্পিতভাবে জান্নাতুলকে খুন করেন রেজাউল। ঘটা করে জন্মদিন পালনের কথা বলে আবাসিক হোটেলে এনে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয় তাঁকে।

নারী চিকিৎসক জান্নাতুল নাঈম হত্যার ঘটনায় রেজাউলকে গ্রেপ্তারের পর এসব তথ্য জানিয়েছে র‍্যাব। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে চট্টগ্রাম মহানগরীর মুরাদপুর এলাকা থেকে রেজাউলকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। হত্যাকাণ্ডের সময় রেজাউলের পরিহিত রক্তমাখা গেঞ্জি, মোবাইল ও ব্যবহৃত ব্যাগ এবং নিহত নারীর ব্যবহৃত মুঠোফোন উদ্ধার করা হয়।

এর আগে গত বুধবার রাতে রাজধানীর পান্থপথের ফ্যামিলি সার্ভিস অ্যাপার্টমেন্ট

আবাসিক হোটেল থেকে জান্নাতুল নাঈম সিদ্দিকের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তাঁর শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত ও জখমের চিহ্ন দেখা গেছে। জান্নাতুল রাজধানীর মগবাজার কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করেছেন। তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গাইনি বিষয়ের একটি কোর্সে পড়াশোনা করছিলেন। এ ঘটনায় বুধবার একটি হত্যা মামলা করেন নিহত নারীর বাবা চিকিৎসক শফিকুল আলম।

রেজাউলকে গ্রেপ্তারের পর আজ শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সেখানে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ২০১৯ সালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জান্নাতুল নাঈম সিদ্দীকের সঙ্গে রেজাউলের পরিচয় হয়। এর সূত্র ধরেই তাঁদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরিবারের কাউকে না জানিয়ে ২০২০ সালের অক্টোবরে তাঁরা বিয়ে করেন। এ কারণে তাঁরা স্বামী–স্ত্রীর পরিচয়ে বিভিন্ন সময়ে আবাসিক হোটেলে অবস্থান করতেন তাঁরা।

রেজাউলের সঙ্গে একাধিক নারীর সম্পর্ক ছিল উল্লেখ করে র‍্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, বিষয়টি জান্নাতুল জেনে যান। এই নিয়ে তাঁদের মধ্যে বিভিন্ন সময় বাগ্‌বিতণ্ডাও হয়। জান্নাতুন বিভিন্ন সময়ে কাউন্সেলিং বা আলাপচারিতার মাধ্যমে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এদিকে রেজাউল জান্নাতুলকে সমস্যা মনে করছিলেন। সুবিধাজনক সময়ে নির্জন স্থানে নিয়ে জান্নাতুলকে হত্যার পরিকল্পনা করেন তিনি। এ কারণে একটি ছুরি তিনি কয়েক দিন ধরে নিজের কাছে রাখছিলেন।

খন্দকার আল মঈন বলেন, আজ জান্নাতুলের জন্মদিন। এবারের জন্মদিন খুবই ঘটা করে একটি রেস্টুরেন্টে উদ্‌যাপনের পরিকল্পনার কথা জানান রেজাউল। বুধবার জন্মদিন উদ্‌যাপনের কথা বলে পান্থপথের ‘ফ্যামিলি অ্যাপার্টমেন্টে’ নামে একটি হোটেলে জান্নাতুলকে নিয়ে যান রেজাউল। রেজাউলের সঙ্গে বিভিন্ন নারীর সম্পর্ক থাকার বিষয়টি নিয়ে আবারও তাঁদের মধ্যে কথা–কাটাকাটি, বাগ্‌বিতণ্ডা ও ধস্তাধস্তি হয়। এ সময় রেজাউল তাঁর ব্যাগ থেকে ধারালো ছুরি বের করে জান্নাতুলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে। পরে জান্নাতুলের গলা কেটে মৃত্যু নিশ্চিত করেন তিনি।

র‌্যাব জানায়, স্ত্রীকে হত্যার পর রেজাউল গোসল করে রক্তমাখা জামা ও জান্নাতুলের মুঠোফোন ব্যাগে নিয়ে ওই কক্ষ বাইরে থেকে তালাবন্ধ করে পালিয়ে যান। হোটেল থেকে বেরিয়ে প্রথমে মালিবাগের বাসায় যান। বাসা থেকে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে বের হয়ে একটি হাসপাতালে গিয়ে হাতের ক্ষত স্থান সেলাই করে এবং প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। আরামবাগ বাসস্ট্যান্ড থেকে বাসযোগে চট্টগ্রামে গিয়ে মুরাদপুরে আত্মগোপন করেন। এক নিকটাত্মীয়ের মাধ্যমে একটি মেসে উঠেছিলেন তিনি।

হত্যার অভিযোগ থেকে কীভাবে মুক্তি পেতে পারেন—এ বিষয়ে একাধিক আইনজীবীর সঙ্গে যোগাযোগ করছিলেন তিনি। এ কারণে তাঁর অবস্থান শনাক্ত করা সহজ হয়েছে বলে জানান র‍্যাবের এক কর্মকর্তা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, রেজাউল ঢাকার একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ ও এমবিএ সম্পন্ন করেন। এমবিএ চলাকালে তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত ছিলেন। ২০২২ সালের জুনে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সিনিয়র এক্সিকিউটিভ হিসেবে যোগদান করেন।

back to top