alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

জি কে শামীম ও ৭ দেহরক্ষীর যাবজ্জীবন, প্রথম মামলার রায়

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক: : রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় প্রভাবশালী ঠিকাদার জি কে শামীম ও তার সাত দেহরক্ষীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ রোববার ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক শেখ ছামিদুল ইসলাম এ রায় দেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন এই আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর সালাহউদ্দিন হাওলাদার।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পাওয়া অপর সাতজন হলেন—দেলোয়ার হোসেন, মুরাদ হোসেন, কামাল হোসেন, সামসাদ হোসেন, আমিনুল ইসলাম, সহিদুল ইসলাম ও জাহিদুল ইসলাম। রায় ঘোষণার আগে আসামিদের কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়।

তিন বছর আগে ২০১৯ সালের ২০ সেপ্টেম্বর গুলশানের নিজ কার্যালয়ে সাত দেহরক্ষীসহ শামীম গ্রেপ্তার হন। তাঁর বিরুদ্ধে অস্ত্র, মাদক, অর্থ পাচার ও জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মোট চারটি মামলা হয়। এখন তাঁর বিরুদ্ধে তিনটি মামলা চলমান।

গ্রেপ্তারের আগে শামীম কখনো নিজেকে যুবলীগের সমবায়বিষয়ক সম্পাদক পরিচয় দিতেন। আবার কখনো পরিচয় দিতেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি হিসেবে। তিনি চলতেন সামনে-পেছনে সাতজন সশস্ত্র দেহরক্ষী নিয়ে। গণপূর্ত অধিদপ্তরের বড় কাজের প্রায় সবই ছিল তাঁর প্রতিষ্ঠানের কবজায়।

২০২০ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি অস্ত্র মামলায় শামীম ও তার সাত দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত।

২০১৯ সালের ২৭ অক্টোবর শামীমসহ তার সাত দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় র‍্যাব। ২০২০ সালের ২ জানুয়ারি অভিযোগপত্র আমলে নেন আদালত।

অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়, শামীম একজন চিহ্নিত চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ, অবৈধ মাদক ও জুয়ার ব্যবসায়ী। তাঁর দুষ্কর্মের সহযোগীরা উচ্চ বেতনভোগী। তাঁরা অস্ত্রের লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ করে প্রকাশ্যে তা বহন ও প্রদর্শন করেছেন। এর মাধ্যমে জনমনে ভীতি সৃষ্টি করে টেন্ডারবাজি, মাদক ব্যবসা ও চাঁদাবাজি করে আসছিলেন।

ছবি

হাজী সেলিমের জামিন পেলেন দুর্নীতি মামলায়

পাহাড়ে জঙ্গি প্রশিক্ষণের সামগ্রী ও টাকা সরবরাহ করতেন তারা

ছবি

টাঙ্গাইলের তিন উপজেলায় পাহাড় কেটে লাল মাটি বিক্রি

কক্সবাজার বিমানবন্দরে ৫ লাখ টাকাসহ কোর্ট পুলিশ আটক!

আইডিয়ালের তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারী আতিক দম্পতির অবৈধ সম্পদ

ছবি

ওয়াসার এমডির নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিটের আদেশ আগামীকাল

মাদক মামলায় গ্রেপ্তার নুরুলের ১০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ পেয়েছে দুদক

ছবি

১৭ বছর বয়সে এমবিবিএস পাস করেছেন ডা. সাবরিনা!

ছবি

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার হাইকোর্টে শুনানি শুরু

ছবি

বাড্ডায় এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে ডেকে নিয়ে খুন

নারী পোশাক কর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার ২

ছবি

এনআইডি জালিয়াতি মামলায় সাবরিনার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল

ছবি

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযান, গ্রেপ্তার ২৪

ঘোড়াঘাটে আত্মীয়র বাড়ি থেকে ফেরার সময় ছাগল চুরি, ৩ যুবক জনতার হাতে আটক

ফেইসবুক পেজ বিক্রির কথা বলে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন মোবারক

ভোলা প্রেসক্লাবের পিয়নকে কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা

ছবি

বিচারাধীন বিষয়ে সংবাদ: কী করা যাবে না তা জানাল হাই কোর্ট

নওগাঁয় নিখোজের ২০ দিন পর গলিত লাশ উদ্ধার

বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি মামলা করতে ৫ বছর পার, তদন্তে গেল ৭ বছর

ছবি

জঙ্গি ছিনতাই : ১০ আসামি ফের ৫ দিনের রিমান্ডে

ছবি

জালিয়াতির মামলায় স্থায়ী জামিন পেলেন ভোরের পাতার সম্পাদক

ছবি

ব্যাংক কাকে ঋণ দিচ্ছে জনগণের জানার অধিকার আছে : হাইকোর্ট

ছবি

এএসপি আনিস হত্যা: ১৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল

ছবি

আয়াত হত্যা: খণ্ডিত দেহের অংশ মিলেছে সাগরপাড়ে

ছবি

সাড়ে ১১ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার, পাচারকারী আটক

ছবি

যশোর থেকে নিখোঁজ ছাত্র রাহুল খুলনা থেকে উদ্ধার

ওসমানী মেডিকেলের ছাত্রাবাস থেকে দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার 

সিলেটে পরকিয়ার জেরে যুবক খুন

নারায়ণগঞ্জে হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি, অন্যজনের যাবজ্জীবন

নারায়ণগঞ্জে ১৫ মামলার আসামি ‘স্ট্রিট ডাকাত’ গ্রেপ্তার

ছবি

মাদারীপুরে মোটা চাল সরু করে মিনিকেট হিসেবে বিক্রির অভিযোগ : জেল-জরিমানা

ছবি

চিত্রনায়িকা শিমু হত্যা : স্বামীসহ ২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

ছবি

২০ লাখ টাকার হেরোইনসহ গ্রেপ্তার ২

ছবি

পল্লবী থানায় বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় কাউন্সিলরসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

ছবি

টিপু-প্রীতি হত্যা মামলার প্রতিবেদন দাখিল ১১ জানুয়ারি

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

জি কে শামীম ও ৭ দেহরক্ষীর যাবজ্জীবন, প্রথম মামলার রায়

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক:

রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় প্রভাবশালী ঠিকাদার জি কে শামীম ও তার সাত দেহরক্ষীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ রোববার ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক শেখ ছামিদুল ইসলাম এ রায় দেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন এই আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর সালাহউদ্দিন হাওলাদার।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পাওয়া অপর সাতজন হলেন—দেলোয়ার হোসেন, মুরাদ হোসেন, কামাল হোসেন, সামসাদ হোসেন, আমিনুল ইসলাম, সহিদুল ইসলাম ও জাহিদুল ইসলাম। রায় ঘোষণার আগে আসামিদের কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়।

তিন বছর আগে ২০১৯ সালের ২০ সেপ্টেম্বর গুলশানের নিজ কার্যালয়ে সাত দেহরক্ষীসহ শামীম গ্রেপ্তার হন। তাঁর বিরুদ্ধে অস্ত্র, মাদক, অর্থ পাচার ও জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মোট চারটি মামলা হয়। এখন তাঁর বিরুদ্ধে তিনটি মামলা চলমান।

গ্রেপ্তারের আগে শামীম কখনো নিজেকে যুবলীগের সমবায়বিষয়ক সম্পাদক পরিচয় দিতেন। আবার কখনো পরিচয় দিতেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি হিসেবে। তিনি চলতেন সামনে-পেছনে সাতজন সশস্ত্র দেহরক্ষী নিয়ে। গণপূর্ত অধিদপ্তরের বড় কাজের প্রায় সবই ছিল তাঁর প্রতিষ্ঠানের কবজায়।

২০২০ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি অস্ত্র মামলায় শামীম ও তার সাত দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত।

২০১৯ সালের ২৭ অক্টোবর শামীমসহ তার সাত দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় র‍্যাব। ২০২০ সালের ২ জানুয়ারি অভিযোগপত্র আমলে নেন আদালত।

অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়, শামীম একজন চিহ্নিত চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ, অবৈধ মাদক ও জুয়ার ব্যবসায়ী। তাঁর দুষ্কর্মের সহযোগীরা উচ্চ বেতনভোগী। তাঁরা অস্ত্রের লাইসেন্সের শর্ত ভঙ্গ করে প্রকাশ্যে তা বহন ও প্রদর্শন করেছেন। এর মাধ্যমে জনমনে ভীতি সৃষ্টি করে টেন্ডারবাজি, মাদক ব্যবসা ও চাঁদাবাজি করে আসছিলেন।

back to top