alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

গ্রামীণ টেলিকমের এমডিকে ফের জিজ্ঞাসাবাদ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর ২০২২

শ্রমিক-কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিলের অর্থ আত্মসাৎ এবং প্রায় তিন হাজার কোটি টাকার মানি লন্ডারিং সংক্রান্ত অপরাধ অনুসন্ধানে গ্রামীণ টেলিকমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নাজমুল ইসলামসহ তিন কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাদের মধ্যে এমডি নাজমুল ইসলামকে দ্বিতীয় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা অন্য দুই কর্মকর্তা হলেন আশরাফুল হাসান ও পারভীন মাহমুদ।

গতকাল দুদকের প্রধান কার্যালয়ে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে অনুসন্ধান টিমের প্রধান ও উপপরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। এর আগে অভিযোগ অনুসন্ধানে গত ২৫ আগস্ট প্রথম দফায় নাজমুল হাসানকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল দুদক। ওই জিজ্ঞাসাবাদ শেষে নাজমুল ইসলাম বলেন, এখানে কোন আত্মসাৎ হয়নি। শ্রমিক ইউনিয়নের হিসাবে টাকাটা গিয়েছে। ৪৩৭ কোটি টাকা তারা দাবি করেছিল, সে টাকা তাদের দেয়া হয়েছে। এসব ব্যাখ্যা দুদককে দেয়া হয়েছে। আমরা তাদের চাহিদা দেয়া কাগজপত্র দিয়েছি, তারা তা দেখুক।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা এক ধরনের ভুল বোঝাবুঝি বলতে পারেন। এটা তারা (দুদক) খতিয়ে দেখবে। শ্রমিক ইউনিয়ন যখন শ্রম মন্ত্রণালয়ে অভিযোগগুলো করেছিল, তখন থেকেই ইউনিয়নের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। তারা কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরে অভিযোগ করেছিল। আমরা সেখানে কাগজপত্র দেই। গতকাল দুদককেও কাগজপত্র দিয়েছি, তারা মিলিয়ে দেখবেন। আমরা মনে করি আমাদের বিষয়গুলো ভুলভাবে উপস্থাপিত হয়েছে।

ড. মুহাম্মদ ইউনুসের কোন দায়ভার আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে নাজমুল ইসলাম বলেন, আমি ১৯৯৭ সাল থেকে এমডি হিসেবে কর্মরত আছি। ড. মুহাম্মদ ইউনুস প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। স্যারের সঙ্গে আমার মিটিংয়ে দেখা হয়। এটা একটি নন প্রফিটেবল প্রতিষ্ঠান। আইনগতভাবে যতটুকু দায়ভার পড়ে, ততটুকু। এছাড়া ওইদিন আইনজীবী মো. ইউসুফ আলী ও আইনজীবী জাফরুল হাসান শরীফকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। গত ২২ আগস্ট তাদের তলব করে চিঠি দেয় দুদক। তার আগে গত ১৬ আগস্ট অভিযোগ সংক্রান্ত ১১ ধরনের নথিপত্র দুদকে আসে। নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দুর্নীতি অনুসন্ধানে নথিপত্র চাওয়া হয় গত ১ আগস্ট। অভিযোগ অনুসন্ধানে তিন সদস্যের টিম গঠন করে দুদক। টিমে দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনকে তদারককারী কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন সহকারী পরিচালক জেসমিন আক্তার ও নূরে আলম সিদ্দিকী। গত ২৮ জুলাই গ্রামীণ টেলিকম পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু করার কথা জানান সংস্থাটির সচিব মো. মাহবুব হোসেন। সংবাদ সম্মেলনে দুদক সচিব বলেন, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের উপমহাপরিদর্শক গ্রামীণ টেলিকম কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ সংবলিত একটি প্রতিবেদন দুদকে পাঠিয়েছেন। ওই প্রতিবেদন কমিশন পর্যালোচনা করে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অভিযোগগুলো হলো অনিয়মের মাধ্যমে শ্রমিক-কর্মচারীদের মধ্যে বণ্টনের জন্য সংরক্ষিত লভ্যাংশের ৫ শতাংশ অর্থ লোপাট, শ্রমিক কর্মচারীদের পাওনা পরিশোধকালে অবৈধভাবে অ্যাডভোকেট ফি ও অন্যান্য ফির নামে ৬ শতাংশ অর্থ কর্তন, শ্রমিক কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিলে বরাদ্দ করা সুদসহ ৪৫ কোটি ৫২ লাখ ১৩ হাজার ৬৪৩ টাকা বিতরণ না করে আত্মসাৎ ও কোম্পানি থেকে ২ হাজার ৯৭৭ কোটি টাকা মানি লন্ডারিংয়ের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তরের মাধ্যমে আত্মসাৎ।

ছবি

এনআইডি জালিয়াতি মামলায় সাবরিনার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল

ছবি

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযান, গ্রেপ্তার ২৪

রংপুরে দুই পুলিশ কর্মকর্তার নেতৃত্বে বাড়ি দখলের চেষ্টা

ঘোড়াঘাটে আত্মীয়র বাড়ি থেকে ফেরার সময় ছাগল চুরি, ৩ যুবক জনতার হাতে আটক

ফেইসবুক পেজ বিক্রির কথা বলে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন মোবারক

ভোলা প্রেসক্লাবের পিয়নকে কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা

ছবি

বিচারাধীন বিষয়ে সংবাদ: কী করা যাবে না তা জানাল হাই কোর্ট

নওগাঁয় নিখোজের ২০ দিন পর গলিত লাশ উদ্ধার

বেসিক ব্যাংকের ঋণ কেলেঙ্কারি মামলা করতে ৫ বছর পার, তদন্তে গেল ৭ বছর

ছবি

জঙ্গি ছিনতাই : ১০ আসামি ফের ৫ দিনের রিমান্ডে

ছবি

জালিয়াতির মামলায় স্থায়ী জামিন পেলেন ভোরের পাতার সম্পাদক

ছবি

ব্যাংক কাকে ঋণ দিচ্ছে জনগণের জানার অধিকার আছে : হাইকোর্ট

ছবি

এএসপি আনিস হত্যা: ১৫ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল

ছবি

আয়াত হত্যা: খণ্ডিত দেহের অংশ মিলেছে সাগরপাড়ে

ছবি

সাড়ে ১১ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার, পাচারকারী আটক

ছবি

যশোর থেকে নিখোঁজ ছাত্র রাহুল খুলনা থেকে উদ্ধার

ওসমানী মেডিকেলের ছাত্রাবাস থেকে দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার 

সিলেটে পরকিয়ার জেরে যুবক খুন

নারায়ণগঞ্জে হত্যা মামলায় একজনের ফাঁসি, অন্যজনের যাবজ্জীবন

নারায়ণগঞ্জে ১৫ মামলার আসামি ‘স্ট্রিট ডাকাত’ গ্রেপ্তার

ছবি

মাদারীপুরে মোটা চাল সরু করে মিনিকেট হিসেবে বিক্রির অভিযোগ : জেল-জরিমানা

ছবি

চিত্রনায়িকা শিমু হত্যা : স্বামীসহ ২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

ছবি

২০ লাখ টাকার হেরোইনসহ গ্রেপ্তার ২

ছবি

পল্লবী থানায় বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় কাউন্সিলরসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

ছবি

টিপু-প্রীতি হত্যা মামলার প্রতিবেদন দাখিল ১১ জানুয়ারি

ছবি

রাজকে নিয়ে আদালতে পরীমনি

ফরিদপুরে নগই-এর প্রকল্প পরিচালককে মারধর করার অভিযোগ

রাজবাড়ীতে যুবদল নেতা হত্যায় ২ জনের ফাঁসি, ৫ জনের যাবজ্জীবন

শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ করলেন ইমাম ও শিক্ষক, গ্রেপ্তার ৩

ছবি

যৌতুকের জন্য সারিকাকে অত্যাচার, স্বামীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি

ছবি

সব এনজিওর চেক ডিজঅনার মামলা স্থগিত

ছবি

জামিন পেলেন নর্থ-সাউথের সাবেক ট্রাস্টি এম এ কাশেম

ছবি

প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি: রাজবাড়ীর স্মৃতিকে জামিন দেয়নি আপিল বিভাগ

মিথ্যা বিয়ে, মিথ্যা কাবিননামা, যৌতুকের মামলায় ফাঁসিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে একটি চক্র

ছবি

ধানমন্ডির সেই বাড়ির রায়ের তথ্য আপিল বিভাগে জমা দেয়ার নির্দেশ

৮৫ লাখ টাকা ছিনতাইয়ে জড়িত অভিযোগে ৬ জন গ্রেপ্তার

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

গ্রামীণ টেলিকমের এমডিকে ফের জিজ্ঞাসাবাদ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর ২০২২

শ্রমিক-কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিলের অর্থ আত্মসাৎ এবং প্রায় তিন হাজার কোটি টাকার মানি লন্ডারিং সংক্রান্ত অপরাধ অনুসন্ধানে গ্রামীণ টেলিকমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নাজমুল ইসলামসহ তিন কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাদের মধ্যে এমডি নাজমুল ইসলামকে দ্বিতীয় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা অন্য দুই কর্মকর্তা হলেন আশরাফুল হাসান ও পারভীন মাহমুদ।

গতকাল দুদকের প্রধান কার্যালয়ে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে অনুসন্ধান টিমের প্রধান ও উপপরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। এর আগে অভিযোগ অনুসন্ধানে গত ২৫ আগস্ট প্রথম দফায় নাজমুল হাসানকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল দুদক। ওই জিজ্ঞাসাবাদ শেষে নাজমুল ইসলাম বলেন, এখানে কোন আত্মসাৎ হয়নি। শ্রমিক ইউনিয়নের হিসাবে টাকাটা গিয়েছে। ৪৩৭ কোটি টাকা তারা দাবি করেছিল, সে টাকা তাদের দেয়া হয়েছে। এসব ব্যাখ্যা দুদককে দেয়া হয়েছে। আমরা তাদের চাহিদা দেয়া কাগজপত্র দিয়েছি, তারা তা দেখুক।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা এক ধরনের ভুল বোঝাবুঝি বলতে পারেন। এটা তারা (দুদক) খতিয়ে দেখবে। শ্রমিক ইউনিয়ন যখন শ্রম মন্ত্রণালয়ে অভিযোগগুলো করেছিল, তখন থেকেই ইউনিয়নের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। তারা কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরে অভিযোগ করেছিল। আমরা সেখানে কাগজপত্র দেই। গতকাল দুদককেও কাগজপত্র দিয়েছি, তারা মিলিয়ে দেখবেন। আমরা মনে করি আমাদের বিষয়গুলো ভুলভাবে উপস্থাপিত হয়েছে।

ড. মুহাম্মদ ইউনুসের কোন দায়ভার আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে নাজমুল ইসলাম বলেন, আমি ১৯৯৭ সাল থেকে এমডি হিসেবে কর্মরত আছি। ড. মুহাম্মদ ইউনুস প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। স্যারের সঙ্গে আমার মিটিংয়ে দেখা হয়। এটা একটি নন প্রফিটেবল প্রতিষ্ঠান। আইনগতভাবে যতটুকু দায়ভার পড়ে, ততটুকু। এছাড়া ওইদিন আইনজীবী মো. ইউসুফ আলী ও আইনজীবী জাফরুল হাসান শরীফকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। গত ২২ আগস্ট তাদের তলব করে চিঠি দেয় দুদক। তার আগে গত ১৬ আগস্ট অভিযোগ সংক্রান্ত ১১ ধরনের নথিপত্র দুদকে আসে। নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দুর্নীতি অনুসন্ধানে নথিপত্র চাওয়া হয় গত ১ আগস্ট। অভিযোগ অনুসন্ধানে তিন সদস্যের টিম গঠন করে দুদক। টিমে দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনকে তদারককারী কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন সহকারী পরিচালক জেসমিন আক্তার ও নূরে আলম সিদ্দিকী। গত ২৮ জুলাই গ্রামীণ টেলিকম পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু করার কথা জানান সংস্থাটির সচিব মো. মাহবুব হোসেন। সংবাদ সম্মেলনে দুদক সচিব বলেন, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের কল-কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের উপমহাপরিদর্শক গ্রামীণ টেলিকম কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ সংবলিত একটি প্রতিবেদন দুদকে পাঠিয়েছেন। ওই প্রতিবেদন কমিশন পর্যালোচনা করে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অভিযোগগুলো হলো অনিয়মের মাধ্যমে শ্রমিক-কর্মচারীদের মধ্যে বণ্টনের জন্য সংরক্ষিত লভ্যাংশের ৫ শতাংশ অর্থ লোপাট, শ্রমিক কর্মচারীদের পাওনা পরিশোধকালে অবৈধভাবে অ্যাডভোকেট ফি ও অন্যান্য ফির নামে ৬ শতাংশ অর্থ কর্তন, শ্রমিক কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিলে বরাদ্দ করা সুদসহ ৪৫ কোটি ৫২ লাখ ১৩ হাজার ৬৪৩ টাকা বিতরণ না করে আত্মসাৎ ও কোম্পানি থেকে ২ হাজার ৯৭৭ কোটি টাকা মানি লন্ডারিংয়ের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সহযোগী প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যাংক অ্যাকাউন্টে স্থানান্তরের মাধ্যমে আত্মসাৎ।

back to top