alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

মাদক মামলায় গ্রেপ্তার নুরুলের ১০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ পেয়েছে দুদক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

মাদক মামলায় গ্রেপ্তার মো. নুরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির প্রায় ১০ কোটি টাকার সম্পদের খোঁজ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদক বলছে, ঢাকায় দুটি ৭ তলা বাড়ি, একটি প্লট-ফ্ল্যাট ও কক্সবাজারে বিপুল পরিমাণ জমিসহ নামে-বেনামে এসব সম্পদ অবৈধভাবে অর্জন করেছে নুরুল ইসলাম। অবৈধ সম্পদের প্রমাণ পাওয়ায় দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ মামলাটি করা হয়।

দুদক জানিয়েছে, দুদকের সহকারী পরিচালক মো. কোরবান আলী শেখ বাদী হয়ে গত বৃহস্পতিবার মামলাটি দায়ের করেন। আসামি নুরুল ইসলাম পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী বলে প্রতীয়মান হচ্ছে। কারণ মাদক মামলায় সে দীর্ঘদিন জেলে ছিল।

দুদকের উপ পরিচালক আরিফ সাদেক জানিয়েছেন, মো. নুরুল ইসলাম ২০২১ সালে আদাবরের নবোদা হাউজিংয়ের বাসা থেকে ইয়াবাসহ র‌্যাবের অভিযানে গ্রেপ্তার হয়। পরে তার বিরুদ্ধে আদাবর ও মোহাম্মদপুর থানায় ৩টি মামলা হয়। পরে ওই মামলায় তাকে জেলে পাঠানো হয়। তখন দুদক অভিযোগ পেয়ে নুরুল ইসলামের অবৈধ সম্পদ অর্জনের অনুসন্ধান শুরু করে। অনুসন্ধান করে নামে-বেনামে ১০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, দুদক জানতে পারে, অবৈধ অর্থে নুরুল ইসলাম কক্সবাজারে বিভিন্ন এলাকায় বিপুল পরিমাণ জমি কিনেছেন। এছাড়া রাজধানীর আদাবর থানা এলাকায় বিভিন্ন মৌজায় তার বিপুল পরিমাণ জমি রয়েছে। এছাড়া মোহাম্মদপুরের ঢাকা উদ্যান এলাকার হাজী দ্বীন মোহম্মদ রোডে ৩ কাঠা জমিতে ২ ইউনিটের ৭ তলা বাড়ি (বাড়ি নং ৫৫) , আদবরের নবোদা হাউজিং রোড়ে ৬ দশমিক ৬ কাঠা জমিতে আরেকটি ৭ তলা বাড়ি রয়েছে (বাড়িনং ৮ ব্লক ডি। দুটি বাড়ির নির্মাণ ব্যায় ৪ কোটি ১৮ লাখ টাকা এবং বিভিন্ন এলকায় ক্রয় করা জমির দাম ৫ কোটি ৫ লাখ ৫৯ হাজার টাকা বলে প্রাথমিক হিসাবে পাওয়া গেছে। এছাড়া বিভিন্ন ব্যাংকের একাধিক একাউন্টে নগদ প্রায় অর্ধ কোটি টাকার জমা পাওয়া যায়।

মামলায় বলা হয়েছে, সব মিলিয়ে নুরুল ইসলাম ৯ কোটি ৭০ লাখ ৬১ হাজার ২৬৭ টাকার সম্পদ অবৈধভাবে উপার্জন করে তা নিজ ভোগদখলে রেখে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ২৭(১) ধারায় মামলা করা হয়েছে।

দুদক সূত্র জানিয়েছে, নুরুল ইসলাম দীর্ঘদিন কারাগারে থেকে বর্তমানে মাদক মামলায় জামিনে রয়েছে।

মামলার তদন্তে তার সম্পদের পরিমাণ আরও বাড়তে পারে। মামলাটি দ্রুত তদন্ত শেষ করে তদন্ত প্রতিবেদন কমিশনে দাখিল করা হবে।

ছবি

গোলাপের নিউইয়র্কে ৯ বাড়ি: অনুসন্ধান চেয়ে দুদকে চিঠি, ব্যারিস্টার সুমনের

ছবি

শিবগঞ্জে ভূমিদস্যূকে ৫০হাজার টাকা জরিমানা!

সিলেটে ট্রান্সফরমার চুরির সময় চোর নিহত

সখীপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে মাদকাসক্তকে এক বছরের কারাদণ্ড

১০ বছরের শিশু ধর্ষণের পর হত্যা, আসামির মৃত্যুদন্ড

ছবি

আলেশা মার্টের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

ছবি

আসিফকে ই-পাসপোর্ট দিতে নির্দেশ: হাইকোর্টের

ছবি

পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিয়ে রিট, শুনানি ২ মাস পর

ছবি

মাকে ৫ টুকরো করে হত্যা: ছেলেসহ ৭ জনের ফাঁসি

ছবি

জন্ম নিবন্ধন সার্ভার হ্যাক করে ৫৪৮ সনদ ইস্যু: আটক ৪

ছবি

হাইকোর্টে স্বাস্থ্যের ডিজির ক্ষমা প্রার্থনা

ছবি

পিতৃপরিচয়হীন সন্তানের অভিভাবক হবেন মা

ছবি

ঘাতক বাস ‘সুপ্রভাত’ রাতারাতি নাম, রং পাল্টে হয়ে যায় ‘ভিক্টর’

বদলগাছীতে নারী উদ্যোক্তাকে যৌন হয়রানির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

ছবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে যেভাবে ধরা পড়ল জঙ্গি দলের সামরিক প্রধান রনবীর

ছবি

খালেদা জিয়ার ১১ মামলার হাজিরা ১৫ মে

ছবি

সাংবাদিক রোজিনার মামলার তদন্ত করবে পিবিআই

ছবি

জাপানি দুই শিশু কার কাছে থাকবে, জানা যাবে ২৯ জানুয়ারি

ছবি

মানবতাবিরোধী অপরাধ: ময়মনসিংহের ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আইনজীবী সমিতির সম্পাদকসহ ২১ আইনজীবীকে ১৯ ফেব্রুয়ারি হাজির হওয়ার নির্দেশ : হাইকোর্ট

ছবি

৭ বছর পর জানা গেল মেয়ের খুনি বাবা

ছবি

ইভ্যালির রাসেল-শামীমার বিরুদ্ধে অভিযোগ শুনানি পেছাল ২ মার্চ

ছবি

মানবতাবিরোধী অপরাধে ছয় জনের রায় সোমবার

নোয়াখালীতে ব্রাক্ষণের কাছে চাঁদা দাবি, গ্রেপ্তার ১

ছবি

মহাখালী ফ্লাইওভারে ছিনতাইয়ের সময় পুলিশের হাতে র‌্যাব সদস্য গ্রেপ্তার

ছবি

প্রবাসীর ওপর হামলার ঘটনায় দুইজন গ্রেপ্তার

ছবি

ভিসা জালিয়াতি: ভবিষ্যৎতে যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ অনিশ্চয়তাসহ সতর্ক করল দূতাবাস

সতের বছর পর ফুলপুর পুলিশের হাতে আটক চৌদ্দ বৎসরের সাজাপ্রাপ্ত সিরাজ

সিদ্ধিরগঞ্জে স্বামীর ছুরিকাঘাতে গৃহবধু খুন, থানায় মামলা

ছবি

তারেক-জোবায়দাকে আদালতে হাজির হতে গেজেট প্রকাশের নির্দেশ

পীরগজ্ঞে যৌতুক না দেয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা : স্বামীর মৃত্যুদন্ড

ডলারের অস্থিতিশীলতার নেপথ্য উদ্ঘাটনে তদন্ত শুরু : ১৪ জন গ্রেপ্তার, প্রায় ২ কোটি টাকা জব্দ

ছবি

বাগেরহাটের পূর্ব-সুন্দরবনের শুঁটকি পল্লী থেকে হরিণের মাংসসহ ৪ জেলে আটক

দুবাইয়ে ৪৫৯ বাংলাদেশির সম্পদ অনুসন্ধানে মাঠে নেমেছে দুদক

৬ বছর পর হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন এক অভিযুক্ত গ্রেপ্তার, স্বীকারোক্তি

ছবি

তলবের পরপরই কারাগারে ৯০ চিকিৎসকের পদায়ন

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

মাদক মামলায় গ্রেপ্তার নুরুলের ১০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ পেয়েছে দুদক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

মাদক মামলায় গ্রেপ্তার মো. নুরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির প্রায় ১০ কোটি টাকার সম্পদের খোঁজ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদক বলছে, ঢাকায় দুটি ৭ তলা বাড়ি, একটি প্লট-ফ্ল্যাট ও কক্সবাজারে বিপুল পরিমাণ জমিসহ নামে-বেনামে এসব সম্পদ অবৈধভাবে অর্জন করেছে নুরুল ইসলাম। অবৈধ সম্পদের প্রমাণ পাওয়ায় দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ মামলাটি করা হয়।

দুদক জানিয়েছে, দুদকের সহকারী পরিচালক মো. কোরবান আলী শেখ বাদী হয়ে গত বৃহস্পতিবার মামলাটি দায়ের করেন। আসামি নুরুল ইসলাম পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী বলে প্রতীয়মান হচ্ছে। কারণ মাদক মামলায় সে দীর্ঘদিন জেলে ছিল।

দুদকের উপ পরিচালক আরিফ সাদেক জানিয়েছেন, মো. নুরুল ইসলাম ২০২১ সালে আদাবরের নবোদা হাউজিংয়ের বাসা থেকে ইয়াবাসহ র‌্যাবের অভিযানে গ্রেপ্তার হয়। পরে তার বিরুদ্ধে আদাবর ও মোহাম্মদপুর থানায় ৩টি মামলা হয়। পরে ওই মামলায় তাকে জেলে পাঠানো হয়। তখন দুদক অভিযোগ পেয়ে নুরুল ইসলামের অবৈধ সম্পদ অর্জনের অনুসন্ধান শুরু করে। অনুসন্ধান করে নামে-বেনামে ১০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, দুদক জানতে পারে, অবৈধ অর্থে নুরুল ইসলাম কক্সবাজারে বিভিন্ন এলাকায় বিপুল পরিমাণ জমি কিনেছেন। এছাড়া রাজধানীর আদাবর থানা এলাকায় বিভিন্ন মৌজায় তার বিপুল পরিমাণ জমি রয়েছে। এছাড়া মোহাম্মদপুরের ঢাকা উদ্যান এলাকার হাজী দ্বীন মোহম্মদ রোডে ৩ কাঠা জমিতে ২ ইউনিটের ৭ তলা বাড়ি (বাড়ি নং ৫৫) , আদবরের নবোদা হাউজিং রোড়ে ৬ দশমিক ৬ কাঠা জমিতে আরেকটি ৭ তলা বাড়ি রয়েছে (বাড়িনং ৮ ব্লক ডি। দুটি বাড়ির নির্মাণ ব্যায় ৪ কোটি ১৮ লাখ টাকা এবং বিভিন্ন এলকায় ক্রয় করা জমির দাম ৫ কোটি ৫ লাখ ৫৯ হাজার টাকা বলে প্রাথমিক হিসাবে পাওয়া গেছে। এছাড়া বিভিন্ন ব্যাংকের একাধিক একাউন্টে নগদ প্রায় অর্ধ কোটি টাকার জমা পাওয়া যায়।

মামলায় বলা হয়েছে, সব মিলিয়ে নুরুল ইসলাম ৯ কোটি ৭০ লাখ ৬১ হাজার ২৬৭ টাকার সম্পদ অবৈধভাবে উপার্জন করে তা নিজ ভোগদখলে রেখে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ২৭(১) ধারায় মামলা করা হয়েছে।

দুদক সূত্র জানিয়েছে, নুরুল ইসলাম দীর্ঘদিন কারাগারে থেকে বর্তমানে মাদক মামলায় জামিনে রয়েছে।

মামলার তদন্তে তার সম্পদের পরিমাণ আরও বাড়তে পারে। মামলাটি দ্রুত তদন্ত শেষ করে তদন্ত প্রতিবেদন কমিশনে দাখিল করা হবে।

back to top