alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

টাঙ্গাইলের তিন উপজেলায় পাহাড় কেটে লাল মাটি বিক্রি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, টাঙ্গাইল : সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল, কালিহাতী ও সখীপুর উপজেলার ২১টি স্থানে পাহাড় কেটে লাল মাটি বিক্রির মহোৎসব চলছে। স্থানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় পাহাড় কাটা হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এর ফলে বর্ষাকালে ওইসব এলাকায় পাহাড় ধসের আশঙ্কা সৃষ্টি হচ্ছে।

জানা গেছে, ঘাটাইল উপজেলার দেওপাড়া, বারইপাড়া, টেগুড়িচালা, ঢেলুটিয়া, ঘোড়ামারা, লক্ষিন্দর ইউনিয়নের মনতলা, দুলালিয়া, আবেদালী, কাজলা, সানবান্ধা, গারোবাজার, কালিহাতী উপজেলার মরিচা, সখীপুর উপজেলার সাপিয়ার চালা, বাগেরবাড়ি, ইন্দারজানী, গড়বাড়ি, বহেড়াতৈল, আড়াংচালা, আমতৈল, আমগাছ চালা ও গিলাচালা নামকস্থান থেকে অবাধে লাল মাটির পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি করা হচ্ছে। কতিপয় ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা, বন বিভাগের বিট ও রেঞ্জ কর্মকর্তাদের জ্ঞাতসারে স্ব স্ব স্থানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় এক শ্রেণীর ব্যবসায়ীরা রীতিমতো বেকু বসিয়ে দিনরাত ট্রাক, মাহিন্দ্র ট্রাক ও ড্রাম ট্রাক দিয়ে ওই সব মাটি স্থানীয় ইটভাটাসহ বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করছে। ভূমি আইন উপেক্ষা করে বিভিন্ন এলাকায় দেদারছে চলছে লালমাটির পাহাড় কাটা। এক্ষেত্রে কেউ পুকুর খনন, আবার কেউবা বাড়িঘর তৈরি করার অজুহাত দেখাচ্ছে। মূলত পাহাড় কাটার এই মাটি বিক্রি করা হচ্ছে উপজেলার ইটভাটাসহ বিভিন্ন স্থানে। এতে করে দিন দিন কমে যাচ্ছে ফসলি জমির পরিমাণ। অন্যদিকে ইটভাটার চাহিদা মেটাতে কাটা হচ্ছে ফসলি জমির উপরিভাগ।

এই মাটি বহনকারী ট্রাক চলাচলে নষ্ট হচ্ছে গ্রামীণ কাঁচা-পাকা রাস্তা। উপজেলার লক্ষিন্দর ইউনিয়নের মনতলা, দুলালিয়া, আবেদালী, কাজলা, সানবান্ধা, গারোবাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় পুকুর খননের হিড়িক পড়ে গেছে। লক্ষিন্দর ইউনিয়নের মনতলা গ্রামের ভেকু সিন্ডিকেটের অন্যতম হোতা শামসুল হক চৌধুরী প্রকাশ্যে কাটছেন লালমাটির পাহাড়।

এছাড়া বিভিন্ন এলাকার ফসলি জমির মাটি কেটে বিক্রি করা হচ্ছে ইটভাটায়। গাড়ি প্রতি মাটি বিক্রি হচ্ছে ৮ থেকে ১৫শ’ টাকায়। অন্যদিকে সাগরদিঘী ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় বনবিভাগ এবং সরকারি সম্পত্তির মাটি কেটেও বিক্রি করেছেন এলাকার কতিপয় অসাধু ব্যক্তি।

স্থানীয়রা জানায়, দিনে মাটির ট্রাক কম আসা-যাওয়া করলেও রাত ৮টার পর থেকে ভোর পর্যন্ত শতাধিক ট্রাক দিয়ে মাটি নেয়া হয়। এসব স্থানীয় মাটি ব্যবসায়ীদের মদদ দিচ্ছেন স্থানীয় প্রভাবশালী আওয়ামী লীগের কতিপয় নেতারা।

কয়েকজন মাটি ব্যবসায়ীরা জানান, ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা, বন বিভাগের বিট ও রেঞ্জ কর্মকর্তাদের মৌখিক অনুমতি নিয়েই তারা পাহাড়ের মাটি কাটছেন। তাছাড়া স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদেরও প্রতি মাসে টাকা দিয়ে সমর্থন নিতে হয়। দিনশেষে তাদের হাতে দিনমজুরির টাকাই থাকে। কোন কাজ নাই, তাই তারা মাটির ব্যবসা করে কোন রকমে দিনাতিপাত করছেন। মনতলা গ্রামের ভেকু সিন্ডিকেটের হোতা শামসুল হক চৌধুরী বলেন, আমি তো একা না, আমার মতো অনেকেই পাহাড়ি লাল মাটি কাটছেন। স্থানীয়দের অভিযোগ, ভূমি অফিসের কিছু কর্মকর্তার সঙ্গে যোগসাজশে মাটি ব্যবসায়ীরা সপ্তাহের বৃহস্পতি থেকে শনিবার পর্যন্ত নির্বিগ্নে মাটি কেটে বিক্রি করছেন।

টাঙ্গাইল বন বিভাগের বহেড়াতৈল রেঞ্জ কর্মকর্তা জানান, তিনি এ রেঞ্জে নতুন এসেছেন। বন বিভাগের ভূমির পাশে ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির মাটি কেটে বিক্রি করা হচ্ছে বলে তিনি শুনেছেন। তিনি সরেজমিন দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন। তাছাড়া ব্যক্তি মালিকাধীন জায়গা কেটে জমির শ্রেণী পরিবর্তনের বিষয়ে তাদের কিছু করণীয় নেই।

ঘাটাইল উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানায়, ঘাটাইলে কৃষি জমির পরিমাণ ২৭ হাজার ৮৫১ হেক্টর। এর মধ্যে তিন ফসলি জমি ১৭ হাজার ২১৮ হেক্টর, দুই ফসলি ৮ হাজার ১৮৫ হেক্টর ও এক ফসলি জমির পরিমাণ ২ হাজার ৩১১ হেক্টর।

এ বিষয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জমির উদ্দিন বলেন, তিনি পাহাড় কাটা বা মাটি কেটে জমির শ্রেণী পরিবর্তনের বিষয়টি সম্পর্কে অবগত নন। সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে তিনি যথাযথ ব্যবস্থা নিবেন। এছাড়া সরজমিন পরিদর্শন করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

অর্থপাচার: সকল আসামিকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

ছবি

ডিবিতে ডাকা হয়েছে কারিগরি বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যানকে

সখীপুরে র‍্যাবের অভিযানে ইয়াবা গাঁজাসহ গ্রেফতার দুই

রাবিতে শহীদ কামারুজ্জামান হল নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগে দুদকের অভিযান

ছবি

ড. ইউনূসকে ২৩ মে পর্যন্ত জামিন

ছবি

তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ছিনতাই ও চুরি হওয়া ফোন সেট উদ্ধার

মতলবে ব্যাংকের নৈশপ্রহরী খুনের রহস্য উন্মোচন,মূল আসামী সহ ৩ জন গ্রেফতার

ছবি

লঞ্চে বোরকা পরে ছিনতাই করতেন তারা

বন্ধুর সহায়তায় প্রবাসীর স্ত্রীকে খুন করে ঘরের মালামাল লুট করে আপন ভাই

গাজীপুরে ৩জন ভুয়া ডিবি পুলিশ আটক

ছবি

আইন অমান্য করে ইটভাটা পরিচালনা, সংবাদ প্রকাশের পর অভিযান, ৩ লাখ টাকা জরিমানা

ছবি

দুদকের মামলায় সাবেক এমপি কাদের খানের চার বছরের দন্ড

গাজীপুরে পুত্রকে কুপিয়ে হত্যা, পিতা আটক

ছবি

এবার ভরদুপুরে থানচির দুই ব্যাংকে ডাকাতি

সিলেটে ‘ধর্ষক’ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গ্রপ্তার করেছে র‌্যাব

ছবি

ড. ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট গ্রহণ

ছবি

শেকলে বেঁধে তরুণীকে গণধর্ষণ, রিমান্ডে ৪ আসামি

মুন্সীগঞ্জে ডালিম হ.ত্যা মামলার ৬ আসামি জেলহাজতে

ছবি

শিকলে বেঁধে ২৫ দিন ধরে তরুণীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ

ছবি

গেন্ডারিয়ায় ৯৮৩ পিস ভয়াবহ মাদক বুপ্রেনরফিনসহ গ্রেপ্তার কারবারি

ছবি

সিলেটে তরুণীকে আটকে রেখে দিনের পর দিন ধর্ষণ অধরা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাসহ অভিযুক্তরা

নারায়ণগঞ্জে প্রেমিকাকে ধর্ষণ ও হত্যা, ৩ জনের যাবজ্জীবন

ছবি

স্ত্রী-শাশুড়িসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ‘জল্লাদ’ শাহজাহানের প্রতারণার মামলা

ছবি

মিতু হত্যা মামলায় সাক্ষ্য দিচ্ছেন দুই ম্যাজিস্ট্রেটসহ ৫ জন

ছবি

দুই বছরের দণ্ড ২৭ বছর পর বাতিল, রায়ের কপি যাচ্ছে সব আদালতে

ছবি

মানিকদির জমি দখল নাজিমের দৌরাত্ম্য থামছেই না, আতঙ্কে এলাকাবাসী

ছবি

পুলিশের সোর্স হত্যা মামলার পলাতক ২ আসামি গ্রেপ্তার

ছবি

বড় মনিরের বিরুদ্ধে এবার ঢাকায় কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

ছবি

রামুর কচ্ছপিয়ায় ছুরিকাঘাতে ছায়া হত্যার ঘটনায় আটক দুই

ছবি

মহেশখালীর সিরিয়াল কিলার আজরাইল গ্রেফতার

ছবি

মুন্সীগঞ্জে পাইপগান-ফেন্সিডিলসহ দু’জন আটক

ছবি

দুদকের মামলায় ২০ কোটি ২২ লাখ টাকার আত্মসাতের অভিযোগে সাবেক এমপি মান্নান কারাগারে

ছবি

আইএমইআই নম্বর পাল্টে মোবাইল বিক্রি, চক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

চুনারুঘাটে স্ত্রীকে গলা টিপে হত্যা, স্বামী আটক

ছবি

সিরাজগঞ্জে ব্যাংকের ভল্ট থেকে ৫ কোটি টাকা গায়েব, ৩ কর্মকর্তা কারাগারে

শতাধিক শিক্ষা ভবন নির্মাণের নামে বিল ভাগ-বাটোয়ারা

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

টাঙ্গাইলের তিন উপজেলায় পাহাড় কেটে লাল মাটি বিক্রি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, টাঙ্গাইল

সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল, কালিহাতী ও সখীপুর উপজেলার ২১টি স্থানে পাহাড় কেটে লাল মাটি বিক্রির মহোৎসব চলছে। স্থানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় পাহাড় কাটা হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এর ফলে বর্ষাকালে ওইসব এলাকায় পাহাড় ধসের আশঙ্কা সৃষ্টি হচ্ছে।

জানা গেছে, ঘাটাইল উপজেলার দেওপাড়া, বারইপাড়া, টেগুড়িচালা, ঢেলুটিয়া, ঘোড়ামারা, লক্ষিন্দর ইউনিয়নের মনতলা, দুলালিয়া, আবেদালী, কাজলা, সানবান্ধা, গারোবাজার, কালিহাতী উপজেলার মরিচা, সখীপুর উপজেলার সাপিয়ার চালা, বাগেরবাড়ি, ইন্দারজানী, গড়বাড়ি, বহেড়াতৈল, আড়াংচালা, আমতৈল, আমগাছ চালা ও গিলাচালা নামকস্থান থেকে অবাধে লাল মাটির পাহাড় কেটে মাটি বিক্রি করা হচ্ছে। কতিপয় ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা, বন বিভাগের বিট ও রেঞ্জ কর্মকর্তাদের জ্ঞাতসারে স্ব স্ব স্থানীয় প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় এক শ্রেণীর ব্যবসায়ীরা রীতিমতো বেকু বসিয়ে দিনরাত ট্রাক, মাহিন্দ্র ট্রাক ও ড্রাম ট্রাক দিয়ে ওই সব মাটি স্থানীয় ইটভাটাসহ বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করছে। ভূমি আইন উপেক্ষা করে বিভিন্ন এলাকায় দেদারছে চলছে লালমাটির পাহাড় কাটা। এক্ষেত্রে কেউ পুকুর খনন, আবার কেউবা বাড়িঘর তৈরি করার অজুহাত দেখাচ্ছে। মূলত পাহাড় কাটার এই মাটি বিক্রি করা হচ্ছে উপজেলার ইটভাটাসহ বিভিন্ন স্থানে। এতে করে দিন দিন কমে যাচ্ছে ফসলি জমির পরিমাণ। অন্যদিকে ইটভাটার চাহিদা মেটাতে কাটা হচ্ছে ফসলি জমির উপরিভাগ।

এই মাটি বহনকারী ট্রাক চলাচলে নষ্ট হচ্ছে গ্রামীণ কাঁচা-পাকা রাস্তা। উপজেলার লক্ষিন্দর ইউনিয়নের মনতলা, দুলালিয়া, আবেদালী, কাজলা, সানবান্ধা, গারোবাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় পুকুর খননের হিড়িক পড়ে গেছে। লক্ষিন্দর ইউনিয়নের মনতলা গ্রামের ভেকু সিন্ডিকেটের অন্যতম হোতা শামসুল হক চৌধুরী প্রকাশ্যে কাটছেন লালমাটির পাহাড়।

এছাড়া বিভিন্ন এলাকার ফসলি জমির মাটি কেটে বিক্রি করা হচ্ছে ইটভাটায়। গাড়ি প্রতি মাটি বিক্রি হচ্ছে ৮ থেকে ১৫শ’ টাকায়। অন্যদিকে সাগরদিঘী ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় বনবিভাগ এবং সরকারি সম্পত্তির মাটি কেটেও বিক্রি করেছেন এলাকার কতিপয় অসাধু ব্যক্তি।

স্থানীয়রা জানায়, দিনে মাটির ট্রাক কম আসা-যাওয়া করলেও রাত ৮টার পর থেকে ভোর পর্যন্ত শতাধিক ট্রাক দিয়ে মাটি নেয়া হয়। এসব স্থানীয় মাটি ব্যবসায়ীদের মদদ দিচ্ছেন স্থানীয় প্রভাবশালী আওয়ামী লীগের কতিপয় নেতারা।

কয়েকজন মাটি ব্যবসায়ীরা জানান, ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা, বন বিভাগের বিট ও রেঞ্জ কর্মকর্তাদের মৌখিক অনুমতি নিয়েই তারা পাহাড়ের মাটি কাটছেন। তাছাড়া স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাদেরও প্রতি মাসে টাকা দিয়ে সমর্থন নিতে হয়। দিনশেষে তাদের হাতে দিনমজুরির টাকাই থাকে। কোন কাজ নাই, তাই তারা মাটির ব্যবসা করে কোন রকমে দিনাতিপাত করছেন। মনতলা গ্রামের ভেকু সিন্ডিকেটের হোতা শামসুল হক চৌধুরী বলেন, আমি তো একা না, আমার মতো অনেকেই পাহাড়ি লাল মাটি কাটছেন। স্থানীয়দের অভিযোগ, ভূমি অফিসের কিছু কর্মকর্তার সঙ্গে যোগসাজশে মাটি ব্যবসায়ীরা সপ্তাহের বৃহস্পতি থেকে শনিবার পর্যন্ত নির্বিগ্নে মাটি কেটে বিক্রি করছেন।

টাঙ্গাইল বন বিভাগের বহেড়াতৈল রেঞ্জ কর্মকর্তা জানান, তিনি এ রেঞ্জে নতুন এসেছেন। বন বিভাগের ভূমির পাশে ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির মাটি কেটে বিক্রি করা হচ্ছে বলে তিনি শুনেছেন। তিনি সরেজমিন দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন। তাছাড়া ব্যক্তি মালিকাধীন জায়গা কেটে জমির শ্রেণী পরিবর্তনের বিষয়ে তাদের কিছু করণীয় নেই।

ঘাটাইল উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানায়, ঘাটাইলে কৃষি জমির পরিমাণ ২৭ হাজার ৮৫১ হেক্টর। এর মধ্যে তিন ফসলি জমি ১৭ হাজার ২১৮ হেক্টর, দুই ফসলি ৮ হাজার ১৮৫ হেক্টর ও এক ফসলি জমির পরিমাণ ২ হাজার ৩১১ হেক্টর।

এ বিষয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক জমির উদ্দিন বলেন, তিনি পাহাড় কাটা বা মাটি কেটে জমির শ্রেণী পরিবর্তনের বিষয়টি সম্পর্কে অবগত নন। সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে তিনি যথাযথ ব্যবস্থা নিবেন। এছাড়া সরজমিন পরিদর্শন করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

back to top