alt

শিক্ষা

৭ দফা দাবি না মানলে কঠোর কর্মসূচি দিবে সকশিস

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর ২০২৩

আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণের বেসরকারি আমলে প্রাপ্ত বেতন গ্রেড ও ধাপ বহাল রেখে পবতন-ভাতাদি নির্ধারন এবং পদ সৃজনকৃত সকল শিক্ষক-কর্মচারীকে অনতিবিলম্বে এডহক নিয়োগ দেয়াসহ ৭ দফা দাবি জানিয়েছেন সরকারি কলেজ শিক্ষক সমিতির (সকশিস) নেতারা। অনতিবিলম্বে তাদের এ দাবি না মানা হলে কঠোর কর্মসূচী ঘোষণার কথা জানিয়েছেন তারা।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে আয়োজিত এক সভায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. ইসাহাক এ কথা জানান।

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৬ সালে সরকারি কলেজবিহীন প্রতিটি উপজেলায় একটি করে কলেজকে সরকারি করার ঘোষণা দেন। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার ৭ বছর, জিও জারির ৫ বছর পার হলেও নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ১৪১টি কলেজে। অদৃশ্য কারণে প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটির অনুমোদন না পাওয়ায় নিয়োগ বাকি আছে ১৮৮ কলেজে। সরকারের কাছে অনুরোধ আমাদের যৌক্তিক দাবিগুলো মেনে নিন।

সাত দফার অন্যান্য দাবিগুলো হলো : পদ-সোপান তৈরি, আত্তীকৃত শিক্ষকগণকে সরকারি কলেজের অনুরূপ সহকারী অধ্যাপক (নন-ক্যাডার), সহযোগী অধ্যাপক (নন-ক্যাডার), অধ্যাপক (নন-ক্যাডার) পদে পদোন্নতির নীতিমালা প্রণয়ন পূর্বক অনতিবিলম্বে পদোন্নতি প্রদান করা; আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণের বেসরকারি আমলের ধারাবাহিক চাকুরীকালের শতভাগ সময় সরকারি চাকুরীকাল হিসাবে গণনা করে বেতন-ভাতাদি নির্ধারন, জ্যেষ্ঠতা নির্ধারন, পদোন্নতি, পেনশন ও ছুটিসহ সকল ক্ষেত্রে কার্যকর করা; আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণের চাকুরী আত্তীকরণ বিধিমালা ২০১৮ তে আত্তীকৃত কলেজ সমূহে বদলীযোগ্য করা; অনতিবিলম্বে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দেয়া কোয়ারী ও রিভিউ কার্যক্রম সম্পন্ন করা; আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণকে এডহক নিয়োগ দেয়ার পর সরকারীকরণের তারিখ থেকে ০২ বছর চাকুরীর ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন থাকলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চাকুরী স্থায়ীকরণ করা; এবং সরকারীকৃত কোনো কলেজের কোনো পদ শূণ্য হলে পদোন্নতিযোগ্য আত্তীকৃত শিক্ষকদের মধ্যে থেকে তা পূরণ করতে হবে। আত্তীকৃত কোনো শিক্ষক উক্ত প্রতিষ্ঠানে না থাকলে সরকারীকৃত যেকোনো কলেজের শিক্ষক (নন-ক্যাডার) হতে পূরণ করতে হবে। সরকারীকৃত কোনো কলেজে পদোন্নতিযোগ্য শিক্ষক না থাকলে কমিশনের সুপারিশের ভিত্তিতে নন-ক্যাডার সদস্য দ্বারা উক্ত শূণ্যপদ পূরণ করতে হবে।

তিনি বলেন, উল্লেখিত দাবীসমূহ অনতিবিলম্বে পূরণ করা না হলে সরকারি কলেজ শিক্ষক সমিতি (সকশিস) আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণের স্বার্থে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবে।

সভায় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সকশিস এর কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুল হাসান পাঠান, সাংগঠনিক সম্পাদক (সার্বিক) মো. মনিরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি জাকারিয়া মাহমুদ, দিপু কুমার গোপ, আ.ন.ম রিয়াজ উদ্দীন, মো. রফিকুল ইসলাম, মহিউদ্দীন বাবুল, আব্দুল হক, ইফতেখার আলম, ভূঁইয়া মহিদুল ইসলাম, মাকলাবুর রহমান, শফিকুল ইসলাম খান, সুলতান আহমেদ, শাহেদ আহমেদ, নজরুল ইসলাম খান, মো. বাবুল আক্তার, আফরোজা মাহবুব খান, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির যুগ্ম-সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান, ইলিয়াস মাহবুবুল মাওলা, মো. শাহ আলম, মো. রফিকুল ইসলাম, মাহবুবুল আলম বাহাদুর, মো. রকিবুল হাসান, মো. আলী আক্কাস, জনাব মিজানুর রহমান, মো. মুশফিকুস সালেহীন অটল সহ কেন্দ্রীয়, বিভাগীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দ।

ছবি

বিশ্বসেরা ২% গবেষকের তালিকায় থাকা জাবি শিক্ষার্থী চান্স পেল অক্সফোর্ডে

ছবি

মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শূন্যপদের তথ্য চেয়েছে:এনটিআরসিএ

ছবি

ইস্ট ওয়েস্টের সমাবর্তনে শিক্ষামন্ত্রী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি ডিগ্রির অনুমতি

ছবি

ভিকারুননিসা নূন স্কুল এ্যান্ড কলেজের ১৬৯ জন শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল

ছবি

ভিকারুননিসার শিক্ষকরা কোচিং করাতে পারবেন না: ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কেকা রায় চৌধুরী

শিক্ষক নিয়োগ না দিয়েই সাধারণ স্কুলে ‘বৃত্তিমূলক শিক্ষা’ : ৪ বছর পরও ৫৬ শতাংশ আসন ফাঁকা

সাময়িক বরখাস্ত:ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ গ্রেপ্তার

ছাত্রীদের যৌন হয়রানির অভিযোগে ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ সাময়িক বরখাস্ত

ছবি

বুধবার থেকে বান্দরবান সীমান্তের পাঁচটি প্রাথমিক বিদ্যালয় খুলে দেয়া হবে

ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে ৫ জন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীর পরীক্ষা বাতিল

ছবি

গুচ্ছে ভর্তির আবেদনের সময় বাড়লো একদিন

ছবি

ভিকারুননিসা শিক্ষক মুরাদের শাস্তি দাবি অবস্থান কর্মসূচি ও মানববন্ধন

শিক্ষা প্রকল্পে এডিপি বাস্তবায়ন হার মাত্র সাড়ে ১১ শতাংশ

গার্ল গাইডের শিক্ষা কার্যক্রম নারীর নেতৃত্ব বিকাশের ক্ষেত্র তৈরী : ফার্স্ট লেডী প্রধান অতিথি ড. রেবেকা সুলতানা

ছবি

যৌন নির্যাতন ও হয়রানির অভিযোগ আমলে নেওয়ার আহ্বান: ইউজিসি

ছবি

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ, উত্তীর্ণ ২০ হাজার প্রার্থী

ছবি

দ্বিতীয় ধাপের প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল প্রকাশ, উত্তীর্ণ ২০ হাজার ৬৪৭

ছবি

নতুন শিক্ষাক্রমে শিক্ষক প্রশিক্ষণের ব্যয় নিয়ে জটিলতা

ছবি

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা, ওএমআর শিট ছেড়ার অভিযোগ মিথ্যা: তদন্ত কমিটির মহাপরিচালক

ছবি

সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে ২০২৫ সালের এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে

ছবি

খুবির শিক্ষার্থীদের ‘মারধর’, প্রতিবাদে সড়কে বিক্ষোভ

ছবি

৪৬তম বিসিএস: পরীক্ষা হতে পারে এপ্রিলের শেষে

ছবি

পদোন্নতিতে বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে ‘বঞ্চনা ও অসন্তোষ’

ছবি

বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে ইইডি প্রধান প্রকৌশলীর শ্রদ্ধা

ছবি

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার প্রথম দিনই অনুপস্থিত ১৯ হাজার ৩৫৯ জন শিক্ষার্থী

ছবি

এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য ডিএমপির কুইক রেসপন্স টিম

ছবি

ইইডির প্রধান প্রকৌশলীর মেয়াদ ২ বছর বাড়ল

ছবি

মায়ানমারে সংঘর্ষের কারণে ঘুমধুমের এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র পরিবর্তন

ছবি

রাবিতে ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ ও শিক্ষকের বিচার চেয়ে বিক্ষোভ

নতুন শিক্ষাক্রম মূল্যায়ন কমিটির প্রধানই তদন্তের আওতায়

ছবি

মেডিকেলে ভর্তির ফল প্রকাশ হতে পারে কাল বা পরশু

ছবি

প্রশ্ন ফাঁস বন্ধের লক্ষ্যে এমবিবিএস ভর্তি প্রক্রিয়া ডিজিটালাইজ করা হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ডাক্তার হতে চাওয়া লাখো শিক্ষার্থী পরীক্ষায় বসেছেন

নতুন শিক্ষাক্রমে এসএসসি পরীক্ষা কীভাবে হবে সেই বিষয়ে উদ্বেগ

ছবি

চলতি শিক্ষাবর্ষের ছুটির তালিকায় রোজায় চলবে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলের ক্লাস

ছবি

‘দ্বন্ধ-সংঘাতমুক্ত’ সমাজ নির্মাণে শিক্ষকদের ভূমিকা অনস্বীকার্য

tab

শিক্ষা

৭ দফা দাবি না মানলে কঠোর কর্মসূচি দিবে সকশিস

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর ২০২৩

আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণের বেসরকারি আমলে প্রাপ্ত বেতন গ্রেড ও ধাপ বহাল রেখে পবতন-ভাতাদি নির্ধারন এবং পদ সৃজনকৃত সকল শিক্ষক-কর্মচারীকে অনতিবিলম্বে এডহক নিয়োগ দেয়াসহ ৭ দফা দাবি জানিয়েছেন সরকারি কলেজ শিক্ষক সমিতির (সকশিস) নেতারা। অনতিবিলম্বে তাদের এ দাবি না মানা হলে কঠোর কর্মসূচী ঘোষণার কথা জানিয়েছেন তারা।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে আয়োজিত এক সভায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. ইসাহাক এ কথা জানান।

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৬ সালে সরকারি কলেজবিহীন প্রতিটি উপজেলায় একটি করে কলেজকে সরকারি করার ঘোষণা দেন। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার ৭ বছর, জিও জারির ৫ বছর পার হলেও নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ১৪১টি কলেজে। অদৃশ্য কারণে প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটির অনুমোদন না পাওয়ায় নিয়োগ বাকি আছে ১৮৮ কলেজে। সরকারের কাছে অনুরোধ আমাদের যৌক্তিক দাবিগুলো মেনে নিন।

সাত দফার অন্যান্য দাবিগুলো হলো : পদ-সোপান তৈরি, আত্তীকৃত শিক্ষকগণকে সরকারি কলেজের অনুরূপ সহকারী অধ্যাপক (নন-ক্যাডার), সহযোগী অধ্যাপক (নন-ক্যাডার), অধ্যাপক (নন-ক্যাডার) পদে পদোন্নতির নীতিমালা প্রণয়ন পূর্বক অনতিবিলম্বে পদোন্নতি প্রদান করা; আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণের বেসরকারি আমলের ধারাবাহিক চাকুরীকালের শতভাগ সময় সরকারি চাকুরীকাল হিসাবে গণনা করে বেতন-ভাতাদি নির্ধারন, জ্যেষ্ঠতা নির্ধারন, পদোন্নতি, পেনশন ও ছুটিসহ সকল ক্ষেত্রে কার্যকর করা; আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণের চাকুরী আত্তীকরণ বিধিমালা ২০১৮ তে আত্তীকৃত কলেজ সমূহে বদলীযোগ্য করা; অনতিবিলম্বে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দেয়া কোয়ারী ও রিভিউ কার্যক্রম সম্পন্ন করা; আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণকে এডহক নিয়োগ দেয়ার পর সরকারীকরণের তারিখ থেকে ০২ বছর চাকুরীর ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন থাকলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে চাকুরী স্থায়ীকরণ করা; এবং সরকারীকৃত কোনো কলেজের কোনো পদ শূণ্য হলে পদোন্নতিযোগ্য আত্তীকৃত শিক্ষকদের মধ্যে থেকে তা পূরণ করতে হবে। আত্তীকৃত কোনো শিক্ষক উক্ত প্রতিষ্ঠানে না থাকলে সরকারীকৃত যেকোনো কলেজের শিক্ষক (নন-ক্যাডার) হতে পূরণ করতে হবে। সরকারীকৃত কোনো কলেজে পদোন্নতিযোগ্য শিক্ষক না থাকলে কমিশনের সুপারিশের ভিত্তিতে নন-ক্যাডার সদস্য দ্বারা উক্ত শূণ্যপদ পূরণ করতে হবে।

তিনি বলেন, উল্লেখিত দাবীসমূহ অনতিবিলম্বে পূরণ করা না হলে সরকারি কলেজ শিক্ষক সমিতি (সকশিস) আত্তীকৃত শিক্ষক-কর্মচারীগণের স্বার্থে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবে।

সভায় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সকশিস এর কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুল হাসান পাঠান, সাংগঠনিক সম্পাদক (সার্বিক) মো. মনিরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি জাকারিয়া মাহমুদ, দিপু কুমার গোপ, আ.ন.ম রিয়াজ উদ্দীন, মো. রফিকুল ইসলাম, মহিউদ্দীন বাবুল, আব্দুল হক, ইফতেখার আলম, ভূঁইয়া মহিদুল ইসলাম, মাকলাবুর রহমান, শফিকুল ইসলাম খান, সুলতান আহমেদ, শাহেদ আহমেদ, নজরুল ইসলাম খান, মো. বাবুল আক্তার, আফরোজা মাহবুব খান, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির যুগ্ম-সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান, ইলিয়াস মাহবুবুল মাওলা, মো. শাহ আলম, মো. রফিকুল ইসলাম, মাহবুবুল আলম বাহাদুর, মো. রকিবুল হাসান, মো. আলী আক্কাস, জনাব মিজানুর রহমান, মো. মুশফিকুস সালেহীন অটল সহ কেন্দ্রীয়, বিভাগীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দ।

back to top