alt

শিক্ষা

মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শূন্যপদের তথ্য চেয়েছে:এনটিআরসিএ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বেসরকারি স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শূন্যপদের তথ্য চেয়েছে শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। শিক্ষক নিয়োগে পঞ্চম গণবিজ্ঞপ্তির প্রকাশের লক্ষেই এ তথ্য চাওয়া হয়েছে। বুধবার রাতে (২৮ ফেব্রুয়ারি) এনটিআরসিএ’র এক বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য চাওয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের শূন্য পদের তথ্য আগামী ১৮ মার্চ পর্যন্ত দেওয়া যাবে। ফি জমা দেওয়া যাবে ১৯ মার্চ রাত ১২টা পর্যন্ত।

শিক্ষকের শূন্য পদের চাহিদা পাওয়ার পর যাচাই-বাছাই করা হবে। এরপর পঞ্চম গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন চাওয়া হবে। এবার সারা দেশে শূন্য পদের সংখ্যা ৫০ হাজারের বেশি হতে পারে বলে এনটিআরসিএ কর্মকর্তাদের ধারণা।

২০০৫ সাল থেকে এনটিআরসিএ বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন সনদ দিয়ে আসছে। প্রথম দশ বছর শিক্ষক নিয়োগের ক্ষমতা ছিল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডি এবং ম্যানেজিং কমিটির কাছে।

এরপর আইন সংশোধন করে ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর এনটিআরসিএকে সনদ দেওয়ার পাশাপাশি শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশের ক্ষমতাও দেয়া হয়। এরপর চারটি গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এক লাখ ১৩ হাজার ৩১২ জন শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ করেছে এনটিআরসিএ।

সর্বশেষ ২০২২ সালের ২১ ডিসেম্বর চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে এনটিআরসিএ। ওই সময় এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানে শূন্য পদ ছিল ৬৮ হাজার ৩৯০টি। এই গণবিজ্ঞপ্তির ফলাফল গত বছরের ১২ মার্চ প্রকাশ করা হয়। এতে প্রাথমিকভাবে ৩২ হাজার ৪৩৮ প্রার্থীকে নির্বাচন করা হয়।

পরে পুলিশ ভেরিফিকেশন, বয়স বিবেচনা ও বিভিন্ন সনদ পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর ২৭ হাজার ৭৪ প্রার্থীকে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়। এর মধ্যে স্কুল ও কলেজে ১৩ হাজার ৭০৫ জন, মাদ্রাসায় ১১ হাজার ২৭৯, কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫১৬, সংযুক্ত স্কুলে এক হাজার ৫৮৩ এবং সংযুক্ত মাদ্রাসায় ৬২১ জন সুপারিশ পান।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) থেকে জানা গেছে, এনটিআরসিএ’র সুপারিশ করা সব শিক্ষক বিভিন্ন কারণে নিয়োগ পান না। বিশেষ করে- এক বিষয়ের শিক্ষককে অন্য বিষয়ে নিয়োগের সুপারিশ, স্কুলে যোগদানে বাধাঁ দেওয়া, প্রতিষ্ঠানের দুরত্ব বেশি হলে যোগদান না করা, যোগদানের আগেই অন্যত্র চাকরি হয়ে যাওয়া, পুলিশ ভেরিফিকেশনে বিরুপ মন্তব্য থাকা ও ভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সমৃক্ততার তথ্যের কারণে সুপারিশপ্রাপ্তদের একটি উল্লেখযোগ্য অংশ শিক্ষকতায় সমৃক্ত হয় না।

৫০ শতাংশ লিখিত ও ৫০ শতাংশ কার্যক্রমভিত্তিক মূল্যায়ন

নতুন শিক্ষাক্রমে সপ্তম শ্রেণীতে শরীফার গল্প থাকছে

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন ও দ্রুত সেবা প্রদানে নির্দেশ

তাপদাহের কারণে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইনে ক্লাস , মিডটার্ম পরীক্ষা স্থগিত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে স্ব-শরীরেই চলবে ক্লাস-পরীক্ষা

ছবি

গরমের কারণে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন সকল কলেজের ক্লাস বন্ধ

ছবি

তৃতীয় দফায় তিনদিন শ্রেণি কার্যক্রম বর্জনে ঘোষণা কুবি শিক্ষক সমিতির

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স ১ম বর্ষ ভর্তির আবেদনের ২য় মেধা তালিকা প্রকাশ

ছবি

বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিচালককে অব্যাহতি

ছবি

এইচএসসির ফরম পূরণ শুরু মঙ্গলবার, চলবে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত

ছবি

স্বল্প আয়ের মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী ও ঈদ উপহার বিতরন

ছবি

রাবি-চবির অধিভুক্ত হল ৯ সরকারি কলেজ

ছবি

১১ মের মধ্যেই এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

নতুন শিক্ষাক্রম : আগের ধাচেই শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি এনটিআরসিএ’র

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে টেস্ট পরীক্ষার নামে ফি আদায় করলে ব্যবস্থা

ছবি

এইচএসসি পরীক্ষা শুরু ৩০ জুন, রুটিন প্রকাশ

ছবি

বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি চলবে : হাইকোর্ট

ছবি

বুয়েটে ছাত্ররাজনীতির দাবিতে দেশব্যাপী মানববন্ধন করবে ছাত্রলীগ

ছবি

তিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে তিন ক্যাম্পাসে চলছে পাল্টাপাল্টি মহড়া

ছবি

৩০টি বেসরকারি বিশ^বিদ্যালয়ের ব্যাংক হিসাব স্থগিত:এনবিআর

ছবি

শিক্ষায় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক উভয় স্তরে পারিবারিক ব্যয় বেড়েছে

শিক্ষায় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক উভয় স্তরে পারিবারিক ব্যয় বেড়েছে

কক্সবাজারে ওয়্যারলেস অডিও ডিভাইসসহ দুইজন আটক

ছবি

মাধ্যমিকে শিক্ষার্থী কমেছে, বেড়েছে মাদ্রাসায়

ছবি

দুর্নীতির অভিযোগে বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ের এক কর্মকর্তা বরখাস্ত

ঢাবির ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ২৬ দিনের ছুটি শুরু

ছবি

শনিবার স্কুল খোলা রাখার ইঙ্গিত: শিক্ষামন্ত্রী নওফেল

উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত সমাপনী পরীক্ষা পাঁচ ঘণ্টা করার প্রস্তাব এনসিটিবির

ছবি

ঢাবির সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন অধ্যাপক রাশেদা ইরশাদ

ছবি

এইচএসসি পরীক্ষা কার কোন কেন্দ্রে, তালিকা প্রকাশ

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের শতাধিক ‘ট্রেড কোর্সের’ নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দুই সংস্থার দ্বন্দ্ব

ছবি

ঢাকা কলেজিয়েট স্কুলের ২০০ বছর বয়সী ভবন ভাঙার প্রতিবাদে মানববন্ধন

কেমব্রিজ পরীক্ষায় ডিপিএস শিক্ষার্থীদের অনন্য সাফল্য

ছবি

বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে

সিমাগো র‍্যাঙ্কিংয়ে অষ্টম কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

tab

শিক্ষা

মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শূন্যপদের তথ্য চেয়েছে:এনটিআরসিএ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বেসরকারি স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শূন্যপদের তথ্য চেয়েছে শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। শিক্ষক নিয়োগে পঞ্চম গণবিজ্ঞপ্তির প্রকাশের লক্ষেই এ তথ্য চাওয়া হয়েছে। বুধবার রাতে (২৮ ফেব্রুয়ারি) এনটিআরসিএ’র এক বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য চাওয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের শূন্য পদের তথ্য আগামী ১৮ মার্চ পর্যন্ত দেওয়া যাবে। ফি জমা দেওয়া যাবে ১৯ মার্চ রাত ১২টা পর্যন্ত।

শিক্ষকের শূন্য পদের চাহিদা পাওয়ার পর যাচাই-বাছাই করা হবে। এরপর পঞ্চম গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন চাওয়া হবে। এবার সারা দেশে শূন্য পদের সংখ্যা ৫০ হাজারের বেশি হতে পারে বলে এনটিআরসিএ কর্মকর্তাদের ধারণা।

২০০৫ সাল থেকে এনটিআরসিএ বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন সনদ দিয়ে আসছে। প্রথম দশ বছর শিক্ষক নিয়োগের ক্ষমতা ছিল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডি এবং ম্যানেজিং কমিটির কাছে।

এরপর আইন সংশোধন করে ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর এনটিআরসিএকে সনদ দেওয়ার পাশাপাশি শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশের ক্ষমতাও দেয়া হয়। এরপর চারটি গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এক লাখ ১৩ হাজার ৩১২ জন শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ করেছে এনটিআরসিএ।

সর্বশেষ ২০২২ সালের ২১ ডিসেম্বর চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে এনটিআরসিএ। ওই সময় এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানে শূন্য পদ ছিল ৬৮ হাজার ৩৯০টি। এই গণবিজ্ঞপ্তির ফলাফল গত বছরের ১২ মার্চ প্রকাশ করা হয়। এতে প্রাথমিকভাবে ৩২ হাজার ৪৩৮ প্রার্থীকে নির্বাচন করা হয়।

পরে পুলিশ ভেরিফিকেশন, বয়স বিবেচনা ও বিভিন্ন সনদ পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর ২৭ হাজার ৭৪ প্রার্থীকে নিয়োগের সুপারিশ করা হয়। এর মধ্যে স্কুল ও কলেজে ১৩ হাজার ৭০৫ জন, মাদ্রাসায় ১১ হাজার ২৭৯, কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫১৬, সংযুক্ত স্কুলে এক হাজার ৫৮৩ এবং সংযুক্ত মাদ্রাসায় ৬২১ জন সুপারিশ পান।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) থেকে জানা গেছে, এনটিআরসিএ’র সুপারিশ করা সব শিক্ষক বিভিন্ন কারণে নিয়োগ পান না। বিশেষ করে- এক বিষয়ের শিক্ষককে অন্য বিষয়ে নিয়োগের সুপারিশ, স্কুলে যোগদানে বাধাঁ দেওয়া, প্রতিষ্ঠানের দুরত্ব বেশি হলে যোগদান না করা, যোগদানের আগেই অন্যত্র চাকরি হয়ে যাওয়া, পুলিশ ভেরিফিকেশনে বিরুপ মন্তব্য থাকা ও ভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সমৃক্ততার তথ্যের কারণে সুপারিশপ্রাপ্তদের একটি উল্লেখযোগ্য অংশ শিক্ষকতায় সমৃক্ত হয় না।

back to top