alt

শিক্ষা

উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত সমাপনী পরীক্ষা পাঁচ ঘণ্টা করার প্রস্তাব এনসিটিবির

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : সোমবার, ২৫ মার্চ ২০২৪

নতুন শিক্ষাক্রমে প্রতিটি ‘মিডটার্ম ও বার্ষিক ‘চূড়ান্ত’ এবং এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা পাঁচ ঘণ্টায় নেয়ার প্রস্তাব করেছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)।

এছাড়া প্রচলিত নিয়মে পাবলিক পরীক্ষা অন্য কেন্দ্রে এবং চতুর্থ থেকে নবম শ্রেণীর পরীক্ষা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানেই নেয়ার প্রস্তাব করেছে এনসিটিবি। আর সকাল ১০টা থেকে এই মূল্যায়ন প্রক্রিয়া বা পরীক্ষা শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে। মাঝখানে এক ঘণ্টার বিরতি রাখার প্রস্তাব করেছে এনসিটিবি। এতে ছয়টি সেশন রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে। এর মধ্যে চার ঘণ্টা থাকবে ব্যবহারিক।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে গতকাল ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত এক সভায় নতুন শিক্ষাক্রমে মূল্যায়নের এই খসড়া প্রস্তাব তুলে ধরা হয়। যদিও সভায় এই বিষয়ে কোনো চূড়ান্ত সিন্ধান্ত হয়নি বলে একাধিক কর্মকর্তা সংবাদকে জানিয়েছেন।

নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন ও মূল্যায়ন পদ্ধতি চূড়ান্ত করতে চলতি মাসের প্রথম দিকে একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করে শিক্ষা মন্ত্রনালয়। এই কমিটিরই সভা ছিল ওইদিন।

ওইদিন সভা শেষে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার সংবাদকে বলেছেন, ‘নতুন শিক্ষাক্রমে মূল্যায়ন কার্যক্রম কীভাবে হবে সে বিষয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। এনসিটিবি নিজেদের প্রস্তাবনা তুলে ধরেছে। কিছুটা আলোচনা হয়েছে। তবে কোনো কিছুই চূড়ান্ত হয়নি। আগামীতে আরো সভা হবে।’

এনসিটিবির পক্ষ্য থেকে স্কুল সময়ে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা নাগাদ প্রতিদিন একটি বিষয়ের মূল্যায়নের প্রস্তাব করা হয়েছে। এতে টানা পাঁচ ঘণ্টা বসে পরীক্ষা দিতে হবে না। এক ঘণ্টার মধ্যাহ্ন বিরতি থাকবে। এর মধ্যেই বিষয়ভেদে এক থেকে দেড় ঘণ্টার লিখিত পরীক্ষা হবে।

এ বিষয়ে এনসিটিবির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরহাদুল ইসলাম সংবাদকে বলেন, ওইদিন (২৪ মার্চ) মূল্যায়ন প্রক্রিয়া নিয়ে সভা হয়েছে। সেখানে নতুন শিক্ষাক্রমে মূল্যায়ন কার্যক্রম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। তবে সভায় পরীক্ষা পদ্ধতি ফেরানোর বিষয়টি গুরুত্বসহকারে আলোচনায় এসেছে। আরেকটি সভা করে বিষয়টি চূড়ান্ত করা হতে পারে বলে তিনি জানান।

মূল্যায়ন প্রক্রিয়ার ব্যাখ্যা দিয়ে এনসিটিবির এক সদস্য বলেন, সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত-ছয় ঘণ্টা। এই ছয় ঘণ্টার মধ্যে মাঝখানে এক ঘণ্টা নামাজ এবং মধ্যাহ্ন বিরতি থাকবে। বাকি পাঁচ ঘণ্টা শিক্ষার্থীরা কাজ করবে। একটি ‘এক্সপেরিমেন্ট’ দেয়া হবে।

মূল্যায়ন কার্যক্রম সকাল ১০টা থেকে শুরু হবে জানিয়ে ওই কর্মকর্তা বলেন, শেষ সময়ে এক ঘণ্টা বা বিষয় অনুযায়ী সোয়া এক ঘণ্টা একটি লিখিত অংশ থাকবে। বাকি সময় শিক্ষার্থীদের ‘অ্যাকটিভিটিজে’ ব্যস্ত থাকবে।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ফরহাদুল ইসলাম বলেন, স্কুলে যেভাবে মূল্যায়ন হয় সেভাবেই এই কার্যক্রম হবে। শিক্ষার্থীদের শুধু পাবলিক পরীক্ষার সেন্টারে যেতে হবে। পাবলিক পরীক্ষার ক্ষেত্রে বাইরের মূল্যায়নে অন্য স্কুলের শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করবেন। সেখানে শিক্ষার্থীরা সারাদিন কাজ দেয়া হবে এবং তাদের অবজারভেশন-চেকলিস্ট অনুযায়ী মূল্যায়ন করা হবে।

অন্য এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, নতুন শিক্ষাক্রমে যথারীতি এসএসসি ও এইচএসসিতে পাবলিক পরীক্ষা থাকবে। পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণীতে এই পরীক্ষা নেই। ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত শুধু স্কুলের পরীক্ষা থাকবে।

২০২৩ সালে প্রথম শ্রেণী, ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণীতে নতুন শিক্ষাক্রমের বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। চলতি শিক্ষাক্রমে দ্বিতীয়, তৃতীয়, অষ্টম ও নবম শ্রেণীতে এই শিক্ষাক্রমে পাঠদান শুরু হয়েছে। ২০২৫ সালে চতুর্থ, পঞ্চম ও দশম শ্রেণীতে নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের সিন্ধান্ত রয়েছে। নতুন শিক্ষাক্রমে ২০২৬ সালে এসএসসি পরীক্ষা হওয়ার কথা রয়েছে। নতুন শিক্ষাক্রমে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত ১০টি সাধারণ বিষয় পড়তে হবে।

ছবি

ডেঙ্গু প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জবি উপাচার্যের

ছবি

সার্বজনীন পেনশন বাতিলের দাবিতে জবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

ছবি

একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির আবেদন শুরু হলো আজ

ছবি

কারিগরি বোর্ড : সিস্টেম এনালিস্ট চুরি করেন ৫ হাজার পিস বিশেষ কাগজ

ছবি

শিক্ষার্থী সংকট, একীভূত হচ্ছে খুলনার ৪৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়

ছবি

ওয়াইল্ড লাইফ অলিম্পিয়াডের নিবন্ধন চলছে

ছবি

১৫-২৫ জুলাই একাদশে ভর্তি, ৩০ জুলাই ক্লাস শুরু

একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির আবেদন আগামী ২৬ মে শুরু হচ্ছে

ছবি

শুরু হচ্ছে এ এস ইসলাম স্কুল অব লাইফ ২০২৪ এর অফলাইন পর্ব

ছবি

শতভাগ ফেল স্কুল-মাদ্রাসা বাতিলের উদ্যোগ

ছবি

নতুন শিক্ষাক্রমে মূল্যায়নের নতুন প্রস্তাব

ছবি

পাসের হারে ধারাবাহিক এগিয়ে যাচ্ছে মেয়েরা

ছবি

ডাক্তার নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস, তদন্ত কমিটি গঠন

ছবি

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা: ৫১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শতভাগ ফেল

ছবি

এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৮২ হাজার ১২৯ জন

ছবি

গুচ্ছের ‘সি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, পাসের হার ৬০. ৪২

ছবি

মাধ্যমিকের ফল জানা যাবে আগামীকাল

ছবি

দাবিতে স্মার্ট কার্ড পাঞ্চ করে ঢুকতে হবে ঢুকতে হবে

ছবি

দেরি করে আসা পরীক্ষার্থীদের প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি জবি কেন্দ্রে

আড়াই হাজার পদ শূন্য রেখেই নতুন ৮ শতাধিক পদ সৃষ্টির উদ্যোগ

‘অতি ঝুঁকিপূর্ণ’ ৪৪টি শিক্ষা ভবন আপাতত ভাঙা হচ্ছে না

ছবি

মঙ্গলবার আগের সূচিতে ফিরছে প্রাথমিকের ক্লাস

ছবি

কেমব্রিজ পরীক্ষায় ডিপিএস শিক্ষার্থীদের সাফল্য

ছবি

গুচ্ছের ‘বি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ, পাসের হার ৩৬.৩৩

ছবি

প্রয়োজনে শুক্রবারও ক্লাস নেওয়া হবে : শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

সারা দেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে আজ

ছবি

২০২৪-এ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার শিক্ষক প্রশিক্ষণ: উপাচার্য

ছবি

আইডিইবি শিক্ষা কোর্সকে বিএসসি(পাস)সমমান মর্যাদা দেওয়ার সিদ্ধান্ত দ্রুত বাস্তবায়ন চায়

নর্থইস্ট ইউনিভার্সিটির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক হলেন লিয়াকত শাহ ফরিদী

ছবি

এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ১২ মে

টাইমস হায়ার এডুকেশন র‌্যাঙ্কিংয়ে দেশসেরা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

ছবি

এসএসসি পরীক্ষার ফল ঘোষণা ৯ থেকে ১১ মে’র মধ্যেই

ছবি

ঢাকাসহ ৫ জেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বন্ধ

ছবি

সর্বোচ্চ ফি’ নিয়ে আণুবীক্ষণিক প্রশ্নে পরীক্ষা নিলো ’গুচ্ছ’ কর্তৃপক্ষ

ছবি

৯০% উপস্থিতি গুচ্ছ ভর্তি ‘এ’ ইউনিট পরীক্ষায়

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় আসন বেড়েছে ৫০টি, থাকবে ভ্রাম্যমাণ পানির ট্যাংক ও চিকিৎসক

tab

শিক্ষা

উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত সমাপনী পরীক্ষা পাঁচ ঘণ্টা করার প্রস্তাব এনসিটিবির

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

সোমবার, ২৫ মার্চ ২০২৪

নতুন শিক্ষাক্রমে প্রতিটি ‘মিডটার্ম ও বার্ষিক ‘চূড়ান্ত’ এবং এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা পাঁচ ঘণ্টায় নেয়ার প্রস্তাব করেছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)।

এছাড়া প্রচলিত নিয়মে পাবলিক পরীক্ষা অন্য কেন্দ্রে এবং চতুর্থ থেকে নবম শ্রেণীর পরীক্ষা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানেই নেয়ার প্রস্তাব করেছে এনসিটিবি। আর সকাল ১০টা থেকে এই মূল্যায়ন প্রক্রিয়া বা পরীক্ষা শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে। মাঝখানে এক ঘণ্টার বিরতি রাখার প্রস্তাব করেছে এনসিটিবি। এতে ছয়টি সেশন রাখার প্রস্তাব করা হয়েছে। এর মধ্যে চার ঘণ্টা থাকবে ব্যবহারিক।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে গতকাল ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত এক সভায় নতুন শিক্ষাক্রমে মূল্যায়নের এই খসড়া প্রস্তাব তুলে ধরা হয়। যদিও সভায় এই বিষয়ে কোনো চূড়ান্ত সিন্ধান্ত হয়নি বলে একাধিক কর্মকর্তা সংবাদকে জানিয়েছেন।

নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন ও মূল্যায়ন পদ্ধতি চূড়ান্ত করতে চলতি মাসের প্রথম দিকে একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করে শিক্ষা মন্ত্রনালয়। এই কমিটিরই সভা ছিল ওইদিন।

ওইদিন সভা শেষে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার সংবাদকে বলেছেন, ‘নতুন শিক্ষাক্রমে মূল্যায়ন কার্যক্রম কীভাবে হবে সে বিষয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। এনসিটিবি নিজেদের প্রস্তাবনা তুলে ধরেছে। কিছুটা আলোচনা হয়েছে। তবে কোনো কিছুই চূড়ান্ত হয়নি। আগামীতে আরো সভা হবে।’

এনসিটিবির পক্ষ্য থেকে স্কুল সময়ে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা নাগাদ প্রতিদিন একটি বিষয়ের মূল্যায়নের প্রস্তাব করা হয়েছে। এতে টানা পাঁচ ঘণ্টা বসে পরীক্ষা দিতে হবে না। এক ঘণ্টার মধ্যাহ্ন বিরতি থাকবে। এর মধ্যেই বিষয়ভেদে এক থেকে দেড় ঘণ্টার লিখিত পরীক্ষা হবে।

এ বিষয়ে এনসিটিবির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরহাদুল ইসলাম সংবাদকে বলেন, ওইদিন (২৪ মার্চ) মূল্যায়ন প্রক্রিয়া নিয়ে সভা হয়েছে। সেখানে নতুন শিক্ষাক্রমে মূল্যায়ন কার্যক্রম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। তবে সভায় পরীক্ষা পদ্ধতি ফেরানোর বিষয়টি গুরুত্বসহকারে আলোচনায় এসেছে। আরেকটি সভা করে বিষয়টি চূড়ান্ত করা হতে পারে বলে তিনি জানান।

মূল্যায়ন প্রক্রিয়ার ব্যাখ্যা দিয়ে এনসিটিবির এক সদস্য বলেন, সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত-ছয় ঘণ্টা। এই ছয় ঘণ্টার মধ্যে মাঝখানে এক ঘণ্টা নামাজ এবং মধ্যাহ্ন বিরতি থাকবে। বাকি পাঁচ ঘণ্টা শিক্ষার্থীরা কাজ করবে। একটি ‘এক্সপেরিমেন্ট’ দেয়া হবে।

মূল্যায়ন কার্যক্রম সকাল ১০টা থেকে শুরু হবে জানিয়ে ওই কর্মকর্তা বলেন, শেষ সময়ে এক ঘণ্টা বা বিষয় অনুযায়ী সোয়া এক ঘণ্টা একটি লিখিত অংশ থাকবে। বাকি সময় শিক্ষার্থীদের ‘অ্যাকটিভিটিজে’ ব্যস্ত থাকবে।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ফরহাদুল ইসলাম বলেন, স্কুলে যেভাবে মূল্যায়ন হয় সেভাবেই এই কার্যক্রম হবে। শিক্ষার্থীদের শুধু পাবলিক পরীক্ষার সেন্টারে যেতে হবে। পাবলিক পরীক্ষার ক্ষেত্রে বাইরের মূল্যায়নে অন্য স্কুলের শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করবেন। সেখানে শিক্ষার্থীরা সারাদিন কাজ দেয়া হবে এবং তাদের অবজারভেশন-চেকলিস্ট অনুযায়ী মূল্যায়ন করা হবে।

অন্য এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, নতুন শিক্ষাক্রমে যথারীতি এসএসসি ও এইচএসসিতে পাবলিক পরীক্ষা থাকবে। পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণীতে এই পরীক্ষা নেই। ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত শুধু স্কুলের পরীক্ষা থাকবে।

২০২৩ সালে প্রথম শ্রেণী, ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণীতে নতুন শিক্ষাক্রমের বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। চলতি শিক্ষাক্রমে দ্বিতীয়, তৃতীয়, অষ্টম ও নবম শ্রেণীতে এই শিক্ষাক্রমে পাঠদান শুরু হয়েছে। ২০২৫ সালে চতুর্থ, পঞ্চম ও দশম শ্রেণীতে নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের সিন্ধান্ত রয়েছে। নতুন শিক্ষাক্রমে ২০২৬ সালে এসএসসি পরীক্ষা হওয়ার কথা রয়েছে। নতুন শিক্ষাক্রমে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত ১০টি সাধারণ বিষয় পড়তে হবে।

back to top