alt

শিক্ষা

কুয়েট শিক্ষকের মৃত্যুতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির উদ্বেগ

খালেদ মাহমুদ,ঢাবি প্রতিনিধি : বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(কুয়েট) শিক্ষক ড. সেলিম হোসেনের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে দায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে তাদের শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়(ঢাবি) শিক্ষক সমিতি।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) ঢাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. রহমতুল্লাহ এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূইয়া স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ৩০ নভেম্বর খুলনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনের অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর খবরে সারাদেশে শিক্ষাঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। শিক্ষার্থীদের মানসিক নির্যাতনে শাহ আমানত হলের প্রাধ্যক্ষ এবং ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনের অপমৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়েছে। ঘটনার দিন বেলা সাড়ে ১২টার দিকে একটি ছাত্র সংগঠনের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে কিছু ছাত্রা শাহ আমানত হলে ডাইনিং ম্যানেজার নির্বাচনকে কেন্দ্র তাঁর ওপর মানসিক নিপীড়ন চালান। তিনি বাসায় ফিরে এ ঘটনা তাঁর পরিবারকে জানান। শিক্ষার্থী নামধারী দুর্বস্তনের ধারা লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনা সহ্য করতে না পেরে একপর্যায়ে তিনি মৃত্যুবরণ করেন বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি মনে করে আত্মসম্মান ও মর্যাদাবোধই একজন শিক্ষকের নৈতিক শক্তির ভিত্তি। কুয়েটের শিক্ষক ড. সেলিম হোসেন ছাত্রনামধারী দুর্বত্তদের অনৈতিক চাপে মাথানত না করে শিক্ষকদের মর্যাদা সমুন্নত রেখেছেন। আমরা ড. সেলিম হোসেনের মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, কুয়েট কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই অভিযুক্ত কয়েকজনকে সাময়িক বহিষ্কার, তদন্ত কমিটি গঠনসহ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। কুয়েট কর্তৃপক্ষের এসব পদক্ষেপকে স্বাগত জানাই। তবে কমিটি যেন সবধরনের প্রভাবমুক্ত থেকে প্রকৃত অপরাধীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির সুপারিশ করে এবং কর্তৃপক্ষ তা বাস্তবায়ন করে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য একটি শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিত করতে হলে এ ধরনের ছাত্র নামধারী দুর্বৃত্তমুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানবিনির্মাণ করতেই হবে। এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে দোষীদের চিহ্নিত হোক তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে শাস্তি নিশ্চিত করার জোর দাবি জানাচ্ছি।

, or

ছবি

শাবি শিক্ষার্থীদের সব দাবি বাস্তবায়ন করব: শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

আন্দোলনকারীদের দাবি সমর্থন এমপি মোকাব্বিরের

৩০ জানুয়ারি থেকে ফাজিল পরীক্ষা হচ্ছে না

ছবি

শাবির দুই সাবেক শিক্ষার্থীকে আটকের অভিযোগ

ছবি

‘বিভ্রান্তিকর ও অসত্য তথ্য’ ছড়ানো হচ্ছে, অভিযোগ শাবি শিক্ষার্থীদের

ছবি

সনদ বিক্রি করছে অনেক বিশ্ববিদ্যালয়: পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

ছবি

শাবিপ্রবিতে অনশনরত ২০ শিক্ষার্থী হাসপাতালে

ছবি

শাবিপ্রবির আন্দোলনের সমর্থনে ঢাবিতে প্রতীকী অনশন করবে শিক্ষক নেটওয়ার্ক

ছবি

হাইস্কুলের মেয়েদের নিয়ে সপ্তাহব্যাপী প্রোগ্রামিং কোর্স অনুষ্ঠিত

ছবি

গভীর রাতে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক, সমাধান না আসায় অনশন চলবে

ছবি

চলমান পরীক্ষা নেয়ার দাবিতে রাজশাহীতে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

ছবি

অনশন ভেঙে আলোচনায় বসার আহ্বান শিক্ষামন্ত্রীর

ছবি

অনলাইনে ক্লাস নেওয়াসহ মাউশির ১১ দফা নির্দেশনা

ছবি

শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে শাবির পাঁচ শিক্ষক

ছবি

মেধাবীদের পথচলায় সহযোগী হল ঢাবির কলা অনুষদ

ছবি

শাবিপ্রবিতে চতুর্থ দিনের অনশন : ১৬ জন হাসপাতালে ভর্তি

ছবি

হঠাৎ পরীক্ষা স্থগিত, শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

ছবি

বাধ্য হয়েই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত: শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

৩৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের চূড়ান্ত সুপারিশ

ছবি

সীমিত পরিসরে খোলা থাকবে ঢাবির অফিস

ছবি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পরীক্ষা স্থগিত

ছবি

এসএসসির পুনর্নিরীক্ষার ফল প্রকাশ আজ

ছবি

ঢাবির ২২ শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত, স্বাস্থ‌্যবিধি জোরদার

ছবি

৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বন্ধ স্কুল-কলেজ

ছবি

৪৩তম বিসিএসের প্রিলিতে উত্তীর্ণ ১৫২২৯ জন

ছবি

আজ প্রকাশ হতে পারে ৪৩তম বিসিএস প্রিলিমিনারির ফল

ছবি

শীতের সারা রাত ছিলেন উপাচার্যের বাসভবনের সামনে, হাসপাতালে দুজন

ছবি

এখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের পরিকল্পনা নেই: শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

আবার রাস্তায় শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা, উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে স্লোগান

ছবি

মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা ১ এপ্রিল

পরীক্ষায় ফেল করায় রাজউক উত্তরা মডেল স্কুল এ্যান্ড কলেজের ২৩ শিক্ষার্থীকে ছাড়পত্র

ছবি

আন্দোলন অব্যাহত শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের, এবার উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি

ছবি

ইরাবের সভাপতি অভিজিৎ, সম্পাদক আকতারুজ্জামান

এডুকেশন রিপোটার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অভিজিৎ সম্পাদক আকতারুজ্জামান

ছবি

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের তথ্য গুজব: শিক্ষা মন্ত্রণালয়

ছবি

একাদশে ভর্তির আবেদন শেষ হচ্ছে আজ

tab

শিক্ষা

কুয়েট শিক্ষকের মৃত্যুতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির উদ্বেগ

খালেদ মাহমুদ,ঢাবি প্রতিনিধি

বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১

খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(কুয়েট) শিক্ষক ড. সেলিম হোসেনের অস্বাভাবিক মৃত্যুতে দায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে তাদের শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়(ঢাবি) শিক্ষক সমিতি।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) ঢাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. রহমতুল্লাহ এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূইয়া স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ৩০ নভেম্বর খুলনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনের অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর খবরে সারাদেশে শিক্ষাঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। শিক্ষার্থীদের মানসিক নির্যাতনে শাহ আমানত হলের প্রাধ্যক্ষ এবং ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. সেলিম হোসেনের অপমৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়েছে। ঘটনার দিন বেলা সাড়ে ১২টার দিকে একটি ছাত্র সংগঠনের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে কিছু ছাত্রা শাহ আমানত হলে ডাইনিং ম্যানেজার নির্বাচনকে কেন্দ্র তাঁর ওপর মানসিক নিপীড়ন চালান। তিনি বাসায় ফিরে এ ঘটনা তাঁর পরিবারকে জানান। শিক্ষার্থী নামধারী দুর্বস্তনের ধারা লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনা সহ্য করতে না পেরে একপর্যায়ে তিনি মৃত্যুবরণ করেন বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি মনে করে আত্মসম্মান ও মর্যাদাবোধই একজন শিক্ষকের নৈতিক শক্তির ভিত্তি। কুয়েটের শিক্ষক ড. সেলিম হোসেন ছাত্রনামধারী দুর্বত্তদের অনৈতিক চাপে মাথানত না করে শিক্ষকদের মর্যাদা সমুন্নত রেখেছেন। আমরা ড. সেলিম হোসেনের মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, কুয়েট কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই অভিযুক্ত কয়েকজনকে সাময়িক বহিষ্কার, তদন্ত কমিটি গঠনসহ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। কুয়েট কর্তৃপক্ষের এসব পদক্ষেপকে স্বাগত জানাই। তবে কমিটি যেন সবধরনের প্রভাবমুক্ত থেকে প্রকৃত অপরাধীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির সুপারিশ করে এবং কর্তৃপক্ষ তা বাস্তবায়ন করে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য একটি শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিত করতে হলে এ ধরনের ছাত্র নামধারী দুর্বৃত্তমুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানবিনির্মাণ করতেই হবে। এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে দোষীদের চিহ্নিত হোক তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে শাস্তি নিশ্চিত করার জোর দাবি জানাচ্ছি।

, or

back to top