alt

শিক্ষা

চার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের নির্দেশ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৩

সাময়িক সনদের মেয়াদ শেষ হওয়া এবং নির্ধারিত সময়ের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম স্থানান্তরে ব্যর্থ হওয়ায় ১৮টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

এর মধ্যে চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি পুরোপুরি বন্ধ রাখা ও দুটি বিশ্ববিদ্যালয়কে অস্থায়ী ক্যাম্পাসে ভর্তি বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বাকি ১২টি বিশ্ববিদ্যালয়কে তিন থেকে ছয়মাস সময় দিয়েছে ইউজিসি।

আজ বৃহস্পতিবার জারি হওয়া ইউজিসির গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কমিশনের পত্রের প্রেক্ষিতে নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে সব কার্যক্রম স্থানান্তর ও ক্যাম্পাস নির্মাণে দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় দেশের চারটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি বন্ধ:

ইউজিসির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী- স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম স্থানান্তরিত না হওয়া পর্যন্ত প্রাইম এশিয়া ইউনিভার্সিটি, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি, আশা ইউনিভার্সিটি এবং ভিক্টোরিয়া ইউনিভার্সিটির সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণরুপে বন্ধ থাকবে।

স্টেট ইউনিভার্সিটি এবং মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস ব্যতীত অস্থায়ী ক্যাম্পাসে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সর্ম্পূণরুপে বন্ধ থাকবে। এ দুটি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে পরিচালিত প্রোগ্রামসমূহ যথারীতি চালু থাকবে।

যাদের সময় দেয়া হয়েছে:

মঞ্জুরি কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী, স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তর ও ক্যাম্পাস নির্মাণের বিষয়ে দৃশ্যমান অগ্রগতি বিবেচনায় ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি, রয়েল ইউনিভার্সিটি, সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, দ্য মিলেনিয়াম ইউনিভার্সিটি ও বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটিকে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সম্পূর্ণ কার্যক্রম স্থানান্তরের জন্য আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে।

এ সময়সীমার মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে সব কার্যক্রম স্থানান্তরে ব্যর্থ হলে আগামী ১ এপ্রিল থেকে সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণরুপে বন্ধ থাকবে। পাশাপাশি এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব স্থায়ী ক্যাম্পাস ছাড়া সব অস্থায়ী ক্যাম্পাস বা ভবন অবৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে।

গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তর ও ক্যাম্পাস নির্মাণের বিষয়ে দৃশ্যমান অগ্রগতি এবং লিখিত অঙ্গীকার বিবেচনায় ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ, গ্রিন ইউনিভার্সিটি, উত্তরা ইউনিভার্সিটি, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি এবং দ্য পিপলস ইউনিভার্সিটিকে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সম্পূর্ণ কার্যক্রম স্থানান্তরে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত সময় দিয়েছে ইউজিসি।

নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সম্পূর্ণ কার্যক্রম স্থানান্তরে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী ১ জুলাই থেকে সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণরুপে বন্ধ থাকবে। পাশাপাশি এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব স্থায়ী ক্যাম্পাস ছাড়া সব অস্থায়ী ক্যাম্পাস বা ভবন অবৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে।

ইউজিসি জানায়, সাময়িক সনদের মেয়াদ উত্তীর্ণ ও স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তরিত হয়নি এমন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে গত ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তরের জন্য গত বছরের ১১ এপ্রিল নির্দেশনা দিয়েছিল ইউজিসি। ওই নির্দেশনায় বলা হয়েছিল, ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তরে ব্যর্থ হলে ২০২৩ সালেল ১ জানুয়ারি থেকে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ থাকবে।

২০১০ সালের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুযায়ী, বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ১২ বছরের মধ্যে নিজস্ব স্থায়ী ক্যাম্পাসে সব কার্যক্রম স্থানান্তরের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। বর্তমানে ১০৮টির মতো বেসরকারি বিশ^বিদ্যালয় রয়েছে। এর প্রায় অর্ধেকই রাজধানী ঢাকায় কার্যক্রম চালাচ্ছে।

আইনের একটি ধারায় বলা হয়েছে, কোন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সাময়িক অনুমতিপত্রের মেয়াদের মধ্যে বা, ক্ষেত্রমত, নবায়নকরা সাময়িক অনুমতিপত্রের মেয়াদের মধ্যে সনদপত্রের জন্য আবেদন করতে ব্যর্থ হলে, অথবা সনদপত্র প্রাপ্তির জন্য ধারা ৯ এর কোনো শর্ত পূরণে ব্যর্থ হলে, এ সাময়িক অনুমতিপত্র বা, ক্ষেত্রমত, নবায়নকরা সাময়িক অনুমতিপত্রের মেয়াদ অবসানের সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও শিক্ষা সংক্রান্ত সব কার্যক্রম বন্ধ রাখতে হবে।

ছবি

কওমী মাদ্রাসাকে সরকারি বেতনের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি: সংসদে শিক্ষামন্ত্রী

আবেদনকারীদের মধ্যে ৮০ হাজার শিক্ষার্থী এখনও ভর্তির বাইরে

ছবি

পাঠ্যপুস্তকে ভুলের কারণ তদন্ত ও সংশোধনে দুই কমিটি

ছবি

ছুটির দিনেও ঢাবির সেমিনার লাইব্রেরি খোলা রাখার সিদ্ধান্ত

ছবি

ফের আন্দোলনে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলার শিক্ষার্থীরা

ঢাবি ও এর অধিভুক্ত কলেজের ১১৩ শিক্ষার্থী বহিস্কার

ছবি

এইচএসসির ফল ৮ ফেব্রুয়ারি

স্কুল পর্যায়ে পাঠ্যবই ছাপা এখনও শেষ হয়নি

ছবি

পাঠ্যবইয়ের অধিকাংশ ভুল ১০ বছর আগের: দীপু মনি

ছবি

শেখায়, পড়ায় ও মেলামেশায় অসুবিধায় পড়ছে শিক্ষার্থীরা: ইএবির গবেষণা

ছবি

বাংলাদেশি স্টুডেন্টস’ এসোসিয়েশন ইন কোরিয়া (বিএসএকে)’র শীতকালীন মিলনমেলা ২০২৩ অনুষ্ঠিত

ছবি

গবেষণায় চৌর্যবৃত্তি ঠেকাতে নীতিমালা প্রণয়ন ঢাবির

ছবি

পাঠ্যবই সংশোধন ও দায়িত্ব অবহেলায় শাস্তির দাবিতে ঢাবিতে বিক্ষোভ

ছবি

সারাদেশে এখনও পৌঁছেনি সব পাঠ্যবই

ছবি

ইসলামপুরে শ্রেণিকক্ষে তালা, অধ্যক্ষের অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন

ছবি

এইচএসসির ফল প্রকাশের সম্ভাব্য তারিখ

ছবি

নবম-দশমের ৩ বইয়ে ৯ ভুলের সংশোধনী দিল এনসিটিবি

ছবি

পাঠ্যবইয়ে হুবহু অনুবাদ: দায় স্বীকার করলেন জাফর ইকবাল ও হাসিনা খান

ছবি

পুলিশ- ছাত্রলীগের বাধায় পণ্ড শাহবাগের ‘লাল কার্ড’ সমাবেশ

ছবি

জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা বাতিল

ছবি

বন্ধ হয়ে গেল জেএসসি-জেডিসি বোর্ড পরীক্ষা, প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন

সখীপুরে শিক্ষার্থীদের নির্যাতনের অভিযোগে বদলি শিক্ষক ফের একই বিদ্যালয়ে যোগদান : শিক্ষা অফিসে অভিভাবকদের অভিযোগ

ছবি

ফের মাধ্যমিকে চালু হচ্ছে ‘মিড ডে মিল’

কাজে আসছে না প্রকল্পের আওতায় কেনা শত কোটি টাকার শিক্ষা উপকরণ

৬৪০ সাধারণ হাইস্কুলে ‘বৃত্তিমূলক শিক্ষা’, নেই পর্যাপ্ত শিক্ষক ও ইনস্ট্রাক্টর

ছবি

স্কুলের নতুন বইয়ে ভুল থাকলে জানাবেন: শিক্ষামন্ত্রী

ইবির অধীন ফাজিল পরীক্ষা ২৬ জানুয়ারি 

ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হলো ‘ট্রান্সজেন্ডার’ কোটা

ছবি

পৌঁছেনি সব বই,বিশৃঙ্খলার মুখোমুখি নতুন শিক্ষাক্রম

ছবি

ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় আবারও বড় পরিবর্তন

ছবি

কুবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ফলাফল জালিয়াতির অভিযোগ প্রমাণিত

ছবি

চবিতে ছাত্রলীগের দুই দফা সংঘর্ষ : কেন্দ্রীয় কমিটির শোকজ

একাদশে ভর্তি : ২০৪টি কলেজ কোন শিক্ষার্থী পাচ্ছে না

ছবি

শেখ হাসিনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়” আইন মন্ত্রীসভায় অনুমোদন

ছবি

একাদশে দ্বিতীয় ধাপের ভর্তি আবেদন শুরু

ছবি

দুই সপ্তাহের মধ্যে শিক্ষার্থীদের হাতে শতভাগ বই পৌঁছে যাবে: দীপু মনি

tab

শিক্ষা

চার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের নির্দেশ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৩

সাময়িক সনদের মেয়াদ শেষ হওয়া এবং নির্ধারিত সময়ের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম স্থানান্তরে ব্যর্থ হওয়ায় ১৮টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

এর মধ্যে চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি পুরোপুরি বন্ধ রাখা ও দুটি বিশ্ববিদ্যালয়কে অস্থায়ী ক্যাম্পাসে ভর্তি বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বাকি ১২টি বিশ্ববিদ্যালয়কে তিন থেকে ছয়মাস সময় দিয়েছে ইউজিসি।

আজ বৃহস্পতিবার জারি হওয়া ইউজিসির গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কমিশনের পত্রের প্রেক্ষিতে নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে সব কার্যক্রম স্থানান্তর ও ক্যাম্পাস নির্মাণে দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় দেশের চারটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি বন্ধ:

ইউজিসির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী- স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম স্থানান্তরিত না হওয়া পর্যন্ত প্রাইম এশিয়া ইউনিভার্সিটি, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি, আশা ইউনিভার্সিটি এবং ভিক্টোরিয়া ইউনিভার্সিটির সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণরুপে বন্ধ থাকবে।

স্টেট ইউনিভার্সিটি এবং মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস ব্যতীত অস্থায়ী ক্যাম্পাসে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সর্ম্পূণরুপে বন্ধ থাকবে। এ দুটি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসে পরিচালিত প্রোগ্রামসমূহ যথারীতি চালু থাকবে।

যাদের সময় দেয়া হয়েছে:

মঞ্জুরি কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী, স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তর ও ক্যাম্পাস নির্মাণের বিষয়ে দৃশ্যমান অগ্রগতি বিবেচনায় ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি, রয়েল ইউনিভার্সিটি, সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, দ্য মিলেনিয়াম ইউনিভার্সিটি ও বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটিকে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সম্পূর্ণ কার্যক্রম স্থানান্তরের জন্য আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে।

এ সময়সীমার মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে সব কার্যক্রম স্থানান্তরে ব্যর্থ হলে আগামী ১ এপ্রিল থেকে সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণরুপে বন্ধ থাকবে। পাশাপাশি এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব স্থায়ী ক্যাম্পাস ছাড়া সব অস্থায়ী ক্যাম্পাস বা ভবন অবৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে।

গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তর ও ক্যাম্পাস নির্মাণের বিষয়ে দৃশ্যমান অগ্রগতি এবং লিখিত অঙ্গীকার বিবেচনায় ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ, গ্রিন ইউনিভার্সিটি, উত্তরা ইউনিভার্সিটি, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি এবং দ্য পিপলস ইউনিভার্সিটিকে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সম্পূর্ণ কার্যক্রম স্থানান্তরে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত সময় দিয়েছে ইউজিসি।

নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রমসহ সম্পূর্ণ কার্যক্রম স্থানান্তরে ব্যর্থ হলে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী ১ জুলাই থেকে সব প্রোগ্রামে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি সম্পূর্ণরুপে বন্ধ থাকবে। পাশাপাশি এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব স্থায়ী ক্যাম্পাস ছাড়া সব অস্থায়ী ক্যাম্পাস বা ভবন অবৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে।

ইউজিসি জানায়, সাময়িক সনদের মেয়াদ উত্তীর্ণ ও স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তরিত হয়নি এমন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে গত ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তরের জন্য গত বছরের ১১ এপ্রিল নির্দেশনা দিয়েছিল ইউজিসি। ওই নির্দেশনায় বলা হয়েছিল, ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে স্থায়ী ক্যাম্পাসে স্থানান্তরে ব্যর্থ হলে ২০২৩ সালেল ১ জানুয়ারি থেকে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ থাকবে।

২০১০ সালের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুযায়ী, বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ১২ বছরের মধ্যে নিজস্ব স্থায়ী ক্যাম্পাসে সব কার্যক্রম স্থানান্তরের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। বর্তমানে ১০৮টির মতো বেসরকারি বিশ^বিদ্যালয় রয়েছে। এর প্রায় অর্ধেকই রাজধানী ঢাকায় কার্যক্রম চালাচ্ছে।

আইনের একটি ধারায় বলা হয়েছে, কোন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সাময়িক অনুমতিপত্রের মেয়াদের মধ্যে বা, ক্ষেত্রমত, নবায়নকরা সাময়িক অনুমতিপত্রের মেয়াদের মধ্যে সনদপত্রের জন্য আবেদন করতে ব্যর্থ হলে, অথবা সনদপত্র প্রাপ্তির জন্য ধারা ৯ এর কোনো শর্ত পূরণে ব্যর্থ হলে, এ সাময়িক অনুমতিপত্র বা, ক্ষেত্রমত, নবায়নকরা সাময়িক অনুমতিপত্রের মেয়াদ অবসানের সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও শিক্ষা সংক্রান্ত সব কার্যক্রম বন্ধ রাখতে হবে।

back to top