alt

শিক্ষা

মুখস্থ বিদ্যায় আগামীর ‘চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা’ সম্ভব নয়: শিক্ষামন্ত্রী

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : সোমবার, ২২ মে ২০২৩

মুখস্থ বিদ্যা দিয়ে আগামীর ‘চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা’ সম্ভব হবে না-মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

আজ সোমবার বিকেলে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে জাতীয় দিবসসমূহে বিভিন্ন সৃজনশীল কাজে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘যে শিক্ষার্থী যত বেশি সৃজনশীল ও মুক্তচিন্তা করবে সেই শিক্ষার্থী এসব বিষয়ে ততই দক্ষ হয়ে উঠবে। একজন শিক্ষার্থীর যোগাযোগ, সূক্ষ্ম চিন্তা ও সমস্যা সমাধানের দক্ষতা, অনেকের সঙ্গে কাজ করার দক্ষতা থাকতে হবে।’

শিক্ষা ‘রূপান্তর’ ঘটানোর জন্য সরকার নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন করছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন পদ্ধতি নতুন ভাবে করা হয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে সব শ্রেণিতে নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন করা হবে। নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে একজন শিক্ষার্থীকে পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা হবে।’

অনুষ্ঠানে শহরের শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার বাইরে কিছু করতে দেওয়া হয় না মন্তব্য করে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘বলা যায়, শহরের শিক্ষক-অভিভাবকরা শিক্ষার্থীদের মানসিক নির্যাতন করছেন। ভালো ফল করার চাপ দিয়ে তাদের জীবন বিপন্ন করে দেওয়া হচ্ছে।’

সৃজনশীল কাজে ঢাকার বাইরের শিক্ষার্থীরা যেভাবে জড়িত ঢাকা কিংবা চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীরা সেভাবে জড়িত নয় বলেও মনে করেন উপমন্ত্রী।

শমহিবুল হাসান চৌধুরী আরও বলেন, পৃথিবীর কোনো দেশেই ১৬ বছর বয়সের আগে কোনো শিক্ষার্থীকে মেধাবী শিক্ষার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয় না। অথচ বাংলাদেশে ১০ বছর বয়স হলেই একটি ছেলেকে মেধাবী শিক্ষার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

এই শিক্ষার্থীর যখন মেধা অর্জনের সময়, শিক্ষা গ্রহণের সময় তখন তাকে মেধাবী শিক্ষার্থীর তকমা দিয়ে নির্যাতনের মুখে ফেলে দেওয়া হয় মন্তব্য করে উপমন্ত্রী বলেন, শিক্ষায় ফলাফল নির্ভরতা থেকে বের না হলে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ ধরা যাবে না।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) অধ্যাপক শাহেদুল খবির চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাদ্রাসা ও কারিগরি বিভাগের সিনিয়র সচিব কামাল হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব সোলেমান খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সাময়িক বরখাস্ত:ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ গ্রেপ্তার

ছাত্রীদের যৌন হয়রানির অভিযোগে ভিকারুননিসার শিক্ষক মুরাদ সাময়িক বরখাস্ত

ছবি

বুধবার থেকে বান্দরবান সীমান্তের পাঁচটি প্রাথমিক বিদ্যালয় খুলে দেয়া হবে

ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে ৫ জন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীর পরীক্ষা বাতিল

ছবি

গুচ্ছে ভর্তির আবেদনের সময় বাড়লো একদিন

ছবি

ভিকারুননিসা শিক্ষক মুরাদের শাস্তি দাবি অবস্থান কর্মসূচি ও মানববন্ধন

শিক্ষা প্রকল্পে এডিপি বাস্তবায়ন হার মাত্র সাড়ে ১১ শতাংশ

গার্ল গাইডের শিক্ষা কার্যক্রম নারীর নেতৃত্ব বিকাশের ক্ষেত্র তৈরী : ফার্স্ট লেডী প্রধান অতিথি ড. রেবেকা সুলতানা

ছবি

যৌন নির্যাতন ও হয়রানির অভিযোগ আমলে নেওয়ার আহ্বান: ইউজিসি

ছবি

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ফল প্রকাশ, উত্তীর্ণ ২০ হাজার প্রার্থী

ছবি

দ্বিতীয় ধাপের প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফল প্রকাশ, উত্তীর্ণ ২০ হাজার ৬৪৭

ছবি

নতুন শিক্ষাক্রমে শিক্ষক প্রশিক্ষণের ব্যয় নিয়ে জটিলতা

ছবি

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা, ওএমআর শিট ছেড়ার অভিযোগ মিথ্যা: তদন্ত কমিটির মহাপরিচালক

ছবি

সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে ২০২৫ সালের এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে

ছবি

খুবির শিক্ষার্থীদের ‘মারধর’, প্রতিবাদে সড়কে বিক্ষোভ

ছবি

৪৬তম বিসিএস: পরীক্ষা হতে পারে এপ্রিলের শেষে

ছবি

পদোন্নতিতে বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে ‘বঞ্চনা ও অসন্তোষ’

ছবি

বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে ইইডি প্রধান প্রকৌশলীর শ্রদ্ধা

ছবি

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার প্রথম দিনই অনুপস্থিত ১৯ হাজার ৩৫৯ জন শিক্ষার্থী

ছবি

এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য ডিএমপির কুইক রেসপন্স টিম

ছবি

ইইডির প্রধান প্রকৌশলীর মেয়াদ ২ বছর বাড়ল

ছবি

মায়ানমারে সংঘর্ষের কারণে ঘুমধুমের এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র পরিবর্তন

ছবি

রাবিতে ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ ও শিক্ষকের বিচার চেয়ে বিক্ষোভ

নতুন শিক্ষাক্রম মূল্যায়ন কমিটির প্রধানই তদন্তের আওতায়

ছবি

মেডিকেলে ভর্তির ফল প্রকাশ হতে পারে কাল বা পরশু

ছবি

প্রশ্ন ফাঁস বন্ধের লক্ষ্যে এমবিবিএস ভর্তি প্রক্রিয়া ডিজিটালাইজ করা হয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ডাক্তার হতে চাওয়া লাখো শিক্ষার্থী পরীক্ষায় বসেছেন

নতুন শিক্ষাক্রমে এসএসসি পরীক্ষা কীভাবে হবে সেই বিষয়ে উদ্বেগ

ছবি

চলতি শিক্ষাবর্ষের ছুটির তালিকায় রোজায় চলবে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলের ক্লাস

ছবি

‘দ্বন্ধ-সংঘাতমুক্ত’ সমাজ নির্মাণে শিক্ষকদের ভূমিকা অনস্বীকার্য

ছবি

জাবিতে ধর্ষণকাণ্ডে জড়িতদের শাস্তি চেয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ, মিছিল

ছবি

চবিতে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ, শিক্ষকের বহিষ্কার দাবিতে আন্দোলন

ছবি

রাবিতে ধর্ষণবিরোধী বিক্ষোভ-মিছিলে ছাত্রলীগের বাধা

ছবি

এসএসসি পরীক্ষায় কেন্দ্র পরিদর্শনে যাবেন না শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

ধর্ষণের ঘটনায় বিক্ষোভে উত্তাল জাবি

ছবি

উপবৃত্তি, প্রতিষ্ঠান ও প্রকল্প দ্রুত বাড়লেও শিক্ষার্থী এনরোলমেন্টে ধীরগতি

tab

শিক্ষা

মুখস্থ বিদ্যায় আগামীর ‘চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা’ সম্ভব নয়: শিক্ষামন্ত্রী

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

সোমবার, ২২ মে ২০২৩

মুখস্থ বিদ্যা দিয়ে আগামীর ‘চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা’ সম্ভব হবে না-মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

আজ সোমবার বিকেলে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে জাতীয় দিবসসমূহে বিভিন্ন সৃজনশীল কাজে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘যে শিক্ষার্থী যত বেশি সৃজনশীল ও মুক্তচিন্তা করবে সেই শিক্ষার্থী এসব বিষয়ে ততই দক্ষ হয়ে উঠবে। একজন শিক্ষার্থীর যোগাযোগ, সূক্ষ্ম চিন্তা ও সমস্যা সমাধানের দক্ষতা, অনেকের সঙ্গে কাজ করার দক্ষতা থাকতে হবে।’

শিক্ষা ‘রূপান্তর’ ঘটানোর জন্য সরকার নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন করছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন পদ্ধতি নতুন ভাবে করা হয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে সব শ্রেণিতে নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন করা হবে। নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে একজন শিক্ষার্থীকে পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা হবে।’

অনুষ্ঠানে শহরের শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার বাইরে কিছু করতে দেওয়া হয় না মন্তব্য করে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘বলা যায়, শহরের শিক্ষক-অভিভাবকরা শিক্ষার্থীদের মানসিক নির্যাতন করছেন। ভালো ফল করার চাপ দিয়ে তাদের জীবন বিপন্ন করে দেওয়া হচ্ছে।’

সৃজনশীল কাজে ঢাকার বাইরের শিক্ষার্থীরা যেভাবে জড়িত ঢাকা কিংবা চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীরা সেভাবে জড়িত নয় বলেও মনে করেন উপমন্ত্রী।

শমহিবুল হাসান চৌধুরী আরও বলেন, পৃথিবীর কোনো দেশেই ১৬ বছর বয়সের আগে কোনো শিক্ষার্থীকে মেধাবী শিক্ষার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয় না। অথচ বাংলাদেশে ১০ বছর বয়স হলেই একটি ছেলেকে মেধাবী শিক্ষার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

এই শিক্ষার্থীর যখন মেধা অর্জনের সময়, শিক্ষা গ্রহণের সময় তখন তাকে মেধাবী শিক্ষার্থীর তকমা দিয়ে নির্যাতনের মুখে ফেলে দেওয়া হয় মন্তব্য করে উপমন্ত্রী বলেন, শিক্ষায় ফলাফল নির্ভরতা থেকে বের না হলে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ ধরা যাবে না।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) অধ্যাপক শাহেদুল খবির চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাদ্রাসা ও কারিগরি বিভাগের সিনিয়র সচিব কামাল হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব সোলেমান খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

back to top