alt

আন্তর্জাতিক

হাতিয়ায় দুই জলদস্যু বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি, নিহত ৩

প্রতিনিধি, নোয়াখালী : শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় দুই জলদস্যু বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড। এ সময় অস্ত্রসহ পাঁচ ডাকাতকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দিনব্যাপী উপজেলার বিচ্ছিন্ন ঘাসিয়ার চরে এ অভিযানের ঘটনা ঘটে।

আটকরা হলেন, লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চর আবদুল্লাহ গ্রামের ইসাইলের ছেলে আজিম (৩০), আবদুর রশিদের ছেলে মো. হারুন (৩৭), চর গজারিয়া গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে লিটন (৩৫), কমলনগর উপজেলার চর কালকিনি গ্রামের আবদুল আলীর ছেলে মোশাররফ (৩৭) ও নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চর গজারিয়া গ্রামের মুরাদের ছেলে মো. হিনজু (৩৭)।

নিহতরা হলেন- ফখরুল বাহিনীর সদস্য মো. কবির, মো. শাহরাজ ও নবীর উদ্দীন ওরফে নূরনবী। তাদের সবার বাড়ি ঘাসিয়ার চরে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমির হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল থেকে মরদেহগুলো উদ্ধারের পর রাতে ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। এর আগে ভোররাত থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত জলদস্যু ফোকরা ও ফখরুল বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

কোস্টগার্ডের হাতিয়া স্টেশনের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কে এম শাফিউল কিঞ্জল বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ঘাসিয়ার চরে আধিপত্য বিস্তার করে আসছে জলদস্যু খোকনের বাহিনী। কিছু দিন আগে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে ধরা পড়ে খোকন। তখন চরের নিয়ন্ত্রণ চলে যায় আরেক জলদস্যু ফখরুল ইসলামের হাতে। সম্প্রতি খোকন জামিনে বেরিয়ে পুনরায় চরের নিয়ন্ত্রণ নিতে চাইলে ফখরুলের লোকজনের সঙ্গে বিরোধ দেখা দেয়। ওই বিরোধের জেরে ভোররাতের দিকে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় ফখরুল বাহিনীর তিন সদস্য নিহত হন। আরও কয়েকজন আহত হন। তাদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। খবর পেয়ে কোস্টগার্ড ও পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে জলদস্যু খোকন বাহিনীর পাঁচ সদস্যকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করে। তাদের কাছ থেকে তিনটি একনলা বন্দুক, দুটি গুলিসহ বেশ কিছু ধারালো অস্ত্র ও রড উদ্ধার করা হয়।

তিনি বলেন, আটকদের প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান শেষে জব্দ করা অস্ত্রসহ হাতিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। সেখান থেকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। উপকূল নিরাপদ রাখতে ডাকাতদের বিরুদ্ধে কোস্টগার্ডের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

ছবি

রুশ হামলায় ১৩ হাজার ইউক্রেনীয় সেনা নিহত

ছবি

দক্ষিণ কোরিয়ার আকাশসীমায় চীন-রাশিয়ার যুদ্ধবিমান

ছবি

অশ্লীল ভিডিও কলে ফাঁসিয়ে ব্ল্যাকমেইল করা হচ্ছে যেভাবে

ছবি

সর্বজনীন ঐক্যের ভাবনার প্রসার ঘটাবে ভারতের জি২০ প্রেসিডেন্সি

ছবি

চীনের দুই শহরে কোভিডবিধি শিথিল

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে ওয়ালমার্টের বিরুদ্ধে ৫ কোটি ডলারের ক্ষতিপূরণ মামলা

ছবি

আফগানিস্তানে মাদ্রাসায় বোমা হামলায় নিহত ১৭

ছবি

পাকিস্তানে কয়লাখনিতে বিস্ফোরণ, নিহত ৯

ছবি

লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভের পর চীনে বিধি-নিষেধ শিথিল

ছবি

ভারতে মোদি-অমিত শাহর গুজরাটে বিধানসভা নির্বাচন আজ

ছবি

চীনের সাবেক নেতা জিয়াং জেমিন আর নেই

ছবি

অস্ট্রেলিয়ায় গোপনে পাঁচ মন্ত্রী দায়িত্ব নেন মরিসন

ছবি

পাকিস্তানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় পুলিশসহ নিহত ৩

ছবি

চীনের গুয়াংজু শহরে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

ছবি

চীনে বিক্ষোভকারীদের হাতে কেন ‘সাদা কাগজ’

ছবি

ভারতে কারখানায় আগুন, শিশুসহ নিহত ৬

ছবি

৪০০ পারমাণবিক ওয়ারহেডের মালিক চীন

ছবি

বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৮৪৮ জনের মৃত্যু

ছবি

নিজেদের তিয়ানগং মহাকাশ স্টেশনে পৌঁছালেন চীনের ৩ নভোচারী

পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে ২ ফিলিস্তিনি নিহত

ছবি

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ন্যাসাল ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিলো ভারত

ছবি

শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ দমন থেকে বিরত থাকতে চীনকে আহ্বান জাতিসংঘের

ছবি

দিল্লিতে খোলা তলোয়ার নিয়ে পুলিশের ভ্যানে হামলা

ছবি

শীতকে যুদ্ধের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে রাশিয়া : ন্যাটো

ছবি

ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বিশ্বকে আহ্বান খামেনির ভাগনির

ছবি

চীন-যুক্তরাজ্য সম্পর্কের সোনালি যুগ শেষ: ঋষি

ছবি

বিশ্বে করোনায় আরও ৫০৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২ লাখ ৭২ হাজার

ছবি

মশার কামড়ে ৪ সপ্তাহ কোমায়, করতে হয়েছে ৩০টি অপারেশন

ছবি

বিশ্বের সবচেয়ে বড় আগ্নেয়গিরির উদগীরণ শুরু, হাওয়াইতে সতর্কতা

ভারতে মুসলিম শিক্ষার্থীকে সন্ত্রাসী বলায় শিক্ষক বরখাস্ত

ছবি

এবার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের জেরে স্বামীকে হত্যার পর ২২ টুকরো

ছবি

পারমাণবিক অস্ত্রে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিধর হতে চায় উত্তর কোরিয়া

ছবি

সার্ব ও আলবেনিয়া সরকারের মধ্যে ফের উত্তেজনা কেন?

ছবি

খামেনির ভাগ্নিকে গ্রেপ্তার

ছবি

চীনে বিক্ষোভ বাড়ছেই, সাংহাইতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ

ছবি

বিশ্বজুড়ে করোনায় কমেছে শনাক্ত-মৃত্যু

tab

আন্তর্জাতিক

হাতিয়ায় দুই জলদস্যু বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি, নিহত ৩

প্রতিনিধি, নোয়াখালী

শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় দুই জলদস্যু বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলির ঘটনায় তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে কোস্টগার্ড। এ সময় অস্ত্রসহ পাঁচ ডাকাতকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দিনব্যাপী উপজেলার বিচ্ছিন্ন ঘাসিয়ার চরে এ অভিযানের ঘটনা ঘটে।

আটকরা হলেন, লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চর আবদুল্লাহ গ্রামের ইসাইলের ছেলে আজিম (৩০), আবদুর রশিদের ছেলে মো. হারুন (৩৭), চর গজারিয়া গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে লিটন (৩৫), কমলনগর উপজেলার চর কালকিনি গ্রামের আবদুল আলীর ছেলে মোশাররফ (৩৭) ও নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চর গজারিয়া গ্রামের মুরাদের ছেলে মো. হিনজু (৩৭)।

নিহতরা হলেন- ফখরুল বাহিনীর সদস্য মো. কবির, মো. শাহরাজ ও নবীর উদ্দীন ওরফে নূরনবী। তাদের সবার বাড়ি ঘাসিয়ার চরে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমির হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল থেকে মরদেহগুলো উদ্ধারের পর রাতে ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। এর আগে ভোররাত থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত জলদস্যু ফোকরা ও ফখরুল বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

কোস্টগার্ডের হাতিয়া স্টেশনের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কে এম শাফিউল কিঞ্জল বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ঘাসিয়ার চরে আধিপত্য বিস্তার করে আসছে জলদস্যু খোকনের বাহিনী। কিছু দিন আগে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে ধরা পড়ে খোকন। তখন চরের নিয়ন্ত্রণ চলে যায় আরেক জলদস্যু ফখরুল ইসলামের হাতে। সম্প্রতি খোকন জামিনে বেরিয়ে পুনরায় চরের নিয়ন্ত্রণ নিতে চাইলে ফখরুলের লোকজনের সঙ্গে বিরোধ দেখা দেয়। ওই বিরোধের জেরে ভোররাতের দিকে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় ফখরুল বাহিনীর তিন সদস্য নিহত হন। আরও কয়েকজন আহত হন। তাদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। খবর পেয়ে কোস্টগার্ড ও পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে জলদস্যু খোকন বাহিনীর পাঁচ সদস্যকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার করে। তাদের কাছ থেকে তিনটি একনলা বন্দুক, দুটি গুলিসহ বেশ কিছু ধারালো অস্ত্র ও রড উদ্ধার করা হয়।

তিনি বলেন, আটকদের প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান শেষে জব্দ করা অস্ত্রসহ হাতিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। সেখান থেকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। উপকূল নিরাপদ রাখতে ডাকাতদের বিরুদ্ধে কোস্টগার্ডের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

back to top