alt

প্রযুক্তি

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১ এর বিজয়ী হিসেবে “ওপেনরিফ্যাক্টরি” পেল ১ লক্ষ ইউএস ডলারের অনুদান

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : শনিবার, ৩০ অক্টোবর ২০২১

তরুণ উদ্যোক্তা অর্থাৎ স্টার্টআপদের অনুপ্রাণিত করতে বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের অধীনে “উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমী প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প (iDEA)” আয়োজন করে “বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১”। এই আয়োজনের অন্যতম লক্ষ্য হল তরুণ উদ্যোক্তা অর্থাৎ স্টার্টআপদের উদ্ভাবনী ধারণাকে উৎসাহিত করে দেশে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম গড়ে তোলা। আন্তর্জাতিক এই আয়োজনে ১৪২টি দেশে ক্যাম্পেইন শেষে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৫৭টি দেশ থেকে প্রাথমিক পর্যায়ে ৭ হাজারের অধিক স্টার্টআপ ও উদ্ভাবক এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করে। মুজিববর্ষে স্টার্টআপদের জন্য আইসিটি বিভাগের সবচেয়ে বড় উপহার হিসেবে সেরাদের সেরা একটি স্টার্টআপ “ওপেনরিফ্যাক্টরি” ওয়ান বিগ উইনার ২০২১ হিসেবে পেল ১ লক্ষ ইউএস ডলার অনুদান। এছাড়া, দেশিয় স্টার্টআপদের নিয়ে অনুষ্ঠিত রিয়েলিটি শো এর থেকে নির্বাচিত ২৬টি এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সেরা ১০টি স্টার্টআপ অর্থাৎ দেশি-বিদেশি নির্বাচিত মোট ৩৬টি স্টার্টআপের প্রত্যেকেই পাচ্ছে ১০ লক্ষ টাকা করে মোট ৩ কোটি ৬০ লক্ষ টাকার অনুদান।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষে এই বিশেষ আয়োজনের গ্র্যান্ড ফিনালে রাজধানী ঢাকার আগারগাঁও এ অবস্থিত বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মাল্টিপারপাস অডিটরিয়ামে ৩০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় তিন ঘণ্টার অ্যাওয়ার্ড বিতরনী অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে শেষ হয় “বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১” এর এবারের আসর।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এবং সভাপতিত্ব করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) এর নির্বাহী পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব ড. মোঃ আব্দুল মান্নান । অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক ও যু্গ্মসচিব মো: আব্দুর রাকিব।

অনলাইনে যুক্ত হয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, তরুণ উদ্ভাবকদের সহায়তায় চলতি বাজেটে সরকার ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছে। আজকের তরুণ উদ্ভাবকরাই দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তিনি বলেন, অর্থ কোনো সমস্যা নয়। সমস্যাকে সম্ভবনা হিসেবে রূাপান্তরিত করেই আমরা সঠিক দিক নির্দেশনায় এগিয়ে যাবো। অর্থমন্ত্রী বলেন যে, বাংলাদেশে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম এর যাত্রা শুরু হয় ২০১০ সাল থেকে। বর্তমানে বাংলাদেশে ২৫০০ টির বেশি স্টার্টআপ কাজ করছে এবং আমাদের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখছে। দেশে বর্তমানে ৪০ টিরও বেশি এক্সেলেরেটর এবং ইনকিউবেটর প্রোগ্রাম তাদের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। ইতোমধ্যে বেশ কিছু স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান দেশে প্রচুর বিনিয়োগ নিয়ে এসেছে যা আমাদের জন্য গর্বের বিষয়।” তিনি আরো বলেন, স্টার্টআপদের মাধ্যমে ১৫ লক্ষের বেশি মানুষের প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষভাবে কর্মসংস্থান এর সুযোগ তৈরি হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই তারুণ্যের উদ্ভাবনী শক্তিকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ ২০৪১ সালের মধ্যেই একটি উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্ব দরবারে আবির্ভূত হবে বলে তিনি আশাব্যাক্ত করেন। তিনি বলেন, বিগ ২০২১ আয়োজন হল এমন একটি উদ্যোগ যা স্টার্টআপ সংস্কৃতি গঠন ও উন্নয়নের বর্তমান সরকারের অঙ্গীকারের একটি সুস্পষ্ট প্রতিফলন।

সভাপতির বক্তব্যে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক বলেন, ইনোভেশন ইকোসিস্টেম গড়ে তোলার মাধ্যমে উদ্ভাবনী জাতি গঠন করার লক্ষ্যে অল্পদিনের মধ্যেই একটি স্টার্টআপ পলিসি প্রণয়ন করা হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আইসিটি খাতের বিভিন্ন নীতি-সহায়তার ফলে বর্তমানে আইসিটি খাতের রপ্তানি আয় ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি। আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে এ খাতে রপ্তানি আয় ৫ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করা এবং ৩০ লক্ষ লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে আমরা কাজ করছি। প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে অন্তর্ভূক্তমূলক উন্নয়নের ফলে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে ৩২ অবস্থানে। এভাবেই ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবো প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি। এজন্য উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরামর্শ অনুযায়ী নিজস্ব প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে এই লক্ষ্য অর্জিত হবে। ইতোমধ্যেই দেশে ২৫০০ উদ্ভাবক তৈরি হয়েছে। তাদের ক্ষমতায়নের জন্য আইসিটি বিভাগ থেকে সার্বিক সহায়তা করা হবে। সবশেষে, প্রতি বছরই “বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১” প্রতিযোগিতা হবে বলে ঘোষণা দেন পলক।

“বিগ-২০২১” প্রতিযোগিতায় প্রাথমিক পর্যায়ে দেশ-বিদেশ থেকে ৭,০০০- এরও বেশি স্টার্টআপ আবেদন করে যেখান থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ৫৬টি দেশ থেকে মোট ২৫৫টি প্রকল্প গৃহিত হয়। সেখান থেকে দুই দফায় বাছাই শেষে নির্বাচন করা হয় সেরা ১০টি আন্তর্জাতিক পর্যায়ের স্টার্টআপ, যারা সরাসরি অংশ নেয় গ্র্যান্ড ফিনালেতে। অপরদিকে, দেশিয় পর্যায়ে স্টার্টআপ বাছাই হয় প্রাথমিকভাবে দুই দফায়। প্রথম পর্যায়ে ২৮ জন বিচারক ৫টি স্ক্রিনিং বোর্ডের মাধ্যমে বাছাই করেন ২৮৬টি দেশীয় স্টার্টআপ। সরকারি-বেসরকারি ৩৫ জন অভিজ্ঞ বিচারক ৬টি প্যানেলে বিভক্ত হয়ে এই স্টার্টআপগুলো থেকে বেছে নেন সেরা ৬৫টি স্টার্টআপ, যারা ৬ দিনব্যাপী অনলাইন বুট ক্যাম্পে অংশ নেওয়ার সুযোগ পায়। বুট ক্যাম্পে গ্রুমিং শেষে এই ৬৫টি স্টার্টআপ নিয়েই শুরু হয় ১৩ পর্বের টিভি রিয়েলিটি শো। এপর্বে প্রতিযোগীরা মুখোমুখি হন দেশের প্রতিষ্ঠিত বিজনেস আইকনদের যারা বিচারক হিসেবে উপস্থিত থেকে বাছাইকৃত ৬৫ স্টার্টআপ থেকে ২৬টি স্টার্টআপ নির্বাচন করেন। রিয়েলিটি শো থেকে নির্বাচিত ২৬ টি দেশিয় স্টার্টআপ, আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সেরা ১০টি স্টার্টআপ এবং আইডিয়া প্রকল্পের পোর্টফোলিও স্টার্টআপের সেরা ১০টি সহ মোট ৪৬টি স্টার্টআপকে নিয়ে হয় “বিগ ২০২১” এর চূড়ান্ত বাছাইপ্রক্রিয়া।

৩ টি বিচারক প্যানেলের মাধ্যমে স্টার্টআপদের কনসেপ্ট, ফিজিবিলিটি, বিজনেস, টেকনোলজি, ফাইন্যান্স, ইমপ্লিমেনটেশন প্ল্যানসহ নানা বিষয়ের উপর গুরুত্ব রেখে চূড়ান্ত বাছাই কার্যক্রম সম্পন্ন হয়। বিচারকদের চূড়ান্ত বাছাই শেষে সেরাদের সেরা হিসেবে “ওপেনরিফ্যাক্টরি” - কে বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট এর “ওয়ান বিগ উইনার ২০২১” হিসেবে ১ লক্ষ মার্কিন ডলার অনুদান প্রদানের জন্য বিজয়ী হিসেবে নাম ঘোষণা করা হয়। সবশেষে, বিজয়ী “ওয়ান বিগ উইনার ২০২১” সহ অন্যান্য বিজয়ী স্টার্টআপদের সম্মাননা প্রদানসহ তাদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে ছিল সম্প্রতি লন্ডনের বিখ্যাত “অ্যাবি রোড স্টুডিও” এ ধারণকৃত বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ে ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’ এর অন্যতম উদ্যোক্তা পণ্ডিত শ্রী রবিশঙ্করের কন্যা আনুষ্কা শঙ্করের একটি বিশেষ পরিবেশনা। এছাড়াও বাংলাদেশের জনপ্রিয় একটি ব্যান্ড দল “ক্রিপটিক ফেইট” এর

মিউজিক্যাল পরিবেশনাসহ নানা আয়োজন।

ছবি

আইসিটি বিভাগের ২০২১-২২ অর্থবছরের এডিপি পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ছবি

ভ্রমণ নিরাপদ করতে উবারে নতুন ফিচার যুক্ত

ছবি

একাধিক মান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ অপো এ৯৫

ছবি

টুইটারের নতুন সিইও পরাগের বেতন কত

ছবি

ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস ২০২১ অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতা শুরু

ছবি

প্রাইভেসি নিয়ে ফেসবুকে ছড়ানো বার্তাটি মিথ্যা

ছবি

আইসিটি বিভাগের আইডিয়া প্রকল্প এবং ইউজিসি এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত

ছবি

এন্ট্রপ্রেনিয়র সাপ্লাইচেইন তৈরি করতে অভিভাবক পোর্টাল করা হবে: পলক

ছবি

গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন ব্যারিস্টার ওলোরা

ছবি

আগামী জানুয়ারিতে ইন্টার-অপারেবল ডিজিটাল ট্রানজেকশন

ছবি

বায়োমেট্রিক ওয়ার্কার ডেটাবেজ এর জন্য ‘উইটসা গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড’ পেল বিজিএমইএ

ছবি

মার্ক জাকারবার্গকে লিগ্যাল নোটিশ

ছবি

পরিবর্তন হচ্ছে নারায়ণগঞ্জে ৬ হাজার টেলিফোন নম্বর

ছবি

তথ্যপ্রযুক্তির বিশ্ব সম্মেলন ডব্লিউসিআইটি২০২১ শেষ হলো

ছবি

আইটি পার্ক, উজবেকিস্তান ও বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত

ছবি

অ্যাসোসিও লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন সজীব ওয়াজেদ জয়

ছবি

বাংলাদেশ চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বিশ্বকে নেতৃত্ব দিবে: সজীব ওয়াজেদ জয়

ছবি

অ্যাসোসিও লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন সজীব ওয়াজেদ জয়

ছবি

বাংলাদেশ চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বিশ্বকে নেতৃত্ব দিবে: জয়

ছবি

তথ্যপ্রযুক্তির বিশ্ব সম্মেলন ডব্লিউসিআইটি২০২১ এর বর্ণাঢ্য উদ্বোধন

ছবি

১১/১১ উপলক্ষে টেন মিনিট ‘স্কুল স্কিলস’ এর আয়োজন

ছবি

১১-১৪ নভেম্বর ঢাকায় চলবে প্রযুক্তি খাতের বিশ্ব সম্মেলন “ডব্লিউসিআইটি ২০২১”

ছবি

আগামীকাল থেকে ঢাকায় শুরু প্রযুক্তি খাতের বিশ্ব সম্মেলন “ডব্লিউসিআইটি ২০২১”

ছবি

ডেটা ছাড়াই ব্যবহার করা যাবে ফেইসবুক-মেসেঞ্জার

ছবি

গ্রাহকদের জন্য টেক্সট-ওনলি ফেসবুক ও ডিসকভার চালু করেছে গ্রামীণফোন

ছবি

ডিজিটাল কমার্সে আস্থা ও প্রবৃদ্ধির জন্য ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে: ইক্যাব

ছবি

ইন্টারনেট ছাড়াই ব্যবহার করা যাবে ফেসবুক-মেসেঞ্জার

ছবি

বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির উদ্যোগে ওয়ার্ল্ড সায়েন্স ডে উদযাপন

ছবি

উইন্ডোজ ১১ এখন বাংলাদেশে

ছবি

আইডিবি ভবনে ইনপেইসের ফ্ল্যাগশিপ রিটেইল আউটলেট চালু

ছবি

‘সেট টপ বক্স’ ছাড়া দুই শহরে ক্যাবল টিভি দেখা যাবে না

ছবি

সিরাজগঞ্জ ও উল্লাপাড়ায় ২ হাজার টেলিফোন নম্বর পরিবর্তন করা হচ্ছে

ছবি

ফ্রি হেলথ ক্যাশব্যাকে ১০ কোটি টাকারও বেশি সহায়তা দিল ডিজিটাল হসপিটাল

ছবি

ঐক্য এসএমই ডিজিটাল ইন্সটিটিউট এর উদ্বোধন

ছবি

দেশে বড় ধরনের সাইবার হামলার শঙ্কা

ছবি

তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শহর ও গ্রামের ব্যবধান কমে আসছে: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

tab

প্রযুক্তি

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১ এর বিজয়ী হিসেবে “ওপেনরিফ্যাক্টরি” পেল ১ লক্ষ ইউএস ডলারের অনুদান

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

শনিবার, ৩০ অক্টোবর ২০২১

তরুণ উদ্যোক্তা অর্থাৎ স্টার্টআপদের অনুপ্রাণিত করতে বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের অধীনে “উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমী প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প (iDEA)” আয়োজন করে “বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১”। এই আয়োজনের অন্যতম লক্ষ্য হল তরুণ উদ্যোক্তা অর্থাৎ স্টার্টআপদের উদ্ভাবনী ধারণাকে উৎসাহিত করে দেশে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম গড়ে তোলা। আন্তর্জাতিক এই আয়োজনে ১৪২টি দেশে ক্যাম্পেইন শেষে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৫৭টি দেশ থেকে প্রাথমিক পর্যায়ে ৭ হাজারের অধিক স্টার্টআপ ও উদ্ভাবক এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করে। মুজিববর্ষে স্টার্টআপদের জন্য আইসিটি বিভাগের সবচেয়ে বড় উপহার হিসেবে সেরাদের সেরা একটি স্টার্টআপ “ওপেনরিফ্যাক্টরি” ওয়ান বিগ উইনার ২০২১ হিসেবে পেল ১ লক্ষ ইউএস ডলার অনুদান। এছাড়া, দেশিয় স্টার্টআপদের নিয়ে অনুষ্ঠিত রিয়েলিটি শো এর থেকে নির্বাচিত ২৬টি এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সেরা ১০টি স্টার্টআপ অর্থাৎ দেশি-বিদেশি নির্বাচিত মোট ৩৬টি স্টার্টআপের প্রত্যেকেই পাচ্ছে ১০ লক্ষ টাকা করে মোট ৩ কোটি ৬০ লক্ষ টাকার অনুদান।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষে এই বিশেষ আয়োজনের গ্র্যান্ড ফিনালে রাজধানী ঢাকার আগারগাঁও এ অবস্থিত বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মাল্টিপারপাস অডিটরিয়ামে ৩০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় তিন ঘণ্টার অ্যাওয়ার্ড বিতরনী অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে শেষ হয় “বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১” এর এবারের আসর।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এবং সভাপতিত্ব করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) এর নির্বাহী পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব ড. মোঃ আব্দুল মান্নান । অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইডিয়া প্রকল্পের পরিচালক ও যু্গ্মসচিব মো: আব্দুর রাকিব।

অনলাইনে যুক্ত হয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, তরুণ উদ্ভাবকদের সহায়তায় চলতি বাজেটে সরকার ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছে। আজকের তরুণ উদ্ভাবকরাই দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। তিনি বলেন, অর্থ কোনো সমস্যা নয়। সমস্যাকে সম্ভবনা হিসেবে রূাপান্তরিত করেই আমরা সঠিক দিক নির্দেশনায় এগিয়ে যাবো। অর্থমন্ত্রী বলেন যে, বাংলাদেশে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম এর যাত্রা শুরু হয় ২০১০ সাল থেকে। বর্তমানে বাংলাদেশে ২৫০০ টির বেশি স্টার্টআপ কাজ করছে এবং আমাদের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখছে। দেশে বর্তমানে ৪০ টিরও বেশি এক্সেলেরেটর এবং ইনকিউবেটর প্রোগ্রাম তাদের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। ইতোমধ্যে বেশ কিছু স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান দেশে প্রচুর বিনিয়োগ নিয়ে এসেছে যা আমাদের জন্য গর্বের বিষয়।” তিনি আরো বলেন, স্টার্টআপদের মাধ্যমে ১৫ লক্ষের বেশি মানুষের প্রত্যক্ষ কিংবা পরোক্ষভাবে কর্মসংস্থান এর সুযোগ তৈরি হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরেই তারুণ্যের উদ্ভাবনী শক্তিকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ ২০৪১ সালের মধ্যেই একটি উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্ব দরবারে আবির্ভূত হবে বলে তিনি আশাব্যাক্ত করেন। তিনি বলেন, বিগ ২০২১ আয়োজন হল এমন একটি উদ্যোগ যা স্টার্টআপ সংস্কৃতি গঠন ও উন্নয়নের বর্তমান সরকারের অঙ্গীকারের একটি সুস্পষ্ট প্রতিফলন।

সভাপতির বক্তব্যে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক বলেন, ইনোভেশন ইকোসিস্টেম গড়ে তোলার মাধ্যমে উদ্ভাবনী জাতি গঠন করার লক্ষ্যে অল্পদিনের মধ্যেই একটি স্টার্টআপ পলিসি প্রণয়ন করা হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আইসিটি খাতের বিভিন্ন নীতি-সহায়তার ফলে বর্তমানে আইসিটি খাতের রপ্তানি আয় ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি। আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে এ খাতে রপ্তানি আয় ৫ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করা এবং ৩০ লক্ষ লোকের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে আমরা কাজ করছি। প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে অন্তর্ভূক্তমূলক উন্নয়নের ফলে বাংলাদেশ এখন বিশ্বে ৩২ অবস্থানে। এভাবেই ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবো প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি। এজন্য উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরামর্শ অনুযায়ী নিজস্ব প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে এই লক্ষ্য অর্জিত হবে। ইতোমধ্যেই দেশে ২৫০০ উদ্ভাবক তৈরি হয়েছে। তাদের ক্ষমতায়নের জন্য আইসিটি বিভাগ থেকে সার্বিক সহায়তা করা হবে। সবশেষে, প্রতি বছরই “বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১” প্রতিযোগিতা হবে বলে ঘোষণা দেন পলক।

“বিগ-২০২১” প্রতিযোগিতায় প্রাথমিক পর্যায়ে দেশ-বিদেশ থেকে ৭,০০০- এরও বেশি স্টার্টআপ আবেদন করে যেখান থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ৫৬টি দেশ থেকে মোট ২৫৫টি প্রকল্প গৃহিত হয়। সেখান থেকে দুই দফায় বাছাই শেষে নির্বাচন করা হয় সেরা ১০টি আন্তর্জাতিক পর্যায়ের স্টার্টআপ, যারা সরাসরি অংশ নেয় গ্র্যান্ড ফিনালেতে। অপরদিকে, দেশিয় পর্যায়ে স্টার্টআপ বাছাই হয় প্রাথমিকভাবে দুই দফায়। প্রথম পর্যায়ে ২৮ জন বিচারক ৫টি স্ক্রিনিং বোর্ডের মাধ্যমে বাছাই করেন ২৮৬টি দেশীয় স্টার্টআপ। সরকারি-বেসরকারি ৩৫ জন অভিজ্ঞ বিচারক ৬টি প্যানেলে বিভক্ত হয়ে এই স্টার্টআপগুলো থেকে বেছে নেন সেরা ৬৫টি স্টার্টআপ, যারা ৬ দিনব্যাপী অনলাইন বুট ক্যাম্পে অংশ নেওয়ার সুযোগ পায়। বুট ক্যাম্পে গ্রুমিং শেষে এই ৬৫টি স্টার্টআপ নিয়েই শুরু হয় ১৩ পর্বের টিভি রিয়েলিটি শো। এপর্বে প্রতিযোগীরা মুখোমুখি হন দেশের প্রতিষ্ঠিত বিজনেস আইকনদের যারা বিচারক হিসেবে উপস্থিত থেকে বাছাইকৃত ৬৫ স্টার্টআপ থেকে ২৬টি স্টার্টআপ নির্বাচন করেন। রিয়েলিটি শো থেকে নির্বাচিত ২৬ টি দেশিয় স্টার্টআপ, আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সেরা ১০টি স্টার্টআপ এবং আইডিয়া প্রকল্পের পোর্টফোলিও স্টার্টআপের সেরা ১০টি সহ মোট ৪৬টি স্টার্টআপকে নিয়ে হয় “বিগ ২০২১” এর চূড়ান্ত বাছাইপ্রক্রিয়া।

৩ টি বিচারক প্যানেলের মাধ্যমে স্টার্টআপদের কনসেপ্ট, ফিজিবিলিটি, বিজনেস, টেকনোলজি, ফাইন্যান্স, ইমপ্লিমেনটেশন প্ল্যানসহ নানা বিষয়ের উপর গুরুত্ব রেখে চূড়ান্ত বাছাই কার্যক্রম সম্পন্ন হয়। বিচারকদের চূড়ান্ত বাছাই শেষে সেরাদের সেরা হিসেবে “ওপেনরিফ্যাক্টরি” - কে বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট এর “ওয়ান বিগ উইনার ২০২১” হিসেবে ১ লক্ষ মার্কিন ডলার অনুদান প্রদানের জন্য বিজয়ী হিসেবে নাম ঘোষণা করা হয়। সবশেষে, বিজয়ী “ওয়ান বিগ উইনার ২০২১” সহ অন্যান্য বিজয়ী স্টার্টআপদের সম্মাননা প্রদানসহ তাদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে ছিল সম্প্রতি লন্ডনের বিখ্যাত “অ্যাবি রোড স্টুডিও” এ ধারণকৃত বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়ে ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’ এর অন্যতম উদ্যোক্তা পণ্ডিত শ্রী রবিশঙ্করের কন্যা আনুষ্কা শঙ্করের একটি বিশেষ পরিবেশনা। এছাড়াও বাংলাদেশের জনপ্রিয় একটি ব্যান্ড দল “ক্রিপটিক ফেইট” এর

মিউজিক্যাল পরিবেশনাসহ নানা আয়োজন।

back to top