alt

জাতীয়

তামাক নিয়ন্ত্রণে আইনের খসড়া সংশোধনী পাসের দাবি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : রোববার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ছবি: সংগৃহীত

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’র প্রতিবেদন অনুযায়ী তামাকপণ্যের বিজ্ঞাপন ও প্রচারণা বন্ধের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ মাঝামাঝি অবস্থানে রয়েছে। তবে খসড়া সংশোধনী অনুযায়ী বিক্রয়স্থলে তামাকজাত দ্রব্য প্রদর্শন এবং তামাক কোম্পানির সিএসআর কার্যক্রম পরিচালনার সুযোগ বন্ধ হলে বাংলাদেশ এক্ষেত্রে আরও ভালো করবে। ইতোমধ্যে বিশ্বের ৫০টি দেশ বিক্রয়স্থলে তামাকজাত দ্রব্যের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করেছে এবং ৬২টি দেশ তামাক কোম্পানির সিএসআর কার্যক্রম সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন তামাক নিয়ন্ত্রণের বৈশ্বিক মানদ-ে থাইল্যান্ড, নেপাল, আফগানিস্তানসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বেশকিছু দেশ ধূমপানমুক্ত পরিবেশ সূচকে ভালো করলেও বাংলাদেশ এক্ষেত্রে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে। তবে ডিএসএ বাতিলের প্রস্তাব সম্বলিত খসড়া সংশোধনীটি পাস হলে বাংলাদেশও এসব দেশের কাতারে পৌঁছাবে।

আজ রোববার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রকাশিত ‘গ্লোবাল টোব্যাকো এপিডেমিক প্রতিবেদন-২০২৩ এবং বাংলাদেশ পরিস্থিতি’ বিষয়ে প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান) ও অ্যান্টি টোব্যাকো মিডিয়া অ্যালায়েন্স- আত্মা আয়োজিত ভার্চুয়াল বৈঠকে বক্তারা এসব বিষয়ে আলোচনা করেন।

ভার্চুয়াল বৈঠকে বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ জাতীয় তামাকবিরোধী মঞ্চের আহ্বায়ক ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, শতভাগ ধূমপানমুক্ত পরিবেশ অর্জনে আমরা আফগানিস্তান ও নেপালের চেয়ে পিছিয়ে আছি, আমাদের লজ্জিত হওয়া উচিত। আইনের খসড়া সংশোধনীটি যাতে দ্রুত পাস হয় সে বিষয়ে আমাদের কাজ করে যেতে হবে, হতাশ হওয়া চলবে না।

জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলের সমন্বয়কারী (অতিরিক্ত সচিব) হোসেন আলী খোন্দকার বলেন, আইনের খসড়ায় যেসব প্রস্তাবনা আমরা রেখেছি, সেগুলো পাশ করতে পারলে ডব্লিওএইচও’র পরবর্তী প্রতিবেদনে আমাদেরও অগ্রগতি হবে। তবে তামাক কোম্পানিগুলো এ অগ্রগতি থামিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে। আমাদের এ বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে।

সিটিএফকে’র বাংলাদেশ লিড পলিসি অ্যাডভাইজর মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, কোনো ধূমপায়ীর নৈতিক অধিকার নেই অধূমপায়ীকে ক্ষতিগ্রস্ত করার। ধূমপানের জন্য নির্ধারিত এলাকা বাতিল সংবলিত আইনের খসড়া সংশোধনী দ্রুত পাস করতে হবে।

জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক কবি ও সাংবাদিক মিনার মনসুর বলেন, তামাক নিয়ন্ত্রণের জন্য একটি শক্তিশালী আইনগত ভিত্তি তৈরির পাশাপাশি জনসচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে।

ডব্লিওএইচও বাংলাদেশ অফিসের ন্যাশনাল প্রফেশনাল অফিসার ডা. সৈয়দ মাহফুজুল হক বলেন, খসড়া সংশোধনীতে যেসব ধারা সংযুক্ত করা হয়েছে, সেগুলোসহ আইনটি পাস হলে বাংলাদেশও সর্বোচ্চ মানদ- অর্জনকারী দেশগুলোর কাতারে পোঁছার ক্ষেত্রে এগিয়ে যাবে।

তামাক ব্যবহারজনিত রোগে দেশে প্রতিদিন গড়ে ৪৪২ জন মানুষ প্রাণ হারান। আচ্ছাদিত কর্মস্থলে কাজ করেন এমন প্রাপ্তবয়স্ক জনগোষ্ঠীর ৪২.৭ শতাংশ এবং গণপরিবহনে যাতায়াতের সময় প্রায় ২ কোটি ৫০ লাখ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ পরোক্ষ ধূমপানের শিকার হন। এছাড়া প্রায় ৬১ হাজার শিশু পরোক্ষ ধূমপানজনিত বিভিন্ন অসুখে ভোগেন বলে জানা যায় গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোব্যাকো সার্ভে (গ্যাটস)-২০১৭ অনুযায়ী।

ভার্চুয়াল বৈঠকে জানানো হয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’র এবারের প্রতিবেদনে ধূমপানমুক্ত পরিবেশের ওপর বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে, যা বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত জরুরি। হোটেল, রেস্টুরেন্টসহ বিভিন্ন পাবলিক প্লেস ও পাবলিক পরিবহনে ধূমপানের জন্য নির্ধারিত এলাকা (ডিএসএ) থাকলে অধূমপায়ীদের পাশাপাশি সেবাকর্মীরাও পরোক্ষ ধূমপানের শিকার হন।

আলোচকরা বলেন, প্রধানমন্ত্রী ২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনের লক্ষ্যে এফসিটিসি’র আলোকে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন শক্তিশালী করার নির্দেশনা দেন। এ প্রেক্ষাপটে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় আইন সংশোধনের উদ্যোগ গ্রহণ করে। খসড়া সংশোধনীটি বর্তমানে মন্ত্রিসভার অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। এটি দ্রুত মন্ত্রিসভার বৈঠকে উত্থাপন করার আহ্বান জানান তারা।

প্রজ্ঞা’র কোঅর্ডিনেটর সাদিয়া গালিবা প্রভার সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল বৈঠকে মূল উপস্থাপনা তুলে ধরেন কর্মসূচি প্রধান হাসান শাহরিয়ার। অনুষ্ঠানে আত্মা’র কনভেনর মর্তুজা হায়দার লিটন, প্রজ্ঞা’র নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়েরসহ বিভিন্ন তামাকবিরোধী সংগঠনের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলন : রোববার গণপদযাত্রা, রাষ্ট্রপতিকে স্মারকলিপি

ছবি

কোটা সংস্কারের দাবিতে কাল রাষ্ট্রপতিকে স্মারকলিপি ও গণপদযাত্রা

ছবি

কোটাবিরোধীদের আন্দোলন থামানো উচিত : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

ভুল বোঝাবুঝি মিটেছে, শিক্ষকদের ‘প্রত্যয়’ স্কিম আগামী বছর চালু হবে

ছবি

বৈঠকে তিন দফা দাবি নিয়ে আলোচনা হয়েছে: শিক্ষক নেতা নিজামুল হক

ছবি

কোটা আন্দোলনে অনুপ্রবেশকারী, অন্যদিকে ধাবিত করার চেষ্টা : ডিবিপ্রধান

ছবি

রোববার সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী

আন্দোলনকারীদের উপর হামলার প্রতিবাদে ইবিতে বিক্ষোভ মিছিল

ছবি

কক্সবাজারে শুরু হয়েছে অষ্টাদশ বিডিনগ সম্মেলন

ছবি

ইন্টারনেটে দিনভর ধীরগতি থাকতে পারে

ছবি

কোটার হিসাব-নিকাশ, যেভাবে হয় প্রয়োগ

ছবি

কোটা সংস্কার ও হামলার বিচারের দাবিতে আবারো রাবি শিক্ষার্থীদের রেলপথ অবরোধ করে বিক্ষোভ

ছবি

কোটা সংস্কারের দাবি : ছুটির দিনেও শাহবাগ অবরোধ করলেন আন্দোলনকারীরা

ছবি

জাতির পিতার সমাধিতে মো: মোস্তাফিজুর রহমানের শ্রদ্ধা নিবেদন

ছবি

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুতে ইতিবাচক মিয়ানমার, মোদির সাথে বিমসটেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত

ছবি

সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষতি হলে আইন মোতাবেক ব্যবস্থা: আইনমন্ত্রী

ছবি

সেমিকন্ডাক্টর শিল্পের জন্য দক্ষ মানবসম্পদ প্রয়োজনঃ প্রতিমন্ত্রী পলক

আন্দোলনকারীকে ‘শিবির অ্যাখ্যা’ দিয়ে মারধরের অভিযোগ রাবি ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলন: জাবিতে পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ

ছবি

আদালতের রায় প্রকাশ : সরকার চাইলে কোটা পরিবর্তন-পরিবর্ধন করতে পারবে

ছবি

সমন্বয়কারীদের পদত্যাগ, প্রধান ফটক ভেঙে শাহবাগ গেলেন জবির শিক্ষার্থীরা

ছবি

পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে শাহবাগে শিক্ষার্থীরা

ছবি

গ্রন্থাগারের সামনে আন্দোলনকারীদের অবস্থান, মধুর ক্যানটিনের সামনে ছাত্রলীগ

ছবি

কোটা আন্দোলনকারীদের জন্য আদালতের দরজা সবসময় খোলা : প্রধান বিচারপতি

ছবি

কোটা নিয়ে আন্দোলনে জনদুর্ভোগ হলে ব্যবস্থা : ডিএমপি

ছবি

স্পীকারের সাথে ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ

কাল অর্ধদিবস ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচি পালন করবে কোটাসংস্কার আন্দোলনকারীরা

ছবি

কোটাবিরোধীরা ফের অবরোধের ঘোষণা দিয়ে রাস্তা ছাড়লেন

ছবি

ইউনূসের মামলা: যুক্তরাষ্ট্রে শ্রম আইন অপব্যবহারের একটি উদাহরণ

ছবি

শেখ হাসিনার শিং জিনপিং সঙ্গে বৈঠক

ছবি

আদালত নয়, সরকারের কাছে চূড়ান্ত সমাধান চান আন্দোলনকারীরা

ছবি

কেন একদিন আগেই দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী, জানালেন কাদের

ছবি

চীনের গ্রেট হল অব দ্য পিপলে শেখ হাসিনাকে উষ্ণ সংবর্ধনা

ছবি

২১ সমঝোতা স্মারক-চুক্তি এবং ৭ ঘোষণাপত্র সই করল বাংলাদেশ-চীন

ছবি

হজে ৬৩ বাংলাদেশির মৃত্যু, ফিরেছেন ৬১ হাজার হাজি

ছবি

মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিয়ে দুই আবেদনের শুনানি একসঙ্গে সাড়ে ১১টায়

tab

জাতীয়

তামাক নিয়ন্ত্রণে আইনের খসড়া সংশোধনী পাসের দাবি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

ছবি: সংগৃহীত

রোববার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’র প্রতিবেদন অনুযায়ী তামাকপণ্যের বিজ্ঞাপন ও প্রচারণা বন্ধের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ মাঝামাঝি অবস্থানে রয়েছে। তবে খসড়া সংশোধনী অনুযায়ী বিক্রয়স্থলে তামাকজাত দ্রব্য প্রদর্শন এবং তামাক কোম্পানির সিএসআর কার্যক্রম পরিচালনার সুযোগ বন্ধ হলে বাংলাদেশ এক্ষেত্রে আরও ভালো করবে। ইতোমধ্যে বিশ্বের ৫০টি দেশ বিক্রয়স্থলে তামাকজাত দ্রব্যের প্রদর্শন নিষিদ্ধ করেছে এবং ৬২টি দেশ তামাক কোম্পানির সিএসআর কার্যক্রম সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন তামাক নিয়ন্ত্রণের বৈশ্বিক মানদ-ে থাইল্যান্ড, নেপাল, আফগানিস্তানসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বেশকিছু দেশ ধূমপানমুক্ত পরিবেশ সূচকে ভালো করলেও বাংলাদেশ এক্ষেত্রে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে। তবে ডিএসএ বাতিলের প্রস্তাব সম্বলিত খসড়া সংশোধনীটি পাস হলে বাংলাদেশও এসব দেশের কাতারে পৌঁছাবে।

আজ রোববার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রকাশিত ‘গ্লোবাল টোব্যাকো এপিডেমিক প্রতিবেদন-২০২৩ এবং বাংলাদেশ পরিস্থিতি’ বিষয়ে প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান) ও অ্যান্টি টোব্যাকো মিডিয়া অ্যালায়েন্স- আত্মা আয়োজিত ভার্চুয়াল বৈঠকে বক্তারা এসব বিষয়ে আলোচনা করেন।

ভার্চুয়াল বৈঠকে বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ জাতীয় তামাকবিরোধী মঞ্চের আহ্বায়ক ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, শতভাগ ধূমপানমুক্ত পরিবেশ অর্জনে আমরা আফগানিস্তান ও নেপালের চেয়ে পিছিয়ে আছি, আমাদের লজ্জিত হওয়া উচিত। আইনের খসড়া সংশোধনীটি যাতে দ্রুত পাস হয় সে বিষয়ে আমাদের কাজ করে যেতে হবে, হতাশ হওয়া চলবে না।

জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলের সমন্বয়কারী (অতিরিক্ত সচিব) হোসেন আলী খোন্দকার বলেন, আইনের খসড়ায় যেসব প্রস্তাবনা আমরা রেখেছি, সেগুলো পাশ করতে পারলে ডব্লিওএইচও’র পরবর্তী প্রতিবেদনে আমাদেরও অগ্রগতি হবে। তবে তামাক কোম্পানিগুলো এ অগ্রগতি থামিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে। আমাদের এ বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে।

সিটিএফকে’র বাংলাদেশ লিড পলিসি অ্যাডভাইজর মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, কোনো ধূমপায়ীর নৈতিক অধিকার নেই অধূমপায়ীকে ক্ষতিগ্রস্ত করার। ধূমপানের জন্য নির্ধারিত এলাকা বাতিল সংবলিত আইনের খসড়া সংশোধনী দ্রুত পাস করতে হবে।

জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক কবি ও সাংবাদিক মিনার মনসুর বলেন, তামাক নিয়ন্ত্রণের জন্য একটি শক্তিশালী আইনগত ভিত্তি তৈরির পাশাপাশি জনসচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে।

ডব্লিওএইচও বাংলাদেশ অফিসের ন্যাশনাল প্রফেশনাল অফিসার ডা. সৈয়দ মাহফুজুল হক বলেন, খসড়া সংশোধনীতে যেসব ধারা সংযুক্ত করা হয়েছে, সেগুলোসহ আইনটি পাস হলে বাংলাদেশও সর্বোচ্চ মানদ- অর্জনকারী দেশগুলোর কাতারে পোঁছার ক্ষেত্রে এগিয়ে যাবে।

তামাক ব্যবহারজনিত রোগে দেশে প্রতিদিন গড়ে ৪৪২ জন মানুষ প্রাণ হারান। আচ্ছাদিত কর্মস্থলে কাজ করেন এমন প্রাপ্তবয়স্ক জনগোষ্ঠীর ৪২.৭ শতাংশ এবং গণপরিবহনে যাতায়াতের সময় প্রায় ২ কোটি ৫০ লাখ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ পরোক্ষ ধূমপানের শিকার হন। এছাড়া প্রায় ৬১ হাজার শিশু পরোক্ষ ধূমপানজনিত বিভিন্ন অসুখে ভোগেন বলে জানা যায় গ্লোবাল অ্যাডাল্ট টোব্যাকো সার্ভে (গ্যাটস)-২০১৭ অনুযায়ী।

ভার্চুয়াল বৈঠকে জানানো হয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’র এবারের প্রতিবেদনে ধূমপানমুক্ত পরিবেশের ওপর বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে, যা বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত জরুরি। হোটেল, রেস্টুরেন্টসহ বিভিন্ন পাবলিক প্লেস ও পাবলিক পরিবহনে ধূমপানের জন্য নির্ধারিত এলাকা (ডিএসএ) থাকলে অধূমপায়ীদের পাশাপাশি সেবাকর্মীরাও পরোক্ষ ধূমপানের শিকার হন।

আলোচকরা বলেন, প্রধানমন্ত্রী ২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ অর্জনের লক্ষ্যে এফসিটিসি’র আলোকে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন শক্তিশালী করার নির্দেশনা দেন। এ প্রেক্ষাপটে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় আইন সংশোধনের উদ্যোগ গ্রহণ করে। খসড়া সংশোধনীটি বর্তমানে মন্ত্রিসভার অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। এটি দ্রুত মন্ত্রিসভার বৈঠকে উত্থাপন করার আহ্বান জানান তারা।

প্রজ্ঞা’র কোঅর্ডিনেটর সাদিয়া গালিবা প্রভার সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল বৈঠকে মূল উপস্থাপনা তুলে ধরেন কর্মসূচি প্রধান হাসান শাহরিয়ার। অনুষ্ঠানে আত্মা’র কনভেনর মর্তুজা হায়দার লিটন, প্রজ্ঞা’র নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়েরসহ বিভিন্ন তামাকবিরোধী সংগঠনের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

back to top