alt

জাতীয়

টোলের মাধ্যমে পদ্মা সেতুর নির্মাণ খরচ উঠাতে ৩০ বছর পর্যন্ত লাগতে পারে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : শনিবার, ২৫ জুন ২০২২

টোল আদায়ের মাধ্যমে পদ্মা সেতু নির্মাণের ব্যয় উঠে আসতে ২৫ থেকে ৩০ বছর লাগতে পারে। টোল আদায়ের মাধ্যমে ২০৫০ সাল নাগাদ পদ্মা সেতু প্রকল্পের পুরো ব্যয় উঠে আসতে পারে বলে ধারণা সরকারের সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের।

নির্মাণ ব্যয়ে উঠে আসার পাশাপাশি পদ্মা সেতু দেশের অর্থনীতি ও জিডিপিতে অসামান্য অবদান রাখবে। এই সেতু সরাসারি রাজধানীর সঙ্গে ২১ জেলা সংযোগ স্থাপন করায় ওইসব জেলার মানুষের জীবনমান, অর্থনীতি ও আর্থ-সামাজিক অবস্থায়ও ব্যাপক অগ্রগতির আশা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, দেশের সার্বিক অর্থনীতির বিকাশ ও জিডিপিতে মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে স্বপ্নের পদ্মা সেতু। এই সেতুর কারণে দেশের জিডিপি (মোট দেশজ উৎপাদন) প্রবৃদ্ধি এক দশমিক ২ শতাংশ থেকে দেড় শতাংশ পর্যন্ত বাড়বে।

সম্পূর্ণ দেশীয় অর্থে নির্মাণ করা হয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু। এই সেতু নির্মাণে বাংলাদেশ সরকারের ব্যয় হয়েছে ৩০ হাজার ১৯৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। বিশাল এই বিনিয়োগ উঠিয়ে আনার দুটি উপায় রয়েছে। এর একটি হলো-সেতু দিয়ে পারাপার হওয়া যানবাহন থেকে টোল আদায়; অন্যটি হলো জিডিপির অতিরিক্ত প্রাপ্তি বিবেচনায় নেয়া।

কত বছরে এই অর্থ উঠে আসতে পারে সে সর্ম্পকে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কাছে সুনির্দিষ্ট কোন হিসাব নেই। তবে সেতুর সঙ্গে সম্পৃক্ত দেশি-বিদেশি একাধিক সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, শুধুমাত্র টোল আদায়ের মাধ্যমে ৩০ বছরের মধ্যে পদ্মা সেতুর পুরো বিনিয়োগ উঠিয়ে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের তথ্য বলছে, পদ্মা সেতু দিয়ে প্রথম বছর দৈনিক ২৪ হাজার যানবাহন চলাচল করবে। ২০২৫ সাল নাগাদ সেতু পারাপারে যানবাহনের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে ৪১ হাজার ৬০০। পর্যায়ক্রমে যানবাহনের সংখ্যা বাড়বে। এভাবে ২০৫০ সাল নাগাদ শুধু যানবাহন থেকে টোল আদায়ের মাধ্যমেই পদ্মা সেতুর ব্যয় উঠে আসবে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের পরিচালক শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণে ব্যয় হওয়া টাকা সর্বোচ্চ ৩০ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে উঠে আসবে। তবে টোল আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক থাকলে ২০ থেকে ২৫ বছরেই পুরো টাকা উঠে আসতে পারে।

সেতুর টোল আদায়ের দায়িত্ব দক্ষিণ কোরিয়া এক্সপ্রেস করপোরেশন ও চায়না মেজর ব্রিজ কোম্পানিকে দেয়া হয়েছে জানিয়ে শফিকুল ইসলাম বলেন, দুই প্রতিষ্ঠান টোল আদায়ের পাশাপাশি সেতুর ঋণ শোধ, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণ করবে।

এদিকে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের ধারণা, পদ্মা সেতু পারাপারে যানবাহন থেকে প্রথম বছর এক হাজার ৪৩০ কোটি টাক আয় হবে। এ হিসাবে ৩৫ বছরে এই সেতু থেকে ৯০ হাজার কোটি টাকার বেশি আয় হবে।

যদিও সেতু বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রত্যাশা, প্রথম বছর এক হাজার ৬০৪ কোটি টাকার টোল আদায় হবে। সেতু বিভাগ জানিয়েছে, টোলের বেশিরভাগ টাকা দিয়ে সরকারের ঋণ পরিশোধ করা হবে। সেতুর রক্ষণাবেক্ষণে বাকি অর্থ খরচ হবে।

গত ১৭ মে পদ্মা সেতু দিয়ে যানবাহন পারাপারের টোল নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগ।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সেতু কর্তৃপক্ষ পদ্মা সেতু নির্মাণে সরকারের কাছ থেকে ঋণ নিয়েছে। এজন্য ৩৫ বছরে সরকারকে (অর্থ মন্ত্রণালয়) সুদে-আসলে ৩৬ হাজার কোটি টাকা পরিশোধ করতে হবে। এই ঋণ টোল আদায়ের মাধ্যমে পরিশোধ করা হবে।

আট বছর হাজত বাসে, কাশ্মির থেকে ৮ বাংলাদেশীকে হস্তান্তর

সাপ্তাহিক ছুটি কোন শিল্পাঞ্চলে কবে

ছবি

সুইস ব্যাংকের কাছে অর্থ পাচারকারীদের তথ্য চেয়েছে কিনা জানতে চায় হাইকোর্ট

ছবি

সুইস ব্যাংক নিয়ে রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য মিথ্যা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

নৌপথে পণ্য পরিবহনে ভাড়া বাড়ল ১৫-২২ শতাংশ

ছবি

শিল্পাঞ্চলে এলাকাভিত্তিক সাপ্তাহিক ছুটির প্রজ্ঞাপন জারি

ছবি

দুর্যোগে পড়ালেখায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত সুনামগঞ্জের শিশুরা

ছবি

করোনা: একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ২১৪

ছবি

লঞ্চ ভাড়া বাড়াতে গঠিত ওয়ার্কিং কমিটির প্রস্তাব জমা

ছবি

সংসদের ১৯তম অধিবেশন শুরু ২৮ আগস্ট

ছবি

সরকারি ওষুধ চুরি করে বিক্রি করলে ১০ বছর জেল

ছবি

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

ছবি

অনিয়ম-দুর্নীতির কারণে ৮০ শতাংশ পরিবার ‘ফ্যামিলি কার্ড’ থেকে বঞ্চিত হয়েছে: টিআইবির গবেষণা

ছবি

এক সপ্তাহের মধ্যে তেলের দাম সমন্বয় হবে

ছবি

সুইস ব্যাংকে অর্থপাচার : তথ্য না জানার কারণ জানতে চান হাইকোর্ট

ছবি

ফেইসবুক-গুগলে কত টাকার বিজ্ঞাপন, জানতে চায় সরকার

ছবি

বাংলাদেশ-ভারত প্রতিরক্ষা সংলাপ আজ

ছবি

এক কোটি পরিবারে কম দামে খাদ্য বিতরণের উদ্যোগ

ছবি

ডিএন‌সি‌সি ও রোটা‌রি ইন্টারন্যাশনাল যুব সমা‌জের জন্য কাজ কর‌বে

ছবি

প্রাথমিকের ১৬ শিক্ষার্থী পরীক্ষামূলক টিকা পাবে আজ

ছবি

দামবৃদ্ধি : সংকটে পাঠ্যবই মুদ্রণ কাজ

সবক্ষেত্রে ভুর্তকি দেয়া যায় না : মন্ত্রী তাজুল

ছবি

রাজধানীর গণপরিবহনে থাকছে না ওয়েবিল-চেকার

ছবি

আনারকলির বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তির কথা ভাবছে মন্ত্রণালয়

ছবি

তেলের দাম বাড়লে সবকিছুর দামই বাড়ে: অর্থমন্ত্রী

ছবি

করোনা: একজনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৯৮

ছবি

সুইস ব্যাংকের কাছে তথ্য চায়নি বাংলাদেশ: রাষ্ট্রদূত নাথালি

ছবি

হঠাৎ সাগরে লঘুচাপ, জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা ১৫ জেলায়

ছবি

আদিবাসীদের বিলুপ্ত করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে অভিযোগ সন্তু লারমার

ডেঙ্গুতে আরও ৫৩ জন আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে

পরিকল্পনামন্ত্রী বললেন, অর্থের ঘাটতিতে কিছুটা অসুবিধায় আছি

ছবি

ঢামেকে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতির হুমকি

ছবি

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় আহত লেফটেন্যান্ট কর্নেল ইসমাইল হোসেন মারা গেছেন

ছবি

সরকারের প্রতি টিআইবি : কর ফাঁকি ও অর্থপাচার রোধে ‘কমন রিপোর্টিং স্ট্যান্ডার্ড’ অবলম্বন করুন

ছবি

করোনায় ১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৩৯

ছবি

ফজিলাতুন নেছা মুজিব নারীদের জন্য অনুপ্রেরণা : স্পিকার

tab

জাতীয়

টোলের মাধ্যমে পদ্মা সেতুর নির্মাণ খরচ উঠাতে ৩০ বছর পর্যন্ত লাগতে পারে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

শনিবার, ২৫ জুন ২০২২

টোল আদায়ের মাধ্যমে পদ্মা সেতু নির্মাণের ব্যয় উঠে আসতে ২৫ থেকে ৩০ বছর লাগতে পারে। টোল আদায়ের মাধ্যমে ২০৫০ সাল নাগাদ পদ্মা সেতু প্রকল্পের পুরো ব্যয় উঠে আসতে পারে বলে ধারণা সরকারের সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের।

নির্মাণ ব্যয়ে উঠে আসার পাশাপাশি পদ্মা সেতু দেশের অর্থনীতি ও জিডিপিতে অসামান্য অবদান রাখবে। এই সেতু সরাসারি রাজধানীর সঙ্গে ২১ জেলা সংযোগ স্থাপন করায় ওইসব জেলার মানুষের জীবনমান, অর্থনীতি ও আর্থ-সামাজিক অবস্থায়ও ব্যাপক অগ্রগতির আশা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, দেশের সার্বিক অর্থনীতির বিকাশ ও জিডিপিতে মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে স্বপ্নের পদ্মা সেতু। এই সেতুর কারণে দেশের জিডিপি (মোট দেশজ উৎপাদন) প্রবৃদ্ধি এক দশমিক ২ শতাংশ থেকে দেড় শতাংশ পর্যন্ত বাড়বে।

সম্পূর্ণ দেশীয় অর্থে নির্মাণ করা হয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু। এই সেতু নির্মাণে বাংলাদেশ সরকারের ব্যয় হয়েছে ৩০ হাজার ১৯৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। বিশাল এই বিনিয়োগ উঠিয়ে আনার দুটি উপায় রয়েছে। এর একটি হলো-সেতু দিয়ে পারাপার হওয়া যানবাহন থেকে টোল আদায়; অন্যটি হলো জিডিপির অতিরিক্ত প্রাপ্তি বিবেচনায় নেয়া।

কত বছরে এই অর্থ উঠে আসতে পারে সে সর্ম্পকে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কাছে সুনির্দিষ্ট কোন হিসাব নেই। তবে সেতুর সঙ্গে সম্পৃক্ত দেশি-বিদেশি একাধিক সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, শুধুমাত্র টোল আদায়ের মাধ্যমে ৩০ বছরের মধ্যে পদ্মা সেতুর পুরো বিনিয়োগ উঠিয়ে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের তথ্য বলছে, পদ্মা সেতু দিয়ে প্রথম বছর দৈনিক ২৪ হাজার যানবাহন চলাচল করবে। ২০২৫ সাল নাগাদ সেতু পারাপারে যানবাহনের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে ৪১ হাজার ৬০০। পর্যায়ক্রমে যানবাহনের সংখ্যা বাড়বে। এভাবে ২০৫০ সাল নাগাদ শুধু যানবাহন থেকে টোল আদায়ের মাধ্যমেই পদ্মা সেতুর ব্যয় উঠে আসবে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের পরিচালক শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণে ব্যয় হওয়া টাকা সর্বোচ্চ ৩০ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে উঠে আসবে। তবে টোল আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ঠিক থাকলে ২০ থেকে ২৫ বছরেই পুরো টাকা উঠে আসতে পারে।

সেতুর টোল আদায়ের দায়িত্ব দক্ষিণ কোরিয়া এক্সপ্রেস করপোরেশন ও চায়না মেজর ব্রিজ কোম্পানিকে দেয়া হয়েছে জানিয়ে শফিকুল ইসলাম বলেন, দুই প্রতিষ্ঠান টোল আদায়ের পাশাপাশি সেতুর ঋণ শোধ, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণ করবে।

এদিকে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের ধারণা, পদ্মা সেতু পারাপারে যানবাহন থেকে প্রথম বছর এক হাজার ৪৩০ কোটি টাক আয় হবে। এ হিসাবে ৩৫ বছরে এই সেতু থেকে ৯০ হাজার কোটি টাকার বেশি আয় হবে।

যদিও সেতু বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রত্যাশা, প্রথম বছর এক হাজার ৬০৪ কোটি টাকার টোল আদায় হবে। সেতু বিভাগ জানিয়েছে, টোলের বেশিরভাগ টাকা দিয়ে সরকারের ঋণ পরিশোধ করা হবে। সেতুর রক্ষণাবেক্ষণে বাকি অর্থ খরচ হবে।

গত ১৭ মে পদ্মা সেতু দিয়ে যানবাহন পারাপারের টোল নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগ।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, সেতু কর্তৃপক্ষ পদ্মা সেতু নির্মাণে সরকারের কাছ থেকে ঋণ নিয়েছে। এজন্য ৩৫ বছরে সরকারকে (অর্থ মন্ত্রণালয়) সুদে-আসলে ৩৬ হাজার কোটি টাকা পরিশোধ করতে হবে। এই ঋণ টোল আদায়ের মাধ্যমে পরিশোধ করা হবে।

back to top