alt

জাতীয়

স্বেচ্ছায় ফিরতে আগ্রহী রোহিঙ্গাদের তালিকা করে প্রত্যাবাসন শুরু হবে

জেলা বার্তা পরিবেশেক, কক্সবাজার : বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০২৩

যারা স্বেচ্ছায় নিজ মাতৃভূমিতে ফেরত যেতে আগ্রহী এমন রোহিঙ্গাদের তালিকা করে প্রত্যাবাসন করা হবে। কাউকে জোর করে মায়ানমারে ফেরত পাঠানো হবে না। রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন সম্পর্কে জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মতামতকেও গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। প্রত্যাবাসন ইস্যুর সব বিষয়ে জাতিসংঘসহ সব আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবহিত করা হচ্ছে। এমনই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক ও শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কার্যালয়ের কর্মকর্তারা।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক জানান রোহিঙ্গা সমস্যার একমাত্র সমাধান রোহিঙ্গাদের টেকসই এবং ভলান্টারি প্রত্যাবাসন। বৃহস্পতিবার (২৫ মে) বিকেলে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক মায়ানমার উইং মাইনুল কবির এবং শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাশন কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

প্রত্যাবাসনের জন্য রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আলোচনা শেষে মায়ানমার সরকারের প্রতিনিধি দল দেশে ফিরে গেলে গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে ব্রিফিংয়ে অংশ নেন তারা। তবে মায়ানমারের প্রতিনিধি দল গণমাধ্যমে কোন কথা বলেনি।

ব্রিফিংয়ে শরণার্থী কমিশনার মিজানুর রহমান জানান, মায়ানমার প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলোচনাকালে রোহিঙ্গারা তাদের নাগরিকত্ব ভিটে মাটি ফেরতসহ তাদের বেশ কিছু চিরাচরিত দাবি জানিয়েছে। আলোচনাকালে রোহিঙ্গারা রাখাইনে কোন ক্যাম্পে নয় নিজেদের ভিটে মাটিতেই ফেরত যেতে চান বলে মায়ানমার প্রতিনিধি দলের কাছে উত্থাপন করেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে টেকনাফ পৌরসভার জালিয়াপাড়ায় বাংলাদেশ-মায়ানমার ট্রানজিট জেটি দিয়ে ১৪ সদস্যর প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ আসেন। এ সময় শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশন কার্যালয়ের কর্মকর্তারা তাদের স্বাগত জানান। মায়ানমার প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন মায়ানমারের রাখাইন স্টেটের সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার মিনিস্টার অং মাইউ। শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, প্রত্যাবাসনকে সামনে রেখে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আলোচনা করতে মায়ানমারের একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে এসেছেন। ঢাকায় মায়ানমার দূতাবাসের দুজন সদস্যও প্রতিনিধি দলের সঙ্গে ছিলেন। তারা টেকনাফে ২৬ নাম্বার ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। মায়ানমারের প্রতিনিধি দল এবার ২৮০ রোহিঙ্গা পরিবারের প্রধানের সঙ্গে কথা বলেন।

মায়ানমারের প্রতিনিধি দলটি মূলত কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে থাকা রোহিঙ্গাদের মূল আবাস মায়ানমারের রাখাইনের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন এবং স্বদেশে ফেরত গেলে তাদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার বিষয়ের দীর্ঘ বর্ণনা দেন। রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আলোচনাকালে নাগরিকত্ব শিক্ষা চিকিৎসা এবং অবাধ চলাফেরার স্বাধীনতাসহ বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন রোহিঙ্গারা।

এ সময় মায়ানমারের প্রতিনিধি দল পর্যায়ক্রমে রোহিঙ্গাদের দাবি পূরণ করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলে প্রেস ব্রিফিংয়ে উল্লেখ করেন শরণার্থী কমিশনার। এর আগে গত ৫ মে রোহিঙ্গাদের ২০ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল মায়ানমারের রাখাইনে মংডু শহরের আশপাশে পরিদর্শন করে এসেছেন। পরিদর্শন করে আসা রোহিঙ্গা নেতারা তখন জানিয়েছিলেন রাখাইনে এখনও প্রত্যাবাসনের পরিবেশ সৃষ্টি হয়নি। রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, ক্যাম্পে মায়ানমারের প্রতিনিধিরা এসেছেন। অনেক রোহিঙ্গা দাবি তুলছেন, নিরাপদ ও স্থায়ী প্রত্যাবাসনের। রোহিঙ্গারা নিরাপদ ও স্থায়ী প্রত্যাবাসন চায়।

এর আগেও, ১৫ মার্চ মায়ানমার প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে আসে। সে সময় প্রায় ৫০০ রোহিঙ্গাদের তথ্য যাচাই-বাছাই শেষে মায়ানমার ফিরে যায় দলটি।

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলন : রোববার গণপদযাত্রা, রাষ্ট্রপতিকে স্মারকলিপি

ছবি

কোটা সংস্কারের দাবিতে কাল রাষ্ট্রপতিকে স্মারকলিপি ও গণপদযাত্রা

ছবি

কোটাবিরোধীদের আন্দোলন থামানো উচিত : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

ভুল বোঝাবুঝি মিটেছে, শিক্ষকদের ‘প্রত্যয়’ স্কিম আগামী বছর চালু হবে

ছবি

বৈঠকে তিন দফা দাবি নিয়ে আলোচনা হয়েছে: শিক্ষক নেতা নিজামুল হক

ছবি

কোটা আন্দোলনে অনুপ্রবেশকারী, অন্যদিকে ধাবিত করার চেষ্টা : ডিবিপ্রধান

ছবি

রোববার সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী

আন্দোলনকারীদের উপর হামলার প্রতিবাদে ইবিতে বিক্ষোভ মিছিল

ছবি

কক্সবাজারে শুরু হয়েছে অষ্টাদশ বিডিনগ সম্মেলন

ছবি

ইন্টারনেটে দিনভর ধীরগতি থাকতে পারে

ছবি

কোটার হিসাব-নিকাশ, যেভাবে হয় প্রয়োগ

ছবি

কোটা সংস্কার ও হামলার বিচারের দাবিতে আবারো রাবি শিক্ষার্থীদের রেলপথ অবরোধ করে বিক্ষোভ

ছবি

কোটা সংস্কারের দাবি : ছুটির দিনেও শাহবাগ অবরোধ করলেন আন্দোলনকারীরা

ছবি

জাতির পিতার সমাধিতে মো: মোস্তাফিজুর রহমানের শ্রদ্ধা নিবেদন

ছবি

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুতে ইতিবাচক মিয়ানমার, মোদির সাথে বিমসটেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত

ছবি

সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষতি হলে আইন মোতাবেক ব্যবস্থা: আইনমন্ত্রী

ছবি

সেমিকন্ডাক্টর শিল্পের জন্য দক্ষ মানবসম্পদ প্রয়োজনঃ প্রতিমন্ত্রী পলক

আন্দোলনকারীকে ‘শিবির অ্যাখ্যা’ দিয়ে মারধরের অভিযোগ রাবি ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলন: জাবিতে পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ

ছবি

আদালতের রায় প্রকাশ : সরকার চাইলে কোটা পরিবর্তন-পরিবর্ধন করতে পারবে

ছবি

সমন্বয়কারীদের পদত্যাগ, প্রধান ফটক ভেঙে শাহবাগ গেলেন জবির শিক্ষার্থীরা

ছবি

পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে শাহবাগে শিক্ষার্থীরা

ছবি

গ্রন্থাগারের সামনে আন্দোলনকারীদের অবস্থান, মধুর ক্যানটিনের সামনে ছাত্রলীগ

ছবি

কোটা আন্দোলনকারীদের জন্য আদালতের দরজা সবসময় খোলা : প্রধান বিচারপতি

ছবি

কোটা নিয়ে আন্দোলনে জনদুর্ভোগ হলে ব্যবস্থা : ডিএমপি

ছবি

স্পীকারের সাথে ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ

কাল অর্ধদিবস ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচি পালন করবে কোটাসংস্কার আন্দোলনকারীরা

ছবি

কোটাবিরোধীরা ফের অবরোধের ঘোষণা দিয়ে রাস্তা ছাড়লেন

ছবি

ইউনূসের মামলা: যুক্তরাষ্ট্রে শ্রম আইন অপব্যবহারের একটি উদাহরণ

ছবি

শেখ হাসিনার শিং জিনপিং সঙ্গে বৈঠক

ছবি

আদালত নয়, সরকারের কাছে চূড়ান্ত সমাধান চান আন্দোলনকারীরা

ছবি

কেন একদিন আগেই দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী, জানালেন কাদের

ছবি

চীনের গ্রেট হল অব দ্য পিপলে শেখ হাসিনাকে উষ্ণ সংবর্ধনা

ছবি

২১ সমঝোতা স্মারক-চুক্তি এবং ৭ ঘোষণাপত্র সই করল বাংলাদেশ-চীন

ছবি

হজে ৬৩ বাংলাদেশির মৃত্যু, ফিরেছেন ৬১ হাজার হাজি

ছবি

মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিয়ে দুই আবেদনের শুনানি একসঙ্গে সাড়ে ১১টায়

tab

জাতীয়

স্বেচ্ছায় ফিরতে আগ্রহী রোহিঙ্গাদের তালিকা করে প্রত্যাবাসন শুরু হবে

জেলা বার্তা পরিবেশেক, কক্সবাজার

বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০২৩

যারা স্বেচ্ছায় নিজ মাতৃভূমিতে ফেরত যেতে আগ্রহী এমন রোহিঙ্গাদের তালিকা করে প্রত্যাবাসন করা হবে। কাউকে জোর করে মায়ানমারে ফেরত পাঠানো হবে না। রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন সম্পর্কে জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মতামতকেও গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। প্রত্যাবাসন ইস্যুর সব বিষয়ে জাতিসংঘসহ সব আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবহিত করা হচ্ছে। এমনই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক ও শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কার্যালয়ের কর্মকর্তারা।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক জানান রোহিঙ্গা সমস্যার একমাত্র সমাধান রোহিঙ্গাদের টেকসই এবং ভলান্টারি প্রত্যাবাসন। বৃহস্পতিবার (২৫ মে) বিকেলে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক মায়ানমার উইং মাইনুল কবির এবং শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাশন কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

প্রত্যাবাসনের জন্য রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আলোচনা শেষে মায়ানমার সরকারের প্রতিনিধি দল দেশে ফিরে গেলে গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে ব্রিফিংয়ে অংশ নেন তারা। তবে মায়ানমারের প্রতিনিধি দল গণমাধ্যমে কোন কথা বলেনি।

ব্রিফিংয়ে শরণার্থী কমিশনার মিজানুর রহমান জানান, মায়ানমার প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলোচনাকালে রোহিঙ্গারা তাদের নাগরিকত্ব ভিটে মাটি ফেরতসহ তাদের বেশ কিছু চিরাচরিত দাবি জানিয়েছে। আলোচনাকালে রোহিঙ্গারা রাখাইনে কোন ক্যাম্পে নয় নিজেদের ভিটে মাটিতেই ফেরত যেতে চান বলে মায়ানমার প্রতিনিধি দলের কাছে উত্থাপন করেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে টেকনাফ পৌরসভার জালিয়াপাড়ায় বাংলাদেশ-মায়ানমার ট্রানজিট জেটি দিয়ে ১৪ সদস্যর প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ আসেন। এ সময় শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশন কার্যালয়ের কর্মকর্তারা তাদের স্বাগত জানান। মায়ানমার প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন মায়ানমারের রাখাইন স্টেটের সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার মিনিস্টার অং মাইউ। শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, প্রত্যাবাসনকে সামনে রেখে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আলোচনা করতে মায়ানমারের একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে এসেছেন। ঢাকায় মায়ানমার দূতাবাসের দুজন সদস্যও প্রতিনিধি দলের সঙ্গে ছিলেন। তারা টেকনাফে ২৬ নাম্বার ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। মায়ানমারের প্রতিনিধি দল এবার ২৮০ রোহিঙ্গা পরিবারের প্রধানের সঙ্গে কথা বলেন।

মায়ানমারের প্রতিনিধি দলটি মূলত কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে থাকা রোহিঙ্গাদের মূল আবাস মায়ানমারের রাখাইনের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন এবং স্বদেশে ফেরত গেলে তাদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার বিষয়ের দীর্ঘ বর্ণনা দেন। রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আলোচনাকালে নাগরিকত্ব শিক্ষা চিকিৎসা এবং অবাধ চলাফেরার স্বাধীনতাসহ বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন রোহিঙ্গারা।

এ সময় মায়ানমারের প্রতিনিধি দল পর্যায়ক্রমে রোহিঙ্গাদের দাবি পূরণ করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলে প্রেস ব্রিফিংয়ে উল্লেখ করেন শরণার্থী কমিশনার। এর আগে গত ৫ মে রোহিঙ্গাদের ২০ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল মায়ানমারের রাখাইনে মংডু শহরের আশপাশে পরিদর্শন করে এসেছেন। পরিদর্শন করে আসা রোহিঙ্গা নেতারা তখন জানিয়েছিলেন রাখাইনে এখনও প্রত্যাবাসনের পরিবেশ সৃষ্টি হয়নি। রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, ক্যাম্পে মায়ানমারের প্রতিনিধিরা এসেছেন। অনেক রোহিঙ্গা দাবি তুলছেন, নিরাপদ ও স্থায়ী প্রত্যাবাসনের। রোহিঙ্গারা নিরাপদ ও স্থায়ী প্রত্যাবাসন চায়।

এর আগেও, ১৫ মার্চ মায়ানমার প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে আসে। সে সময় প্রায় ৫০০ রোহিঙ্গাদের তথ্য যাচাই-বাছাই শেষে মায়ানমার ফিরে যায় দলটি।

back to top