alt

রাজনীতি

প্রার্থিতা বহাল-বাতিল

ইসিতে মোট আপিল ৫৬১টি, সিদ্ধান্ত ১৫ তারিখের মধ্যে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : শনিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাইয়ে রিটার্নিং অফিসারদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) ৫৬১টি আপিল জমা পড়েছে। এর মধ্যে, অধিকাংশ আবেদন এসেছে প্রার্থিতা ফিরে পেতে। অল্প কিছু আবেদন জমা পড়েছে বৈধ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করার জন্য।

বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগ থেকে প্রার্থী হওয়া ঝালকাঠি-১ আসনের আলোচিত প্রার্থী শাহজাহান ওমরের মনোনয়নপত্রের বৈধতার বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল জমা পড়েছে। ওই আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুজ্জামানের পক্ষে মো. জাকির নামের স্থানীয় একজন ভোটার শনিবার (৯ ডিসেম্বর) ইসিতে আপিল করেন। আপিলে তার বিরুদ্ধে হলফনামায় মামলাসংক্রান্ত তথ্য গোপন করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

বরিশাল-৪ (মেহেন্দীগঞ্জ-হিজলা) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী পংকজ নাথের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে আপিল করেন শাম্মী আহমেদ। শনিবার দুপুরে শাম্মী আহম্মেদের পক্ষে তার আইনজীবী এই আপিল করেন। এতে পংকজের বিরুদ্ধে হলফনামায় তথ্য গোপন করার অভিযোগ আনা হয়।

শাম্মী আহমেদ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক। তিনি বরিশাল-৪ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পান। তবে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকত্ব থাকায় সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসারের বিরুদ্ধে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। শাম্মী আহমেদ রিটার্নিং কর্মকর্তার ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধেও ইসিতে আপিল করেন।

এর আগে বরিশাল-৫ আসনে নৌকার মনোনয়নবঞ্চিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহর মনোনয়নপত্রের বৈধতার বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল করেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাহিদ ফারুকের মনোনয়নপত্রের সমর্থনকারী কে বি এস আহমেদ। সাদিক আবদুল্লাহর বিরুদ্ধেও হলফনামায় সম্পদ বিবরণীতে অসত্য দেয়ার অভিযোগ আনা হয়।

ইসি সূত্রে জানা যায়, ফরিদপুর-৩ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী শামীম হকের মনোনয়নপত্রের বৈধতার বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল করেন ওই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এ কে আজাদ। তিনি অভিযোগ করেন, নৌকার প্রার্থী শামীম হক নেদারল্যান্ডসের নাগরিক।

কিশোরগঞ্জ-৩ আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী ও দলটির মহাসচিব মুজিবুল হকের প্রার্থিতার বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল করেন নাসিরুল হক খান। তিনি ওই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী। বাছাইয়ে তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। এর আগে নিজের প্রার্থিতা ফিরে পেতেও ইসিতে আপিল করেন নাসিরুল হক খান।

সিলেট-৩ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাবিবুর রহমানের মনোনয়নের বৈধতার বিরুদ্ধে আপিল করেন আতিকুর রহমান নামের এক ব্যক্তি।

কুমিল্লা-৩ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুনের মনোনয়নপত্র গ্রহণের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী বশির আহমদ। কুমিল্লা-৪ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম আজাদের মনোনয়নপত্র গ্রহণের বিরুদ্ধেও ইসিতে এক ব্যক্তি আপিল করেন।

সংসদীয় তিনশ’ আসনে জমা পড়া ২ হাজার ৭১৬টি মনোনয়নপত্রের মধ্যে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসাররা ৭৩১টি মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। বাতিল হওয়া মনোনয়নপত্রের বৈধতা পেতে সাড়ে পাঁচশটির মতো আবেদন জমা পড়ে। বাকিগুলো জমা পড়ে বৈধ ঘোষিত প্রার্থীকে অবৈধ ঘোষণার দাবিতে।

বাদপড়াদের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী ছিলেন ৪২৩ জন, যাদের প্রায় সবাই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে ‘দল নিরপেক্ষ’ প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন। দলীয় প্রার্থীর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৩৭ জন বাদ পড়েছেন বাংলাদেশ কংগ্রেসের। জাতীয় পার্টির ৩০ জন এবং তৃণমূল বিএনপির বাদ পড়েছেন ২৪ জন।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের চার জন প্রার্থীর এবং গত নির্বাচনে নৌকা নিয়ে লড়াই করা বিকল্প ধারার দুই জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্রও বাতিল করেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসাররা।

বিএনপি-জামায়াতের ভোট বর্জনের মধ্যে আওয়ামী লীগের কয়েকশ নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জম দেন। তবে এক শতাংশ ভোটারের আগাম সমর্থনের প্রমাণ দিতে না পারার ঘটনায় তাদের বড় অংশ বাদ পড়ে যান।

রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্ত দৃশ্যত মেনে নেন ১৮১টি আসনের নেতারা। এদের মধ্যে কয়জন দলীয় এবং কয়জন স্বতন্ত্র তা প্রকাশ পায়নি এখনও। একইভাবে যারা আপিল করেছেন, তাদের মধ্যে কয়জন স্বতন্ত্র আর কয়জন দলীয় প্রার্থী, সেটিও তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

রিটার্নিং কর্মকর্তাদের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করার সুযোগ ছিল ৫ থেকে ৯ ডিসেম্বর। এই আপিলে কেবল প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার আবেদন করা যায়- এমন নয়, বৈধ ঘোষিত প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিলের আবেদনও করা যায়।

শনিবার আপিলের শেষ দিনে নির্বাচন কমিশন সচিব মো. জাহাংগীর আলম সাংবাদিকদের বলেন, ‘১০ ডিসেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত শুনানি করে সিদ্ধান্ত দেবে কমিশন।’

নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা আমির হোসেন আমুকে তলব করার বিষয়ে এক প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘ঝালকাঠি-২ আসনের একজন প্রার্থী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন বলে রিটার্নিং অফিসার প্রতিবেদন দিয়েছেন। সেই ভিত্তিতে তাকে (আমু) আগামী ১৫ ডিসেম্বর বিকেল ৩টায় সশরীরে হাজির হয়ে বক্তব্য দিতে বলা হয়েছে।’

আজ বিএনপির মানবন্ধন কর্মসূচির অনুমতির বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের করণীয় আছে কিনাÑ এই প্রশ্নে ইসি সচিব বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা রক্ষা সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম দেখভাল করছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে তা সেখান থেকেই গণমাধ্যমকে জানতে হবে।’

আগামী ২৯ ডিসেম্বর হেফাজতে ইসলামের সমাবেশের ডাক নিয়ে জাহাংগীর বলেন, ‘বিষয়টি আমার পত্রিকার মাধ্যমে জেনেছি। আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অবহিত করব। তারা এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। কমিশন যদি মনে কোনো সাজেশন দেয়ার প্রয়োজন আছে, তাহলে সেটা করবে।’

যেসব রাজনৈতিক দল বা সংগঠন নির্বাচনের বাইরে আছে, তারা যদি সভা সমাবেশ করে তাহলে সেটি দেখা নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ারে পড়ে কিনা, এই প্রশ্নে ইসি সচিব বলেন, ‘নির্বাচনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারী যে কোনো কার্যক্রম অবশ্যই নির্বাচন পরিপন্থী হিসেবে গণ্য হবে। সেক্ষেত্রে যে প্রচলিত বিধিবিধান ও আইন আছে, তা সবার জন্য প্রযোজ্য হবে।’

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী, আগামী ১৭ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহরের পরদিন ১৮ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ করা হবে। এরপর থেকে প্রার্থীরা প্রচার শুরু করতে পারবেন, যা চলবে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত। ব্যালটে ভোট হবে আগামী ৭ জানুয়ারি।

ছবি

সংসদের বিরোধী দল গঠন হয়েছে আ.লীগের কার্যালয়ে : শমসের মবিন

ছবি

গণতন্ত্র ফেরানোর আন্দোলনে সরকার পরিবর্তন অবশ্যই হবে : নজরুল

ছবি

আ.লীগ কার্যালয়ে বিরোধী দল গঠন সুস্থ রাজনীতি নয় : তৃণমূল বিএনপি

ছবি

আন্দোলন সফল না ব্যর্থ, তা নিয়ে আ.লীগ কথা বলতে পারে না : নজরুল ইসলাম

ছবি

বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেও দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে : কাদের

ছবি

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি হবে ‘মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা’: রিজভী

ছবি

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আলতাফের জামিন, মুক্তি ‘এখনই না’

ছবি

জামিনে মুক্তি পেলেন বিএনপি নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল

ছবি

সাম্প্রদায়িকতার বিষবৃক্ষকে সমূলে উৎপাটন করা হবে : কাদের

ছবি

আমরা গণতন্ত্র, মানবাধিকার ও ভোটাধিকারহারা: রিজভী

ছবি

ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের গ্রাজুয়েট হলেন তিন দলের ২৫ তরুণ নেতা

ছবি

‘যত কঠোর হওয়া দরকার আমরা হবো’: কাদের

ছবি

বিএনপি নেতারা নিজেদের মুখ রক্ষায় অসংলগ্ন কথা বলছেন

ছবি

একুশের চেতনা গণতন্ত্র ও খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন তীব্রতর করবে: মির্জা ফখরুল

ছবি

মিউনিখে সাহসী কূটনীতি দেখিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী: ওবায়দুল কাদের

ছবি

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বিএনপির কর্মসূচি ঘোষণা আওয়ামী লীগ এখন বন্দুকনির্ভর দলে পরিণত হয়েছে: রিজভী

ছবি

কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন মির্জা আব্বাস

ছবি

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের নারী আসন ৫০ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ

ছবি

সভ্যতার জন্য বৈরী সংগঠন ছাত্রলীগ : রিজভী

ছবি

বিএনপির শীর্ষ ৭ আইনজীবীর আদালত অবমাননার শুনানি দুই মাস পেছাল

ছবি

বিরোধী দল নিষিদ্ধ করতে চায় আওয়ামী লীগ: মঈন খান

ছবি

আরেক মামলায় মির্জা আব্বাসের জামিন

ছবি

জাতি ভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধুর অবদান শ্রদ্ধাভরে স্মরণ রাখবে

ছবি

সংরক্ষিত ৪৮ আসনে আ. লীগের মনোনয়নপত্র জমা

ছবি

তারেক রহমান বিএনপিকে ধ্বংস করছে : নানক

ছবি

নির্বাচনে অংশ নিয়ে গণতন্ত্রকে বাঁচিয়েছি: চুন্নু

ছবি

স্বাধীনতার মূল আদর্শে আওয়ামী লীগ আঘাত করেছে : মঈন খান

ছবি

৯ মার্চ জাতীয় পার্টির কাউন্সিল ঘোষণা করলেন রওশন

ছবি

নারায়ণগঞ্জ আ. লীগ : আনোয়ারের কমিটি, অবাঞ্ছিত ঘোষণা আইভীর

ছবি

দেশে বিএনপির চেয়ে বড় উগ্রবাদী কারা, প্রশ্ন ওবায়দুল কাদেরের

ছবি

এ দেশে যে কেউ যা তা করবে, সেটা হতে দেওয়া যায় না : গণফোরাম

ছবি

ক্ষমতা হারানোর ভয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে আওয়ামী লীগ : ফখরুল

ছবি

কৌশল পরিবর্তন করে আবার ঘুরে দাড়াতে চায় বিএনপি

ছবি

ইউনূসে সরকারের কোনো হাত নেই : আইনমন্ত্রী

ছবি

রোজায় পণ্যের সংকট হবে না, বেঁধে দেওয়া হবে তেলের দাম: প্রতিমন্ত্রী

ছবি

ফখরুল আবারও দিবাস্বপ্নে বিভোর : কাদের

tab

রাজনীতি

প্রার্থিতা বহাল-বাতিল

ইসিতে মোট আপিল ৫৬১টি, সিদ্ধান্ত ১৫ তারিখের মধ্যে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

শনিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২৩

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাইয়ে রিটার্নিং অফিসারদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) ৫৬১টি আপিল জমা পড়েছে। এর মধ্যে, অধিকাংশ আবেদন এসেছে প্রার্থিতা ফিরে পেতে। অল্প কিছু আবেদন জমা পড়েছে বৈধ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল করার জন্য।

বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগ থেকে প্রার্থী হওয়া ঝালকাঠি-১ আসনের আলোচিত প্রার্থী শাহজাহান ওমরের মনোনয়নপত্রের বৈধতার বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল জমা পড়েছে। ওই আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুজ্জামানের পক্ষে মো. জাকির নামের স্থানীয় একজন ভোটার শনিবার (৯ ডিসেম্বর) ইসিতে আপিল করেন। আপিলে তার বিরুদ্ধে হলফনামায় মামলাসংক্রান্ত তথ্য গোপন করার অভিযোগ আনা হয়েছে।

বরিশাল-৪ (মেহেন্দীগঞ্জ-হিজলা) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী পংকজ নাথের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে আপিল করেন শাম্মী আহমেদ। শনিবার দুপুরে শাম্মী আহম্মেদের পক্ষে তার আইনজীবী এই আপিল করেন। এতে পংকজের বিরুদ্ধে হলফনামায় তথ্য গোপন করার অভিযোগ আনা হয়।

শাম্মী আহমেদ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক। তিনি বরিশাল-৪ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পান। তবে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকত্ব থাকায় সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসারের বিরুদ্ধে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। শাম্মী আহমেদ রিটার্নিং কর্মকর্তার ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধেও ইসিতে আপিল করেন।

এর আগে বরিশাল-৫ আসনে নৌকার মনোনয়নবঞ্চিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহর মনোনয়নপত্রের বৈধতার বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল করেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাহিদ ফারুকের মনোনয়নপত্রের সমর্থনকারী কে বি এস আহমেদ। সাদিক আবদুল্লাহর বিরুদ্ধেও হলফনামায় সম্পদ বিবরণীতে অসত্য দেয়ার অভিযোগ আনা হয়।

ইসি সূত্রে জানা যায়, ফরিদপুর-৩ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী শামীম হকের মনোনয়নপত্রের বৈধতার বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল করেন ওই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এ কে আজাদ। তিনি অভিযোগ করেন, নৌকার প্রার্থী শামীম হক নেদারল্যান্ডসের নাগরিক।

কিশোরগঞ্জ-৩ আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী ও দলটির মহাসচিব মুজিবুল হকের প্রার্থিতার বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল করেন নাসিরুল হক খান। তিনি ওই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী। বাছাইয়ে তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। এর আগে নিজের প্রার্থিতা ফিরে পেতেও ইসিতে আপিল করেন নাসিরুল হক খান।

সিলেট-৩ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাবিবুর রহমানের মনোনয়নের বৈধতার বিরুদ্ধে আপিল করেন আতিকুর রহমান নামের এক ব্যক্তি।

কুমিল্লা-৩ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুনের মনোনয়নপত্র গ্রহণের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী বশির আহমদ। কুমিল্লা-৪ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম আজাদের মনোনয়নপত্র গ্রহণের বিরুদ্ধেও ইসিতে এক ব্যক্তি আপিল করেন।

সংসদীয় তিনশ’ আসনে জমা পড়া ২ হাজার ৭১৬টি মনোনয়নপত্রের মধ্যে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসাররা ৭৩১টি মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। বাতিল হওয়া মনোনয়নপত্রের বৈধতা পেতে সাড়ে পাঁচশটির মতো আবেদন জমা পড়ে। বাকিগুলো জমা পড়ে বৈধ ঘোষিত প্রার্থীকে অবৈধ ঘোষণার দাবিতে।

বাদপড়াদের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী ছিলেন ৪২৩ জন, যাদের প্রায় সবাই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে ‘দল নিরপেক্ষ’ প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন। দলীয় প্রার্থীর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৩৭ জন বাদ পড়েছেন বাংলাদেশ কংগ্রেসের। জাতীয় পার্টির ৩০ জন এবং তৃণমূল বিএনপির বাদ পড়েছেন ২৪ জন।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের চার জন প্রার্থীর এবং গত নির্বাচনে নৌকা নিয়ে লড়াই করা বিকল্প ধারার দুই জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্রও বাতিল করেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসাররা।

বিএনপি-জামায়াতের ভোট বর্জনের মধ্যে আওয়ামী লীগের কয়েকশ নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জম দেন। তবে এক শতাংশ ভোটারের আগাম সমর্থনের প্রমাণ দিতে না পারার ঘটনায় তাদের বড় অংশ বাদ পড়ে যান।

রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্ত দৃশ্যত মেনে নেন ১৮১টি আসনের নেতারা। এদের মধ্যে কয়জন দলীয় এবং কয়জন স্বতন্ত্র তা প্রকাশ পায়নি এখনও। একইভাবে যারা আপিল করেছেন, তাদের মধ্যে কয়জন স্বতন্ত্র আর কয়জন দলীয় প্রার্থী, সেটিও তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

রিটার্নিং কর্মকর্তাদের আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করার সুযোগ ছিল ৫ থেকে ৯ ডিসেম্বর। এই আপিলে কেবল প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার আবেদন করা যায়- এমন নয়, বৈধ ঘোষিত প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিলের আবেদনও করা যায়।

শনিবার আপিলের শেষ দিনে নির্বাচন কমিশন সচিব মো. জাহাংগীর আলম সাংবাদিকদের বলেন, ‘১০ ডিসেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত শুনানি করে সিদ্ধান্ত দেবে কমিশন।’

নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা আমির হোসেন আমুকে তলব করার বিষয়ে এক প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘ঝালকাঠি-২ আসনের একজন প্রার্থী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন বলে রিটার্নিং অফিসার প্রতিবেদন দিয়েছেন। সেই ভিত্তিতে তাকে (আমু) আগামী ১৫ ডিসেম্বর বিকেল ৩টায় সশরীরে হাজির হয়ে বক্তব্য দিতে বলা হয়েছে।’

আজ বিএনপির মানবন্ধন কর্মসূচির অনুমতির বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের করণীয় আছে কিনাÑ এই প্রশ্নে ইসি সচিব বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা রক্ষা সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যক্রম দেখভাল করছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে তা সেখান থেকেই গণমাধ্যমকে জানতে হবে।’

আগামী ২৯ ডিসেম্বর হেফাজতে ইসলামের সমাবেশের ডাক নিয়ে জাহাংগীর বলেন, ‘বিষয়টি আমার পত্রিকার মাধ্যমে জেনেছি। আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অবহিত করব। তারা এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। কমিশন যদি মনে কোনো সাজেশন দেয়ার প্রয়োজন আছে, তাহলে সেটা করবে।’

যেসব রাজনৈতিক দল বা সংগঠন নির্বাচনের বাইরে আছে, তারা যদি সভা সমাবেশ করে তাহলে সেটি দেখা নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ারে পড়ে কিনা, এই প্রশ্নে ইসি সচিব বলেন, ‘নির্বাচনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারী যে কোনো কার্যক্রম অবশ্যই নির্বাচন পরিপন্থী হিসেবে গণ্য হবে। সেক্ষেত্রে যে প্রচলিত বিধিবিধান ও আইন আছে, তা সবার জন্য প্রযোজ্য হবে।’

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী, আগামী ১৭ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহরের পরদিন ১৮ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ করা হবে। এরপর থেকে প্রার্থীরা প্রচার শুরু করতে পারবেন, যা চলবে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত। ব্যালটে ভোট হবে আগামী ৭ জানুয়ারি।

back to top