alt

রাজনীতি

কুমিল্লা সিটি : প্রতিষ্ঠার ১৩ বছরেও কমেনি ভোগান্তি, বেড়েছে যানজট-জলজট

প্রার্থীদের বিরামহীন প্রচারণায় সরগরম মহানগর

জেলা বার্তা পরিবেশক, কুমিল্লা : মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

কুমিল্লা : গণসংযোগে বাস প্রতীকের প্রার্থী তাহসিন বাহার সূচনা-সংবাদ

প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ ১৩ বছর পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত যানজট ও জলজট থেকে মুক্তি পায়নি কুমিল্লা মহানগরবাসী। বিগত সময়ে সিটি নির্বাচনগুলোতে প্রার্থীদের বেশ প্রতিশ্রুতি থাকলেও নির্বাচিত হওয়ার পর নগরবাসীর উন্নয়নে তেমন চমক দেখাতে পারেননি। সর্বশেষ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত বিজয়ী নগরীর উন্নয়নে বেশকিছু পদক্ষেপ নিলেও তার মৃত্যুতে যেন থমকে গেছে সবই। ফের উপ-নির্বাচনকে ঘিরে সক্রিয় হয়েছেন প্রার্থীরা। দিচ্ছেন উন্নয়নের নানা প্রতিশ্রুতি। এসব প্রার্থীদেও বিরামহীন প্রচারণায় সরগরম এখন কুমিল্লা মহানগর। ভোটারদের মনজয়ের চেষ্টায় অব্যাহত রেখেছেন প্রচারণা। তবে প্রার্থী যিনিই নির্বাচিত হন না কেন যানজট ও জলজট থেকে পরিত্রান পেতে চান সাধারণ ভোটাররা।

জানা যায়, দেশের প্রাচীন জেলা কুমিল্লা পৌরসভাকে সিটি করপোরেশনে উন্নীত হলেও পাল্টায়নি পুরনো চিত্র। বেড়েই চলেছে যানজট। ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা ও সিএনজির অবাধ বিচরনসহ সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার অভাবে বেড়েছে নগরবাসীর ভোগান্তি। ইতোপূর্বের সিটি নির্বাচনগুলোতে গ্রিণ অ্যা- ক্লিন সিটিসহ পরিকল্পিত ও বাসযোগ্য নগর গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অনেকে। ১৩ বছরে নগর উন্নয়ন, যানজট-জলাবদ্ধতা নিরসন, সৌন্দর্যবর্ধনসহ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের নামে রাস্ট্রের কোটি কোটি টাকা ব্যয় হলেও নগরবাসীর দুর্ভোগ পিছু ছাড়েনি কখনোই। এবার সিটি করপোরেশনের উপ-নির্বাচনে নগরের সচেতন ভোটাররা প্রার্থীদের নিকট থেকে শুধু আশ্বাসই নয়, টেকসই উন্নয়ন-কাজের মাধ্যমে নগর থেকে যানজট-জলজট দূরীকরণসহ জলাবদ্ধতার উৎস নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে দখলদারদের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবি জানান। তারা বলছেন, যে প্রার্থী নগরবাসীর এসব দুর্ভোগ লাঘবে সচেষ্ট হবেন, তাকেই ভোটের মাধ্যমে বাছাই করে নেবেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সিটি করপোরেশন হওয়ার পর এক যুগ পার হলেও এখনও নেয়া হয়নি কোনো মহাপরিকল্পনা। এ ছাড়া বড় অঙ্কের বরাদ্দ ও অনেক প্রকল্পের কাজ হচ্ছে অপরিকল্পিতভাবে। এসব প্রকল্পের কাজ, নগর উন্নয়ন ও ভবনের নকশা অনুমোদনে সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কুর বিরুদ্ধে বিগত সময়ে বিভিন্ন সভা-সমাবেশে কোটি কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগ তুলেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর আসনের এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। পরিকল্পিত নগরায়ন না হওয়ায় নাগরিকদের মৌলিক সমস্যাগুলো সমাধানের বদলে সৃষ্টি হচ্ছে জটিলতা। এদিকে নগরীতে প্রতিনিয়ত সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, বাণিজ্যিক ও আবাসিক ভবন, যানবাহন ও জনসংখ্যা বাড়লেও বাড়ছে না সড়ক। নগরীতে নেই পর্যাপ্ত ভূ-উপরিস্থ নালা ও ভূগর্ভস্থ পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থা। দিনের অধিকাংশ সময় নগরীতে লেগে থাকে যানজট। স্থানীয় ভোটারদের দাবি, এসব সমস্যা সমাধানে বারবার প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবায়ন করেননি কেউ। আগামী ৯ মার্চ হতে যাওয়া মেয়র পদের উপ-নির্বাচনে যিনি বিজয়ী হবেন, তিনি যেন কথা ও কাজের মিল রাখেন। সেটা মাথায় রেখে তারা এবার যোগ্য প্রার্থীকে বেছে নিবেন। এদিকে মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) প্রচার-প্রচারণার ৫ম দিনে চার মেয়র প্রার্থী নগরীর বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ, উঠান বৈঠক করেছেন। নির্বাচনকে ঘিরে এসব প্রার্থী ও তাদের নেতারা ভোটারদের কাছে টানতে দিচ্ছেন নানান ধরনের প্রতিশ্রুতি। ভোটারদের দ্বারে দ্বারে প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা।

প্রার্থীদের প্রচারণা ও গণসংযোগ :

ডা. তাহসিন বাহার সূচনা : কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাস প্রতীকের প্রার্থী- নগর আওয়ামী লীগ সমর্থিত ডা. তাহসিন বাহার সূচনা মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ডের কাপ্তানবাজার, মোগলটুলি এলাকায় গণসংযোগ করেন। বিকেলে তিনি কাপ্তান বাজার বেপারি পুকুর পাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কুমিল্লা হাইস্কুল মাঠে পৃথক উঠান বৈঠক করেন। প্রার্থী বলেন, যেখানে যাচ্ছি গণসংযোগে আমি ভালো সাড়া পাচ্ছি। বিশেষ করে নারী শ্রেণী থেকেও আমি ভালো সাড়া পাচ্ছি। কুমিল্লাতে নগর মাতা নয়, নগর কন্যা হয়ে যেন আপনাদের পাশে দাঁড়াতে পারি। ৯ মার্চ সকালে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে বাস মার্কা প্রতীকে ভোট দিয়ে উন্নয়ন বাসের যাত্রী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। নারীদের সুযোগ-সুবিধা ও স্বাস্থ্যসেবাসহ আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করবেন। এ সময় তার সঙ্গে বিভিন্ন পেশার বিপুলসংখ্যক নারী পুরুষসহ সাধারণ মানুষের সমাগম ঘটে। এতে মহানগর আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

মনিরুল হক সাক্কু : টেবিল ঘড়ি প্রতীকের প্রার্থী সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কু নগরীর রেইসকোর্স, ইস্টার্ন ইয়াকুব প্লাজা এলাকায় গণসংযোগ করেন। বিকেলে বিষ্ণুপুর, থিরাপুকুরপাড়, কালিয়াজুড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয় রোডে প্রার্থী ও তার সহধর্মীনি আফরোজা জেসমিন টিকলি উঠান বৈঠক করেন।

নিজাম উদ্দিন কায়সার : ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার নগরীর লক্ষ্মীনগর, চৌয়ারা বাজার ও বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক করেন। তিনি বলেন, আমি নগরের সেবক হয়ে জনগণের সেবা করতে চাই। একটা দায়িত্ব পেলে এবং জনগণ যদি আমাকে নির্বাচিত করে তাহলে ব্যাপক আকারে মানুষের জন্য কাজ করতে পারবো।

নূর-উর রহমান মাহমুদ তানিম : হাতি প্রতীকের প্রার্থী নূর-উর রহমান মাহমুদ তানিম নগরীর মাটিয়ারা, পাঠানকোটসহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক করেন। এসময় তিনি বলেন, ইভিএম পদ্ধতিতে কারচুপি করার সুযোগ নেই। তবে একজন প্রার্থীর লোকজন ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। তারা ভোট খোঁজে না, তারা পোস্টার ছিঁড়ে। পোস্টার ছেঁড়ার রাজনীতি বন্ধ করুন, না হয় জবাব দেয়া হবে। তিনি বলেন, বেকার তরুণদের কর্মসংস্থান ও জীবনমান উন্নয়নে নানা পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন। দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে নগরবাসীর সব সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন।

ছবি

বিএনপিসহ স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তিকে প্রতিহত করতে হবে : ওবায়দুল কাদের

ছবি

মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

ছবি

মনোনয়নে বিএনপি-জামায়াতের নেতারা, তবে দল দু’টির বর্জনের ঘোষণা

ছবি

আনুষ্ঠানিকভাবে উপজেলা নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা বিএনপির

ছবি

হিটলারের চেয়েও ভয়ঙ্কর নেতানিয়াহু : ওবায়দুল কাদের

ছবি

এমপি-মন্ত্রীদের হস্তক্ষেপ না করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

ফখরুলকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন ওবায়দুল কাদের

সকল ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হওয়ায় বিএনপি এখন মনগড়া তথ্য দিয়ে মিথ্যাচার করছে : ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রকে সত্যিকার অর্থে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে : মির্জা ফখরুল

ছবি

দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো না, গ্রামের মানুষ কষ্টে দিন কাটাচ্ছে

ছবি

এবারের ঈদ বাংলাদেশের মানুষের জন্য দুঃখ-কষ্ট নিয়ে এসেছে : মির্জা ফখরুল

ছবি

ঈদে মধ্যবিত্তরা মুখ লুকিয়ে কাঁদছে: রিজভী

রংপুরে পুনঃ গননা, জাতীয় পার্টির মনোনীত ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহফুজার রহমানকে ৩শ ৩ ভোটে বিজয়ী ঘোষনা

ছবি

বিএনপি গণতন্ত্রের শত্রু ও আন্তর্জাতিকভাবে চিহ্নিত একটি সন্ত্রাসী দল : ওবায়দুল কাদের

ছবি

বিএনপিই এ দেশে গণতান্ত্রিক আদর্শ বাস্তবায়নের প্রধান প্রতিবন্ধক : ওবায়দুল কাদের

ছবি

রমজানে দ্রব্যমূল্যে উর্ধ্বগতি সরকারের দোষ নয় , এটা আমাদের রক্তে সমস্যা : এমপি রুমা চক্রবর্তী

ছবি

পাহাড়ে কেএনএফের সশস্ত্র তৎপরতা বিচ্ছিন্ন ঘটনা: ওবায়দুল কাদের

ছবি

সরকার নিজেই দস্যুদের মতো আচরণ করছে: রিজভী

ছবি

সকলের অংশগ্রহণে অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন নিশ্চিত করাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য- অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান

ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অবগত থাকলেও তাদের সম্পর্কে খোঁজখবর রাখেননি: পাহাড় নিয়ে রিজভী

ছবি

বিএনপি ক্ষমতায় গেলে গোটা বাংলাদেশ গিলে খাবে : ওবায়দুল কাদের

ছবি

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের বিভাগভিত্তিক কমিটি ঘোষণা

বিভক্ত বিএনপি : দলের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে আইনজীবী সমিতির সভাপতির দায়িত্ব নিচ্ছেন মাহবুব উদ্দীন খোকন

ছবি

বান্দরবানের বিষয়ে কঠোর অবস্থানে সরকার: সেতুমন্ত্রী

কোন্দলের শঙ্কার মধ্যেই ‘উৎসবমুখর’ উপজেলা ভোটের চ্যালেঞ্জ আ’লীগের

ছবি

ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েও বিএনপি ব্যর্থ: কাদের

আগামীকাল আওয়ামী লীগের খুলনা বিভাগের মতবিনিময় সভা

ছবি

বুয়েটে চলমান আন্দোলনে ছাত্রদলের সংহতি

ছবি

চিকিৎসা শেষে বাসায় ফিরেছেন খালেদা জিয়া

ছবি

সরকার দেশকে পুলিশি রাষ্ট্রে পরিণত করেছে: মির্জা ফখরুল

ছবি

ঈদের আগে গার্মেন্টসসহ সকল সেক্টরের শ্রমিকদের বেতন ভাতা পরিশোধের দাবি:এবি পার্টির

ছবি

উপজেলা নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে : কাদের

ছবি

সিসিইউতে খালেদা জিয়ার অবস্থা ‘স্থিতিশীল’

রংপুরে আওয়ামী লীগের ৬ থানা কমিটির অনুমোদন দেবার ক্ষমতা খর্ব করলো দলের হাইকমান্ড

ছবি

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের খরচ পৌনে ৩ কোটি টাকা

ছবি

ছাত্র রাজনীতি অবশ্যই চাই, সমস্যা করছে ছাত্রলীগ: গয়েশ্বর

tab

রাজনীতি

কুমিল্লা সিটি : প্রতিষ্ঠার ১৩ বছরেও কমেনি ভোগান্তি, বেড়েছে যানজট-জলজট

প্রার্থীদের বিরামহীন প্রচারণায় সরগরম মহানগর

জেলা বার্তা পরিবেশক, কুমিল্লা

কুমিল্লা : গণসংযোগে বাস প্রতীকের প্রার্থী তাহসিন বাহার সূচনা-সংবাদ

মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ ১৩ বছর পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত যানজট ও জলজট থেকে মুক্তি পায়নি কুমিল্লা মহানগরবাসী। বিগত সময়ে সিটি নির্বাচনগুলোতে প্রার্থীদের বেশ প্রতিশ্রুতি থাকলেও নির্বাচিত হওয়ার পর নগরবাসীর উন্নয়নে তেমন চমক দেখাতে পারেননি। সর্বশেষ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত বিজয়ী নগরীর উন্নয়নে বেশকিছু পদক্ষেপ নিলেও তার মৃত্যুতে যেন থমকে গেছে সবই। ফের উপ-নির্বাচনকে ঘিরে সক্রিয় হয়েছেন প্রার্থীরা। দিচ্ছেন উন্নয়নের নানা প্রতিশ্রুতি। এসব প্রার্থীদেও বিরামহীন প্রচারণায় সরগরম এখন কুমিল্লা মহানগর। ভোটারদের মনজয়ের চেষ্টায় অব্যাহত রেখেছেন প্রচারণা। তবে প্রার্থী যিনিই নির্বাচিত হন না কেন যানজট ও জলজট থেকে পরিত্রান পেতে চান সাধারণ ভোটাররা।

জানা যায়, দেশের প্রাচীন জেলা কুমিল্লা পৌরসভাকে সিটি করপোরেশনে উন্নীত হলেও পাল্টায়নি পুরনো চিত্র। বেড়েই চলেছে যানজট। ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা ও সিএনজির অবাধ বিচরনসহ সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার অভাবে বেড়েছে নগরবাসীর ভোগান্তি। ইতোপূর্বের সিটি নির্বাচনগুলোতে গ্রিণ অ্যা- ক্লিন সিটিসহ পরিকল্পিত ও বাসযোগ্য নগর গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অনেকে। ১৩ বছরে নগর উন্নয়ন, যানজট-জলাবদ্ধতা নিরসন, সৌন্দর্যবর্ধনসহ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের নামে রাস্ট্রের কোটি কোটি টাকা ব্যয় হলেও নগরবাসীর দুর্ভোগ পিছু ছাড়েনি কখনোই। এবার সিটি করপোরেশনের উপ-নির্বাচনে নগরের সচেতন ভোটাররা প্রার্থীদের নিকট থেকে শুধু আশ্বাসই নয়, টেকসই উন্নয়ন-কাজের মাধ্যমে নগর থেকে যানজট-জলজট দূরীকরণসহ জলাবদ্ধতার উৎস নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে দখলদারদের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবি জানান। তারা বলছেন, যে প্রার্থী নগরবাসীর এসব দুর্ভোগ লাঘবে সচেষ্ট হবেন, তাকেই ভোটের মাধ্যমে বাছাই করে নেবেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সিটি করপোরেশন হওয়ার পর এক যুগ পার হলেও এখনও নেয়া হয়নি কোনো মহাপরিকল্পনা। এ ছাড়া বড় অঙ্কের বরাদ্দ ও অনেক প্রকল্পের কাজ হচ্ছে অপরিকল্পিতভাবে। এসব প্রকল্পের কাজ, নগর উন্নয়ন ও ভবনের নকশা অনুমোদনে সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কুর বিরুদ্ধে বিগত সময়ে বিভিন্ন সভা-সমাবেশে কোটি কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগ তুলেন কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সদর আসনের এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। পরিকল্পিত নগরায়ন না হওয়ায় নাগরিকদের মৌলিক সমস্যাগুলো সমাধানের বদলে সৃষ্টি হচ্ছে জটিলতা। এদিকে নগরীতে প্রতিনিয়ত সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, বাণিজ্যিক ও আবাসিক ভবন, যানবাহন ও জনসংখ্যা বাড়লেও বাড়ছে না সড়ক। নগরীতে নেই পর্যাপ্ত ভূ-উপরিস্থ নালা ও ভূগর্ভস্থ পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থা। দিনের অধিকাংশ সময় নগরীতে লেগে থাকে যানজট। স্থানীয় ভোটারদের দাবি, এসব সমস্যা সমাধানে বারবার প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবায়ন করেননি কেউ। আগামী ৯ মার্চ হতে যাওয়া মেয়র পদের উপ-নির্বাচনে যিনি বিজয়ী হবেন, তিনি যেন কথা ও কাজের মিল রাখেন। সেটা মাথায় রেখে তারা এবার যোগ্য প্রার্থীকে বেছে নিবেন। এদিকে মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) প্রচার-প্রচারণার ৫ম দিনে চার মেয়র প্রার্থী নগরীর বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ, উঠান বৈঠক করেছেন। নির্বাচনকে ঘিরে এসব প্রার্থী ও তাদের নেতারা ভোটারদের কাছে টানতে দিচ্ছেন নানান ধরনের প্রতিশ্রুতি। ভোটারদের দ্বারে দ্বারে প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা।

প্রার্থীদের প্রচারণা ও গণসংযোগ :

ডা. তাহসিন বাহার সূচনা : কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বাস প্রতীকের প্রার্থী- নগর আওয়ামী লীগ সমর্থিত ডা. তাহসিন বাহার সূচনা মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ৪ ও ৫ নং ওয়ার্ডের কাপ্তানবাজার, মোগলটুলি এলাকায় গণসংযোগ করেন। বিকেলে তিনি কাপ্তান বাজার বেপারি পুকুর পাড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কুমিল্লা হাইস্কুল মাঠে পৃথক উঠান বৈঠক করেন। প্রার্থী বলেন, যেখানে যাচ্ছি গণসংযোগে আমি ভালো সাড়া পাচ্ছি। বিশেষ করে নারী শ্রেণী থেকেও আমি ভালো সাড়া পাচ্ছি। কুমিল্লাতে নগর মাতা নয়, নগর কন্যা হয়ে যেন আপনাদের পাশে দাঁড়াতে পারি। ৯ মার্চ সকালে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে বাস মার্কা প্রতীকে ভোট দিয়ে উন্নয়ন বাসের যাত্রী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। নারীদের সুযোগ-সুবিধা ও স্বাস্থ্যসেবাসহ আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করবেন। এ সময় তার সঙ্গে বিভিন্ন পেশার বিপুলসংখ্যক নারী পুরুষসহ সাধারণ মানুষের সমাগম ঘটে। এতে মহানগর আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

মনিরুল হক সাক্কু : টেবিল ঘড়ি প্রতীকের প্রার্থী সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কু নগরীর রেইসকোর্স, ইস্টার্ন ইয়াকুব প্লাজা এলাকায় গণসংযোগ করেন। বিকেলে বিষ্ণুপুর, থিরাপুকুরপাড়, কালিয়াজুড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয় রোডে প্রার্থী ও তার সহধর্মীনি আফরোজা জেসমিন টিকলি উঠান বৈঠক করেন।

নিজাম উদ্দিন কায়সার : ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার নগরীর লক্ষ্মীনগর, চৌয়ারা বাজার ও বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক করেন। তিনি বলেন, আমি নগরের সেবক হয়ে জনগণের সেবা করতে চাই। একটা দায়িত্ব পেলে এবং জনগণ যদি আমাকে নির্বাচিত করে তাহলে ব্যাপক আকারে মানুষের জন্য কাজ করতে পারবো।

নূর-উর রহমান মাহমুদ তানিম : হাতি প্রতীকের প্রার্থী নূর-উর রহমান মাহমুদ তানিম নগরীর মাটিয়ারা, পাঠানকোটসহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক করেন। এসময় তিনি বলেন, ইভিএম পদ্ধতিতে কারচুপি করার সুযোগ নেই। তবে একজন প্রার্থীর লোকজন ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। তারা ভোট খোঁজে না, তারা পোস্টার ছিঁড়ে। পোস্টার ছেঁড়ার রাজনীতি বন্ধ করুন, না হয় জবাব দেয়া হবে। তিনি বলেন, বেকার তরুণদের কর্মসংস্থান ও জীবনমান উন্নয়নে নানা পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন। দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে নগরবাসীর সব সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন।

back to top