alt

রাজনীতি

মানবাধিকার পরিস্থিতি ঢেকে রাখা যাবে না: গণসংহতি আন্দোলন

ঢাবি প্রতিনিধি : মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২

সরকার পদে পদে মানবাধিকার লঙ্ঘন করে চলেছে বলে মনে করছে গণসংহতি আন্দোলন।

মঙ্গলবার গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি ও নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন,‘অথচ জাতিসংঘের হাইকমিশনারকে তারা নির্জলা মিথ্যাচার করছে।’

বিবৃতিতে মিথ্যাচার করে দেশের ভয়াবহ মানবাধিকার পরিস্থিতি ঢেকে রাখা যাবে না বলেও মন্তব্য করেছেন তারা।

বিবৃতিতে নেতারা বলেন, ‘এই সরকার শত শত মানুষকে গুম করেছে, লক্ষ লক্ষ বিরোধী নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের দমন করেছে, পুলিশ বাহিনীকে দিয়ে নিপীড়ন চালাচ্ছে, মিছিলে গুলি করে মানুষ মারছে, আমলাতন্ত্র ও প্রশাসনকে চরম দলীয়করণ করে ব্যাপকতরভাবে জনগণের বিরুদ্ধেই ব্যবহার করেছে, গত তের বছরে আদালতকে প্রভাবিত করে দেশকে বিচারহীনতা ও নৈরাজ্যে ডুবিয়েছে। মূলত মানবাধিকার পরিস্থিতিকে এই সরকার এক নিকৃষ্ট পর্যায়ে নিয়ে গেছে।’

জেলা পরিষদ নির্বাচনর আ’লীগ প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় ৪ বিএনপি নেতাকে শো-কজ

ছবি

বিএনপি স্বাধীনতা বিরোধীদের অভিন্ন প্লাটফর্ম

ছবি

দুধ দিয়ে গোসল করে রাজনীতির ইতি টানলেন ছাত্রলীগ নেতা

ছবি

নির্বাচনকে বিএনপি নয়, আ.লীগ ভয় পায় : মির্জা ফখরুল

ছবি

নারায়ণগঞ্জে বিএনপির শোক মিছিল

ছবি

সুস্থ আছি, সামনের মাসে দেশে ফিরব : রওশন এরশাদ

ছবি

দুর্ঘটনা নয়, সরকারের ব্যর্থতায় বিদ্যুৎ খাতে দুর্যোগ: মির্জা ফখরুল

ছবি

বিএনপির মুখে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের কথা শোভা পায় না: ওবায়দুল কাদের

ছবি

শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আছে বলেই সম্প্রীতি বজায় আছে: ইঞ্জিনিয়ার সবুর

ফরিদপুর-২ আসনে নৌকা পেলেন সাজেদা চৌধুরীর কনিষ্ঠ পুত্র লাবু চৌধুরী

ঢাকেশ্বরী মন্দিরে দলীয় শ্লোগান শুনে ক্ষুব্ধ ওবায়দুল কাদের

ছবি

জাতীয় পার্টি রংপুরে সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাকে আবারো মনোনয়ন দিয়েছে

ছবি

ইভিএমে আঙুলের ছাপ না মিললে ভোটের সুযোগ সীমিত করতে চায় ইসিপ

ছবি

শেখ পরশের সুস্থতা কামনায় কুরআন খতম ও দোয়া

সখীপুরে ছাত্রলীগের কমিটিকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ

ছবি

অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনোত্তর জাতীয় সরকার ও দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট জাতীয় সংসদ অপরিহার্য’

ছবি

মেসেজ পাচ্ছি, জোর-জবরদস্তির নির্বাচন হবে: জি এম কাদের

ছবি

করোনায় আক্রান্ত যুবলীগ চেয়ারম্যানের রোগমুক্তি কামনায় দোয়া-মাহফিল

ছবি

‘প্রয়োজনে’ পূজামণ্ডপ পাহারায় আ.লীগের নেতা-কর্মীরাও থাকবেন: কাদের

ছবি

হেফাজতে ইসলামের আমির মুহিবুল্লাহ বাবুনগরী হাসপাতালে

ছবি

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ভূত মাথা থেকে নামান, ফখরুলকে কাদের

ছবি

দেশে সংকট বানিয়েছে তারা, সমাধানের দায়িত্বও তাদের: ফখরুল

ছবি

রাঙ্গার পর জাপা থেকে এবার মানিককে অব্যাহতি

ছবি

হাটুভাঙ্গা বিএনপি এখন লাঠির ওপর ভর করছে: কাদের

ছবি

ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা

ছবি

১০ বিভাগীয় শহরে গণসমাবেশের ঘোষণা বিএনপি

ছবি

সঠিক হাতেই রয়েছে বাংলাদেশ: পরিকল্পনামন্ত্রী

ছবি

বারবার সংবিধান সংশোধন করে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে: জিএম কাদের

ছবি

বৈশ্বিক সংকট নিয়ে বিএনপি ফায়দা লুটতে চায় : কাদের

ছবি

প্রতিবাদকারীরা পেলেন শাস্তি, অভিযুক্তদের বিষয়ে নিরব ছাত্রলীগের হাই কমান্ড

নোয়াখালী জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ,বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় ২ সদস্য নির্বাচিত

ছবি

জেলা পরিষদ: আ.লীগের ২৭ প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান

ছবি

ধানমন্ডিতে বিএনপির সমাবেশে নিষেধাজ্ঞা, হাজারীবাগে সমাবেশের অনুমতি

ইডেনে ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত, ১০ সহ-সভাপতিসহ বহিষ্কৃত ১৬

ছবি

চূড়ান্ত আঘাতের জন্য জনগণ প্রস্তুত : রিজভী

ছবি

সুন্দরীদের বাছাই করে কুপ্রস্তাব, ছাত্রলীগ নেত্রীর ভয়াবহ অভিযোগ

tab

রাজনীতি

মানবাধিকার পরিস্থিতি ঢেকে রাখা যাবে না: গণসংহতি আন্দোলন

ঢাবি প্রতিনিধি

মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২

সরকার পদে পদে মানবাধিকার লঙ্ঘন করে চলেছে বলে মনে করছে গণসংহতি আন্দোলন।

মঙ্গলবার গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি ও নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন,‘অথচ জাতিসংঘের হাইকমিশনারকে তারা নির্জলা মিথ্যাচার করছে।’

বিবৃতিতে মিথ্যাচার করে দেশের ভয়াবহ মানবাধিকার পরিস্থিতি ঢেকে রাখা যাবে না বলেও মন্তব্য করেছেন তারা।

বিবৃতিতে নেতারা বলেন, ‘এই সরকার শত শত মানুষকে গুম করেছে, লক্ষ লক্ষ বিরোধী নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের দমন করেছে, পুলিশ বাহিনীকে দিয়ে নিপীড়ন চালাচ্ছে, মিছিলে গুলি করে মানুষ মারছে, আমলাতন্ত্র ও প্রশাসনকে চরম দলীয়করণ করে ব্যাপকতরভাবে জনগণের বিরুদ্ধেই ব্যবহার করেছে, গত তের বছরে আদালতকে প্রভাবিত করে দেশকে বিচারহীনতা ও নৈরাজ্যে ডুবিয়েছে। মূলত মানবাধিকার পরিস্থিতিকে এই সরকার এক নিকৃষ্ট পর্যায়ে নিয়ে গেছে।’

back to top