alt

রাজনীতি

বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা

দেশে একটা নিরব দুর্ভিক্ষ চলছে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি  : বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২

বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বুধবার বিকাল চারটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর সি মজুমদার লেকচার হলে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

"উন্নয়ন ও দুর্ভিক্ষের রাজনীতি:কোথায় যাচ্ছে বাংলাদেশ" শীর্ষক এ আলোচনা সভায় আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, লেখক ও গবেষক ড. মাহা মির্জা, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর কেন্দ্রীয় সভাপতি সাদেকুল ইসলাম সোহেল। সংগঠনটির ঢাবি শাখার সভাপতি জাবির আহমেদ জুবেলের সভাপতিত্বে সভা সঞ্চালনা করেন ঢাবি শাখার সদস্য সাইফ আল রিদওয়ান।

আনু মুহাম্মদ বলেন, ১৯৪৩ ও ১৯৭৪ এর দুর্ভিক্ষে খাদ্য উৎপাদনে কোনো ঘাটতি ছিল না। সেসময় সাপ্লাই চেইন ভেঙে গিয়েছিল এবং মানুষের ক্রয় ক্ষমতা কমে গিয়েছিল।কৃত্রিম সংকট তথা গুদামজাতকরণ ও প্রাতিষ্ঠানিক দূর্বলতাও দুর্ভিক্ষের জন্য দায়ী ছিল। বর্তমানে আমাদের খাদ্য উৎপাদন ১৯৭৪ সালের তুলনায় চারগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু জনসংখ্যা বেড়েছে প্রায় দ্বিগুন-আড়াই গুনের মত। সে হিসেবেতো খাদ্য সংকট তথা দুর্ভিক্ষ সৃষ্টি হওয়ার কথা না। অথচ আমাদের প্রধানমন্ত্রী নিজেই দুর্ভিক্ষের কথা বলেছেন। মুদ্রাস্ফীতি এবং জিনিসের দাম বৃদ্বির কারণে মানুষের ক্রয়ক্ষমতা কমে গিয়েছে। যার কারণে সংকট ঘনীভূত হচ্ছে। 

তিনি বলেন, বর্তমানে ৬৫ ভাগ মানুষ কখনো না কখনো অনাহারে থাকছে। দেশে একটা নিরব দুর্ভিক্ষ চলছে। বাংলাদেশের ক্যাপিটালিস্ট শ্রেণী গত কয়েক দশকে সংঘবদ্ধ হয়েছে। তারা এদেশকে মুনাফা ও সম্পদ সংগ্রহের স্থান হিসেবে ব্যবহার করছে। তাদের কোনো আওয়ামী লীগ, বিএনপি নাই।

তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার এত বছর পরেও এদেশে পাবলিক ইন্টারেস্টের সাথে সম্পর্কিত কোনো কিছুরই উন্নতি হয়নি। পাবলিক হেলথ, এডুকেশন, ট্রান্সপোর্ট সবকিছুরই বেহাল দশা। পাবলিক হাসপাতাল থেকে সেবা নেয়ার কোনো পরিবেশ নেই। শিক্ষার বানিজ্যিকিকরণ চলছে। ইভেনিং কোর্স, কোচিং, গাইডের রমরমা ব্যবসা চলছে। সরকার মেট্রোরেল, ছয় লেন, আট লেনে বেশি আগ্রহী। কেননা এগুলোতে লুটপাট চালানো যায়। কিন্তু রেলওয়ের উন্নতিতে তাদের কোনো মনোযোগ নেই। গ্লোবাল ফিনানশিয়াল মার্কেট তথা আইএমএফ, হু-ুএর মতো প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য এটা আশীর্বাদ। এদের এমন একটা ব্যবস্থা দরকার যেখানে কোনো ট্রান্সপারেন্সি থাকবে না। 

ড. মাহা মির্জা বলেন, দুর্ভিক্ষ একদিনে হয় না। দীর্ঘদিনের ধারাবাহিকতায় আজকের এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু আমাদের অর্থনীতিবিদরা এগুলা নিয়ে কখনো কথা বলেনি। যা কিছু ঘটছে এগুলার পেছনে আইএমএফ, ওয়ার্ল্ড ব্যাংক, ইনভেস্টমেন্ট সংগঠনের ম্যানিপুলেটেড ইনফরমেশন ও মিডিয়া ট্রায়াল সবচেয়ে বেশি দায়ী।

সাদিকুল ইসলাম সোহেল বলেন, শুধু ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য আওয়ামী লীগ সরকার রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে দিয়েছে। পুলিশ ধ্বংস, সেনাবাহিনী ধ্বংস। দ্রব্যমূল্যর দাম লাগামহীন। তবুও তারা ক্ষমতা থেকে নামবে না। ফ্যাসিবাদি সরকার যখন ক্ষমতায় থাকায় যা হবার তাই হচ্ছে। এর থেকে পরিত্রাণের জন্য আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে টেনে নামাতে হবে। 

ছবি

একযোগে প্রতিমা ভাংচুর রহস্যজনক: মির্জা ফখরুল

ছবি

হিরো আলমের নয়, জবাব দেয়া হয়েছে ফখরুলের মন্তব্যের: কাদের

ছবি

হিরো আলম নয়, আমার মন্তব্য ফখরুলকে নিয়ে: কাদের

ছবি

অনেকের বিদেশে ‘থার্ড হোমও’ আছে : সংসদে মোকাব্বির

ছবি

বিএনপি আবারও ‘অগ্নি-সন্ত্রাস’ করতে পারে আশঙ্কা ওবায়দুল কাদেরের

ছবি

হিরো আলম কখনও জিরো হয় না, যারা হিরোকে জিরো বানাতে চায় তারাই জিরো হয়ে গেছে

ছবি

হিরো আলমকে অভিনন্দন জানাই, তিনি অনেক ভোট পেয়েছেন : তথ্যমন্ত্রী

ছবি

জাপা চেয়ারম্যান হিসেবে কাজ চালিয়ে যেতে পারবে জিএম কাদের

ছবি

ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের জবাবে ফেইসবুক লাইভে যা বললেন হিরো আলম

ছবি

বিএনপি তলে তলে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে : কাদের

ছবি

সংসদকে খাটো করতে হিরো আলমকে প্রার্থী করেছিল বিএনপি : কাদের

ছবি

আওয়ামী লীগের আমলে " ১৪ লক্ষ কোটি টাকা এই দেশ থেকে পাচার" হয়েছে।

ছবি

মেয়র আইভীকে হত্যাচেষ্টা মামলার প্রধান আসামি নিয়াজুল আ.লীগের সভাপতি

ছবি

সরকার হিরো আলমের কাছেও অসহায়: ফখরুল

ছবি

আওয়ামীলীগ আবারও সরকার গঠন করবে: কাদের

ছবি

১১ ফেব্রুয়ারি দেশের সব ইউনিয়নে পদযাত্রা করবে বিএনপি

ছবি

বিএনপি যেখানে অশান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করবে সেখানেই আওয়ামী লীগ শান্তি সমাবেশ করবে

ছবি

হিরো আলম ঠকায় ফখরুলের স্বপ্নভঙ্গ, মন্তব্য কাদেরের

রক্তচক্ষু দেখিয়ে শেখ হাসিনাকে দমন করা যাবেনা

ছবি

নয়াপল্টনে বিএনপির সমাবেশ চলছে

ছবি

উদ্দ্যেশ্যমূলকভাবে নতুন শিক্ষাক্রমকেও এড়িয়ে যাওয়া হচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

পাঠ্যপুস্তক নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ালে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: হাছান মাহমুদ

ছবি

উপনির্বাচনে উপস্থিতি নিয়ে মির্জা ফখরুল মিথ্যাচার করেছে: কাদের

ছবি

স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকে তুলে নেয়ার অভিযোগ মির্জা ফখরুলের

ছবি

পদযাত্রা বাদ দিয়ে নির্বাচনের যাত্রা শুরু করুন : বিএনপিকে কাদের

ছবি

মানহীন পাঠ্যপুস্তক বাতিল করতে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে : ফখরুল

ছবি

অনৈতিক কাজের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান : ফখরুল

ছবি

আজকে উড়াল থেকে আমরা পাতালে নামলাম : ওবায়দুল কাদের

ছবি

অনাগ্রহের নির্বাচনে উত্তাপ

ছবি

বিদ্যুৎ খাতে সরকারের লুটপাটের মাশুল দিচ্ছে জনগণ : ফখরুল

ছবি

উপনির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে, গণতন্ত্রের বিজয় হয়েছে : ওবায়দুল কাদের

ছবি

পুলিশ মাইকিং করে ভোট দিতে ডাকছে, জীবনেও শুনিনি: মির্জা আব্বাস

ছবি

টাকা পাচার করে অর্থনীতি ধ্বংস করছে আ’লীগ : মোশাররফ

ছবি

বিএনপির পদযাত্রা দেখে মৃত্যুর পরের ‘নীরব’ শোভাযাত্রার মত লেগেছে কাদেরের

ছবি

গাবতলীতে জড়ো হচ্ছেন নেতাকর্মীরা

সময় আছে, দাবি মেনে পদত্যাগ করুন : ফখরুল

tab

রাজনীতি

বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা

দেশে একটা নিরব দুর্ভিক্ষ চলছে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি 

বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২

বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বুধবার বিকাল চারটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর সি মজুমদার লেকচার হলে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

"উন্নয়ন ও দুর্ভিক্ষের রাজনীতি:কোথায় যাচ্ছে বাংলাদেশ" শীর্ষক এ আলোচনা সভায় আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, লেখক ও গবেষক ড. মাহা মির্জা, বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর কেন্দ্রীয় সভাপতি সাদেকুল ইসলাম সোহেল। সংগঠনটির ঢাবি শাখার সভাপতি জাবির আহমেদ জুবেলের সভাপতিত্বে সভা সঞ্চালনা করেন ঢাবি শাখার সদস্য সাইফ আল রিদওয়ান।

আনু মুহাম্মদ বলেন, ১৯৪৩ ও ১৯৭৪ এর দুর্ভিক্ষে খাদ্য উৎপাদনে কোনো ঘাটতি ছিল না। সেসময় সাপ্লাই চেইন ভেঙে গিয়েছিল এবং মানুষের ক্রয় ক্ষমতা কমে গিয়েছিল।কৃত্রিম সংকট তথা গুদামজাতকরণ ও প্রাতিষ্ঠানিক দূর্বলতাও দুর্ভিক্ষের জন্য দায়ী ছিল। বর্তমানে আমাদের খাদ্য উৎপাদন ১৯৭৪ সালের তুলনায় চারগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু জনসংখ্যা বেড়েছে প্রায় দ্বিগুন-আড়াই গুনের মত। সে হিসেবেতো খাদ্য সংকট তথা দুর্ভিক্ষ সৃষ্টি হওয়ার কথা না। অথচ আমাদের প্রধানমন্ত্রী নিজেই দুর্ভিক্ষের কথা বলেছেন। মুদ্রাস্ফীতি এবং জিনিসের দাম বৃদ্বির কারণে মানুষের ক্রয়ক্ষমতা কমে গিয়েছে। যার কারণে সংকট ঘনীভূত হচ্ছে। 

তিনি বলেন, বর্তমানে ৬৫ ভাগ মানুষ কখনো না কখনো অনাহারে থাকছে। দেশে একটা নিরব দুর্ভিক্ষ চলছে। বাংলাদেশের ক্যাপিটালিস্ট শ্রেণী গত কয়েক দশকে সংঘবদ্ধ হয়েছে। তারা এদেশকে মুনাফা ও সম্পদ সংগ্রহের স্থান হিসেবে ব্যবহার করছে। তাদের কোনো আওয়ামী লীগ, বিএনপি নাই।

তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার এত বছর পরেও এদেশে পাবলিক ইন্টারেস্টের সাথে সম্পর্কিত কোনো কিছুরই উন্নতি হয়নি। পাবলিক হেলথ, এডুকেশন, ট্রান্সপোর্ট সবকিছুরই বেহাল দশা। পাবলিক হাসপাতাল থেকে সেবা নেয়ার কোনো পরিবেশ নেই। শিক্ষার বানিজ্যিকিকরণ চলছে। ইভেনিং কোর্স, কোচিং, গাইডের রমরমা ব্যবসা চলছে। সরকার মেট্রোরেল, ছয় লেন, আট লেনে বেশি আগ্রহী। কেননা এগুলোতে লুটপাট চালানো যায়। কিন্তু রেলওয়ের উন্নতিতে তাদের কোনো মনোযোগ নেই। গ্লোবাল ফিনানশিয়াল মার্কেট তথা আইএমএফ, হু-ুএর মতো প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য এটা আশীর্বাদ। এদের এমন একটা ব্যবস্থা দরকার যেখানে কোনো ট্রান্সপারেন্সি থাকবে না। 

ড. মাহা মির্জা বলেন, দুর্ভিক্ষ একদিনে হয় না। দীর্ঘদিনের ধারাবাহিকতায় আজকের এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু আমাদের অর্থনীতিবিদরা এগুলা নিয়ে কখনো কথা বলেনি। যা কিছু ঘটছে এগুলার পেছনে আইএমএফ, ওয়ার্ল্ড ব্যাংক, ইনভেস্টমেন্ট সংগঠনের ম্যানিপুলেটেড ইনফরমেশন ও মিডিয়া ট্রায়াল সবচেয়ে বেশি দায়ী।

সাদিকুল ইসলাম সোহেল বলেন, শুধু ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য আওয়ামী লীগ সরকার রাষ্ট্রীয় সব প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে দিয়েছে। পুলিশ ধ্বংস, সেনাবাহিনী ধ্বংস। দ্রব্যমূল্যর দাম লাগামহীন। তবুও তারা ক্ষমতা থেকে নামবে না। ফ্যাসিবাদি সরকার যখন ক্ষমতায় থাকায় যা হবার তাই হচ্ছে। এর থেকে পরিত্রাণের জন্য আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে টেনে নামাতে হবে। 

back to top