alt

খেলা

উইলিয়ামসনের ২৯তম সেঞ্চুরি

তাইজুলের কল্যাণে লিডের স্বপ্ন টাইগারদের

স্কোর : বাংলাদেশ ১ম ইনিংস ৩১০/১০; নিউজিল্যান্ড ১ম ইনিংস ২৬৬/৮।

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক : বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

সিলেট টেস্টের দ্বিতীয় দিনটি পুরোটা একা নিজের করে নিতে পারতেন কেন উইলিয়ামসন, কিন্তু সেটা হতে দেননি স্পিনার তাইজুল। দারুণ বোলিংয়ে দলকে ম্যাচে টিকিয়ে রেখেছেন তিনি। ২৯তম সেঞ্চুরিতে ডন ব্র্যাডম্যান, ভিরাট কোহলিদের পাশে বসার দিনেও তাই উইলিয়ামসনকে ঘিরে ধরেছে দলের বর্তমান পরিস্থিতি। ব্যক্তিগত ঝলক সরিয়ে রেখে তিনি ভাবনায় আছেন তৃতীয় দিন সকালের সেশন নিয়ে।

বুধবার প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে স্বাগতিক বাংলাদেশের ৩১০ রানের জবাবে উইলিয়ামসনের ১০৪ রানের পরও কিউইদের রান ৮ উইকেটে ২৬৬।

২ উইকেট হাতে নিয়ে এখনও ৪৪ রানে পিছিয়ে কিউইরা। সফল বোলার স্পিনার তাইজুল ইসলাম ৮৯ রানে ৪ উইকেট নেন।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথম দিন ৮৫ ওভারে ৯ উইকেটে ৩১০ রান করেছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় দিনের প্রথম বলে শেষ উইকেটের তুলে নেন পেসার টিম সাউদি।

আগের দিন ১৩ রানে অপরাজিত থাকা শরিফুল এলবিডব্লিউ হন। অন্যপ্রান্তে ৮ রানে অপরাজিত থাকেন তাইজুল ।

ফিলিপস ৫৩ রানে ৪ উইকেট নেন।

এরপর নিজেদের ইনিংস শুরু করে সাবধানে খেলতে থাকেন দুই ওপেনার টম লাথাম ও ডেভন কনওয়ে। জুটিতে ৩৬ রান আসার পর ১৩তম ওভারে আঘাত হানেন স্পিনার তাইজুল। ফাইন লেগে ২১ রান করা লাথামের ক্যাচ নেন নাঈম।

১৬তম ওভারে দ্বিতীয় আঘাত হানেন আরেক স্পিনার মিরাজ। পয়েন্টে ঝাঁপিয়ে এক হাতে ১২ রান করা ডেভন কনওয়ের ক্যাচ নেন শাহাদাত।

৪৪ রানে দুই ওপেনারকে হারিয়ে চাপে পড়ে সফরকারীরা। এ অবস্থায় তৃতীয় উইকেটে জুটি বাঁধেন উইলিয়ামসন ও নিকোলস। জুটিতে ৫৪ রান যোগ হওয়ার বিচ্ছিন্ন হন তারা। পেসার শরিফুলের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ১৯ রানে বিদায় নেন নিকোলস।

৩২তম ওভারে নিকোলসকে হারানোর পর আবারও জুটি গড়ার চেষ্টা করেন উইলিয়ামসন ও মিচেল। এই জুটি ৩৪তম ওভারেই বিচ্ছিন্ন হতে পারতো। কিন্তু বাংলাদেশের ভুলে সেটি আর হয়নি। শরিফুলের বলে মিস টাইমিংয়ে বল ব্যাট ছুঁয়ে উইকেট রক্ষকের গ্লাভসে জমা পড়ে। কিন্তু আবেদন সাড়া দেননি আম্পায়ার। কিন্তু রিভিউ নেয়নি টাইগাররা। টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, মিচেল আউট ছিলেন। ৪ রানে জীবন পেয়ে ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ৪১ রান করা মিচেল শেষ পর্যন্ত তাইজুলের বলে স্টাম্প আউট হন। চতুর্থ উইকেটে উইলিয়ামসন-মিচেল ৬৬ রান যোগ করেন।

মিচেল ফেরার পর উইকেটে এসে বেশিক্ষণ ঠিকতে পারেননি উইকেটরক্ষক টম ব্লান্ডেল। তাকে ৬ রানে থামিয়ে দেন স্পিনার নাইম হাসান।

১৭৫ রানে পঞ্চম উইকেট পতনে চিন্তায় পড়ে কিউইরা। দলকে চিন্তামুক্ত করতে ফিলিপসকে নিয়ে বড় জুটির চেষ্টায় সফল হন ততক্ষণে টেস্টে ৩৪তম হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেয়া উইলিয়ামসন।

ব্যক্তিগত ৬৪ রানে নাঈমে বলে তাইজুলের হাতে জীবন পান উইলিয়ামসন। এরপর ফিলিপসকে নিয়ে ৭৮ রান যোগ করেন তিনি। ৭৫তম ওভারে প্রথমবারের মতো আক্রমণে এসেই সাফল্য তুলে নেন অকেশনাল স্পিনার মোমিনুল। স্লিপের শান্তর দারুণ ক্যাচে ফিলিপসকে ৪২ রানে থামিয়ে দলকে সময়মত ব্রেক-থ্রু এনে দেন মোমিনুল।

ফিলিপস ফেরার পর পরের ওভারে টেস্টে ২৯তম ও বাংলাদেশের বিপক্ষে চতুর্থ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন উইলিয়ামসন। ১১টি চারে ১৮৯ বলে টানা চার টেস্টে সেঞ্চুরি করলেন তিনি।

সেঞ্চুরির পর বেশিক্ষণ ঠিকতে পারেননি উইলিয়ামসন। দ্বিতীয় নতুন বল নিয়ে ৮১তম ওভারের পঞ্চম ডেলিভারিতে উইলিয়ামসনকে বোল্ড করেন তাইজুল। প্রতিরোধ গড়ে তোলা ইনিংসে ১১টি চারে ২০৫ বলে ১০৪ রান করেন উইলিয়ামসন।

উইলিয়ামসন ফেরার পর ইশ সোধিকে খালি হাতে বিদায় দেন তাইজুল। এরপর দিনের বাকি সময় আর কোন উইকেট পড়তে দেননি কাইল জেমিন ও সাউদি। জেমিসন ৭ ও সাউদি ১ রানে অপরাজিত আছেন।

তাইজুল ৩০ ওভার বল করে ৮৯ রানে ৪টি, শরিফুল-মিরাজ-নাইম-মোমিনুল নেন ১টি করে উইকেট।

ছবি

ধর্ষণের মামলায় আলভেজের ক্ষতিপূরণের টাকা দিয়েছে নেইমারের পরিবার

ছবি

প্লে-অফে ওঠার লড়াইয়ে ফিল্ডিংয়ে বরিশাল

ছবি

দ্বিতীয় সন্তানের মা হলেন আনুশকা

ছবি

টানা ৮ জয়ের পর অবশেষে কুমিল্লার কাছে ধরাশায়ী রংপুর

ছবি

তানজিদের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে চট্টগ্রামের রানপাহাড়

ছবি

সন্ধ্যায় মুখোমুখি সাকিব-তামিম

ছবি

২৪ ঘণ্টা নিবিড় তত্ত্বাবধানে থাকবেন মুস্তাফিজ

ছবি

মোস্তাফিজের মাথায় পাঁচ সেলাই, তবে আপাতত শঙ্কামুক্ত

ছবি

মাথায় আঘাত পেয়ে হাসপাতালে মুস্তাফিজ

ছবি

বাঁচা-মরার ম্যাচ জিতে প্লে-অফে ওঠার আশা তামিমের

ছবি

৯২ বছরের আক্ষেপ ঘুচিয়ে ইতিহাস গড়লো নিউজিল্যান্ড

ছবি

বাংলাদেশি পেসারের প্রশংসায় নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার

ছবি

আইডিয়ালের সেই আতিকের বিরুদ্ধে মামলা

ছবি

টি-টোয়েন্টিতে জাপানের দুই ওপেনারের বিশ্বরেকর্ড

ছবি

রমিজ রাজা আসছেন বিপিএলে

ছবি

এবার টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বিদায়ের ক্ষণ জানালেন ওয়ার্নার

ছবি

দিয়াস-লুনিন নৈপুণ্যে লাইপজিগকে হারাল রিয়াল

ছবি

উইল জ্যাকসের সেঞ্চুরিতে বিপিএলে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড কুমিল্লার

ছবি

প্রধান নির্বাচক নিয়োগের পর সুজনের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া

ছবি

সাকিব অধ্যায়ের ইতি, জাতীয় ক্রিকেট দলের নতুন অধিনায়ক শান্ত

ছবি

ব্রাজিলকে হারিয়ে প্যারিস অলিম্পিকে আর্জেন্টিনা

ছবি

নান্নুর বিদায়, প্রধান নির্বাচক লিপু

ছবি

তিন সংস্করণেই বাংলাদেশ জাতীয় দলের অধিনায়ক শান্ত

ছবি

ব্রাজিলকে বিদায় করে প্যারিস অলিম্পিকের টিকিট কাটল আর্জেন্টিনা

ছবি

নাইজেরিয়াকে হারিয়ে আফ্রিকার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট আইভরিকোস্টের

ছবি

যুব বিশ্বকাপেও ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া

ছবি

জামালপুরে সিংহজানী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

ছবি

জর্ডানের স্বপ্ন ভেঙে আবারও এশিয়ার সেরা কাতার

ছবি

বার্নলেকে হারিয়ে শীর্ষস্থান ধরে রাখলো লিভারপুল

ছবি

একদিনেই সাকিবের দুই কীর্তি

ছবি

নিশাম-হেনড্রিকসদের নিয়ে ব্যাটিংয়ে রংপুর

ছবি

টস জিতে ব্যাটিংয়ে খুলনা

ছবি

নাটকের পর নাটক, আড়াই ঘণ্টা পর যৌথ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ-ভারত

ছবি

জাপানে কীভাবে খেললেন মেসি, জবাব চায় হংকং সরকার

ছবি

অলিম্পিকস ফুটবল বাছাইয়ে ব্রাজিলের হার, আর্জেন্টিনার ড্র

ছবি

আজ কলকাতায় সানজিদা সাবিনা মুখোমুখি

tab

খেলা

উইলিয়ামসনের ২৯তম সেঞ্চুরি

তাইজুলের কল্যাণে লিডের স্বপ্ন টাইগারদের

স্কোর : বাংলাদেশ ১ম ইনিংস ৩১০/১০; নিউজিল্যান্ড ১ম ইনিংস ২৬৬/৮।

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক

বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

সিলেট টেস্টের দ্বিতীয় দিনটি পুরোটা একা নিজের করে নিতে পারতেন কেন উইলিয়ামসন, কিন্তু সেটা হতে দেননি স্পিনার তাইজুল। দারুণ বোলিংয়ে দলকে ম্যাচে টিকিয়ে রেখেছেন তিনি। ২৯তম সেঞ্চুরিতে ডন ব্র্যাডম্যান, ভিরাট কোহলিদের পাশে বসার দিনেও তাই উইলিয়ামসনকে ঘিরে ধরেছে দলের বর্তমান পরিস্থিতি। ব্যক্তিগত ঝলক সরিয়ে রেখে তিনি ভাবনায় আছেন তৃতীয় দিন সকালের সেশন নিয়ে।

বুধবার প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে স্বাগতিক বাংলাদেশের ৩১০ রানের জবাবে উইলিয়ামসনের ১০৪ রানের পরও কিউইদের রান ৮ উইকেটে ২৬৬।

২ উইকেট হাতে নিয়ে এখনও ৪৪ রানে পিছিয়ে কিউইরা। সফল বোলার স্পিনার তাইজুল ইসলাম ৮৯ রানে ৪ উইকেট নেন।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথম দিন ৮৫ ওভারে ৯ উইকেটে ৩১০ রান করেছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় দিনের প্রথম বলে শেষ উইকেটের তুলে নেন পেসার টিম সাউদি।

আগের দিন ১৩ রানে অপরাজিত থাকা শরিফুল এলবিডব্লিউ হন। অন্যপ্রান্তে ৮ রানে অপরাজিত থাকেন তাইজুল ।

ফিলিপস ৫৩ রানে ৪ উইকেট নেন।

এরপর নিজেদের ইনিংস শুরু করে সাবধানে খেলতে থাকেন দুই ওপেনার টম লাথাম ও ডেভন কনওয়ে। জুটিতে ৩৬ রান আসার পর ১৩তম ওভারে আঘাত হানেন স্পিনার তাইজুল। ফাইন লেগে ২১ রান করা লাথামের ক্যাচ নেন নাঈম।

১৬তম ওভারে দ্বিতীয় আঘাত হানেন আরেক স্পিনার মিরাজ। পয়েন্টে ঝাঁপিয়ে এক হাতে ১২ রান করা ডেভন কনওয়ের ক্যাচ নেন শাহাদাত।

৪৪ রানে দুই ওপেনারকে হারিয়ে চাপে পড়ে সফরকারীরা। এ অবস্থায় তৃতীয় উইকেটে জুটি বাঁধেন উইলিয়ামসন ও নিকোলস। জুটিতে ৫৪ রান যোগ হওয়ার বিচ্ছিন্ন হন তারা। পেসার শরিফুলের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ১৯ রানে বিদায় নেন নিকোলস।

৩২তম ওভারে নিকোলসকে হারানোর পর আবারও জুটি গড়ার চেষ্টা করেন উইলিয়ামসন ও মিচেল। এই জুটি ৩৪তম ওভারেই বিচ্ছিন্ন হতে পারতো। কিন্তু বাংলাদেশের ভুলে সেটি আর হয়নি। শরিফুলের বলে মিস টাইমিংয়ে বল ব্যাট ছুঁয়ে উইকেট রক্ষকের গ্লাভসে জমা পড়ে। কিন্তু আবেদন সাড়া দেননি আম্পায়ার। কিন্তু রিভিউ নেয়নি টাইগাররা। টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, মিচেল আউট ছিলেন। ৪ রানে জীবন পেয়ে ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ৪১ রান করা মিচেল শেষ পর্যন্ত তাইজুলের বলে স্টাম্প আউট হন। চতুর্থ উইকেটে উইলিয়ামসন-মিচেল ৬৬ রান যোগ করেন।

মিচেল ফেরার পর উইকেটে এসে বেশিক্ষণ ঠিকতে পারেননি উইকেটরক্ষক টম ব্লান্ডেল। তাকে ৬ রানে থামিয়ে দেন স্পিনার নাইম হাসান।

১৭৫ রানে পঞ্চম উইকেট পতনে চিন্তায় পড়ে কিউইরা। দলকে চিন্তামুক্ত করতে ফিলিপসকে নিয়ে বড় জুটির চেষ্টায় সফল হন ততক্ষণে টেস্টে ৩৪তম হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নেয়া উইলিয়ামসন।

ব্যক্তিগত ৬৪ রানে নাঈমে বলে তাইজুলের হাতে জীবন পান উইলিয়ামসন। এরপর ফিলিপসকে নিয়ে ৭৮ রান যোগ করেন তিনি। ৭৫তম ওভারে প্রথমবারের মতো আক্রমণে এসেই সাফল্য তুলে নেন অকেশনাল স্পিনার মোমিনুল। স্লিপের শান্তর দারুণ ক্যাচে ফিলিপসকে ৪২ রানে থামিয়ে দলকে সময়মত ব্রেক-থ্রু এনে দেন মোমিনুল।

ফিলিপস ফেরার পর পরের ওভারে টেস্টে ২৯তম ও বাংলাদেশের বিপক্ষে চতুর্থ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন উইলিয়ামসন। ১১টি চারে ১৮৯ বলে টানা চার টেস্টে সেঞ্চুরি করলেন তিনি।

সেঞ্চুরির পর বেশিক্ষণ ঠিকতে পারেননি উইলিয়ামসন। দ্বিতীয় নতুন বল নিয়ে ৮১তম ওভারের পঞ্চম ডেলিভারিতে উইলিয়ামসনকে বোল্ড করেন তাইজুল। প্রতিরোধ গড়ে তোলা ইনিংসে ১১টি চারে ২০৫ বলে ১০৪ রান করেন উইলিয়ামসন।

উইলিয়ামসন ফেরার পর ইশ সোধিকে খালি হাতে বিদায় দেন তাইজুল। এরপর দিনের বাকি সময় আর কোন উইকেট পড়তে দেননি কাইল জেমিন ও সাউদি। জেমিসন ৭ ও সাউদি ১ রানে অপরাজিত আছেন।

তাইজুল ৩০ ওভার বল করে ৮৯ রানে ৪টি, শরিফুল-মিরাজ-নাইম-মোমিনুল নেন ১টি করে উইকেট।

back to top