alt

খেলা

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফুটবল

পিএসজির শৈথিল্য কাজে লাগিয়ে ম্যানসিটির দারুন জয়

স্পোর্টস ডেস্ক : বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল ২০২১
image

দ্বিতীয় গোল করছেন মাহরেজ

প্যারিস সেন্ট জার্মেইর দ্বিতীয়ার্ধের শৈথিল্য কাজে লাগিয়ে অল্প সময়ের ব্যবধানে দুই গোল করে ম্যানচেস্টার সিটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফুটবলের সেমিফাইনালের প্রথম লেগে ২-১ গোলে জয়ী হয়েছে। প্রতিপক্ষের মাঠে জয়ী হওয়ায় ম্যানসিটি ফাইনালে ওঠার পথে বেশ খানিকটা সুবিধাজনক অবস্থানে পৌছে গেছে। নিজেদের মাঠে ফিরতি লেগে ১-০ গোলে হারলেও অ্যাওয়ে গোলের নিয়মে ফাইনালে খেলবে ম্যানসিটি। পিএসজিকে ফাইনালে খেলতে হলে ফিরতি লেগে জিততে হবে দুই গোলের ব্যবধানে। অথচ ম্যাচের প্রথমার্ধে দুরন্ত খেলা উপহার দিয়ে পিএসজি এগিয়েছিল ১-০ গোলে। প্রাপ্ত সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে তারা প্রথমার্র্ধে আর বেশী গোলে এগিয়ে যেতে পারতো। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ বদলে যায়। দুটি ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে ম্যাচ জিতে নেয় ম্যানসিটি। প্রথম গোলের সম্পূর্ণ দায় গোলরক্ষক কেইলর নাভাসের। কেভিন ডি ব্রুইনের ক্রস বাইরে যাবে বলে মনে করে দাড়িয়ে ছিলেন নাভাস। কিন্তু সেটি জালে যাচ্ছে দেখে যখন ঝাপিয়েছিলেন তখন অনেক দেরি হয়ে গেছে। এ ঘটনা ৬৪ মিনিটের মাথায়। ৭১ মিনিটে রিয়াল মাহরেজের গোলে এগিয়ে যায় ম্যানসিটি। এটাও হয়েছে ডিফেন্সের ভুলে। পেনাল্টি বক্সের বাইরে থেকে ফ্রি কিকে গোল করেন মাহরেজ। ফ্রি কিক প্রতিহত করার জন্য পিএসজির খেলোয়াড়রা দেয়াল সৃষ্টি করেছিলেন। কিন্তু শটের সময়ে লাফিয়ে ওঠায় তাদের মাঝখানে ফাকা সৃষ্টি হয় এবং সেখান দিয়েই বল জালে পাঠান মাহরেজ। ৭৭ মিনিটে গুইয়ে লাল কার্ড দেখলে দশজনের দলে পরিনত হয় পিএসজি। বাকি সময়ে পিএসজিতে চেপে ধরেও আর কোন গোল করতে পারেনি তারা। আর একটি গোল করতে পারলে বলা যেতো যে সিটি ফাইনালে খেলছে। কিন্তু ব্যবধান যেহেতু কম তাই পিএসজির আশা একে বারে শেষ হয়ে যায়নি। বিশেষ করে এ ম্যাচের প্রথমার্ধে পিএসজি যেভাবে খেলেছে ফিরতি লেগে সেভাবে খেলতে পারলে তাদের ফাইনালে খেলা একেবারে অসম্ভব হবে না।

প্রথমার্ধটা ছিল পিএসজিরই। তিন মিনিটের মাথায়ই দারুন একটি সুযোগ পেয়েছিলেন নেইমার। তার শট সরাসরি চলে যায় গোলরক্ষক এডারসনের হাতে। এর পর পেনাল্টি বক্সের মধ্যে বল নিজের নিয়ন্ত্রনে নিতে ব্যর্থ হন কাইলিয়ান এমবাপ্পে। তবে ১৪ মিনিটে আর তাদের হতাশ হতে হয়নি। অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার কর্নার কিকে মাথা লাগিয়ে গোল করেন মার্কিনহোস। ৪০ মিনিট পর্যন্ত দাপট ছিল পিএসজির। এ সময়ে তারা বেশ কয়েকটি সুযোগ সৃষ্টি করে। কিন্তু ম্যানসিটির রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের দৃঢ়তায় কাঙ্খিত গোল তারা পায়নি। যার খেসারত দিতে হয়েছে দ্বিতীয়ার্ধে দুই গোল খেয়ে। এক গোলে এগিয়ে থাকায় পিএসজির খেলোয়াড়দের মধ্যে কিছুটা শিথিলতা ছিল। সে সুযোগই কাজে লাগায় সফরকারীরা। এক গোল করার পর ম্যানসিটি হয়ে ওঠে আত্মবিশ্বাসী এবং দ্বিতীয় গোল তাদের লিড এনে দেয়। এ সময়ে পিএসজির খেলোয়াড়দের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। সবাই মিলে রক্ষণ কাজে ন্যস্ত হলেও সিটির সাথে তারা পেরে উঠছিল না। নাভাস শেষ দিকে দৃঢ়তা দেখাতে সক্ষম হওয়ায় ব্যবধান আর বাড়েনি। আগামী সপ্তায় ফিরতি লেগের ফলই নির্ধারণ করবে ফাইনালে কোন দল খেলবে ম্যানসিটি না পিএসজি।

ছবি

মেসিকে নিয়ে নতুন জটিলতার কথা স্বীকার করলেন লাপোর্তা

ছবি

রিয়াল ছাড়ছেন রামোস

ছবি

টানা দ্বিতীয় জয়ে নক আউট পর্বে ইটালি

ছবি

তুরস্ককে হারিয়ে নক আউটের পথে ওয়েলস

ছবি

ফিনল্যান্ডকে হারিয়ে রাশিয়ার স্বস্তির জয়

ছবি

হামেলসের আত্মঘাতি গোলে জার্মানিকে হারালো ফ্রান্স

ছবি

রোনালদোর জোড়া গোলে জয়ে শুরু পর্তুগালের

ছবি

রোনালদোর বক্তব্যে কোকাকোলার ৪০০ কোটি ডলার ক্ষতি

ছবি

বলিভিয়াকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে প্যারাগুয়ে

ছবি

পোল্যান্ডকে হারিয়ে দিয়েছে স্লোভাকিয়া

ছবি

সুইডেন রুখে দিয়েছে স্পেনকে

ছবি

চিলির বিপক্ষে আবারও জিততে পারেনি আর্জেন্টিনা

ছবি

শিকের জোড়া গোলে চেক হারিয়েছে স্কটল্যান্ডকে

ছবি

আইসিসির সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত মুশফিক

ছবি

ইকুয়েডরকে হারিয়ে দিয়েছে কলম্বিয়া

ছবি

ইউক্রেনের সাথে নেদারল্যান্ডসের কষ্টার্জিত জয়

ছবি

সহজ জয়ে কোপা শুরু ব্রাজিলের

ছবি

ফরাসী ওপেন জিতে ৫২ বছর আগের রেকর্ড স্পর্শ করলেন জকোভিচ

ছবি

স্টার্লিংয়ের গোলে ইংল্যান্ডের শুভ সূচনা

ছবি

লুকাকুর জোড়া গোলে বেলজিয়ামের দারুন জয়

ছবি

এরিকসেনের অচেতন হওয়া ম্যাচে ডেনমার্কের হার

ছবি

ক্যারিবিয়ানদের ইনিংস ব্যবধানে হারালো প্রোটিয়ারা

ছবি

এজবাস্টনে জয় দেখছে নিউজিল্যান্ড

ছবি

সাকিব তিন ম্যাচে নিষিদ্ধ, জরিমানা ৫ লাখ টাকা

ছবি

ক্লে কিং নাদালকে হারিয়ে ফাইনালে জকোভিচ

ছবি

জয় দিয়ে ইউরো শুরু ইটালির

ডি ককের সেঞ্চুরিতে ব্যাকফুটে ক্যারিবিয়ানরা

এজবাস্টনে কিউই ব্যাটারদের দাপট

ছবি

ক্ষোভে লাথি মেরে স্ট্যাম্প উপড়ে ফেললেন সাকিব

ছবি

আর্জেন্টিনার সামনে শিরোপার খড়া কাটানোর সুযোগ

ছবি

অ্যান্ডারসনের ইতিহাসের দিনে নড়েবড়ে ইংল্যান্ড

ছবি

বার্মিংহামে সমানে সমান লড়াই

ছবি

কোপায় ব্রাজিলের অধিনায়ক নেইমার

ছবি

সুপার লিগ প্রশ্নে আপাতত পিছু হটলো ইউয়েফা

ছবি

এজবাস্টনে দ্বিতীয় টেস্টে মুখোমুখি ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড

ছবি

ব্রাজিল জিতলেও ড্র করেছে আর্জেন্টিনা

tab

খেলা

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফুটবল

পিএসজির শৈথিল্য কাজে লাগিয়ে ম্যানসিটির দারুন জয়

স্পোর্টস ডেস্ক
image

দ্বিতীয় গোল করছেন মাহরেজ

বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল ২০২১

প্যারিস সেন্ট জার্মেইর দ্বিতীয়ার্ধের শৈথিল্য কাজে লাগিয়ে অল্প সময়ের ব্যবধানে দুই গোল করে ম্যানচেস্টার সিটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফুটবলের সেমিফাইনালের প্রথম লেগে ২-১ গোলে জয়ী হয়েছে। প্রতিপক্ষের মাঠে জয়ী হওয়ায় ম্যানসিটি ফাইনালে ওঠার পথে বেশ খানিকটা সুবিধাজনক অবস্থানে পৌছে গেছে। নিজেদের মাঠে ফিরতি লেগে ১-০ গোলে হারলেও অ্যাওয়ে গোলের নিয়মে ফাইনালে খেলবে ম্যানসিটি। পিএসজিকে ফাইনালে খেলতে হলে ফিরতি লেগে জিততে হবে দুই গোলের ব্যবধানে। অথচ ম্যাচের প্রথমার্ধে দুরন্ত খেলা উপহার দিয়ে পিএসজি এগিয়েছিল ১-০ গোলে। প্রাপ্ত সুযোগ কাজে লাগাতে পারলে তারা প্রথমার্র্ধে আর বেশী গোলে এগিয়ে যেতে পারতো। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ বদলে যায়। দুটি ভুলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে ম্যাচ জিতে নেয় ম্যানসিটি। প্রথম গোলের সম্পূর্ণ দায় গোলরক্ষক কেইলর নাভাসের। কেভিন ডি ব্রুইনের ক্রস বাইরে যাবে বলে মনে করে দাড়িয়ে ছিলেন নাভাস। কিন্তু সেটি জালে যাচ্ছে দেখে যখন ঝাপিয়েছিলেন তখন অনেক দেরি হয়ে গেছে। এ ঘটনা ৬৪ মিনিটের মাথায়। ৭১ মিনিটে রিয়াল মাহরেজের গোলে এগিয়ে যায় ম্যানসিটি। এটাও হয়েছে ডিফেন্সের ভুলে। পেনাল্টি বক্সের বাইরে থেকে ফ্রি কিকে গোল করেন মাহরেজ। ফ্রি কিক প্রতিহত করার জন্য পিএসজির খেলোয়াড়রা দেয়াল সৃষ্টি করেছিলেন। কিন্তু শটের সময়ে লাফিয়ে ওঠায় তাদের মাঝখানে ফাকা সৃষ্টি হয় এবং সেখান দিয়েই বল জালে পাঠান মাহরেজ। ৭৭ মিনিটে গুইয়ে লাল কার্ড দেখলে দশজনের দলে পরিনত হয় পিএসজি। বাকি সময়ে পিএসজিতে চেপে ধরেও আর কোন গোল করতে পারেনি তারা। আর একটি গোল করতে পারলে বলা যেতো যে সিটি ফাইনালে খেলছে। কিন্তু ব্যবধান যেহেতু কম তাই পিএসজির আশা একে বারে শেষ হয়ে যায়নি। বিশেষ করে এ ম্যাচের প্রথমার্ধে পিএসজি যেভাবে খেলেছে ফিরতি লেগে সেভাবে খেলতে পারলে তাদের ফাইনালে খেলা একেবারে অসম্ভব হবে না।

প্রথমার্ধটা ছিল পিএসজিরই। তিন মিনিটের মাথায়ই দারুন একটি সুযোগ পেয়েছিলেন নেইমার। তার শট সরাসরি চলে যায় গোলরক্ষক এডারসনের হাতে। এর পর পেনাল্টি বক্সের মধ্যে বল নিজের নিয়ন্ত্রনে নিতে ব্যর্থ হন কাইলিয়ান এমবাপ্পে। তবে ১৪ মিনিটে আর তাদের হতাশ হতে হয়নি। অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার কর্নার কিকে মাথা লাগিয়ে গোল করেন মার্কিনহোস। ৪০ মিনিট পর্যন্ত দাপট ছিল পিএসজির। এ সময়ে তারা বেশ কয়েকটি সুযোগ সৃষ্টি করে। কিন্তু ম্যানসিটির রক্ষণভাগের খেলোয়াড়দের দৃঢ়তায় কাঙ্খিত গোল তারা পায়নি। যার খেসারত দিতে হয়েছে দ্বিতীয়ার্ধে দুই গোল খেয়ে। এক গোলে এগিয়ে থাকায় পিএসজির খেলোয়াড়দের মধ্যে কিছুটা শিথিলতা ছিল। সে সুযোগই কাজে লাগায় সফরকারীরা। এক গোল করার পর ম্যানসিটি হয়ে ওঠে আত্মবিশ্বাসী এবং দ্বিতীয় গোল তাদের লিড এনে দেয়। এ সময়ে পিএসজির খেলোয়াড়দের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। সবাই মিলে রক্ষণ কাজে ন্যস্ত হলেও সিটির সাথে তারা পেরে উঠছিল না। নাভাস শেষ দিকে দৃঢ়তা দেখাতে সক্ষম হওয়ায় ব্যবধান আর বাড়েনি। আগামী সপ্তায় ফিরতি লেগের ফলই নির্ধারণ করবে ফাইনালে কোন দল খেলবে ম্যানসিটি না পিএসজি।

back to top