alt

ক্যাম্পাস

লকডাউনেও সশরীরে পরীক্ষা নিলো ঢাবি

প্রতিনিধি, ঢাবি : মঙ্গলবার, ২৯ জুন ২০২১

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে কঠোর লকডাউনের মধ্যেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগ চতুর্থ বর্ষ ও মাস্টার্সের পরীক্ষা সশরীরে নিয়েছে। মঙ্গলবার (২৯ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনে বিভাগের দুটি ক্লাসরুমে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবারে মাস্টার্স ও শেষ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ করা হয়েছে। শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান সাইফুদ্দীন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে উভয় বর্ষের পরীক্ষা শুরু হয়। স্বাভাবিক সময়ের অর্ধেক সময়ে তাদের পরীক্ষা নেয়া হয়। ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত অনার্স চতুর্থবর্ষের ও ১২টা পর্যন্ত চলে মাস্টার্সের পরীক্ষা। এই পরীক্ষায় বিভাগের মাস্টার্সের ৩৪ জন শিক্ষার্থীর সবাই অংশ নিয়েছেন। একইসঙ্গে অনার্সের ৪৫ জনের সবাই অংশ নেন।

চেয়ারম্যান সাইফুদ্দীন আহমেদ বলেন, আমাদের চতুর্থ বর্ষের সপ্তম সেমিস্টার এবং মাস্টার্স প্রথম সেমিস্টার পরীক্ষা মঙ্গলবারেই শেষ হয়েছে। ২৩ তারিখ থেকে পরীক্ষা শুরু হয়েছিল। এরপর ২৫, ২৭ এবং মঙ্গলবারে সর্বশেষ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপস্থিতি শতাভাগ ছিলো। শিক্ষার্থীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন। আমরা সকল সতর্কতা অবলম্বন করেছিলাম। আমরা ৮০ জনের সিটে ৩০ জনকে বসিয়েছি। যদি কারো তাপমাত্রা বেশি হয় তাদের জন্য আলাদা রুম রেখেছিলাম। স্প্রে করে, তাপমাত্রা পরীক্ষা করে সবাইকে পরীক্ষার হলে ঢুকিয়েছিলাম। এছাড়া আমরা প্রস্তুত ছিলাম ওদের যদি বাসস্থানসহ অন্য কোনো সহযোগিতার প্রয়োজন হতো, কিন্তু দরকার হয়নি।

লকডাউন পরিস্থিতির মধ্যে সব শিক্ষার্থীকে কিভাবে পরীক্ষায় বসানো সম্ভব হলো সে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, চতুর্থ ও মাস্টার্সের অধিকাংশ শিক্ষার্থীই চাকরির প্রস্তুতি নিতে ঢাকায় অবস্থান করছে। আর পরীক্ষা তো অনেকদিন আগে থেকে চলছিল তারা বন্ধুদের মেসে, আত্মীয়ের বাসায় ম্যানেজ করে নিয়েছে। কারো কোনো সমস্যা হয়নি। মঙ্গলবারে মাস্টার্স ও শেষ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ করা হলো।

যেহেতু গণপরিবহন বন্ধ ছিল সেহেতু পরীক্ষায় আসার জন্য কোনো ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল কি না এমন প্রশ্নের জবাবে বিভাগের চেয়ারম্যান বলেন, আমরা যেটা করেছি সবার সঙ্গে যোগাযোগ করে দেখেছি সব মিলিয়ে ১০-১২ জন শিক্ষার্থীর বাসা ক্যাম্পাস থেকে একটু দূরে। তাই তাদেরকে ক্যাম্পাসে আসার জন্য আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টাফ বাসের রুট জানিয়ে দিই। তারা সেগুলোতে করে ক্যাম্পাসে আসে। আর যারা রিকশার দূরত্বে ছিল তারা রিকশায় করে ক্যাম্পাসে আসে এবং পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে৷

আর কোনো বর্ষের পরীক্ষার তারিখ রয়েছে কি না সে বিষয়ে তিনি বলেন, আমাদের অন্যান্য বর্ষের পরীক্ষার তারিখ ৮ জুলাই থেকে দেয়া হয়েছিল। সেগুলো স্থগিত করে দেয়া হয়েছে। আমরা সেগুলো জুলাইয়ের শেষদিকে নিবো।

উল্লেখ্য এর আগে, ২০ জুন প্রথম সশরীরে পরীক্ষার আয়োজন করেছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্সি বিভাগ। আবাসন সমস্যায় থাকা শিক্ষার্থীদের নিজেদের বাসায় রেখে করে সশরীরে পরীক্ষা নিয়েছিল বিভাগের শিক্ষকরা। পরীক্ষায় সেমিস্টারের শতভাগ পরীক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

ছবি

জবির নির্বাহী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ

ছবি

এলইউতে কালচারাল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

ছবি

ফায়ার সার্ভিসে পিজিডি কোর্স চালু

ছবি

তিন যুগ পার করলো ঢাবি সাংবাদিক সমিতি

ছবি

ঢাবির আবাসিক হল খুলছে ৫ অক্টোবর, গ্রন্থাগার ২৬ সেপ্টেম্বর

ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হল খুলছে ৫ অক্টোবর

ছবি

বঙ্গবন্ধু ও দার্শনিক বারট্রান্ড রাসেলের জীবন দর্শনে অসাধারণ মিল রয়েছে: ঢাবি উপাচার্য

টিকা নিশ্চিত হলে খুলবে ইবির হল

ছবি

পানশির দখলের দ্বারপ্রান্তে তালেবানরা, সমঝোতার আহবান

ছবি

জবিতে অনিয়মের বিরুদ্ধে একাট্টা ছাত্রনেতারা

সরকার ছাত্র আন্দোলনের ভয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখছে : ছাত্র ইউনিয়ন

ছবি

ক্যাম্পাস খোলার আগেই ছাত্রী হলের সিট বরাদ্দ দিবে জবি

ছবি

দ্রুত পরীক্ষার তারিখ ঘোষণার দাবি জবি শিক্ষার্থীদের

ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘কালো দিবস’ আজ

শোক দিবসে বিডিইউ’র শোকসভা

ছবি

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রদ্ধা

শোক দিবস উপলক্ষে ঢাবির কর্মসূচি

ছবি

আন্তর্জাতিক ফেরি নকশা প্রতিযোগিতায় তৃতীয় বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা

ছবি

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আবেদনে ভোগান্তি

ছবি

গবেষণা প্রকাশের জন্য শিক্ষক ও গবেষকদের অনুদান দেবে ঢাবি

ছবি

উনিশ দিন বন্ধ থাকবে ঢাবির অফিস

ছবি

নিরাপত্তা চেয়ে রাবি শিক্ষার্থীর জিডি

ছবি

ঢাবির জন্মশতবর্ষে কবিতা-প্রবন্ধ ও থিম সং আহ্বান

ফের পেছালো ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা, শুরু ১ অক্টোবর

ছবি

জবি বিজ্ঞান ক্লাবের যাত্রা শুরু

ছবি

জন্ডিসে আক্রান্ত হয়ে রাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ছবি

ঢাবির ক-খ-গ-ঘ-চ ইউনিটের প্রবেশপত্র ডাউনলোড কার্যক্রম স্থগিত

ছবি

একজন অক্সিজেন ফেরিওয়ালার গল্প

ছবি

ডেঙ্গুতে মারা গেলেন জবি শিক্ষক

ছবি

ঢাবির শতবর্ষের উদ্বোধন, ১০০ বৃক্ষরোপণের কর্মসূচি

ছবি

ক্যাম্পাসে সশরীরে হবে না ঢাবির শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠান

ছবি

বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় নিরাপত্তা বাড়ানোর দাবি

ছবি

সুসম নিয়োগ নীতিমালা প্রণয়নসহ নীলদলের ২২ দাবি

ছবি

ফি দেয়ার সময় বাড়লো

ছবি

নীতিমালা ভেঙ্গে পরিকল্পনা পরিচালক নিয়োগ

‘সিনিয়র রোভার মেট’ নির্বাচিত হলেন জবির ২২ রোভার

tab

ক্যাম্পাস

লকডাউনেও সশরীরে পরীক্ষা নিলো ঢাবি

প্রতিনিধি, ঢাবি

মঙ্গলবার, ২৯ জুন ২০২১

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে কঠোর লকডাউনের মধ্যেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগ চতুর্থ বর্ষ ও মাস্টার্সের পরীক্ষা সশরীরে নিয়েছে। মঙ্গলবার (২৯ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনে বিভাগের দুটি ক্লাসরুমে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবারে মাস্টার্স ও শেষ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ করা হয়েছে। শান্তি ও সংঘর্ষ অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান সাইফুদ্দীন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে উভয় বর্ষের পরীক্ষা শুরু হয়। স্বাভাবিক সময়ের অর্ধেক সময়ে তাদের পরীক্ষা নেয়া হয়। ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত অনার্স চতুর্থবর্ষের ও ১২টা পর্যন্ত চলে মাস্টার্সের পরীক্ষা। এই পরীক্ষায় বিভাগের মাস্টার্সের ৩৪ জন শিক্ষার্থীর সবাই অংশ নিয়েছেন। একইসঙ্গে অনার্সের ৪৫ জনের সবাই অংশ নেন।

চেয়ারম্যান সাইফুদ্দীন আহমেদ বলেন, আমাদের চতুর্থ বর্ষের সপ্তম সেমিস্টার এবং মাস্টার্স প্রথম সেমিস্টার পরীক্ষা মঙ্গলবারেই শেষ হয়েছে। ২৩ তারিখ থেকে পরীক্ষা শুরু হয়েছিল। এরপর ২৫, ২৭ এবং মঙ্গলবারে সর্বশেষ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপস্থিতি শতাভাগ ছিলো। শিক্ষার্থীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন। আমরা সকল সতর্কতা অবলম্বন করেছিলাম। আমরা ৮০ জনের সিটে ৩০ জনকে বসিয়েছি। যদি কারো তাপমাত্রা বেশি হয় তাদের জন্য আলাদা রুম রেখেছিলাম। স্প্রে করে, তাপমাত্রা পরীক্ষা করে সবাইকে পরীক্ষার হলে ঢুকিয়েছিলাম। এছাড়া আমরা প্রস্তুত ছিলাম ওদের যদি বাসস্থানসহ অন্য কোনো সহযোগিতার প্রয়োজন হতো, কিন্তু দরকার হয়নি।

লকডাউন পরিস্থিতির মধ্যে সব শিক্ষার্থীকে কিভাবে পরীক্ষায় বসানো সম্ভব হলো সে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, চতুর্থ ও মাস্টার্সের অধিকাংশ শিক্ষার্থীই চাকরির প্রস্তুতি নিতে ঢাকায় অবস্থান করছে। আর পরীক্ষা তো অনেকদিন আগে থেকে চলছিল তারা বন্ধুদের মেসে, আত্মীয়ের বাসায় ম্যানেজ করে নিয়েছে। কারো কোনো সমস্যা হয়নি। মঙ্গলবারে মাস্টার্স ও শেষ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ করা হলো।

যেহেতু গণপরিবহন বন্ধ ছিল সেহেতু পরীক্ষায় আসার জন্য কোনো ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল কি না এমন প্রশ্নের জবাবে বিভাগের চেয়ারম্যান বলেন, আমরা যেটা করেছি সবার সঙ্গে যোগাযোগ করে দেখেছি সব মিলিয়ে ১০-১২ জন শিক্ষার্থীর বাসা ক্যাম্পাস থেকে একটু দূরে। তাই তাদেরকে ক্যাম্পাসে আসার জন্য আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টাফ বাসের রুট জানিয়ে দিই। তারা সেগুলোতে করে ক্যাম্পাসে আসে। আর যারা রিকশার দূরত্বে ছিল তারা রিকশায় করে ক্যাম্পাসে আসে এবং পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে৷

আর কোনো বর্ষের পরীক্ষার তারিখ রয়েছে কি না সে বিষয়ে তিনি বলেন, আমাদের অন্যান্য বর্ষের পরীক্ষার তারিখ ৮ জুলাই থেকে দেয়া হয়েছিল। সেগুলো স্থগিত করে দেয়া হয়েছে। আমরা সেগুলো জুলাইয়ের শেষদিকে নিবো।

উল্লেখ্য এর আগে, ২০ জুন প্রথম সশরীরে পরীক্ষার আয়োজন করেছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্সি বিভাগ। আবাসন সমস্যায় থাকা শিক্ষার্থীদের নিজেদের বাসায় রেখে করে সশরীরে পরীক্ষা নিয়েছিল বিভাগের শিক্ষকরা। পরীক্ষায় সেমিস্টারের শতভাগ পরীক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

back to top