alt

রাজনীতি

৩৩ শতাংশ নারী কোটা পূরণে ৫ বছর সময় চায় আওয়ামী লীগ

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image
বুধবার, ২৯ জুলাই ২০২০

দলের সকল পর্যায়ে ৩৩ শতাংশ নারী সদস্যপদ পূরণের জন্য নির্বাচন কমিশন (ইসি) আইনে ৫ বছর সময় বাড়ানোর পক্ষে মতামত দিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। আজ ইসি সচিবালয়ের সচিব মো. আলমগীর নির্বাচন ভবনের নিজ দফতরে সাংবাদিকদের একথা জানান।

তিনি বলেন, দলটির পক্ষে ২০২৫ সালের মধ্যে ৩৩ শতাংশ নারী পদ পূরণের বিধান প্রস্তাবিত নতুন আইনে রাখার জন্য মতামত দিয়েছে।

বিভিন্ন দলের মতামত সম্পর্কে জানতে চাইলে ইসি সচিব বলেন, মতামতগুলো মিশ্র। কেউ বলেছে উপজেলা, জেলা ও কেন্দ্রে আলাদা আলাদা সময় বেঁধে দেওয়ার জন্য। কেউ বলেছে নারী সদস্য পদ পূরণে সময় আর না বাড়াতে। এছাড়া অন্যান্য বিষয়েও তারা মতামত দিয়েছেন। আমরা এগুলো একীভূত করছি। তারপর কমিশনের কাছে দেওয়া হবে। ৩১ জুলাই মতামত দেওয়ার সময় শেষ। আর সময় বাড়ানো হবে না। এরপরই যৌক্তিক মতামতের ভিত্তিতে নতুন দল নিবন্ধন আইনের খসড়া চূড়ান্ত করে আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।

আ. লীগের প্রস্তাব ইসি সচিবের কাছে এর আগে জমা দিয়ে যান দলের প্রচার সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ৫০ শতাংশ নারী সদস্য পদ পূরণের পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। নারীর ক্ষমতায়নে প্রধানমন্ত্রীর যে দৃঢ় ভূমিকা রয়েছে, আমরা সেভাবেই আমাদের মতামত দিয়েছি।

গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) অনুযায়ী, রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের শর্ত মোতাবেক ২০২০ সালের মধ্যে ৩৩ শতাংশ নারী পদ পূরণের বিধান রয়েছে।বর্তমানে আরপিও থেকে দল নিবন্ধনের অধ্যায়টি তুলে দিয়ে রাজনৈতিক দল নিবন্ধন আইন-২০২০ নামে নতুন একটি আইন প্রণয়ন করছে ইসি। আর এই নতুন আইনের খসড়ার উপর সকলের কাছে মতামত চেয়েছিল সংস্থাটি। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগসহ ১৬টি নিবন্ধিত দল, ১০টি অনিবন্ধিত দল এবং ১০ জন ব্যক্তি মতামত দিয়েছেন।

খসড়ায় নিবন্ধন পাওয়ার অন্যতম শর্ত হিসেবে আবেদন করার তারিখ থেকে পূর্ববর্তী দুটি সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে কমপক্ষে একটি আসন পাওয়ার বিষয়টিও রাখা হয়েছে এবং ওই সংসদ নির্বাচনের যে কোনো একটিতে আবেদনকারী দলের অংশগ্রহণ করা আসনে প্রদত্ত মোট ভোটের ৫ শতাংশ পাওয়ার বিধানের প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়াও, পরপর দু’বছর সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিলে নিবন্ধন বাতিলের বিষয়সহ প্রস্তাবিত আইনে একগুচ্ছ শর্ত রাখা হয়েছে। কোনো দল সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে চাইলে সেই দলকে বাধ্যতামূলকভাবে ইসি থেকে নিবন্ধন নিতে হয়। বর্তমানে ইসিতে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের সংখ্যা ৪১টি।

ছবি

খালেদা জিয়া প্রতিহিংসামূলক রাজনীতির শিকার : মির্জা ফখরুল

ছবি

খালেদা জিয়ার আবেদন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে

ছবি

খালেদা জিয়ার বিষয়ে মতামত আজকের মধ্যেই

ছবি

শেখ হাসিনার দেশে ফেরার দিন

ছবি

‘মানবিক বিবেচনায় খালেদার বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা নিবে সরকার’

ছবি

খালেদার বিদেশে চিকিৎসার আবেদনে মতামত ‘আজ নয়’

ছবি

তৃতীয় ঢেউ আরও ভয়াবহ হতে পারে,সতর্ক থাকতে হবে: কাদের

ছবি

অবশেষে করোনামুক্ত খালেদা জিয়া

ছবি

খালেদাকে বিদেশে নেয়ার আবেদন, যা বললেন আইনমন্ত্রী

ছবি

করোনা সংকটকালেও সহিংসতার উস্কানি দিচ্ছে বিএনপি: কাদের

ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে হেফাজতের বৈঠক, ৪ দাবি

ছবি

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল: মির্জা ফখরুল

ছবি

আমাকে ৬ তারিখের মধ্যে হত্যা করা হবে: কাদের মির্জার স্ট্যাটাস

ছবি

শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় খালেদা জিয়াকে সিসিইউতে স্থানান্তর

ছবি

খালেদা-তারেক-ফখরুলের নেতৃত্বে সুবর্ণজয়ন্তীর দিন হামলা: নৌ প্রতিমন্ত্রী

ছবি

মহামারিতে শ্রমিকদের জন্য রেশনিং চালুর দাবি নজরুল ইসলামের

ছবি

খালেদা জিয়ার বাসভবন ‘ফিরোজা’র সব কর্মী করোনামুক্ত

ছবি

টিভির পর্দায় বিএনপিকে দেখা গেলেও জনগণের পাশে তারা নেই : তথ্যমন্ত্রী

ছবি

খুন-গুমের জবাব সরকারকে দিতে হবে : ফখরুল

ছবি

রওশন এরশাদ সিএমএইচে ভর্তি

আলেম-ওলামাদের নয়, আগুন সন্ত্রাসে জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে : কাদের

ছবি

হেফাজত নেতা হারুন ইজাহার ‘আটক’

ছবি

হেফাজত মাঠে থাকলেও নিষ্ক্রিয় নেতাকর্মীরা গা-ঢাকা দিয়েছেন

ছবি

করোনায় আক্রান্ত খালেদা জিয়া হাসপাতালে

ছবি

ব্যর্থতার দায়ে বিএনপির টপ টু বটম পদত্যাগ করা উচিত : কাদের

ছবি

খালেদা জিয়াকে আবারও সিটি স্ক্যানের জন্য হাসপাতালে নেওয়া হবে

ছবি

হেফাজতের নতুন কমিটিতে পুরাতন নেতারাই

ছবি

জুনায়েদ বাবুনগরীর বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা

ছবি

ভোররাতে হেফাজতের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা

ছবি

হেফাজত নেতার পদত্যাগ, নাশকতায় জড়িতদের বিচার দাবী

ছবি

সাবেক সংসদ সদস্য খসরুর আসন শূন্য ঘোষণা

ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে হেফাজতের বৈঠক, কি কথা হলো!

ছবি

হেফাজতের সহকারি মহাসচিব আতাউল্লাহ গ্রেপ্তার

ছবি

কোনো দল বা আলেম-ওলামা দেখে কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি: কাদের

ছবি

ওবায়দুল কাদেরের স্ত্রীর বিরুদ্ধে হত্যার পরিকল্পনার অভিযোগ কাদের মির্জার

ছবি

লাইভে ক্ষমা চাইলেন নূর

tab

রাজনীতি

৩৩ শতাংশ নারী কোটা পূরণে ৫ বছর সময় চায় আওয়ামী লীগ

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image
বুধবার, ২৯ জুলাই ২০২০

দলের সকল পর্যায়ে ৩৩ শতাংশ নারী সদস্যপদ পূরণের জন্য নির্বাচন কমিশন (ইসি) আইনে ৫ বছর সময় বাড়ানোর পক্ষে মতামত দিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। আজ ইসি সচিবালয়ের সচিব মো. আলমগীর নির্বাচন ভবনের নিজ দফতরে সাংবাদিকদের একথা জানান।

তিনি বলেন, দলটির পক্ষে ২০২৫ সালের মধ্যে ৩৩ শতাংশ নারী পদ পূরণের বিধান প্রস্তাবিত নতুন আইনে রাখার জন্য মতামত দিয়েছে।

বিভিন্ন দলের মতামত সম্পর্কে জানতে চাইলে ইসি সচিব বলেন, মতামতগুলো মিশ্র। কেউ বলেছে উপজেলা, জেলা ও কেন্দ্রে আলাদা আলাদা সময় বেঁধে দেওয়ার জন্য। কেউ বলেছে নারী সদস্য পদ পূরণে সময় আর না বাড়াতে। এছাড়া অন্যান্য বিষয়েও তারা মতামত দিয়েছেন। আমরা এগুলো একীভূত করছি। তারপর কমিশনের কাছে দেওয়া হবে। ৩১ জুলাই মতামত দেওয়ার সময় শেষ। আর সময় বাড়ানো হবে না। এরপরই যৌক্তিক মতামতের ভিত্তিতে নতুন দল নিবন্ধন আইনের খসড়া চূড়ান্ত করে আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।

আ. লীগের প্রস্তাব ইসি সচিবের কাছে এর আগে জমা দিয়ে যান দলের প্রচার সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ৫০ শতাংশ নারী সদস্য পদ পূরণের পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। নারীর ক্ষমতায়নে প্রধানমন্ত্রীর যে দৃঢ় ভূমিকা রয়েছে, আমরা সেভাবেই আমাদের মতামত দিয়েছি।

গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) অনুযায়ী, রাজনৈতিক দল নিবন্ধনের শর্ত মোতাবেক ২০২০ সালের মধ্যে ৩৩ শতাংশ নারী পদ পূরণের বিধান রয়েছে।বর্তমানে আরপিও থেকে দল নিবন্ধনের অধ্যায়টি তুলে দিয়ে রাজনৈতিক দল নিবন্ধন আইন-২০২০ নামে নতুন একটি আইন প্রণয়ন করছে ইসি। আর এই নতুন আইনের খসড়ার উপর সকলের কাছে মতামত চেয়েছিল সংস্থাটি। এরই পরিপ্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগসহ ১৬টি নিবন্ধিত দল, ১০টি অনিবন্ধিত দল এবং ১০ জন ব্যক্তি মতামত দিয়েছেন।

খসড়ায় নিবন্ধন পাওয়ার অন্যতম শর্ত হিসেবে আবেদন করার তারিখ থেকে পূর্ববর্তী দুটি সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে কমপক্ষে একটি আসন পাওয়ার বিষয়টিও রাখা হয়েছে এবং ওই সংসদ নির্বাচনের যে কোনো একটিতে আবেদনকারী দলের অংশগ্রহণ করা আসনে প্রদত্ত মোট ভোটের ৫ শতাংশ পাওয়ার বিধানের প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়াও, পরপর দু’বছর সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিলে নিবন্ধন বাতিলের বিষয়সহ প্রস্তাবিত আইনে একগুচ্ছ শর্ত রাখা হয়েছে। কোনো দল সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে চাইলে সেই দলকে বাধ্যতামূলকভাবে ইসি থেকে নিবন্ধন নিতে হয়। বর্তমানে ইসিতে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের সংখ্যা ৪১টি।

back to top