alt

সাময়িকী

‘ভিন্নচোখ’-এর ‘বাংলাবিশ্ব কবিতাসংখ্যা’

: রোববার, ১৪ নভেম্বর ২০২১

বিশ বছর ধরে প্রকাশিত আলী আফজাল খান সম্পাদিত ‘ভিন্নচোখ’ একটি সুস্থধারার সাহিত্যপত্রিকা। এর ব্যাপ্তি ও প্রত্যয় প্রশংনীয়। পত্রিকাটির প্রতিটি সংখ্যাই কোনো না কোনোভাবে কাব্যপিপাসু, লিটল ম্যগাজিনের পাঠক সর্বোপরি সুস্থ চিন্তার পাঠকের মন জয় করেছে।

বর্তমান সংখ্যাটি ‘বাংলাবিশ্ব কবিতাসংখ্যা ২০২১’ আকারে প্রকাশিত হয়েছে। সহস্রাধিক পৃষ্ঠার এই সংখ্যাটিতে বিশেষ করে ঠাঁই পেয়েছে কবিদের নির্বাচিত গুচ্ছ গুচ্ছ কবিতা এবং শিল্পীর আঁকা চিত্র। কোনো সাহিত্য পত্রিকার পক্ষে এতবড় কবিতা সংখ্যা করা যে সম্ভব তা ‘ভিন্নচোখ’ না দেখলে বিশ্বাস করতাম না। ভিন্নচোখ টিম বিশেষ করে সম্পাদক কবি আলী আফজাল খানকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ দিতে হয়। আর এর উপদেষ্ঠা সম্পাদক হিসেবে ওপার বাংলা বিশিষ্ট কবি ও সম্পাদক প্রবালকুমার বসু যে সুগঠিত চিন্তাবিনিময় করেছেন, তাতে পত্রিকাটি আরো বেশি অর্থপূর্ণ হয়ে উঠেছে। কবি প্রবালকুমার বসুর বেড়ে-ওঠা থেকে জীবনযাপন এমন একটি সাহিত্যম-লের ভেতর যে, তার সংস্পর্শে এসে পাথরও সোনা হতে বাধ্য। প্রবাল বসু বড় হয়েছেন কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়, বিনয় মজুমদার, সুনীল গাঙ্গুলি, উৎপল বসু, শঙ্খ ঘোষের মতো মহীরূহের কোলেপিঠে, স্নেহচ্ছায়ায়। তার বাবা দেবকুমার বসু প্রখ্যাত প্রকাশক ও লেখক ছিলেন। সুতরাং প্রবাল বসু জানেন আসলে সাহিত্যের যত্ন কীভাবে করতে হয়। বড়রা কীভাকে কবিতাকে লালন করেছেন, কীভাবে কবিতার দ্যুতি ছড়িয়েছেন এবং কোন কবিতায় মুক্তা লুকিয়ে আছেÑ তা তার চোখের সামনে দিয়েই উদ্ভাসিত হয়েছে। তাই তাঁর উপদেশনায় এমন একটি কাজ নিঃসন্দেহে আশা করা যায়। কবি ভাস্কর চৌধুরী বাংলা কবিতার প্রাজ্ঞ সহযাত্রী। দীর্ঘপথ হেঁটেছেন কবিতার সঙ্গে। তাঁর সাহচর্য এবং পরামর্শ সংখ্যাটি সুসম্পাদিত হয়ে প্রকাশ পেতে তরান্বিত করেছে, সন্দেহ নেই।

অপরদিকে আলী আফজাল খান নিভৃতে কাজ করে যাওয়া একজন নিষ্ঠ সম্পাদক। তিনি ভালো কিছু চিনে নিতে ভুল করেন না। যথাসময়ে সঠিক সিদ্ধান্তটি নিতে ভুল করেন না। বর্তমান সংখ্যাটির প্রকাশ যে এ সময়ে অনিবার্য ছিল তা আলী আফজাল খান যথার্থই উপলব্ধি করতে পেরেছেন। তিনি যে অসাধ্য সাধন করেছেন, হয়তো আরো সময়ান্তে তা গভীরভাবে মূল্যায়িত হবে। যেখানে ক্রমশই দলাদলি, রেষাষেতিতে কবি-লেখকের নাম বিয়োগ-সংযোজনে পিষ্ট, ভালো লেখার চেয়ে কে কাকে বাদ দিবে, কে কাকে গ্রহণ করবে জাতীয় ঘাঁটাঘাঁটিতে ব্যস্ত সেখানে আলী আফজাল খান নিরপেক্ষ দৃষ্টিতে, সত্যি বলতে কবিতার মানদণ্ডের ভিত্তিতে শতাধিক কবির দেড় সহস্রাধিক কবিতা মুদ্রণ করেছেন। সংখ্যাটি সম্পর্কে কিছু কথা সম্পাদকীয় ভাষ্য থেকে শোনা যাক:

“এই সংখ্যা ভিন্নচোখের ২০ বছর পূর্তি সংখ্যা। বাংলা ভাষার জীবিত প্রতিনিধিত্বশীল কবি যাঁদের আছে বাংলা কবিতায় নিজস্ব কণ্ঠস্বর ও স্বাক্ষর, তাঁদের মধ্যে ১০০ জন কবির জীবনী, কবিতাভাবনা ও একগুচ্ছ কবিতা নিয়ে পয়দা হইল ‘বাংলাবিশ^ কবিতাসংখ্যা’। এতে প্রতিটি কবির কবিতাজগৎ অনেকখানি পরিষ্কার হয়ে উঠবে এবং বাংলা কবিতার প্রবহমান রক্তস্র্রোতের পালস ধরা পড়বে। কইতে পারি সংখ্যাটা বাংলা কবিতার ভং, ভঙ্গি ও ভাস্বরতার নানামুখী চলতি প্রবণতার হাইলাইটস অথবা ফ্যাশন, ফেইথ এ্যান্ড ফ্যান্টাসি। এ সংকলনের কালসীমা আমরা নির্ধারণ করছি শূন্য দশক পর্যন্ত। কারণ, এর পরবর্তী সময়ের কবিতা এখনো আকার পাওয়ার পথে। যুগলবন্দিতে কবিদের পোর্ট্রেট আঁকছেন ৬টি দেশের বরেণ্য ৭৩ জন চিত্রশিল্পী। অধিকাংশ কবিই তাঁদের স্বনির্বাচিত সেরা/পছন্দের কবিতাগুলো দিয়েছেন, অগ্রজদের কেউ কেউ সময় দিতে পারেননি, অনুমতিক্রমে তাঁদের কবিতাসমগ্র বা শ্রেষ্ঠ কবিতা থেকে কবিতা বেছে নেওয়া হয়েছে। অনেকে সময়ের অভাবে আবার কেউ কেউ মনে করেন, তাঁদের কবিতাই কবিতাভাবনা, তাঁরা কবিতাভাবনা পাঠাননি।”

এস এম সুলতানের ড্রইংকে কেন্দ্র করে প্রচ্ছদ এঁকেছেন শিল্পী ধ্রুব এষ এবং শিল্প সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন বিকাশ আনন্দ সেতু, শিল্প উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেছেন শিল্পী উত্তম ঘোষ।

সমকালীন বাংলা কবিতার একটি উল্লেখযোগ্য সংগ্রহ হিসেবে ভিন্নচোখের এই সংখ্যাটি নিঃসন্দেহে অনেক বড় অভাব পূরণ করেছে। তবে গ্রন্থটি আকৃতি ও বহনবান্ধব না হওয়াতে সম্পাদকের কাছে অনুরোধ থাকবে আরো সহজ করে প্রকাশ করার জন্য। যাতে কম দামে পাঠক কিনতে পারে ও সহজে বহন করতে পারে। তাতে গ্রন্থটি পাঠকের ঘরে ঘরে পৌঁছে যেতে কোনো সমস্যা থাকবে না।

-সাময়িকী প্রতিবেদক

ছবি

ওবায়েদ আকাশের ১৮টি প্রেমের কবিতা

ছবি

বাংলাদেশের নব্বইয়ের দশকের কবিতা : বিষয়, প্রকরণ ও বিশেষত্ব

ছবি

এক আশ্চর্য ফুল: বিনয় মজুমদার

ছবি

বিভ্রম

ছবি

সাময়িকী কবিতা

ছবি

শিকিবু

ছবি

একাত্তরের মার্চ এবং বাঙালির মুক্তিযুদ্ধের সূচনা

ছবি

বিদ্রোহীর ‘আমি’ এক পৌরাণিক নায়ক

ছবি

সুফিয়া কামাল ও বিশ শতকের মুসলিম নারী মানস

ছবি

স্থির, দিঘল-দীর্ঘশ্বাস

ছবি

শিকিবু

সাময়িকী কবিতা

ছবি

কামাল চৌধুরীর কবিতা

ছবি

আগন্তুকের গল্প

ছবি

‘আমার স্বপ্ন ছিল আমি ছবি আঁকব’-তাহেরা খানম

ছবি

শিকিবু

ছবি

খালেদ হামিদী : জীবন-পিরিচে স্বপ্নের উৎসব

সাময়িকী কবিতা

ছবি

কাজল বন্দ্যোপাধ্যায়ের কবিতা

ছবি

এক বাউল জীবনের কথা

ছবি

হাসান আজিজুল হকের দর্শনচিন্তা

ছবি

স্পর্শের ওপারে স্বনির্মিত হাসান আজিজুল হক

ছবি

‘প্রবৃত্তির তাড়নাতেই লেখক সত্তার জন্ম’

ছবি

পৃষ্ঠাজুড়ে কবিতা

ছবি

সিজোফ্রেনিক রাখালবালিকায় কবিতার নতুন নন্দন

ছবি

গণমানুষের ছড়াকার মনজুরুল আহসান বুলবুল

ছবি

শিকিবু

ছবি

এক অখ্যাত কিশোরের মুক্তিযুদ্ধ

ছবি

বাংলা কবিতার প্রকৃত পরহেজগার

ছবি

মুহম্মদ মনসুরউদ্দীনের ফোকলোর সাধনা

ছবি

সৃজনশীল কাব্যগ্রন্থ ‘অজ্ঞাত আগুন’

ছবি

কালের প্রেক্ষাপটে চিরসখা অন্নদাশঙ্কর রায়

ছবি

এক অখ্যাত কিশোরের মুক্তিযুদ্ধ

ছবি

শিকিবু

ছবি

আনোয়ারা সৈয়দ হকের সত্যভাষণের শিল্প

ছবি

জীবনানন্দ দাশ ও বুদ্ধদেব বসু

tab

সাময়িকী

‘ভিন্নচোখ’-এর ‘বাংলাবিশ্ব কবিতাসংখ্যা’

রোববার, ১৪ নভেম্বর ২০২১

বিশ বছর ধরে প্রকাশিত আলী আফজাল খান সম্পাদিত ‘ভিন্নচোখ’ একটি সুস্থধারার সাহিত্যপত্রিকা। এর ব্যাপ্তি ও প্রত্যয় প্রশংনীয়। পত্রিকাটির প্রতিটি সংখ্যাই কোনো না কোনোভাবে কাব্যপিপাসু, লিটল ম্যগাজিনের পাঠক সর্বোপরি সুস্থ চিন্তার পাঠকের মন জয় করেছে।

বর্তমান সংখ্যাটি ‘বাংলাবিশ্ব কবিতাসংখ্যা ২০২১’ আকারে প্রকাশিত হয়েছে। সহস্রাধিক পৃষ্ঠার এই সংখ্যাটিতে বিশেষ করে ঠাঁই পেয়েছে কবিদের নির্বাচিত গুচ্ছ গুচ্ছ কবিতা এবং শিল্পীর আঁকা চিত্র। কোনো সাহিত্য পত্রিকার পক্ষে এতবড় কবিতা সংখ্যা করা যে সম্ভব তা ‘ভিন্নচোখ’ না দেখলে বিশ্বাস করতাম না। ভিন্নচোখ টিম বিশেষ করে সম্পাদক কবি আলী আফজাল খানকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ দিতে হয়। আর এর উপদেষ্ঠা সম্পাদক হিসেবে ওপার বাংলা বিশিষ্ট কবি ও সম্পাদক প্রবালকুমার বসু যে সুগঠিত চিন্তাবিনিময় করেছেন, তাতে পত্রিকাটি আরো বেশি অর্থপূর্ণ হয়ে উঠেছে। কবি প্রবালকুমার বসুর বেড়ে-ওঠা থেকে জীবনযাপন এমন একটি সাহিত্যম-লের ভেতর যে, তার সংস্পর্শে এসে পাথরও সোনা হতে বাধ্য। প্রবাল বসু বড় হয়েছেন কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়, বিনয় মজুমদার, সুনীল গাঙ্গুলি, উৎপল বসু, শঙ্খ ঘোষের মতো মহীরূহের কোলেপিঠে, স্নেহচ্ছায়ায়। তার বাবা দেবকুমার বসু প্রখ্যাত প্রকাশক ও লেখক ছিলেন। সুতরাং প্রবাল বসু জানেন আসলে সাহিত্যের যত্ন কীভাবে করতে হয়। বড়রা কীভাকে কবিতাকে লালন করেছেন, কীভাবে কবিতার দ্যুতি ছড়িয়েছেন এবং কোন কবিতায় মুক্তা লুকিয়ে আছেÑ তা তার চোখের সামনে দিয়েই উদ্ভাসিত হয়েছে। তাই তাঁর উপদেশনায় এমন একটি কাজ নিঃসন্দেহে আশা করা যায়। কবি ভাস্কর চৌধুরী বাংলা কবিতার প্রাজ্ঞ সহযাত্রী। দীর্ঘপথ হেঁটেছেন কবিতার সঙ্গে। তাঁর সাহচর্য এবং পরামর্শ সংখ্যাটি সুসম্পাদিত হয়ে প্রকাশ পেতে তরান্বিত করেছে, সন্দেহ নেই।

অপরদিকে আলী আফজাল খান নিভৃতে কাজ করে যাওয়া একজন নিষ্ঠ সম্পাদক। তিনি ভালো কিছু চিনে নিতে ভুল করেন না। যথাসময়ে সঠিক সিদ্ধান্তটি নিতে ভুল করেন না। বর্তমান সংখ্যাটির প্রকাশ যে এ সময়ে অনিবার্য ছিল তা আলী আফজাল খান যথার্থই উপলব্ধি করতে পেরেছেন। তিনি যে অসাধ্য সাধন করেছেন, হয়তো আরো সময়ান্তে তা গভীরভাবে মূল্যায়িত হবে। যেখানে ক্রমশই দলাদলি, রেষাষেতিতে কবি-লেখকের নাম বিয়োগ-সংযোজনে পিষ্ট, ভালো লেখার চেয়ে কে কাকে বাদ দিবে, কে কাকে গ্রহণ করবে জাতীয় ঘাঁটাঘাঁটিতে ব্যস্ত সেখানে আলী আফজাল খান নিরপেক্ষ দৃষ্টিতে, সত্যি বলতে কবিতার মানদণ্ডের ভিত্তিতে শতাধিক কবির দেড় সহস্রাধিক কবিতা মুদ্রণ করেছেন। সংখ্যাটি সম্পর্কে কিছু কথা সম্পাদকীয় ভাষ্য থেকে শোনা যাক:

“এই সংখ্যা ভিন্নচোখের ২০ বছর পূর্তি সংখ্যা। বাংলা ভাষার জীবিত প্রতিনিধিত্বশীল কবি যাঁদের আছে বাংলা কবিতায় নিজস্ব কণ্ঠস্বর ও স্বাক্ষর, তাঁদের মধ্যে ১০০ জন কবির জীবনী, কবিতাভাবনা ও একগুচ্ছ কবিতা নিয়ে পয়দা হইল ‘বাংলাবিশ^ কবিতাসংখ্যা’। এতে প্রতিটি কবির কবিতাজগৎ অনেকখানি পরিষ্কার হয়ে উঠবে এবং বাংলা কবিতার প্রবহমান রক্তস্র্রোতের পালস ধরা পড়বে। কইতে পারি সংখ্যাটা বাংলা কবিতার ভং, ভঙ্গি ও ভাস্বরতার নানামুখী চলতি প্রবণতার হাইলাইটস অথবা ফ্যাশন, ফেইথ এ্যান্ড ফ্যান্টাসি। এ সংকলনের কালসীমা আমরা নির্ধারণ করছি শূন্য দশক পর্যন্ত। কারণ, এর পরবর্তী সময়ের কবিতা এখনো আকার পাওয়ার পথে। যুগলবন্দিতে কবিদের পোর্ট্রেট আঁকছেন ৬টি দেশের বরেণ্য ৭৩ জন চিত্রশিল্পী। অধিকাংশ কবিই তাঁদের স্বনির্বাচিত সেরা/পছন্দের কবিতাগুলো দিয়েছেন, অগ্রজদের কেউ কেউ সময় দিতে পারেননি, অনুমতিক্রমে তাঁদের কবিতাসমগ্র বা শ্রেষ্ঠ কবিতা থেকে কবিতা বেছে নেওয়া হয়েছে। অনেকে সময়ের অভাবে আবার কেউ কেউ মনে করেন, তাঁদের কবিতাই কবিতাভাবনা, তাঁরা কবিতাভাবনা পাঠাননি।”

এস এম সুলতানের ড্রইংকে কেন্দ্র করে প্রচ্ছদ এঁকেছেন শিল্পী ধ্রুব এষ এবং শিল্প সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন বিকাশ আনন্দ সেতু, শিল্প উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করেছেন শিল্পী উত্তম ঘোষ।

সমকালীন বাংলা কবিতার একটি উল্লেখযোগ্য সংগ্রহ হিসেবে ভিন্নচোখের এই সংখ্যাটি নিঃসন্দেহে অনেক বড় অভাব পূরণ করেছে। তবে গ্রন্থটি আকৃতি ও বহনবান্ধব না হওয়াতে সম্পাদকের কাছে অনুরোধ থাকবে আরো সহজ করে প্রকাশ করার জন্য। যাতে কম দামে পাঠক কিনতে পারে ও সহজে বহন করতে পারে। তাতে গ্রন্থটি পাঠকের ঘরে ঘরে পৌঁছে যেতে কোনো সমস্যা থাকবে না।

-সাময়িকী প্রতিবেদক

back to top