alt

সাময়িকী

সৃজনশীল কাব্যগ্রন্থ ‘অজ্ঞাত আগুন’

মুহাম্মদ ইসহাক

: রোববার, ১৪ নভেম্বর ২০২১

মৈনাক পাহাড় বা মৈনাকপর্বত বা আদিনাথ দেশ-বিদেশে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও পরিচিত জায়গা। আর ইতিহাসখ্যাত মৈনাক পাহাড় বা আদিনাথ মহেশখালিতে অবস্থিত। পাহাড়ের চূড়ায় উঠলে দেখা যায় প্রকৃতি ও সমুদ্রের অপূর্ব দৃশ্য। যা মনোরম সৌন্দর্য ও বিশুদ্ধ পরিবেশে কবি নিলয় রফিকের সৃজনশীল চিন্তা ‘চোরাঢেউ’ কবিতায় অসাধারণ ফুটে উঠেছে।

সুন্দরীর গুপ্তপ্রেম ফতুয়া নিশান

মৈনাক পাহাড়ে স্বর্গ সিঁড়ি শিবলিঙ্গ

আদিনাথ মুগ্ধতায় কবির প্রকৃতি

কচিডাব মিষ্টিপান আপ্যায়ন সুখ। (পু. ৪৩)

কবি নিলয় রফিকের চতুর্থ কাব্যগ্রন্থ হলো ‘অজ্ঞাত আগুন’। বইটি ২০১৯ সালের একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়। বইটিতে কবির নানান চিন্তার ও ভাবনার প্রতিফলন ঘটেছে ৪০টি কবিতায়। সাহিত্য ও কবিতা নিয়ে নিজেকে ব্যস্ত রাখেন কবি নিলয় রফিক। বঙ্গোপসাগরের বুকে জেগে ওঠা মহেশখালির ভূমিতে জন্মগ্রহণ করেছেন এই কবি। বিশ্বের বুকে মহেশখালি বর্তমানে আলোচিত ও পরিচিত। আর মহেশখালি প্রাকৃতিক সম্পদের ভরপুর। কবি নিলয় রফিকের চিন্তা ও ভাবনার জগৎও অসীম।

ঝড়-তুফান, বজ্রপাত, ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসের সাথে দ্বীপবাসির অনেক আগে থেকেই পরিচয়। কবি এসকল প্রাকৃতিক দুর্যোগের তা-বের চিত্র এঁকেছেন কবিতায়। প্রকৃতির রূপে সজ্জিত মহেশখালি। সাগর ও পাহাড়ের মিলনের স্থান মহেশখালি। কবির ‘সুবর্ণঢেউ’ কবিতায়Ñ

ঘ্রাণময় শব্দঘরে কালের প্রদীপ

মনপাড়া উৎসবে সুবর্ণজয়ন্তি

তারাগুলো আলোসভা আয়নার মুখ

আকাশের রাতফুল সুগন্ধি বাগান। (পৃ. ৩৫)

ভাবনার জগতে কবি নিলয় রফিকের স্থান ব্যতিক্রম। সৎ সাহস ও সৎ চিন্তা প্রতিফলিত হয়েছে তাঁর কবিতায়। তিনি পূর্বপুরুষের কাঠমিস্ত্রির পেশাকে সম্মানের চোখে দেখেন। নিজেকে তাদের উত্তরসূরি ভাবতে দ্বিধান্বিত নন। মাটির গন্ধের সাথে মিশে গেছে তাঁর সহজ সরল ও সাবলীল ভাষার কবিতা। মিষ্টিপান মহেশখালিকে পৃথিবীর নানান দেশের সাথে পরিচিত করেছে। মহেশখালির লবণ দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানি হয়। লবণ উৎপাদনের মূল উপযুক্ত স্থান মহেশখালি। কবি মহেশখালির লবণ নিয়ে কবিতা লিখেছেন ‘নুনখোলা’।

হারানো মৃত্তিকা ফিরে পাবে বীজতলা?

আপন বিচ্ছেদে খরা লুকোচুরি বৃক্ষ

আলো ছায়া বালি কণা সমুদ্র নীরব!

কুহেলিয়া নুনখোলা বিজলির মেলা। (পৃ.২১)

নিলয় রফিক ছোটকাল থেকেই স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় কবিতা লিখে আসছেন। ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা নিজের কবিতাগুলোকে প্রথম প্রকাশ করে ২০১৪ সালে ‘বিশুদ্ধ বিষাদে ভাসি আমি রাজহাঁস’ কাব্যগ্রন্থে। কবির অন্যান্য কবিতার বইসমূহ হলো- পিপাসার পরমায়ু (২০১৬), নোনামানুষের মুখ (২০১৭), অজ্ঞাত আগুন (২০১৯) ও আঁখিআঁকা আদিনাথ (২০২১)।

অজ্ঞাত আগুন। নিলয় রফিক। শুদ্ধপ্রকাশ। একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৯। প্রচ্ছদ : চারু পিন্টু। পৃষ্ঠা: ৪৮। মূল্য : ১৬০ টাকা।

ছবি

ওবায়েদ আকাশের ১৮টি প্রেমের কবিতা

ছবি

বাংলাদেশের নব্বইয়ের দশকের কবিতা : বিষয়, প্রকরণ ও বিশেষত্ব

ছবি

এক আশ্চর্য ফুল: বিনয় মজুমদার

ছবি

বিভ্রম

ছবি

সাময়িকী কবিতা

ছবি

শিকিবু

ছবি

একাত্তরের মার্চ এবং বাঙালির মুক্তিযুদ্ধের সূচনা

ছবি

বিদ্রোহীর ‘আমি’ এক পৌরাণিক নায়ক

ছবি

সুফিয়া কামাল ও বিশ শতকের মুসলিম নারী মানস

ছবি

স্থির, দিঘল-দীর্ঘশ্বাস

ছবি

শিকিবু

সাময়িকী কবিতা

ছবি

কামাল চৌধুরীর কবিতা

ছবি

আগন্তুকের গল্প

ছবি

‘আমার স্বপ্ন ছিল আমি ছবি আঁকব’-তাহেরা খানম

ছবি

শিকিবু

ছবি

খালেদ হামিদী : জীবন-পিরিচে স্বপ্নের উৎসব

সাময়িকী কবিতা

ছবি

কাজল বন্দ্যোপাধ্যায়ের কবিতা

ছবি

এক বাউল জীবনের কথা

ছবি

হাসান আজিজুল হকের দর্শনচিন্তা

ছবি

স্পর্শের ওপারে স্বনির্মিত হাসান আজিজুল হক

ছবি

‘প্রবৃত্তির তাড়নাতেই লেখক সত্তার জন্ম’

ছবি

পৃষ্ঠাজুড়ে কবিতা

ছবি

সিজোফ্রেনিক রাখালবালিকায় কবিতার নতুন নন্দন

ছবি

গণমানুষের ছড়াকার মনজুরুল আহসান বুলবুল

ছবি

শিকিবু

ছবি

এক অখ্যাত কিশোরের মুক্তিযুদ্ধ

ছবি

বাংলা কবিতার প্রকৃত পরহেজগার

ছবি

মুহম্মদ মনসুরউদ্দীনের ফোকলোর সাধনা

ছবি

‘ভিন্নচোখ’-এর ‘বাংলাবিশ্ব কবিতাসংখ্যা’

ছবি

কালের প্রেক্ষাপটে চিরসখা অন্নদাশঙ্কর রায়

ছবি

এক অখ্যাত কিশোরের মুক্তিযুদ্ধ

ছবি

শিকিবু

ছবি

আনোয়ারা সৈয়দ হকের সত্যভাষণের শিল্প

ছবি

জীবনানন্দ দাশ ও বুদ্ধদেব বসু

tab

সাময়িকী

সৃজনশীল কাব্যগ্রন্থ ‘অজ্ঞাত আগুন’

মুহাম্মদ ইসহাক

রোববার, ১৪ নভেম্বর ২০২১

মৈনাক পাহাড় বা মৈনাকপর্বত বা আদিনাথ দেশ-বিদেশে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও পরিচিত জায়গা। আর ইতিহাসখ্যাত মৈনাক পাহাড় বা আদিনাথ মহেশখালিতে অবস্থিত। পাহাড়ের চূড়ায় উঠলে দেখা যায় প্রকৃতি ও সমুদ্রের অপূর্ব দৃশ্য। যা মনোরম সৌন্দর্য ও বিশুদ্ধ পরিবেশে কবি নিলয় রফিকের সৃজনশীল চিন্তা ‘চোরাঢেউ’ কবিতায় অসাধারণ ফুটে উঠেছে।

সুন্দরীর গুপ্তপ্রেম ফতুয়া নিশান

মৈনাক পাহাড়ে স্বর্গ সিঁড়ি শিবলিঙ্গ

আদিনাথ মুগ্ধতায় কবির প্রকৃতি

কচিডাব মিষ্টিপান আপ্যায়ন সুখ। (পু. ৪৩)

কবি নিলয় রফিকের চতুর্থ কাব্যগ্রন্থ হলো ‘অজ্ঞাত আগুন’। বইটি ২০১৯ সালের একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়। বইটিতে কবির নানান চিন্তার ও ভাবনার প্রতিফলন ঘটেছে ৪০টি কবিতায়। সাহিত্য ও কবিতা নিয়ে নিজেকে ব্যস্ত রাখেন কবি নিলয় রফিক। বঙ্গোপসাগরের বুকে জেগে ওঠা মহেশখালির ভূমিতে জন্মগ্রহণ করেছেন এই কবি। বিশ্বের বুকে মহেশখালি বর্তমানে আলোচিত ও পরিচিত। আর মহেশখালি প্রাকৃতিক সম্পদের ভরপুর। কবি নিলয় রফিকের চিন্তা ও ভাবনার জগৎও অসীম।

ঝড়-তুফান, বজ্রপাত, ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসের সাথে দ্বীপবাসির অনেক আগে থেকেই পরিচয়। কবি এসকল প্রাকৃতিক দুর্যোগের তা-বের চিত্র এঁকেছেন কবিতায়। প্রকৃতির রূপে সজ্জিত মহেশখালি। সাগর ও পাহাড়ের মিলনের স্থান মহেশখালি। কবির ‘সুবর্ণঢেউ’ কবিতায়Ñ

ঘ্রাণময় শব্দঘরে কালের প্রদীপ

মনপাড়া উৎসবে সুবর্ণজয়ন্তি

তারাগুলো আলোসভা আয়নার মুখ

আকাশের রাতফুল সুগন্ধি বাগান। (পৃ. ৩৫)

ভাবনার জগতে কবি নিলয় রফিকের স্থান ব্যতিক্রম। সৎ সাহস ও সৎ চিন্তা প্রতিফলিত হয়েছে তাঁর কবিতায়। তিনি পূর্বপুরুষের কাঠমিস্ত্রির পেশাকে সম্মানের চোখে দেখেন। নিজেকে তাদের উত্তরসূরি ভাবতে দ্বিধান্বিত নন। মাটির গন্ধের সাথে মিশে গেছে তাঁর সহজ সরল ও সাবলীল ভাষার কবিতা। মিষ্টিপান মহেশখালিকে পৃথিবীর নানান দেশের সাথে পরিচিত করেছে। মহেশখালির লবণ দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানি হয়। লবণ উৎপাদনের মূল উপযুক্ত স্থান মহেশখালি। কবি মহেশখালির লবণ নিয়ে কবিতা লিখেছেন ‘নুনখোলা’।

হারানো মৃত্তিকা ফিরে পাবে বীজতলা?

আপন বিচ্ছেদে খরা লুকোচুরি বৃক্ষ

আলো ছায়া বালি কণা সমুদ্র নীরব!

কুহেলিয়া নুনখোলা বিজলির মেলা। (পৃ.২১)

নিলয় রফিক ছোটকাল থেকেই স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় কবিতা লিখে আসছেন। ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা নিজের কবিতাগুলোকে প্রথম প্রকাশ করে ২০১৪ সালে ‘বিশুদ্ধ বিষাদে ভাসি আমি রাজহাঁস’ কাব্যগ্রন্থে। কবির অন্যান্য কবিতার বইসমূহ হলো- পিপাসার পরমায়ু (২০১৬), নোনামানুষের মুখ (২০১৭), অজ্ঞাত আগুন (২০১৯) ও আঁখিআঁকা আদিনাথ (২০২১)।

অজ্ঞাত আগুন। নিলয় রফিক। শুদ্ধপ্রকাশ। একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৯। প্রচ্ছদ : চারু পিন্টু। পৃষ্ঠা: ৪৮। মূল্য : ১৬০ টাকা।

back to top