alt

ক্যাম্পাস

জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় বাহারি ভর্তার সমাহার

জাবি প্রতিনিধি : রোববার, ২৭ আগস্ট ২০২৩

প্রকৃতির কাছাকাছি মুক্ত বাতাসে নিঃশ্বাস নেওয়ার জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জুড়ি মেলা ভার। দেশের সংস্কৃতিক রাজধানী নামে খ্যাত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় নানা কারণে দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করে। বটতলার ঐতিহ্যবাহী ১২০ পদের ভর্তা সমাহার তার মধ্যে অন্যতম।

বাংলাদেশের প্রায় সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্বল্প মূল্যে খাবারের একমাত্র জায়গা হচ্ছে হলের ক্যান্টিন অথবা ডাইনিং। কিন্তু ব্যতিক্রম জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। এখানে হলের ক্যান্টিন ছাড়াও বটতলাতে স্বল্পমূল্যে হরেক রকমের সুস্বাদু খাবার পাওয়া যায়। দুপুর হতে না হতেই এমন হাঁকডাকে সরব হয়ে ওঠে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বাড়তে থাকে ক্যাম্পাসের ছাত্র-ছাত্রীর ভিড়। দূরদূরান্ত থেকেও অনেকে ছুটে আসেন ভর্তার স্বাদ চেখে দেখতে। হরেক রকম ভর্তা সাজিয়ে বসেন দোকানিরা।নানা ধরনের ভর্তার মধ্যে রয়েছে চ্যাপা শুঁটকি, লইট্টা শুঁটকি, মলা শুঁটকি, কাচকি শুঁটকি, চিংড়ি শুঁটকি, টাকি শুঁটকি, বাইন মাছ শুঁটকি, রসুন-শুঁটকি, লোনা ইলিশ, বাটা মাছ, টাকি মাছ, চিতল মাছ, ইলিশ মাছ, রুই মাছ, বোয়াল মাছ, বাইলা মাছ, বেলে মাছ, চিকেন, দেশি চিকেন, কালোজিরা, ধনিয়া, রসুন, পটল, বেগুন, টমেটো, মরিচ, বাদাম, আলু, মরিচ-পেঁয়াজ, ডিম-আলু, শাক, ডিম, বরবটি, শিম ও কলা ভর্তা।

ভর্তার পাশাপাশি পাওয়া যায় বিরিয়ানি, তেহারি, খিচুড়ি, খাসির মাংস ও মগজ, গরুর মাংস, হাঁসের মাংস, মুরগির মাংস, রুই মাছ, ইলিশ মাছ, বোয়াল মাছ, পুঁটি মাছ, চাপিলা মাছ, শিং মাছ, বেলে মাছ, কাতলা মাছ, পাঙ্গাস মাছ, কালি বাউস মাছ, গজার মাছ ও তেলাপিয়া মাছ। বটতলাতে প্রায় ৫০টিরও বেশি খাবারের দোকান রয়েছে। তাজমহল হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টের মালিক জানান, ছুটির দিনে অন্যান্য দিনের তুলনায় সবচেয়ে বেশি খাবার রান্না করা হয়। প্রায় ৪০ ধরনের আইটেম থাকে ছুটির দিন! আর সাধারণ দিনে প্রায় ৩০ রকমের খাবার তৈরি হয়।

এত কিছুর পরও বটতলার খাবারের মান নিয়ে প্রশ্নটা কিন্তু থেকেই যাচ্ছে। এখানকার খাবারে মসলার পরিমাণ বেশি দেয়। মাঝে মাঝে বাসি খাবার পরিবেশন করার অভিযোগ উঠে। অন্যদিকে, দর্শনার্থীদের কাছ থেকে ক্ষেত্র বিশেষে দুই থেকে তিন গুণ পর্যন্ত দাম বেশি রাখা হয়।

এখানে দোকানগুলোর নামও কি বাহারি। তাজমহল, নূরজাহান, KFC, বাংলার স্বাদ, রাফি, সুজন, বাঙালি হোটেল ইত্যাদি। নামগুলোর সঙ্গে জড়িয়ে আছে শিক্ষার্থীদের অনেক দিনের ক্যাম্পাস জীবনের স্মৃতি।বটতলার এসব দোকান আ ফ ম কামালউদ্দিন, মওলানা ভাসানী এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের অধীনে। বর্তমানে হল কর্তৃপক্ষ এবং কনজ্যুমার ইউথ অ্যাসোসিয়েশনের নিয়মিত তদাররির ফলে বটতলা এখন অনেকটাই বদলে গেছে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজধানীখ্যাত ‘বটতলা’ শিক্ষার্থীদের মিলন মেলা। এই বটতলার নামকরণ কবে বা কীভাবে হয়েছে তা জানা না গেলেও লোক মুখে শোনা যায়, আগে এখানে বড় বট গাছ ছিল। সেখান থেকেই এই বটতলার নামকরণ।প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত শিক্ষাথী ও দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখরিত থাকে এই বটতলা। সেই সঙ্গে চলে গভীর রাত পর্যন্ত আড্ডা। এটিই বটতলার প্রাণ। শুধু শিক্ষার্থীরাই না, বাহিরের দর্শনার্থীরা অন্তত একবারের জন্য হলেও এখান থেকে খেয়ে যান। না হলে এ ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসাটা যেন তাদের অতৃপ্তই থেকে যায়। জাহাঙ্গীরনগরে ঘুরতে এসেছেন অথচ বটতলায় খাননি এমন লোক হয়ত খুঁজে পাওয়া দুষ্কর।

নিয়মমাফিক যান্ত্রিকজীবনে একঘেয়েমি আসলে পুনরুজ্জীবিত করার জন্য একটু মুক্তবাতাসের যেমন প্রয়োজন, তেমনই প্রতিদিনের খাবারে বৈচিত্র আনতে আয়োজন করি ভিন্ন ধাঁচের দেশীয় খাবারের। এ দিক-বিবেচনায় জাহাঙ্গীরনগরের বটতলা হতে পারে একটি আদর্শ জায়গা। একদিকে নির্মল প্রাকৃতিক পরিবেশ, অন্যদিকে সুস্বাদু নানাপদের মুখরোচক খাবার পাওয়া যায় এখানে।

ছবি

শিক্ষার্থী শূন্য জাবির হল, ক্যাম্পাসে বিদ্যুৎ-পানি-ইন্টারনেট বন্ধ

ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কোটা আন্দোলনকারীরা ছত্রভঙ্গ, হল ছাড়ছেন অনেক শিক্ষার্থী

ছবি

ঢাবি ক্যাম্পাসে পুলিশের সাউন্ড গ্রেনেড, টিয়ারশেল

ছবি

শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে জবির ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল বন্ধের সিদ্ধান্ত বাতিল

ছবি

ঢাবির হলে ছাত্র রাজনীতি ‘নিষিদ্ধ’, অঙ্গীকারনামায় প্রাধ্যক্ষদের সই নিয়েছেন শিক্ষার্থীরা

ছবি

শিক্ষার্থীর মৃত্যুর খবরে ঢাকা কলেজে হল ছাড়ার হিড়িক

ছবি

বেরোবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, আহত ২

ছবি

ভিকারুননিসার ১৬৯ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিলই থাকছে

ছবি

মুক্তিযোদ্ধা কোটা সংস্কারের দাবিতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছিনতাই কান্ডে জড়িত তিন শিক্ষার্থী বহিষ্কার

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলনে পঞ্চম দিনে উত্তাল ঢাবি, কাল থেকে ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচি

ছবি

কুষ্টিয়ায় বৃষ্টি উপেক্ষা করে ইবি শিক্ষার্থীদের মহাসড়ক অবরোধ

ছবি

কোটা সংস্কার ও পুনর্বহাল বাতিলের দাবিতে রাবিতে শিক্ষার্থীদের ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ

ছবি

৭২ বছরে পা রাখছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

ছবি

ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে জবি ছাত্রলীগের সঙ্গে কবি নজরুল ছাত্রলীগের মারামারির অভিযোগ

ছবি

কর্মবিরতিতে অচল ঢাবি, অর্থমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি

ছবি

রাবি-ব্র্যাক এআইএসপি কর্মসূচির সমাপনী অনুষ্ঠিত

ছবি

মুক্তিযোদ্ধাদের কটুক্তির প্রতিবাদে জবিতে মানববন্ধন

ছবি

দ্বিতীয় দিনের সর্বাত্মক কর্মবিরতিতে অচল জবি

ছবি

সরকারি চাকরিতে কোটা পুনর্বহালের বিরুদ্ধে লাগাতার আন্দোলন শুরু ঢাবি শিক্ষার্থীদের

ছবি

সর্বজনীন পেনশন প্রত্যাহারের দাবিতে বশেমুরকৃবি শিক্ষকদের সকল ক্লাস পরীক্ষা বর্জন

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে কোটা বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ কর্মসূচি

ছবি

প্রত্যয় স্কিম: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান বয়কট করল শিক্ষক সমিতি

ছবি

কোটা পুনর্বহালের প্রতিবাদে জবিতে বিক্ষোভ মিছিল

ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০৫ বছরে পদার্পণ

ক্লাস বর্জনের ঘোষণা শাবিপ্রবি শিক্ষকদের

ছবি

পেনশন স্কিম : কাল থেকে কর্মবিরতিতে যাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরা

ছবি

কাল থেকে জবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ : শিক্ষক সমিতি

ছবি

জবি রোভার ইন কাউন্সিলের নেতৃত্বে রাকিব-মেহেদি

ছবি

২০১ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা জবির, গবেষণায় বরাদ্দ ৯ কোটি

ছবি

দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে ঢাবি শিক্ষকদের কর্মবিরতি

ছবি

খাসি তুমি কার!

ছবি

ঈদের ছুটিতে হলে অবস্থান করায় ছাত্রীদের ডেকে শাসালেন জবির হল প্রভোস্ট

ছবি

ঢাবিতে বাজেট ২০২৪-২৫: প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি শীর্ষক সভা

ছবি

তীব্র গরমে লম্বা লাইনে ভোগান্তি শিক্ষার্থীদের

কোটা পুনবর্হালের প্রতিবাদে শিক্ষার্থী আন্দোলনে উত্তপ্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

tab

ক্যাম্পাস

জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় বাহারি ভর্তার সমাহার

জাবি প্রতিনিধি

রোববার, ২৭ আগস্ট ২০২৩

প্রকৃতির কাছাকাছি মুক্ত বাতাসে নিঃশ্বাস নেওয়ার জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জুড়ি মেলা ভার। দেশের সংস্কৃতিক রাজধানী নামে খ্যাত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় নানা কারণে দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করে। বটতলার ঐতিহ্যবাহী ১২০ পদের ভর্তা সমাহার তার মধ্যে অন্যতম।

বাংলাদেশের প্রায় সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্বল্প মূল্যে খাবারের একমাত্র জায়গা হচ্ছে হলের ক্যান্টিন অথবা ডাইনিং। কিন্তু ব্যতিক্রম জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। এখানে হলের ক্যান্টিন ছাড়াও বটতলাতে স্বল্পমূল্যে হরেক রকমের সুস্বাদু খাবার পাওয়া যায়। দুপুর হতে না হতেই এমন হাঁকডাকে সরব হয়ে ওঠে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বাড়তে থাকে ক্যাম্পাসের ছাত্র-ছাত্রীর ভিড়। দূরদূরান্ত থেকেও অনেকে ছুটে আসেন ভর্তার স্বাদ চেখে দেখতে। হরেক রকম ভর্তা সাজিয়ে বসেন দোকানিরা।নানা ধরনের ভর্তার মধ্যে রয়েছে চ্যাপা শুঁটকি, লইট্টা শুঁটকি, মলা শুঁটকি, কাচকি শুঁটকি, চিংড়ি শুঁটকি, টাকি শুঁটকি, বাইন মাছ শুঁটকি, রসুন-শুঁটকি, লোনা ইলিশ, বাটা মাছ, টাকি মাছ, চিতল মাছ, ইলিশ মাছ, রুই মাছ, বোয়াল মাছ, বাইলা মাছ, বেলে মাছ, চিকেন, দেশি চিকেন, কালোজিরা, ধনিয়া, রসুন, পটল, বেগুন, টমেটো, মরিচ, বাদাম, আলু, মরিচ-পেঁয়াজ, ডিম-আলু, শাক, ডিম, বরবটি, শিম ও কলা ভর্তা।

ভর্তার পাশাপাশি পাওয়া যায় বিরিয়ানি, তেহারি, খিচুড়ি, খাসির মাংস ও মগজ, গরুর মাংস, হাঁসের মাংস, মুরগির মাংস, রুই মাছ, ইলিশ মাছ, বোয়াল মাছ, পুঁটি মাছ, চাপিলা মাছ, শিং মাছ, বেলে মাছ, কাতলা মাছ, পাঙ্গাস মাছ, কালি বাউস মাছ, গজার মাছ ও তেলাপিয়া মাছ। বটতলাতে প্রায় ৫০টিরও বেশি খাবারের দোকান রয়েছে। তাজমহল হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টের মালিক জানান, ছুটির দিনে অন্যান্য দিনের তুলনায় সবচেয়ে বেশি খাবার রান্না করা হয়। প্রায় ৪০ ধরনের আইটেম থাকে ছুটির দিন! আর সাধারণ দিনে প্রায় ৩০ রকমের খাবার তৈরি হয়।

এত কিছুর পরও বটতলার খাবারের মান নিয়ে প্রশ্নটা কিন্তু থেকেই যাচ্ছে। এখানকার খাবারে মসলার পরিমাণ বেশি দেয়। মাঝে মাঝে বাসি খাবার পরিবেশন করার অভিযোগ উঠে। অন্যদিকে, দর্শনার্থীদের কাছ থেকে ক্ষেত্র বিশেষে দুই থেকে তিন গুণ পর্যন্ত দাম বেশি রাখা হয়।

এখানে দোকানগুলোর নামও কি বাহারি। তাজমহল, নূরজাহান, KFC, বাংলার স্বাদ, রাফি, সুজন, বাঙালি হোটেল ইত্যাদি। নামগুলোর সঙ্গে জড়িয়ে আছে শিক্ষার্থীদের অনেক দিনের ক্যাম্পাস জীবনের স্মৃতি।বটতলার এসব দোকান আ ফ ম কামালউদ্দিন, মওলানা ভাসানী এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের অধীনে। বর্তমানে হল কর্তৃপক্ষ এবং কনজ্যুমার ইউথ অ্যাসোসিয়েশনের নিয়মিত তদাররির ফলে বটতলা এখন অনেকটাই বদলে গেছে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজধানীখ্যাত ‘বটতলা’ শিক্ষার্থীদের মিলন মেলা। এই বটতলার নামকরণ কবে বা কীভাবে হয়েছে তা জানা না গেলেও লোক মুখে শোনা যায়, আগে এখানে বড় বট গাছ ছিল। সেখান থেকেই এই বটতলার নামকরণ।প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত শিক্ষাথী ও দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখরিত থাকে এই বটতলা। সেই সঙ্গে চলে গভীর রাত পর্যন্ত আড্ডা। এটিই বটতলার প্রাণ। শুধু শিক্ষার্থীরাই না, বাহিরের দর্শনার্থীরা অন্তত একবারের জন্য হলেও এখান থেকে খেয়ে যান। না হলে এ ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসাটা যেন তাদের অতৃপ্তই থেকে যায়। জাহাঙ্গীরনগরে ঘুরতে এসেছেন অথচ বটতলায় খাননি এমন লোক হয়ত খুঁজে পাওয়া দুষ্কর।

নিয়মমাফিক যান্ত্রিকজীবনে একঘেয়েমি আসলে পুনরুজ্জীবিত করার জন্য একটু মুক্তবাতাসের যেমন প্রয়োজন, তেমনই প্রতিদিনের খাবারে বৈচিত্র আনতে আয়োজন করি ভিন্ন ধাঁচের দেশীয় খাবারের। এ দিক-বিবেচনায় জাহাঙ্গীরনগরের বটতলা হতে পারে একটি আদর্শ জায়গা। একদিকে নির্মল প্রাকৃতিক পরিবেশ, অন্যদিকে সুস্বাদু নানাপদের মুখরোচক খাবার পাওয়া যায় এখানে।

back to top