alt

ক্যাম্পাস

জবিতে বৈশাখ রাঙায় চারুকলার শিক্ষার্থীদের শৈল্পিক কাজ, বাজেট বৃদ্ধির দাবি

মাহমুদ তানজীদ, জবি : সোমবার, ০৮ এপ্রিল ২০২৪

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) প্রতিবছর পহেলা বৈশাখে রঙিন মাত্রা যুক্ত করে চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থীদের শৈল্পিক কাজকর্ম। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস জুড়ে শিক্ষার্থীদের নান্দনিক পেইন্টিং ও নানারকম শিল্পকর্ম তৈরী সহ উদ্ভাবনী বিভিন্ন কাজ-কর্মে ভিন্ন আমেজ সৃষ্টি হয় বৈশাখকে ঘিরে।

তবে এক্ষেত্রে এখনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পর্যাপ্ত পরিমাণ অর্থায়ন সম্ভব হয়না। যার ফলে সার্বিক আয়োজন বেশ কিছুটা বেগ পেতে হয় শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্টদের। অর্থের পরিমাণ বাড়ালে আরও সুন্দর কাজ বিশ্ববিদ্যালয়কে উপহার দিতে পারবেন দাবি শিক্ষার্থীদের।

জানা গেছে, পহেলা বৈশাখের কয়েকদিন আগে থেকেই শুরু হয় চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থীদের বর্ণিল কর্মযজ্ঞ। বর্ষবরণের মূল আয়োজন থাকে চারুকলা অনুষদকে ঘিরেই। তাই সবার প্রথমে শুরু হয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় দেয়াল চিত্র অঙ্কন। এর মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের জীর্ণশীর্ণ দেয়ালও হয়ে উঠে রঙিন।

২০২২ সালে বৈশাখকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউটিলিটি ভবন ও চতুর্থ গেইটের দেয়াল জুড়ে গাজীর পট,রিকশা-ঘোড়া নিয়ে ছুটে চলার দৃশ্য ও চারুকলা বিভাগ সংশ্লিষ্ট নানান চিত্র অঙ্কন করে সাড়া ফেলেন চারুকলার শিক্ষার্থীরা। বিগত বছরের মত এবারও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম গেইট ও দ্বিতীয় গেইট জুড়ে ফুটিয়ে তুলেছেন রিকশা চিত্র এবং ফুল, মাছ, বাঘ,ময়ূর, নৌকা,বিল্ডিং সহ নানা চিত্র। যাতে আকর্ষণীয় ও দৃষ্টিনন্দন হয়ে উঠেছে গেইটগুলো। গত ২৬ মার্চ থেকে শুরু করে চিত্রকর্ম অঙ্কনের কাজ ২ এপ্রিল শেষ করেন শিক্ষার্থীরা।

এবছর বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন একাডেমিক ভবনের নিচতলায় শিক্ষার্থীরা গত কয়েকদিনের কর্ম প্রচেষ্টায় সবচেয়ে বড় আকৃতির কৃত্রিম রিক্সাটি রঙতুলিতে ফুটিয়ে তুলেছেন। পাশাপাশি বর্ষবরণ উপলক্ষে একটি কুমিরের অবয়ব তৈরী করেছেন তারা।

প্রতিবছর বৈশাখকে ঘিরে স্বল্প সময়েই অসংখ্য মুখোশ,ফ্যাস্টুন,মৌমাছি,পায়রা, প্যাঁচা সহ বিভিন্ন প্রাণীর অবয়ব ও আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র তৈরী করেন অনুষদটির শিক্ষার্থীরা। শিক্ষক-শিক্ষার্থী এক চমৎকার মেলবন্ধন তৈরী হয় এক্ষেত্রে। চারুকলা অনুষদের শিক্ষকরা এক্ষেত্রে প্রত্যক্ষভাবে গাইডলাইন দিয়ে থাকেন শিক্ষার্থীদের। কাজের ক্ষেত্রে যেকোনো সমস্যা সমাধান কিংবা আনুষঙ্গিক প্রয়োজনে শিক্ষকরা সাড়া দেন।

এবার চারুকলা বিভাগের পঞ্চম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা বৈশাখকে রাঙিয়ে তোলার জন্য সার্বিক আয়োজনের দায়িত্বে রয়েছেন। গত কয়েকদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে সরেজমিনে দেখা যায়, বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে চারুকলার শিক্ষার্থীরা কাজ করছেন। বিভাগগুলোতে চলছিল আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র তৈরী করার কর্মযজ্ঞ। নতুন একাডেমিক ভবনের নিচতলায় দুইটি স্ট্রাকচার তৈরীতে দিন-রাত কাজ করে গেছেন তারা।

দেয়ালে পেইন্টিং করা অবস্থায় কথা হয় চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থী রুবেল সরকারের সাথে। তিনি বলেন, নিয়মানুযায়ী বিভাগের ৫ম ব্যাচ হিসেবে এবার আমাদের উপর বৈশাখের মূল দায়িত্ব এসেছে। দুইটি স্ট্রাকচারের পাশাপাশি দেয়ালচিত্র এবং মুখোশ-ফ্যাস্টুনের কাজ শেষ হয়েছে। এত অল্প সময়ে সব কাজ শেষ করা আমাদের জন্য একটা চ্যালেঞ্জ ছিল। তাও অনুষদের শিক্ষক ও সিনিয়র-জুনিয়র সবার সম্মিলিত অংশগ্রহণের ফলস্বরূপ আমরা মহা সমারোহে বৈশাখ উদযাপন করতে পারবো।

চারুকলা বিভাগের শিক্ষার্থী সূচনা দাস বলেন,প্রতিবছর আমাদের শিক্ষকরাই সিলেক্ট করে দেন কোন থিমে বৈশাখ উদযাপন করা হবে। বৈশাখের সময় আর ক্লাস হয় না। এ সময়ে কয়েকটা দিন সিনিয়র-জুনিয়র সবাই মিলে একত্রে খুব আনন্দ নিয়ে কাজ করি। কাজের সময় আড্ডা,গান-বাজনা, আর একসাথে সবার খাওয়া-দাওয়া এসব পুরোটাই একটা উৎসবের পরিবেশ সৃষ্টি করে। আমরা চারুকলার শিক্ষার্থীরা এসব কাজে ভীষণ আগ্রহী। তবে বাজেট বাড়ানো হলে আরও সুন্দর কাজ আমরা বিশ্ববিদ্যালয়কে উপহার দিতে পারবো।

জবির চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক মোহাঃ আলপ্তগীন তুষার বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ধারাবাহিকভাবেই পহেলা বৈশাখ উদযাপন হয়ে আসছে। এই আয়োজন আমাদের ঐতিহ্য ও শৈল্পিক সত্ত্বাকে পুনরুজ্জীবিত করে। চারুকলার শিক্ষার্থীরা বরাবরই নিজ প্রচেষ্টা ও শৈল্পিক গুণে বৈশাখের জন্য কাজ করে থাকেন। এটি অনুষদের জন্য গর্বের বিষয়। তবে এই বিশাল আয়োজন ও পরিশ্রমের বিপরীতে আমরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে অর্থ পাই সেটা অপ্রতুল। অর্থের পরিমাণ বাড়ালে সুন্দরভাবে সার্বিক আয়োজন করা সম্ভব।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম বলেন, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্বতস্ফুর্ত অংশগ্রহণে ১৮ এপ্রিল আমরা বাংলা নববর্ষের অনুষ্ঠান করবো। মঙ্গল শোভাযাত্রা, সাংস্কৃতিক পরিবেশনা সহ বিগত দিনে চলে আসা সকল আয়োজন থাকবে। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়ালগুলোতে চারুকলার শিক্ষার্থীরা নান্দনিক রিকশাচিত্র ফুটিয়ে তুলার কাজ করছে।

ছবি

জবিতে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করছে ‘বাঁধন’

ছবি

মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরাও যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছে: সাদেকা হালিম

ছবি

ক্যান্সার আক্রান্ত জবি অধ্যাপককে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

ছবি

টিউশনের প্রলোভন দেখিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণা

ছবি

১১তম পরিবেশ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন রাবি

ছবি

যাদের প্রিয় কিছু নেই, তাদের জীবন অন্তঃসারশূন্য: জবি উপাচার্য

পেনশন স্কিম বাতিলের দাবিতে কর্মবিরতিসহ কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি ঢাবি শিক্ষক সমিতির

ছবি

জাবিতে স্বেচ্ছাচারিতা ও অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে প্রভোস্ট কক্ষে তালা

৩.৬৫ পেয়ে তৃতীয় হলেন জবির সেই অবন্তিকা

ছবি

বশেমুরকৃবিতে কৃষিতে রিমোট সেন্সিং ও জিআইএস এর ব্যবহার বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

বারিতে ক্যানসার কোষ কালচার বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত

ছবি

গাজীপুরে ডুয়েট শিক্ষকদের মৌন মিছিল, প্রতিবাদ সভা

ছবি

বশেমুরকৃবি ভেটেরিনারি টিচিং হসপিটালে ইয়ং ডক্টরস লার্নিং প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

ছবি

কৃষ্ণচূড়ার আগুন রঙ্গে সেজেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

ছবি

বিএআরআই বিজ্ঞানীদের নতুন প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

জাবির সঙ্গে এনআইএলএমআরসি’র সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত

ছবি

দক্ষতা অর্জন করতে হবে, শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের

জাবিতে ইভটিজিংয়ের মিথ্যা অভিযোগ করায় ছাত্রীকে জরিমানা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিন নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ

ছবি

রাবিতে প্রথম বারের মতো বিএসসিএফ ডিভিশনাল অ্যাস্ট্রো ক্যাম্প ১৭ মে

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হেনস্থার ঘটনায় বাস আটক

ছবি

স্টামফোর্ডে বিশ্ববিদ্যালয়ে “সাংবাদিকতায় নিউ মিডিয়ার ব্যবহার” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

ছবি

এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সাথে ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ছবি

পরিবর্তন হলো জবির একমাত্র ছাত্রী হলের নাম

ছবি

জবিতে ব্যান্ড মিউজিক এসোসিয়েশনের নেতৃত্বে ফয়সাল-আরাবি

ছবি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আর্থিক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতের নির্দেশ উপাচার্যের

ছবি

দেড় মাস পর পরীক্ষায় বসলেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা

ছবি

নতুন শিক্ষাবর্ষের ক্লাস জুলাইয়ে শুরু করতে চায় জবি

ছবি

দেশ সেরা“শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনী উদ্যোগ” পুরস্কার পেয়েছে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ

ছবি

গাজায় গণহত্যা বন্ধের দাবিসহ ৩ দাবিতে ঢাবিতে মানব পতাকা প্রদর্শন ও সমাবেশ

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে নবীন শিক্ষার্থীদের প্রবেশিকা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে টানা তৃতীয়দিনের মত অবস্থান কর্মসূচীতে কুবি শিক্ষকরা

ছবি

ঢাবিতে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় কোড সামুরাই হ্যাকাথন শুরু শুক্রবার

যৌন হয়রানির দায়ে ঢাবির ২ অধ্যাপককে অব্যাহতি, থিসিস জালিয়াতির ঘটনা তদন্তে কমিটি

ছবি

ডিন পদ ফিরে পাচ্ছেন ঢাবি অধ্যাপক রহমত উল্লাহ

ছবি

চায়না্থর আনহুই একাডেমি প্রতিনিধি দলের বারি পরিদর্শন

tab

ক্যাম্পাস

জবিতে বৈশাখ রাঙায় চারুকলার শিক্ষার্থীদের শৈল্পিক কাজ, বাজেট বৃদ্ধির দাবি

মাহমুদ তানজীদ, জবি

সোমবার, ০৮ এপ্রিল ২০২৪

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) প্রতিবছর পহেলা বৈশাখে রঙিন মাত্রা যুক্ত করে চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থীদের শৈল্পিক কাজকর্ম। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস জুড়ে শিক্ষার্থীদের নান্দনিক পেইন্টিং ও নানারকম শিল্পকর্ম তৈরী সহ উদ্ভাবনী বিভিন্ন কাজ-কর্মে ভিন্ন আমেজ সৃষ্টি হয় বৈশাখকে ঘিরে।

তবে এক্ষেত্রে এখনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পর্যাপ্ত পরিমাণ অর্থায়ন সম্ভব হয়না। যার ফলে সার্বিক আয়োজন বেশ কিছুটা বেগ পেতে হয় শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্টদের। অর্থের পরিমাণ বাড়ালে আরও সুন্দর কাজ বিশ্ববিদ্যালয়কে উপহার দিতে পারবেন দাবি শিক্ষার্থীদের।

জানা গেছে, পহেলা বৈশাখের কয়েকদিন আগে থেকেই শুরু হয় চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থীদের বর্ণিল কর্মযজ্ঞ। বর্ষবরণের মূল আয়োজন থাকে চারুকলা অনুষদকে ঘিরেই। তাই সবার প্রথমে শুরু হয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় দেয়াল চিত্র অঙ্কন। এর মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের জীর্ণশীর্ণ দেয়ালও হয়ে উঠে রঙিন।

২০২২ সালে বৈশাখকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউটিলিটি ভবন ও চতুর্থ গেইটের দেয়াল জুড়ে গাজীর পট,রিকশা-ঘোড়া নিয়ে ছুটে চলার দৃশ্য ও চারুকলা বিভাগ সংশ্লিষ্ট নানান চিত্র অঙ্কন করে সাড়া ফেলেন চারুকলার শিক্ষার্থীরা। বিগত বছরের মত এবারও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম গেইট ও দ্বিতীয় গেইট জুড়ে ফুটিয়ে তুলেছেন রিকশা চিত্র এবং ফুল, মাছ, বাঘ,ময়ূর, নৌকা,বিল্ডিং সহ নানা চিত্র। যাতে আকর্ষণীয় ও দৃষ্টিনন্দন হয়ে উঠেছে গেইটগুলো। গত ২৬ মার্চ থেকে শুরু করে চিত্রকর্ম অঙ্কনের কাজ ২ এপ্রিল শেষ করেন শিক্ষার্থীরা।

এবছর বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন একাডেমিক ভবনের নিচতলায় শিক্ষার্থীরা গত কয়েকদিনের কর্ম প্রচেষ্টায় সবচেয়ে বড় আকৃতির কৃত্রিম রিক্সাটি রঙতুলিতে ফুটিয়ে তুলেছেন। পাশাপাশি বর্ষবরণ উপলক্ষে একটি কুমিরের অবয়ব তৈরী করেছেন তারা।

প্রতিবছর বৈশাখকে ঘিরে স্বল্প সময়েই অসংখ্য মুখোশ,ফ্যাস্টুন,মৌমাছি,পায়রা, প্যাঁচা সহ বিভিন্ন প্রাণীর অবয়ব ও আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র তৈরী করেন অনুষদটির শিক্ষার্থীরা। শিক্ষক-শিক্ষার্থী এক চমৎকার মেলবন্ধন তৈরী হয় এক্ষেত্রে। চারুকলা অনুষদের শিক্ষকরা এক্ষেত্রে প্রত্যক্ষভাবে গাইডলাইন দিয়ে থাকেন শিক্ষার্থীদের। কাজের ক্ষেত্রে যেকোনো সমস্যা সমাধান কিংবা আনুষঙ্গিক প্রয়োজনে শিক্ষকরা সাড়া দেন।

এবার চারুকলা বিভাগের পঞ্চম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা বৈশাখকে রাঙিয়ে তোলার জন্য সার্বিক আয়োজনের দায়িত্বে রয়েছেন। গত কয়েকদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে সরেজমিনে দেখা যায়, বিভিন্ন দলে ভাগ হয়ে চারুকলার শিক্ষার্থীরা কাজ করছেন। বিভাগগুলোতে চলছিল আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র তৈরী করার কর্মযজ্ঞ। নতুন একাডেমিক ভবনের নিচতলায় দুইটি স্ট্রাকচার তৈরীতে দিন-রাত কাজ করে গেছেন তারা।

দেয়ালে পেইন্টিং করা অবস্থায় কথা হয় চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থী রুবেল সরকারের সাথে। তিনি বলেন, নিয়মানুযায়ী বিভাগের ৫ম ব্যাচ হিসেবে এবার আমাদের উপর বৈশাখের মূল দায়িত্ব এসেছে। দুইটি স্ট্রাকচারের পাশাপাশি দেয়ালচিত্র এবং মুখোশ-ফ্যাস্টুনের কাজ শেষ হয়েছে। এত অল্প সময়ে সব কাজ শেষ করা আমাদের জন্য একটা চ্যালেঞ্জ ছিল। তাও অনুষদের শিক্ষক ও সিনিয়র-জুনিয়র সবার সম্মিলিত অংশগ্রহণের ফলস্বরূপ আমরা মহা সমারোহে বৈশাখ উদযাপন করতে পারবো।

চারুকলা বিভাগের শিক্ষার্থী সূচনা দাস বলেন,প্রতিবছর আমাদের শিক্ষকরাই সিলেক্ট করে দেন কোন থিমে বৈশাখ উদযাপন করা হবে। বৈশাখের সময় আর ক্লাস হয় না। এ সময়ে কয়েকটা দিন সিনিয়র-জুনিয়র সবাই মিলে একত্রে খুব আনন্দ নিয়ে কাজ করি। কাজের সময় আড্ডা,গান-বাজনা, আর একসাথে সবার খাওয়া-দাওয়া এসব পুরোটাই একটা উৎসবের পরিবেশ সৃষ্টি করে। আমরা চারুকলার শিক্ষার্থীরা এসব কাজে ভীষণ আগ্রহী। তবে বাজেট বাড়ানো হলে আরও সুন্দর কাজ আমরা বিশ্ববিদ্যালয়কে উপহার দিতে পারবো।

জবির চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক মোহাঃ আলপ্তগীন তুষার বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ধারাবাহিকভাবেই পহেলা বৈশাখ উদযাপন হয়ে আসছে। এই আয়োজন আমাদের ঐতিহ্য ও শৈল্পিক সত্ত্বাকে পুনরুজ্জীবিত করে। চারুকলার শিক্ষার্থীরা বরাবরই নিজ প্রচেষ্টা ও শৈল্পিক গুণে বৈশাখের জন্য কাজ করে থাকেন। এটি অনুষদের জন্য গর্বের বিষয়। তবে এই বিশাল আয়োজন ও পরিশ্রমের বিপরীতে আমরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যে অর্থ পাই সেটা অপ্রতুল। অর্থের পরিমাণ বাড়ালে সুন্দরভাবে সার্বিক আয়োজন করা সম্ভব।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম বলেন, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্বতস্ফুর্ত অংশগ্রহণে ১৮ এপ্রিল আমরা বাংলা নববর্ষের অনুষ্ঠান করবো। মঙ্গল শোভাযাত্রা, সাংস্কৃতিক পরিবেশনা সহ বিগত দিনে চলে আসা সকল আয়োজন থাকবে। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়ালগুলোতে চারুকলার শিক্ষার্থীরা নান্দনিক রিকশাচিত্র ফুটিয়ে তুলার কাজ করছে।

back to top