alt

ক্যাম্পাস

‘যৌন কেলেংকারিতে’ অভিযুক্ত শিক্ষককে রেজিস্ট্রার নিয়োগ, শিক্ষক সমিতির পাল্টাপাল্টি বিবৃতি

মাহমুদ তানজীদ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় : বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আইনুল ইসলামকে নিয়ে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনকে কেন্দ্র করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (জবিশিস) থেকে পাল্টাপাল্টি বিবৃতি দেওয়া হয়েছে।

১৬ই এপ্রিল একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত ‘বিতর্কিত শিক্ষককে জবির রেজিস্ট্রার নিয়োগ’ খবর প্রকাশের পর শিক্ষক সমিতি থেকে পাল্টাপাল্টি দুইটি বিবৃতি দেওয়া হয়।

১৭ই এপ্রিল (বুধবার) শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক একটি বিবৃতি দেন। আর পাল্টা বিবৃতি দেন সহসভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

সভাপতি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে ১৬ এপ্রিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এবং ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ড. মোঃ আইনুল ইসলামকে নিয়ে খবরের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, ‘ এ ধরনের সর্বৈব মিথ্যা ও কুরুচিপূর্ণ খবর প্রকাশ শুধু অধ্যাপক ড. মোঃ আইনুল ইসলাম নয় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অব্যাহত সুনামকে কালিমালিপ্ত করার অপপ্রয়াস বলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি মনে করে।’

আর সহসভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, ১৭ এপ্রিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নামে প্রচারিত প্রতিবাদপত্রের সাথে শিক্ষক সমিতির ‘সকল সদস্য একমত নন’ এবং প্রতিবাদপত্রের সাথে ‘আমরা সংশ্লিষ্ট নই’।

পাল্টাপাল্টি বিবৃতি নিয়ে জবিশিসের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো: জাকির হোসেন বলেন, ‘জবিশিসের সাধারণ সভায় সিদ্ধান্ত হয় আমরা সমিতির প্যাডে জনকণ্ঠে প্রকাশিত প্রতিবেদনের প্রতিবাদ লিপি দিব। এক্ষেত্রে সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরে অনীহা প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে একই প্যাডে আবার বিবৃতি প্রকাশ করা কতটা স্বাভাবিক, উদ্দেশ্যে প্রনোদিত কিনা সেটি আমার প্রশ্ন? এভাবে দুইবার শিক্ষক সমিতির প্যাডে বিবৃতি দেওয়া বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতি তৈরি করে।”

সাধারণ সম্পাদক ড. শেখ মাসরিক হাসান বলেন, ‘যাকে নিয়ে বিবৃতি দেওয়ার কথা বলা হয়েছে তার কাছ থেকে আবেদন জানানোর কথা বলা হয়েছিলো। এছাড়াও এর আগে যেসব শিক্ষক নিয়ে নিউজ হয়েছে তাদের জন্যও বিবৃতি দিতে বলা হয়। কিন্তু শিক্ষক সমিতির প্যাডে আমাকে বাদ দিয়ে নিজেদের মতো করে বিবৃতি দেওয়ায় আমাকে অপমান করা হয়েছে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ড. আইনুল ইসলামকে ‘যৌন কেলেঙ্কারির’ ঘটনায় ২০১১ সালের ১৫ মার্চ ময়মনসিংহের ত্রিশালের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষের পদ থেকে অপসারণ করা হয়। সে সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের এক শিক্ষিকার সাথে কথিত ‘যৌন কেলেঙ্কারির’ ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে এ পদ থেকে আইনুল ইসলামকে অপসারণ করা হয়।

আইনুল ইসলাম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রকল্যাণ পরিচালক, শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি ও বর্তমানে কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য। তিনি আইসিবি সিকিউরিটির পরিচালকও।

ছবি

জবিতে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করছে ‘বাঁধন’

ছবি

মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরাও যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছে: সাদেকা হালিম

ছবি

ক্যান্সার আক্রান্ত জবি অধ্যাপককে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

ছবি

টিউশনের প্রলোভন দেখিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণা

ছবি

১১তম পরিবেশ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন রাবি

ছবি

যাদের প্রিয় কিছু নেই, তাদের জীবন অন্তঃসারশূন্য: জবি উপাচার্য

পেনশন স্কিম বাতিলের দাবিতে কর্মবিরতিসহ কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি ঢাবি শিক্ষক সমিতির

ছবি

জাবিতে স্বেচ্ছাচারিতা ও অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে প্রভোস্ট কক্ষে তালা

৩.৬৫ পেয়ে তৃতীয় হলেন জবির সেই অবন্তিকা

ছবি

বশেমুরকৃবিতে কৃষিতে রিমোট সেন্সিং ও জিআইএস এর ব্যবহার বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

বারিতে ক্যানসার কোষ কালচার বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত

ছবি

গাজীপুরে ডুয়েট শিক্ষকদের মৌন মিছিল, প্রতিবাদ সভা

ছবি

বশেমুরকৃবি ভেটেরিনারি টিচিং হসপিটালে ইয়ং ডক্টরস লার্নিং প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

ছবি

কৃষ্ণচূড়ার আগুন রঙ্গে সেজেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

ছবি

বিএআরআই বিজ্ঞানীদের নতুন প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

জাবির সঙ্গে এনআইএলএমআরসি’র সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত

ছবি

দক্ষতা অর্জন করতে হবে, শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের

জাবিতে ইভটিজিংয়ের মিথ্যা অভিযোগ করায় ছাত্রীকে জরিমানা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিন নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ

ছবি

রাবিতে প্রথম বারের মতো বিএসসিএফ ডিভিশনাল অ্যাস্ট্রো ক্যাম্প ১৭ মে

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হেনস্থার ঘটনায় বাস আটক

ছবি

স্টামফোর্ডে বিশ্ববিদ্যালয়ে “সাংবাদিকতায় নিউ মিডিয়ার ব্যবহার” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

ছবি

এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সাথে ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ছবি

পরিবর্তন হলো জবির একমাত্র ছাত্রী হলের নাম

ছবি

জবিতে ব্যান্ড মিউজিক এসোসিয়েশনের নেতৃত্বে ফয়সাল-আরাবি

ছবি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আর্থিক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতের নির্দেশ উপাচার্যের

ছবি

দেড় মাস পর পরীক্ষায় বসলেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা

ছবি

নতুন শিক্ষাবর্ষের ক্লাস জুলাইয়ে শুরু করতে চায় জবি

ছবি

দেশ সেরা“শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনী উদ্যোগ” পুরস্কার পেয়েছে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ

ছবি

গাজায় গণহত্যা বন্ধের দাবিসহ ৩ দাবিতে ঢাবিতে মানব পতাকা প্রদর্শন ও সমাবেশ

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে নবীন শিক্ষার্থীদের প্রবেশিকা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে টানা তৃতীয়দিনের মত অবস্থান কর্মসূচীতে কুবি শিক্ষকরা

ছবি

ঢাবিতে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় কোড সামুরাই হ্যাকাথন শুরু শুক্রবার

যৌন হয়রানির দায়ে ঢাবির ২ অধ্যাপককে অব্যাহতি, থিসিস জালিয়াতির ঘটনা তদন্তে কমিটি

ছবি

ডিন পদ ফিরে পাচ্ছেন ঢাবি অধ্যাপক রহমত উল্লাহ

ছবি

চায়না্থর আনহুই একাডেমি প্রতিনিধি দলের বারি পরিদর্শন

tab

ক্যাম্পাস

‘যৌন কেলেংকারিতে’ অভিযুক্ত শিক্ষককে রেজিস্ট্রার নিয়োগ, শিক্ষক সমিতির পাল্টাপাল্টি বিবৃতি

মাহমুদ তানজীদ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আইনুল ইসলামকে নিয়ে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনকে কেন্দ্র করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি (জবিশিস) থেকে পাল্টাপাল্টি বিবৃতি দেওয়া হয়েছে।

১৬ই এপ্রিল একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত ‘বিতর্কিত শিক্ষককে জবির রেজিস্ট্রার নিয়োগ’ খবর প্রকাশের পর শিক্ষক সমিতি থেকে পাল্টাপাল্টি দুইটি বিবৃতি দেওয়া হয়।

১৭ই এপ্রিল (বুধবার) শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক একটি বিবৃতি দেন। আর পাল্টা বিবৃতি দেন সহসভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

সভাপতি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে ১৬ এপ্রিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক এবং ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ড. মোঃ আইনুল ইসলামকে নিয়ে খবরের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, ‘ এ ধরনের সর্বৈব মিথ্যা ও কুরুচিপূর্ণ খবর প্রকাশ শুধু অধ্যাপক ড. মোঃ আইনুল ইসলাম নয় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় অব্যাহত সুনামকে কালিমালিপ্ত করার অপপ্রয়াস বলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি মনে করে।’

আর সহসভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, ১৭ এপ্রিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নামে প্রচারিত প্রতিবাদপত্রের সাথে শিক্ষক সমিতির ‘সকল সদস্য একমত নন’ এবং প্রতিবাদপত্রের সাথে ‘আমরা সংশ্লিষ্ট নই’।

পাল্টাপাল্টি বিবৃতি নিয়ে জবিশিসের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো: জাকির হোসেন বলেন, ‘জবিশিসের সাধারণ সভায় সিদ্ধান্ত হয় আমরা সমিতির প্যাডে জনকণ্ঠে প্রকাশিত প্রতিবেদনের প্রতিবাদ লিপি দিব। এক্ষেত্রে সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরে অনীহা প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে একই প্যাডে আবার বিবৃতি প্রকাশ করা কতটা স্বাভাবিক, উদ্দেশ্যে প্রনোদিত কিনা সেটি আমার প্রশ্ন? এভাবে দুইবার শিক্ষক সমিতির প্যাডে বিবৃতি দেওয়া বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতি তৈরি করে।”

সাধারণ সম্পাদক ড. শেখ মাসরিক হাসান বলেন, ‘যাকে নিয়ে বিবৃতি দেওয়ার কথা বলা হয়েছে তার কাছ থেকে আবেদন জানানোর কথা বলা হয়েছিলো। এছাড়াও এর আগে যেসব শিক্ষক নিয়ে নিউজ হয়েছে তাদের জন্যও বিবৃতি দিতে বলা হয়। কিন্তু শিক্ষক সমিতির প্যাডে আমাকে বাদ দিয়ে নিজেদের মতো করে বিবৃতি দেওয়ায় আমাকে অপমান করা হয়েছে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ড. আইনুল ইসলামকে ‘যৌন কেলেঙ্কারির’ ঘটনায় ২০১১ সালের ১৫ মার্চ ময়মনসিংহের ত্রিশালের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষের পদ থেকে অপসারণ করা হয়। সে সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের এক শিক্ষিকার সাথে কথিত ‘যৌন কেলেঙ্কারির’ ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে এ পদ থেকে আইনুল ইসলামকে অপসারণ করা হয়।

আইনুল ইসলাম জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রকল্যাণ পরিচালক, শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি ও বর্তমানে কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য। তিনি আইসিবি সিকিউরিটির পরিচালকও।

back to top