alt

ক্যাম্পাস

কৃষ্ণচূড়ার আগুন রঙ্গে সেজেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

মাহমুদ তানজীদ : বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪

গ্রীষ্মে প্রচণ্ড উত্তাপে জনজীবন যখন অতিষ্ঠ ঠিক এ সময় কৃষ্ণচূড়ার রঙে ছেয়ে গেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ক্যাম্পাস। ক্যাম্পাসের বিজ্ঞান অনুষদ চত্বর, প্রশাসনিক ভবনের পাশে ডালপালা ছড়ানো বিশাল আকৃতির কৃষ্ণচূড়া গাছগুলো। আর এ গাছগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিয়েছে বহুগুণ।

কাগজে-কলমে বসন্ত ঋতুরাজ হলেও মূলত পুষ্প উৎসবের ঋতু গ্রীষ্মকালকেও বলা যায়। এ মৌসুমে গাছে গাছে বাহারি রংয়ের যে উম্মাদনা, তা অন্য ঋতুতে প্রায় অনুপস্থিত। সত্যি, গ্রীষ্মের পুষ্পবীথির রং এতই আবেদনময়ী যে চোখ ফেরানো যায় না। গ্রীষ্মের পুষ্প তালিকায় প্রথম স্থান কৃষ্ণচূডার। ফুলটির রং এতই তীব্র যে অনেক দূর থেকে চোখে পড়ে, হঠাৎ দূর থেকে মনে হবে কৃষ্ণচূড়া শোভিত নির্মল পরিবেশে মাঝে মাঝে মনে হবে কৃষ্ণচূড়া গাছে যেন আগুন লেগেছে।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩তম আর্বতনের শিক্ষার্থী আসিফুল হোসেন বলেন, ‘ক্যাম্পাসে ক্লাস করতে আসলে ও কৃষ্ণচূড়ার অগ্নিরঙ দেখলে অন্যরকম একটা অনুভূতি সৃষ্টি হয়। এখন এই ফুটন্ত কৃষ্ণচূড়া ক্যাম্পাসের শ্রী বৃদ্ধি করেছে। আমাদের ক্যাম্পাসে গ্রীষ্ম আর কৃষ্ণচূড়ার আগমন একই সঙ্গে ঘটে। তাই অবসর সময়ে এখানে এসে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিয়ে সময় কাটাই।গ্রীষ্মের সবচেয়ে দৃষ্টিনন্দন এই কৃষ্ণচূড়া ফুলটি আমাদের দেশীয় নয়। দূর দেশের এ গাছটি ভারতীয় উপমহাদেশে এসেছে সাড়ে তিন থেকে চার শ বছর আগে।’

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তাসনিম আনিকা বলেন, ‘ক্যাম্পাসে পড়াশোনার ব্যস্ততায় শত ক্লান্তিতেও কৃষ্ণচূড়ার রঙিন সৌন্দর্যে মুহূর্তেই মন ভালো হয়ে যায়। প্রেমময় এই ঋতুতে কৃষ্ণচূড়া ফুল যেন অপরূপ এক সৌন্দর্যের প্রতিচ্ছবি। কবিতার ছন্দে বলতে হয় কৃষ্ণচূড়ার ডালগুলোতে লাল সবুজের সাজ, এমনি করে কৃষ্ণচূড়া হয়নি দেখা আগে।’

এবিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শাহরিয়ার আহম্মদ বলেন, ”কৃষ্ণচূড়া বৃক্ষ জাতীয় ফ্যাবেসি (Fabaceae) পরিবারের উদ্ভিদ। যার বৈজ্ঞানিক নাম ডেলোনিক্স রেজিয়া (Delonix regia)। এই গাছ চমৎকার পত্রপল্লব এবং আগুন লাল কৃষ্ণচূড়া ফুলের জন্য প্রসিদ্ধ। এর আদিনিবাস পূর্ব আফ্রিকার মাদাগাস্কার। এই গাছের উচ্চতা ১০-১২ মিটার পর্যন্ত। এর শাখা পল্লব অনেকদূর পর্যন্ত ছড়ানো থাকে। বাংলাদেশে সাধারণত এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত এই ফুল ফুঁটে থাকে। টকটকে লাল ও হলদেটে লাল দুই ধরনের কৃষ্ণচূড়া আমাদের দেশে দেখা যায়। তবে টকটকে লাল ফুলের গাছই আমাদের দেশে বেশি দেখা যায়। অন্যদিকে হলদেটে লাল ফুল কে রাধাচূড়াও বলে। সত্যি গ্রীষ্মের তপ্ত রোদে এমন সুন্দর টকটকে লাল ফুলের গাছের নীচে দাঁড়ালে আমাদের মনপ্রাণ জুড়িয়ে যায়।”

ছবি

ঢাবিতে বাজেট ২০২৪-২৫: প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি শীর্ষক সভা

ছবি

তীব্র গরমে লম্বা লাইনে ভোগান্তি শিক্ষার্থীদের

কোটা পুনবর্হালের প্রতিবাদে শিক্ষার্থী আন্দোলনে উত্তপ্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

জাবি শিক্ষার্থীকে হেনস্থা করে হলচু্্য: তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলে গাফিলতির অভিযোগ

ছবি

কোটা পুনর্বহালের প্রতিবাদে উত্তাল ঢাবি

ছবি

প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ইউনিলিভারের ‘অ্যাওয়্যার ওয়েভ’ ক্যাম্পেইন

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের প্রতিবাদ

ছবি

নারায়ণগঞ্জ থেকে শুরু হলো ওয়াইল্ড লাইফ অলিম্পিয়াড ২০২৪ এর আঞ্চলিকপর্ব

ছবি

কোটা পুনর্বহালের প্রতিবাদে ঢাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

ছবি

ছুটিতে ইবির আবাসিক হল খোলা রাখার দাবিতে স্মারকলিপি ও প্রধান ফটক অবরোধ

ছবি

ঈদের ছুটিতে বন্ধ ক্যাম্পাসে গাছ কাটার মহাযজ্ঞ

ছবি

স্বাস্থ্যবিমার আওতায় আনা হবে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের : জবি উপাচার্য

ছবি

জবিতে প্রজেক্ট শেষেও স্হাপনা না সরিয়ে ক্লাসরুম দখলে রাখার অভিযোগ

ছবি

নামাজ পড়ানোর অনুমতি পেল জবির ইমাম

অবৈধভাবে দখলকৃত রাস্তা উন্মুক্তকরণসহ ১১‌ দফা দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান

ছবি

জবিতে বসবাস করা কর্মচারীদের আবাসস্থল ত্যাগের নির্দেশ

ছবি

উদ্ভাবন ছাড়া টেকসই উন্নয়ন সম্ভব নয়- ঢাবি উপাচার্য

ছবি

জবির নতুন সহকারী প্রক্টরের দায়িত্বে দেওয়ান বদরুল

ছবি

জবির মসজিদে মধ্যরাতে ঘুমন্ত নারী, ইমামকে সাময়িক অব্যাহতি ও তদন্ত কমিটি

ছবি

ঢাকায় ৮ম নগর সংলাপ মঙ্গলবার

ছবি

অবন্তিকার আত্মহত্যা: অভিযুক্ত শিক্ষক দ্বীন ইসলাম ফিরতে চান ক্লাসে

ছবি

জবিতে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করছে ‘বাঁধন’

ছবি

মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরাও যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছে: সাদেকা হালিম

ছবি

ক্যান্সার আক্রান্ত জবি অধ্যাপককে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

ছবি

টিউশনের প্রলোভন দেখিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণা

ছবি

১১তম পরিবেশ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন রাবি

ছবি

যাদের প্রিয় কিছু নেই, তাদের জীবন অন্তঃসারশূন্য: জবি উপাচার্য

পেনশন স্কিম বাতিলের দাবিতে কর্মবিরতিসহ কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি ঢাবি শিক্ষক সমিতির

ছবি

জাবিতে স্বেচ্ছাচারিতা ও অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে প্রভোস্ট কক্ষে তালা

৩.৬৫ পেয়ে তৃতীয় হলেন জবির সেই অবন্তিকা

ছবি

বশেমুরকৃবিতে কৃষিতে রিমোট সেন্সিং ও জিআইএস এর ব্যবহার বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

বারিতে ক্যানসার কোষ কালচার বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত

ছবি

গাজীপুরে ডুয়েট শিক্ষকদের মৌন মিছিল, প্রতিবাদ সভা

ছবি

বশেমুরকৃবি ভেটেরিনারি টিচিং হসপিটালে ইয়ং ডক্টরস লার্নিং প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

ছবি

বিএআরআই বিজ্ঞানীদের নতুন প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

জাবির সঙ্গে এনআইএলএমআরসি’র সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত

tab

ক্যাম্পাস

কৃষ্ণচূড়ার আগুন রঙ্গে সেজেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

মাহমুদ তানজীদ

বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০২৪

গ্রীষ্মে প্রচণ্ড উত্তাপে জনজীবন যখন অতিষ্ঠ ঠিক এ সময় কৃষ্ণচূড়ার রঙে ছেয়ে গেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ক্যাম্পাস। ক্যাম্পাসের বিজ্ঞান অনুষদ চত্বর, প্রশাসনিক ভবনের পাশে ডালপালা ছড়ানো বিশাল আকৃতির কৃষ্ণচূড়া গাছগুলো। আর এ গাছগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিয়েছে বহুগুণ।

কাগজে-কলমে বসন্ত ঋতুরাজ হলেও মূলত পুষ্প উৎসবের ঋতু গ্রীষ্মকালকেও বলা যায়। এ মৌসুমে গাছে গাছে বাহারি রংয়ের যে উম্মাদনা, তা অন্য ঋতুতে প্রায় অনুপস্থিত। সত্যি, গ্রীষ্মের পুষ্পবীথির রং এতই আবেদনময়ী যে চোখ ফেরানো যায় না। গ্রীষ্মের পুষ্প তালিকায় প্রথম স্থান কৃষ্ণচূডার। ফুলটির রং এতই তীব্র যে অনেক দূর থেকে চোখে পড়ে, হঠাৎ দূর থেকে মনে হবে কৃষ্ণচূড়া শোভিত নির্মল পরিবেশে মাঝে মাঝে মনে হবে কৃষ্ণচূড়া গাছে যেন আগুন লেগেছে।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩তম আর্বতনের শিক্ষার্থী আসিফুল হোসেন বলেন, ‘ক্যাম্পাসে ক্লাস করতে আসলে ও কৃষ্ণচূড়ার অগ্নিরঙ দেখলে অন্যরকম একটা অনুভূতি সৃষ্টি হয়। এখন এই ফুটন্ত কৃষ্ণচূড়া ক্যাম্পাসের শ্রী বৃদ্ধি করেছে। আমাদের ক্যাম্পাসে গ্রীষ্ম আর কৃষ্ণচূড়ার আগমন একই সঙ্গে ঘটে। তাই অবসর সময়ে এখানে এসে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিয়ে সময় কাটাই।গ্রীষ্মের সবচেয়ে দৃষ্টিনন্দন এই কৃষ্ণচূড়া ফুলটি আমাদের দেশীয় নয়। দূর দেশের এ গাছটি ভারতীয় উপমহাদেশে এসেছে সাড়ে তিন থেকে চার শ বছর আগে।’

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তাসনিম আনিকা বলেন, ‘ক্যাম্পাসে পড়াশোনার ব্যস্ততায় শত ক্লান্তিতেও কৃষ্ণচূড়ার রঙিন সৌন্দর্যে মুহূর্তেই মন ভালো হয়ে যায়। প্রেমময় এই ঋতুতে কৃষ্ণচূড়া ফুল যেন অপরূপ এক সৌন্দর্যের প্রতিচ্ছবি। কবিতার ছন্দে বলতে হয় কৃষ্ণচূড়ার ডালগুলোতে লাল সবুজের সাজ, এমনি করে কৃষ্ণচূড়া হয়নি দেখা আগে।’

এবিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শাহরিয়ার আহম্মদ বলেন, ”কৃষ্ণচূড়া বৃক্ষ জাতীয় ফ্যাবেসি (Fabaceae) পরিবারের উদ্ভিদ। যার বৈজ্ঞানিক নাম ডেলোনিক্স রেজিয়া (Delonix regia)। এই গাছ চমৎকার পত্রপল্লব এবং আগুন লাল কৃষ্ণচূড়া ফুলের জন্য প্রসিদ্ধ। এর আদিনিবাস পূর্ব আফ্রিকার মাদাগাস্কার। এই গাছের উচ্চতা ১০-১২ মিটার পর্যন্ত। এর শাখা পল্লব অনেকদূর পর্যন্ত ছড়ানো থাকে। বাংলাদেশে সাধারণত এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত এই ফুল ফুঁটে থাকে। টকটকে লাল ও হলদেটে লাল দুই ধরনের কৃষ্ণচূড়া আমাদের দেশে দেখা যায়। তবে টকটকে লাল ফুলের গাছই আমাদের দেশে বেশি দেখা যায়। অন্যদিকে হলদেটে লাল ফুল কে রাধাচূড়াও বলে। সত্যি গ্রীষ্মের তপ্ত রোদে এমন সুন্দর টকটকে লাল ফুলের গাছের নীচে দাঁড়ালে আমাদের মনপ্রাণ জুড়িয়ে যায়।”

back to top