alt

ক্যাম্পাস

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

করোনা টিকা পেতে আবেদন শুরু

প্রতিনিধি, জবি : শুক্রবার, ০৪ জুন ২০২১
image

করোনাভাইরাসের টিকা নিশ্চিত করতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থী ও গবেষকদের জাতীয় পরিচয়পত্রসহ অন্যান্য তথ্যাদি প্রেরণের জন্য আহ্বান জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শুক্রবার (৪ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত সকল স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী এবং এমফিল ও পিএইচডি গবেষকবৃন্দকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদানের লক্ষ্যে তাদের তালিকা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে প্রেরণের জন্য জাতীয় পরিচয়পত্রধারী শিক্ষার্থী ও গবেষককে জরুরি ভিত্তিতে আগামী ১০ জুনের মধ্যে www.jnu.ac.bd/vfc19 এই লিংকে তথ্যাদি প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হলো। পরবর্তীতে শিক্ষার্থী ও গবেষকদের করণীয় সম্পর্কে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে বলেও এতে জানানো হয়েছে।

তবে যে সকল শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তারা কিভাবে টিকা পাবে? এমন প্রশ্নের জবাবে রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, ‘যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই, তারা এখন আবেদন করার প্রয়োজন নেই। পরবর্তীতে স্টুডেন্ট আইডি অথবা জন্মনিবন্ধন সনদ দিয়ে স্পেশালি ব্যবস্থা করা যায় কিনা সে ব্যাপারে ইউজিসির সাথে যোগাযোগ চলছে। ইউজিসি থেকে নির্দেশনা পেলে আমরা সেভাবে ব্যবস্থা নিবো। তবে সকল শিক্ষার্থীর জন্য টিকা বাধ্যতামূলক করা হয়নি। টিকা নিতে চাইলে নিতে পারবে। পূর্বে কোন শিক্ষার্থী টিকা নিয়ে থাকলে তাদের তথ্যাদি প্রদান করতে হবে না।’

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সচিব ফেরদৌস জামান বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের বৃহৎ একটি অংশ জাতীয় পরিচয়পত্র পায়নি। তাদের কথা চিন্তা করে একটা আলাদা অ্যাপ তৈরি করা হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রত্যয়নের ভিত্তিতে তাদের জন্যও টিকার ব্যবস্থা করা হবে। সরকার থেকেও শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা প্রদানের নির্দেশনা দেওয়া আছে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এরকম শিক্ষার্থীদের একটা তালিকা দেওয়া হলে আমরা ওই শিক্ষার্থীদের টিকার ব্যবস্থা করবো।’

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এখনই সশরীরে পরীক্ষা নিতে পারবে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে ফেরদৌস জামান বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় চাইলে পরীক্ষা নিতে পারবে। তবে হল খুলতে পারবে না। হল খুলতে হলে টিকা নিশ্চিত করতে হবে। আর ক্লাস-পরীক্ষা নিতে হবে পর্যায়ক্রম ভিত্তিতে। ব্যাচ কিংবা অনুষদভিত্তিক পরীক্ষা নিলে ঝুঁকি কম থাকলো। যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় চাইলেই নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে সশরীরে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে পারে।’

ছবি

বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আবেদনে ভোগান্তি

ছবি

গবেষণা প্রকাশের জন্য শিক্ষক ও গবেষকদের অনুদান দেবে ঢাবি

ছবি

উনিশ দিন বন্ধ থাকবে ঢাবির অফিস

ছবি

নিরাপত্তা চেয়ে রাবি শিক্ষার্থীর জিডি

ছবি

ঢাবির জন্মশতবর্ষে কবিতা-প্রবন্ধ ও থিম সং আহ্বান

ফের পেছালো ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা, শুরু ১ অক্টোবর

ছবি

জবি বিজ্ঞান ক্লাবের যাত্রা শুরু

ছবি

জন্ডিসে আক্রান্ত হয়ে রাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ছবি

ঢাবির ক-খ-গ-ঘ-চ ইউনিটের প্রবেশপত্র ডাউনলোড কার্যক্রম স্থগিত

ছবি

একজন অক্সিজেন ফেরিওয়ালার গল্প

ছবি

ডেঙ্গুতে মারা গেলেন জবি শিক্ষক

ছবি

ঢাবির শতবর্ষের উদ্বোধন, ১০০ বৃক্ষরোপণের কর্মসূচি

ছবি

ক্যাম্পাসে সশরীরে হবে না ঢাবির শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্ঠান

ছবি

লকডাউনেও সশরীরে পরীক্ষা নিলো ঢাবি

ছবি

বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় নিরাপত্তা বাড়ানোর দাবি

ছবি

সুসম নিয়োগ নীতিমালা প্রণয়নসহ নীলদলের ২২ দাবি

ছবি

ফি দেয়ার সময় বাড়লো

ছবি

নীতিমালা ভেঙ্গে পরিকল্পনা পরিচালক নিয়োগ

‘সিনিয়র রোভার মেট’ নির্বাচিত হলেন জবির ২২ রোভার

ছবি

জবি লিও ক্লাবের সভাপতি এরফান, সেক্রেটারি রাওফুন

ছবি

‘খেলার মাঠে বাণিজ্যিক মার্কেট নির্মাণ চলবে না’

ছবি

অনির্দিষ্টকালের জন্য প্রশাসন ভবনে তালা!

ছবি

করোনাকালে সশরীরে ঢাবির পরীক্ষা, উপস্থিতি শতভাগ

ঈদের পর ইবিতে পরীক্ষা

ছবি

প্রাথমিক শিক্ষকদের বকেয়া ভাতার দাবীতে মানববন্ধন

ছবি

ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক থেকে ছাত্রলীগের সভাপতি

ছবি

ঢাবি শিক্ষক লীনা তাপসীর বিরুদ্ধে পিএইচডি জালিয়াতির অভিযোগ

ছবি

পুলিশের লাঠিচার্জে ছত্রভঙ্গ ‘৩২ চাই’ মিছিল

ছবি

করোনার টিকা প্রার্থী জবির সাড়ে নয় হাজার শিক্ষার্থী

ছবি

’অনলাইনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ নজিরবিহীন’

ছবি

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ছবি

জাবিতে ছয় শিক্ষক নিয়োগ বন্ধে হাইকোর্টে রিট

ছবি

শেষ সময়েও বিতর্কিত কর্মকান্ড বেরোবির উপাচার্য কলিমউল্লার

ছবি

বেরোবিতে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নিতে গড়িমসি প্রশাসনের

ঢাবি শিক্ষক মোর্শেদের অপসারণ কেন অবৈধ নয় : হাইকোর্ট

ছবি

জবিতে ক্লাস-পরীক্ষার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ১৩ জুন

tab

ক্যাম্পাস

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

করোনা টিকা পেতে আবেদন শুরু

প্রতিনিধি, জবি
image

শুক্রবার, ০৪ জুন ২০২১

করোনাভাইরাসের টিকা নিশ্চিত করতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থী ও গবেষকদের জাতীয় পরিচয়পত্রসহ অন্যান্য তথ্যাদি প্রেরণের জন্য আহ্বান জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শুক্রবার (৪ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত সকল স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী এবং এমফিল ও পিএইচডি গবেষকবৃন্দকে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদানের লক্ষ্যে তাদের তালিকা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে প্রেরণের জন্য জাতীয় পরিচয়পত্রধারী শিক্ষার্থী ও গবেষককে জরুরি ভিত্তিতে আগামী ১০ জুনের মধ্যে www.jnu.ac.bd/vfc19 এই লিংকে তথ্যাদি প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হলো। পরবর্তীতে শিক্ষার্থী ও গবেষকদের করণীয় সম্পর্কে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে বলেও এতে জানানো হয়েছে।

তবে যে সকল শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তারা কিভাবে টিকা পাবে? এমন প্রশ্নের জবাবে রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, ‘যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই, তারা এখন আবেদন করার প্রয়োজন নেই। পরবর্তীতে স্টুডেন্ট আইডি অথবা জন্মনিবন্ধন সনদ দিয়ে স্পেশালি ব্যবস্থা করা যায় কিনা সে ব্যাপারে ইউজিসির সাথে যোগাযোগ চলছে। ইউজিসি থেকে নির্দেশনা পেলে আমরা সেভাবে ব্যবস্থা নিবো। তবে সকল শিক্ষার্থীর জন্য টিকা বাধ্যতামূলক করা হয়নি। টিকা নিতে চাইলে নিতে পারবে। পূর্বে কোন শিক্ষার্থী টিকা নিয়ে থাকলে তাদের তথ্যাদি প্রদান করতে হবে না।’

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সচিব ফেরদৌস জামান বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের বৃহৎ একটি অংশ জাতীয় পরিচয়পত্র পায়নি। তাদের কথা চিন্তা করে একটা আলাদা অ্যাপ তৈরি করা হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের প্রত্যয়নের ভিত্তিতে তাদের জন্যও টিকার ব্যবস্থা করা হবে। সরকার থেকেও শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে টিকা প্রদানের নির্দেশনা দেওয়া আছে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এরকম শিক্ষার্থীদের একটা তালিকা দেওয়া হলে আমরা ওই শিক্ষার্থীদের টিকার ব্যবস্থা করবো।’

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এখনই সশরীরে পরীক্ষা নিতে পারবে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে ফেরদৌস জামান বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় চাইলে পরীক্ষা নিতে পারবে। তবে হল খুলতে পারবে না। হল খুলতে হলে টিকা নিশ্চিত করতে হবে। আর ক্লাস-পরীক্ষা নিতে হবে পর্যায়ক্রম ভিত্তিতে। ব্যাচ কিংবা অনুষদভিত্তিক পরীক্ষা নিলে ঝুঁকি কম থাকলো। যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় চাইলেই নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে সশরীরে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে পারে।’

back to top