alt

ক্যাম্পাস

ঢাবির দুই শিক্ষকের গবেষণায় চৌর্যবৃত্তি, তদন্তে অনীহা প্রশাসনের

ঢাবি প্রতিনিধি : বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১

দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বেশ কয়েক জন শিক্ষকের বিরুদ্ধে সম্প্রতি চৌর্যবৃত্তির অভিযোগ উঠেছে। এদের মধ্যে কয়েক জনকে শাস্তির আওতায় আনা হয়েছে এবং বাকিদের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগের তদন্ত কাজ চলছে। যদিও দু’জন শিক্ষকের গবেষণায় চৌর্যবৃত্তির অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের গুরুত্ব নেই। এমনকি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়নি।

ওই দুই শিক্ষক হলেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম ও সঙ্গীত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মহসিনা আক্তার খানম ওরফে লীনা তাপসী খান।

জানা যায়, সঙ্গীত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক লীনা তাপসী খানের বিরুদ্ধে এ বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি উপাচার্য বরাবর চৌর্যবৃত্তির অভিযোগ দেন জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমির (নায়েম) সাবেক মহাপরিচালক ও সংগীত শিল্পী ইফফাত আরা নার্গিস। অভিযোগে বলা হয়, লীনা তাপসী খানের পিএইচডি অভিসন্দর্ভের ওপর ভিত্তি করে রচিত ‘নজরুল-সঙ্গীতে রাগের ব্যবহার’ গ্রন্থে ২৭৭ পৃষ্ঠার মধ্যে ৮০ পৃষ্ঠার স্বরলিপিসহ ১৬৯ পৃষ্ঠা লীনা তাপসী খানের রচনা নয়। এগুলো অন্যের গ্রন্থ থেকে হুবহু গৃহীত। যথাযথ অনুসন্ধান হলে প্রমাণিত হতে পারে যে ওই পৃষ্ঠাগুলোতে ব্যবহৃত তথ্যও লেখকের নয়।

অভিযোগটি দীর্ঘদিন আমলে না নিয়ে গোপন রাখা হয়। পরে ১৩ জুন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আর্কষণ করে সংবাদ সম্মেলন করা হলে ঢাবি উপাচার্য বিষয়টি দেখবেন বলে সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছিলেন। যদিও গত আট মাসেও এ বিষয়ে দৃশ্যমান কোন পদক্ষেপ দেখা যায়নি।

অভিযোগকারী ইফফাত আরা নার্গিস বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বিভিন্ন দলে বিভক্ত। তাই এ বিষয়গুলো (তদন্ত) কিভাবে ও কাকে দিয়ে করাবে এই সিদ্ধান্ত নিতে সমস্যা হচ্ছে। কারণ অন্য দলের শিক্ষক দিয়ে তদন্ত করালে অসাধু কাজের সম্ভাবনা থাকে। সেইজন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন হয়তো কাজ করতে পারছে না। তাই বিষয়গুলো ধামাচাপা পড়ে যাচ্ছে।

এদিকে চৌর্যবৃত্তির অভিযোগে থেকে ঢাবি সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সাদেকা হালিমের নামও বাদ পড়েনি। চলতি বছরের মার্চে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ একাধিক সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক এ বিষয়ে ঢাবি উপাচার্য বরাবর অভিযোগ দেন।

অভিযোগে বলা হয়, ‘পার্টিসিপেশন অব উইমেন ইন অ্যাকুয়াকালচার ইন থ্রি কোস্টাল ডিসট্রিক অব বাংলাদেশ: অ্যাপ্রোচেস টুওয়ার্ডস সাসটেইনেবল লাইভলিহুড’ শিরোনামে প্রকাশিত গবেষণা নিবন্ধটির ৮৮ শতাংশ অন্য প্রকাশনার সঙ্গে মিল রয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠনের দাবিও জানান তারা। কিন্তু এ অভিযোগটিও সুরাহা করার দৃশ্যমান কোন উদ্যোগ নেয়নি ঢাবি কর্তৃপক্ষ।

সাদেকা হালিম ও লীনা তাপসী খানের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ দুটির বয়স প্রায় বছর গড়িয়েছে। যদিও এসবের ভিত্তিতে কোন তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়নি বলে নিশ্চিত করেছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের গৃহীত পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “এই মুহূর্তে এ সব আমাদের নজরে নেই। তথ্যগুলো কোথায় আছে, কি অবস্থায় আছে জানতে হবে।”

এত দীর্ঘ সময়েও অভিযোগগুলোর ভিত্তিতে তদন্ত কমিটি গঠন না করার কারণ জানতে চাইলে উপাচার্য প্রশ্নটি এড়িয়ে যান এবং সংশ্লিষ্টদেরকে বিষয়টিতে গুরুত্বারোপ করার আহ্বান জানান।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য(প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মোহম্মদ সামাদ বলেন, এটা একটা আলোচিত ঘটনা। কিন্তু এ বিষয়ে কোনো এজেন্ডা আমার হাতে আসেনি। সিন্ডিকেটে যেকোনো বিষয়ে এজেন্ডা অন্তর্ভুক্ত করার প্রধান দায়িত্ব উপাচার্যের।

ছবি

শ্রেণীকক্ষের দখল নিয়ে ঢাবির দুই অনুষদের দ্বন্দ্ব, পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

ছবি

আগামী একশো বছরে ঢাবির করণীয় ঠিক করতে হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

মৃত্যুবার্ষিকীতে হাকিম চত্বরে হাকিম ভাইকে স্মরণ করেনি কেউ

ছবি

শিক্ষিত সনদধারী বেকার তৈরি করতে চাই না: শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

শতবর্ষের আলোকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

ছবি

শিক্ষার মান ও শিক্ষার্থীদের সক্ষমতা বাড়ানোর আহ্বান

ছবি

ঢাবি’র শতবর্ষপূর্তি ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবের উদ্বোধন আগামীকাল

ছবি

ঢাবিতে হল ক্যান্টিনের দেয়াল ধস, আহত ২

ছবি

ঢাবি ক্যাম্পাস জুড়ে হল প্রাধ্যক্ষ নিখোঁজ বিজ্ঞপ্তি

ছবি

ডিপিএস এসটিএস ঢাকার প্রথম টেডএক্স অনুপ্রাণিত করলো শিক্ষার্থীদের

ছবি

ঢাবি ছাত্রলীগের হল কমিটিতে পদপ্রত্যাশীদের জীবনবৃত্তান্ত আহ্বান

ছবি

শিক্ষা ক্ষেত্রে লিঙ্গ সমতা ও অন্তর্ভুক্তিমূলক অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে: ঢাবি উপাচার্য

ছবি

রিজভীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

ছবি

টেলিভিশনের বাজারের ৬৫% দেশি ব্র্যান্ডের দখলে

ছবি

হাফ ভাড়ার আন্দোলনে হামলার প্রতিবাদে ঢাবিতে মশাল মিছিল

ছবি

হাফপাসের প্রজ্ঞাপন জারির দাবি, ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম আট ছাত্রসংগঠনের

ছবি

চমেকের ৩১ শিক্ষার্থী বহিষ্কার, ক্লাস শুরু ২৭ নভেম্বর

ছবি

পরিবেশ মন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিবাদে জাবিতে মানববন্ধন

কমিটি ঘোষণার দীর্ঘসূত্রিতার আশঙ্কা পদপ্রত্যাশীদের

ছবি

প্রধানমন্ত্রী যে মহানুভবতা দেখিয়েছেন, খালেদা জিয়া কি তা পারতেন: তথ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন

ছবি

পাকিস্তানের পতাকা পুড়িয়ে ঢাবিতে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের প্রতিবাদ

ছবি

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়কে বাঁচাতে মানববন্ধন

ছবি

‘মুজিববর্ষ আন্তঃকলেজ ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ২০২১’র আয়োজন

২০ মাস পর খুলেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

ছবি

২৮ নভেম্বর ঢাবি ছাত্রলীগের হল সম্মেলন

ছবি

ঢাবি ক্যাম্পাসে ভারী যানবাহন প্রবেশ নিয়ন্ত্রণে ডিএমপিকে প্রক্টরের চিঠি

ছবি

ছাত্রলীগের সংঘর্ষে বন্ধ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ

ছবি

ঢাবির ‘প্রযুক্তি ইউনিট’-এর ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত

ছবি

ঢাবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে পিএইচডি জালিয়াতির অভিযোগঃ ৩ সদস্যের ট্রাইবুনাল গঠন

ছবি

আবাসিক হোটেলে ঢাবি ছাত্রের লাশ, পাশেই চিরকুট

ছবি

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ইউজিসি’র প্রতিনিধি দল, চলছে তদন্ত

ছবি

নভেম্বর ১ তারিখের মধ্যে হল খোলার দাবী বুয়েট শিক্ষার্থীদের

ছবি

শুক্রবার ঢাবির ‘গ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা

ছবি

আগামীকাল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় দিবস

ছবি

অকেজো ঢাবির সাইবার সেন্টার

ছবি

ঢাবিতে ছাত্রলীগ-ছাত্রদল মুখোমুখি

tab

ক্যাম্পাস

ঢাবির দুই শিক্ষকের গবেষণায় চৌর্যবৃত্তি, তদন্তে অনীহা প্রশাসনের

ঢাবি প্রতিনিধি

বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১

দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বেশ কয়েক জন শিক্ষকের বিরুদ্ধে সম্প্রতি চৌর্যবৃত্তির অভিযোগ উঠেছে। এদের মধ্যে কয়েক জনকে শাস্তির আওতায় আনা হয়েছে এবং বাকিদের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগের তদন্ত কাজ চলছে। যদিও দু’জন শিক্ষকের গবেষণায় চৌর্যবৃত্তির অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের গুরুত্ব নেই। এমনকি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়নি।

ওই দুই শিক্ষক হলেন সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম ও সঙ্গীত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মহসিনা আক্তার খানম ওরফে লীনা তাপসী খান।

জানা যায়, সঙ্গীত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক লীনা তাপসী খানের বিরুদ্ধে এ বছরের ৪ ফেব্রুয়ারি উপাচার্য বরাবর চৌর্যবৃত্তির অভিযোগ দেন জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমির (নায়েম) সাবেক মহাপরিচালক ও সংগীত শিল্পী ইফফাত আরা নার্গিস। অভিযোগে বলা হয়, লীনা তাপসী খানের পিএইচডি অভিসন্দর্ভের ওপর ভিত্তি করে রচিত ‘নজরুল-সঙ্গীতে রাগের ব্যবহার’ গ্রন্থে ২৭৭ পৃষ্ঠার মধ্যে ৮০ পৃষ্ঠার স্বরলিপিসহ ১৬৯ পৃষ্ঠা লীনা তাপসী খানের রচনা নয়। এগুলো অন্যের গ্রন্থ থেকে হুবহু গৃহীত। যথাযথ অনুসন্ধান হলে প্রমাণিত হতে পারে যে ওই পৃষ্ঠাগুলোতে ব্যবহৃত তথ্যও লেখকের নয়।

অভিযোগটি দীর্ঘদিন আমলে না নিয়ে গোপন রাখা হয়। পরে ১৩ জুন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আর্কষণ করে সংবাদ সম্মেলন করা হলে ঢাবি উপাচার্য বিষয়টি দেখবেন বলে সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছিলেন। যদিও গত আট মাসেও এ বিষয়ে দৃশ্যমান কোন পদক্ষেপ দেখা যায়নি।

অভিযোগকারী ইফফাত আরা নার্গিস বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বিভিন্ন দলে বিভক্ত। তাই এ বিষয়গুলো (তদন্ত) কিভাবে ও কাকে দিয়ে করাবে এই সিদ্ধান্ত নিতে সমস্যা হচ্ছে। কারণ অন্য দলের শিক্ষক দিয়ে তদন্ত করালে অসাধু কাজের সম্ভাবনা থাকে। সেইজন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন হয়তো কাজ করতে পারছে না। তাই বিষয়গুলো ধামাচাপা পড়ে যাচ্ছে।

এদিকে চৌর্যবৃত্তির অভিযোগে থেকে ঢাবি সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সাদেকা হালিমের নামও বাদ পড়েনি। চলতি বছরের মার্চে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ একাধিক সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক এ বিষয়ে ঢাবি উপাচার্য বরাবর অভিযোগ দেন।

অভিযোগে বলা হয়, ‘পার্টিসিপেশন অব উইমেন ইন অ্যাকুয়াকালচার ইন থ্রি কোস্টাল ডিসট্রিক অব বাংলাদেশ: অ্যাপ্রোচেস টুওয়ার্ডস সাসটেইনেবল লাইভলিহুড’ শিরোনামে প্রকাশিত গবেষণা নিবন্ধটির ৮৮ শতাংশ অন্য প্রকাশনার সঙ্গে মিল রয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠনের দাবিও জানান তারা। কিন্তু এ অভিযোগটিও সুরাহা করার দৃশ্যমান কোন উদ্যোগ নেয়নি ঢাবি কর্তৃপক্ষ।

সাদেকা হালিম ও লীনা তাপসী খানের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ দুটির বয়স প্রায় বছর গড়িয়েছে। যদিও এসবের ভিত্তিতে কোন তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়নি বলে নিশ্চিত করেছেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের গৃহীত পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “এই মুহূর্তে এ সব আমাদের নজরে নেই। তথ্যগুলো কোথায় আছে, কি অবস্থায় আছে জানতে হবে।”

এত দীর্ঘ সময়েও অভিযোগগুলোর ভিত্তিতে তদন্ত কমিটি গঠন না করার কারণ জানতে চাইলে উপাচার্য প্রশ্নটি এড়িয়ে যান এবং সংশ্লিষ্টদেরকে বিষয়টিতে গুরুত্বারোপ করার আহ্বান জানান।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য(প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মোহম্মদ সামাদ বলেন, এটা একটা আলোচিত ঘটনা। কিন্তু এ বিষয়ে কোনো এজেন্ডা আমার হাতে আসেনি। সিন্ডিকেটে যেকোনো বিষয়ে এজেন্ডা অন্তর্ভুক্ত করার প্রধান দায়িত্ব উপাচার্যের।

back to top