alt

ক্যাম্পাস

মাঙ্কিপক্স নিয়ে বিএসএমএমইউ ভিসির সতর্কতা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক: : শনিবার, ৩০ জুলাই ২০২২

করোনাভাইরাসের প্রভাব এখনও সারা বিশ্বে রয়ে গেছে। এর মধ্যে বিশ্বে আরও একটি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রায় ১৭ হাজার রোগী পাওয়া গেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) গত ২৩ জুলাই মাঙ্কিপক্সের সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে। হুর মতে, মাঙ্কিপক্সকে শনাক্তযোগ্য ও বর্ধনশীল ব্যাধি হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।

বাংলাদেশে এ রোগে আক্রান্ত কোন রোগী এখনও শনাক্ত হয়নি। এরপরও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সতর্ক রয়েছে। শনিবার (৩০ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিলন হলে মাঙ্কিপক্স নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ভিসি প্রফেসর ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ লিখিত বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে ভিসির সঙ্গে অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ভিসি তার বক্তব্যে বলেন, মাঙ্কিপক্স একটি ডিএনএ ভাইরাস। কাউপক্স, ভ্যাক্সিপক্স, ভ্যারিওলা এই গ্রুপের ভাইরাস। মাঙ্কিপক্সের প্রাথমিক সংক্রমণ, সংক্রমিত প্রাণীর সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যমে বা সম্ভবত তাদের অপর্যাপ্ত ভাবে রান্না করা মাংস খাওয়ার মাধ্যমে ঘটে বলে বিশ্বাস করা হয়। এই ভাইরাস সরাসরি সংস্পর্শের মাধ্যমে ছড়ায়, যার মধ্যে শেষ্মা ঝিল্লি এবং ত্বকের ক্ষতের মাধ্যমে বা দূষিত বস্তর সংস্পর্শে আসা অন্যতম।

এটি শ্বাস প্রশ্বাসের ফোঁটা বা ড্রপের দ্বারাও সংক্রমিত হতে পারে। স্বল্প দূরত্বে এবং দীর্ঘক্ষণ সান্নিধ্যে থাকার সময়ে। মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত অন্য ব্যক্তির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ শারীরিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে যে কেউ ঝুঁকিপূর্ণ।

প্রধান ফ্যাক্টর হলো একাধিক সঙ্গী থাকা। দেখা গেছে, ৭৪ শতাংশ রোগী বহুগামিতায় অভ্যস্ত। আর ২৬ শতাংশ রোগীর মাঙ্কিপক্সের সঙ্গে এইচআইভি-পজেটিভ ধরা পড়ে। মানুষ থেকে মানুষে সংক্রমণই সবচেয়ে ভয়ংকর মাধ্যম বলে বিবেচিত। ৯০ শতাংশ রোগী ১৫ বছরের কম বয়সী শিশু। গুটি বসন্তের টিকা বন্ধ করা এর একটি কারণ হতে পারে। গুটি বসন্তের টিকা মাঙ্কিপক্স থেকে ৮৫ শতাংশ সুরক্ষা নিশ্চিত করে। মাঙ্কিপক্স রোগীর স্থায়ী ক্ষত, বিকৃত দাগ, সেকেন্ডারি ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ, বঙ্কোনিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট, কেরাটাইসিস, কর্নিয়ার আলসারেশন, অন্ধত্ব, সেপ্টিসেমিয়া এবং এনসেফালাইটিস ইত্যাদি হয়ে থাকে। আক্রান্ত রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করে সব ক্ষত শুকানো পর্যন্ত আইসোলেশন আর কোয়ারেন্টাইন করে চিকিৎসা করা আব্যশক। তথ্য সূত্র ভার্সিটির ভিসি ও মিডিয়া শাখা।

কাল জাবি উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন: লড়বেন আ.লীগপন্থী শিক্ষকদের তিন গ্রুপের প্রার্থীরা

বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ পরীক্ষায় প্রথম মনোহরদীর মেয়ে সুমাইয়া

ছবি

সামিয়া রহমানের কাছে ১১ লাখ ৪১ হাজার টাকা দাবি ঢাবির

ছবি

বঙ্গমাতা মেমোরিয়াল স্বর্ণপদক ও বৃত্তি পেলেন ঢাবির ১২ শিক্ষার্থী

ছবি

সমাবেশে হামলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

ছবি

সিটি ইউনিভার্সিটিতে রবি বিডি অ্যাপস ন্যাশনাল হ্যাকাথন রোডশো অনুষ্ঠিত

ছবি

জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি: জাহাঙ্গীরনগরে বিক্ষোভ, মহাসড়ক অবরোধ

ছবি

সিলেটে বন্যার্ত শিক্ষার্থীদের পাশে মার্কেটিং অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন

তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে ঢাবিতে মশাল মিছিল, বাধা দেওয়ার অভিযোগ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে

রাবি ছাত্রী হত্যা মামলায় স্বামী ৩ দিনের রিমান্ডে

যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ঢাবি ছাত্র বহিষ্কার

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের লক্ষ্যে সপ্তাহে এক দিন অনলাইনে ক্লাস

চবিতে ছাত্রী নিপীড়নের দায়ে বহিষ্কৃত দুই ছাত্রলীগ কর্মী পরীক্ষায় বসেছেন

ছবি

ঢাবিতে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে বহিরাগতের মোটরসাইকেল, মোবাইল ও অর্থ ছিনতাইয়ের অভিযোগ

ছবি

প্রক্সিতে ধরা পড়েও রাবির ‘এ’ ইউনিটে প্রথম, অবশেষে ফল বাতিল

ছবি

ছাত্রলীগ : চিঠির ফাঁকা স্থানে নাম বসিয়ে দিলেই কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা!

ছবি

ছাত্রী হেনস্তা : চবি ছাত্রলীগের দুই কর্মী বহিষ্কার হয়েও দিচ্ছেন পরীক্ষা

ছবি

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সি দিয়ে ‘এ’ ইউনিটে প্রথম

ছবি

৪৬ দিন পর কলেজে ফিরছেন লাঞ্ছিত অধ্যক্ষ

ছবি

চবিতে ছাত্রলীগের অবরোধ স্থগিত

ছবি

লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে ঢাবি ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল

ঢাবি সুফিয়া কামাল হল ডিবেটিং ক্লাবের নেতৃত্বে মাহফুজা-তিথি

ছবি

ঢাবি শিক্ষকদের বিরুদ্ধে সাত কলেজের পরীক্ষার খাতা মূল্যায়নে অনিয়মের অভিযোগ

ছবি

কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে নম্বর জালিয়াতির বিষয়ে হাইকোর্টের রুল

ছবি

বেরোবির বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের নতুন ডীন ড. মতিউর রহমান

ছবি

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা: শাবিপ্রবি কেন্দ্রে উপস্থিত ৯৪.৫৪ শতাংশ

ছবি

বুলবুল হত্যাকান্ড: ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা জোরদার শাবিপ্রবি প্রশাসনের

ছবি

রাবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

রাবির ‘সি’ ইউনিটের ফল প্রকাশ ১ আগস্ট

ছবি

আঘাতের ১৫ মিনিটেই মৃত্যু হয়েছে শাবি শিক্ষার্থী বুলবুলের: চিকিৎসক

ছবি

জবিতে বিজ্ঞপ্তি ছাড়া ৬ পদে নিয়োগ, তদন্তে দীর্ঘসূত্রিতা

ছবি

সাম্প্রদায়িক সহিংসতার প্রতিবাদে বেরোবির শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

ছবি

প্রক্সিদাতার মুখে রাবি ছাত্রলীগ নেতার নাম

ছবি

ঢাবিতে পর্দা নামলো দুই দিনব্যাপী জাতীয় কুইজ প্রতিযোগিতার

ইবি ছাত্রলীগের কমিটি কবে হবে : সাধারণ ছাত্রদের প্রশ্ন

ছবি

ছিনতাই করতে গিয়েই খুন হয় শাবি শিক্ষার্থী বুলবুল: পুলিশ

tab

ক্যাম্পাস

মাঙ্কিপক্স নিয়ে বিএসএমএমইউ ভিসির সতর্কতা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক:

শনিবার, ৩০ জুলাই ২০২২

করোনাভাইরাসের প্রভাব এখনও সারা বিশ্বে রয়ে গেছে। এর মধ্যে বিশ্বে আরও একটি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রায় ১৭ হাজার রোগী পাওয়া গেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) গত ২৩ জুলাই মাঙ্কিপক্সের সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে। হুর মতে, মাঙ্কিপক্সকে শনাক্তযোগ্য ও বর্ধনশীল ব্যাধি হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে।

বাংলাদেশে এ রোগে আক্রান্ত কোন রোগী এখনও শনাক্ত হয়নি। এরপরও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সতর্ক রয়েছে। শনিবার (৩০ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিলন হলে মাঙ্কিপক্স নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ভিসি প্রফেসর ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ লিখিত বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে ভিসির সঙ্গে অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ভিসি তার বক্তব্যে বলেন, মাঙ্কিপক্স একটি ডিএনএ ভাইরাস। কাউপক্স, ভ্যাক্সিপক্স, ভ্যারিওলা এই গ্রুপের ভাইরাস। মাঙ্কিপক্সের প্রাথমিক সংক্রমণ, সংক্রমিত প্রাণীর সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যমে বা সম্ভবত তাদের অপর্যাপ্ত ভাবে রান্না করা মাংস খাওয়ার মাধ্যমে ঘটে বলে বিশ্বাস করা হয়। এই ভাইরাস সরাসরি সংস্পর্শের মাধ্যমে ছড়ায়, যার মধ্যে শেষ্মা ঝিল্লি এবং ত্বকের ক্ষতের মাধ্যমে বা দূষিত বস্তর সংস্পর্শে আসা অন্যতম।

এটি শ্বাস প্রশ্বাসের ফোঁটা বা ড্রপের দ্বারাও সংক্রমিত হতে পারে। স্বল্প দূরত্বে এবং দীর্ঘক্ষণ সান্নিধ্যে থাকার সময়ে। মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত অন্য ব্যক্তির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ শারীরিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে যে কেউ ঝুঁকিপূর্ণ।

প্রধান ফ্যাক্টর হলো একাধিক সঙ্গী থাকা। দেখা গেছে, ৭৪ শতাংশ রোগী বহুগামিতায় অভ্যস্ত। আর ২৬ শতাংশ রোগীর মাঙ্কিপক্সের সঙ্গে এইচআইভি-পজেটিভ ধরা পড়ে। মানুষ থেকে মানুষে সংক্রমণই সবচেয়ে ভয়ংকর মাধ্যম বলে বিবেচিত। ৯০ শতাংশ রোগী ১৫ বছরের কম বয়সী শিশু। গুটি বসন্তের টিকা বন্ধ করা এর একটি কারণ হতে পারে। গুটি বসন্তের টিকা মাঙ্কিপক্স থেকে ৮৫ শতাংশ সুরক্ষা নিশ্চিত করে। মাঙ্কিপক্স রোগীর স্থায়ী ক্ষত, বিকৃত দাগ, সেকেন্ডারি ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ, বঙ্কোনিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট, কেরাটাইসিস, কর্নিয়ার আলসারেশন, অন্ধত্ব, সেপ্টিসেমিয়া এবং এনসেফালাইটিস ইত্যাদি হয়ে থাকে। আক্রান্ত রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করে সব ক্ষত শুকানো পর্যন্ত আইসোলেশন আর কোয়ারেন্টাইন করে চিকিৎসা করা আব্যশক। তথ্য সূত্র ভার্সিটির ভিসি ও মিডিয়া শাখা।

back to top