alt

ক্যাম্পাস

ঢাবিতে নবীন শিক্ষার্থীকে হলে তোলা নিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের হাতাহাতি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি : বৃহস্পতিবার, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলে নবীণ শিক্ষার্থীকে নিজেদের গ্রুপে উঠানো নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছেন হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন।

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে মুহসীন হল ছাত্রলীগের সভাপতি শহিদুল হক শিশির ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেনের গ্রুপের মধ্যে এ হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

শিশির কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়ের অনুসারী। অন্যদিকে হোসেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের অনুসারী।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়া এক শিক্ষার্থী ওই হলে উঠতে আসলে সাধারণ সম্পাদক হোসেনের গ্রুপের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রলীগ কর্মীরা তার সাথে কথা বলে রাখলেও সভাপতি শহিদুল হক শিশিরের গ্রুপের ছাত্রলীগ কর্মীরা বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার লোভ দেখিয়ে তাদের গ্রুপে উঠায়।

এক পর্যায়ে প্রথম বর্ষের ওই শিক্ষার্থীকে নিয়ে দুই গ্রুপের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের মধ্যে জোরজবরদস্তি ও হাতাহাতি শুরু হয়। হাতাহাতি এক পর্যায়ে সিনিয়রদের মাঝেও ছড়িয়ে যায়।

এর মাঝে সভাপতি শহিদুল হক শিশিরের গ্রুপের দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রলীগ কর্মী মোহাম্মদ হোসেনের গ্রুপের মাস্টার্সে পড়ুয়া এক ছাত্রলীগ কর্মীর শার্টের কলার ধরলে সেক্রেটারি গ্রুপের কর্মীরা ক্ষিপ্ত হয় এবং তখন পরিবেশ আরও উত্তপ্ত হয়ে যায়। মারামারির সময় নতুনদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনার ভিডিও ধারণ করতে গেলে মুহাম্মদ হোসেনের গ্রুপের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ছাত্রলীগ কর্মী আইনুল ইসলাম মাহবুব এক শিক্ষার্থীকে কয়েকটি থাপ্পড় মেরে তার মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। তবে এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত মাহবুবকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।

ঘটনার বিষয়ে জানতে চেয়ে হল ছাত্রলীগ সভাপতি শহিদুল হক শিশিরকে একাধিকবার মুঠোফোনে চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন বলেন, আমার জানামতে হলে এমন কোনো ঘটেনি। আমি খোঁজ নিচ্ছি। কোনো অপরাধের প্রমাণ পেলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে এই বিষয়ে হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মাসুদুর রহমানকে ফোন করা হলে তিনি মিটিং এ আছেন বলে জানান।

ছবি

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত ৯ নেতার আগাম জামিন

ছবি

জাতীয় কন্যা শিশু দিবস উপলক্ষে স্ক্রাচ প্রোগ্রামিং এবং রোবটিক্স কর্মশালা

ছবি

গ্রামীণফোনের স্কিটো হ্যাকাথনে বিজয়ী ‘সার্কিট ব্রোকার্স’

ছবি

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের গবেষণাভিত্তিক সংগঠন ‘ইআরডিএফবি’র আত্মপ্রকাশ

ছবি

ছাত্রলীগের দু-পক্ষের অস্ত্র মহড়া: কুবিতে হল বন্ধ, পরীক্ষা স্থগিত

ছবি

এসি-ফ্রিজ নিয়ে রাজার হালে ঢাবির হলে থাকছেন চাকরিজীবী ছাত্রলীগ নেতা

ছবি

৩ বছরেও অধিগ্রহণ সম্পন্ন হয়নি ভূমি জটিলতায় স্থবির নির্মাণকাজ

ছবি

ইডেন ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনায় পাল্টা মামলা

শাবিপ্রবিতে পরীক্ষায় অনিয়মের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

উপাচার্যকে ‘চাকরবাকর’ বলার প্রতিবাদ ঢাবি শিক্ষক সমিতির

ইডেনের ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা, তদন্তের নির্দেশ

ক্যাম্পাসে সহাবস্থান নিশ্চিতের দাবি ঢাবির বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের

ঢাবিতে ছাত্রদলের উপর ছাত্রলীগের হামলা, আহত ১০

ঢাবি ভিসির সঙ্গে সাক্ষাৎ নিয়ে ছাত্রলীগ-ছাত্রদলের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি

ছবি

ভিসির সঙ্গে সাক্ষাৎ: ঢাবি ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, আহত ১০

ছবি

ইডেনের ঘটনা তদন্তে কলেজ প্রশাসনের ৪ সদস্যের কমিটি

ছবি

ছাত্রলীগ কর্মীর জন্মদিনের অনুষ্ঠানে না যাওয়ায় সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগ

ছবি

আমরণ অনশনের ঘোষণা ইডেন ছাত্রলীগের বহিষ্কৃতদের

ছবি

সংবাদ সম্মেলনেই ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের দু’পক্ষে সংঘর্ষ

ছবি

ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদককে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা

ছবি

জনরোষে হল ছেড়ে পালাল ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি-সেক্রেটারি

ইডেনে মুখোমুখি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপ,রাতভর উত্তেজনা

ছবি

অনিয়মিত ইউরোপফেরতদের প্রতি অপবাদ ও বৈষম্য কমাতে সিফারের মাইগ্র্যান্ট প্রোজেক্ট

চবি ফটকে তালা দিলেই অ্যাকশনে যাবে প্রশাসন

ছবি

ঢাবিতে ২০ লাখ টাকা ছিনতাই, মূল হোতাসহ ৫ জন গ্রেপ্তার

ছবি

ওয়ার্ল্ড রোবট অলিম্পিয়াড-বাংলাদেশের জাতীয় পর্ব এবছর অফলাইনে

ঢাবির জগন্নাথ হলে ঘুমের মধ্যে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ছবি

ঢাবি সাংবাদিক সমিতির ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

ছবি

সীমান্তে মিয়ানমারের আগ্রাসনের প্রতিবাদে ঢাবিতে বিক্ষোভ

ছবি

ইবিতে যুক্ত হলো নতুন ৫ টি গাড়ি

ছবি

ইবিতে ফটোগ্রাফিক সোসাইটির কর্মশালা

ছবি

আগামীতে জনসংখ্যাকে জনশক্তিতে রুপান্তর করাই হবে বড় চ্যালেঞ্জঃ ড. ফরাসউদ্দিন

ঢাবির সিন্ডিকেট নির্বাচনে সব পদে আওয়ামীপন্থীদের নিরঙ্কুশ জয়

ছবি

ওয়ার্ল্ড রোবট অলিম্পিয়াডের নিবন্ধন চলছে

ছবি

সীমান্তে হত্যার প্রতিবাদে ঢাবিতে বিক্ষোভ ও মশাল মিছিল

ইবি খালেদা জিয়া হল ডিবেটিং সোসাইটির নতুন কমিটি

tab

ক্যাম্পাস

ঢাবিতে নবীন শিক্ষার্থীকে হলে তোলা নিয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের হাতাহাতি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

বৃহস্পতিবার, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলে নবীণ শিক্ষার্থীকে নিজেদের গ্রুপে উঠানো নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

তবে বিষয়টি অস্বীকার করেছেন হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন।

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে মুহসীন হল ছাত্রলীগের সভাপতি শহিদুল হক শিশির ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেনের গ্রুপের মধ্যে এ হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

শিশির কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়ের অনুসারী। অন্যদিকে হোসেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের অনুসারী।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়া এক শিক্ষার্থী ওই হলে উঠতে আসলে সাধারণ সম্পাদক হোসেনের গ্রুপের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রলীগ কর্মীরা তার সাথে কথা বলে রাখলেও সভাপতি শহিদুল হক শিশিরের গ্রুপের ছাত্রলীগ কর্মীরা বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার লোভ দেখিয়ে তাদের গ্রুপে উঠায়।

এক পর্যায়ে প্রথম বর্ষের ওই শিক্ষার্থীকে নিয়ে দুই গ্রুপের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীদের মধ্যে জোরজবরদস্তি ও হাতাহাতি শুরু হয়। হাতাহাতি এক পর্যায়ে সিনিয়রদের মাঝেও ছড়িয়ে যায়।

এর মাঝে সভাপতি শহিদুল হক শিশিরের গ্রুপের দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রলীগ কর্মী মোহাম্মদ হোসেনের গ্রুপের মাস্টার্সে পড়ুয়া এক ছাত্রলীগ কর্মীর শার্টের কলার ধরলে সেক্রেটারি গ্রুপের কর্মীরা ক্ষিপ্ত হয় এবং তখন পরিবেশ আরও উত্তপ্ত হয়ে যায়। মারামারির সময় নতুনদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনার ভিডিও ধারণ করতে গেলে মুহাম্মদ হোসেনের গ্রুপের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ছাত্রলীগ কর্মী আইনুল ইসলাম মাহবুব এক শিক্ষার্থীকে কয়েকটি থাপ্পড় মেরে তার মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। তবে এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত মাহবুবকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।

ঘটনার বিষয়ে জানতে চেয়ে হল ছাত্রলীগ সভাপতি শহিদুল হক শিশিরকে একাধিকবার মুঠোফোনে চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হোসেন বলেন, আমার জানামতে হলে এমন কোনো ঘটেনি। আমি খোঁজ নিচ্ছি। কোনো অপরাধের প্রমাণ পেলে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে এই বিষয়ে হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মাসুদুর রহমানকে ফোন করা হলে তিনি মিটিং এ আছেন বলে জানান।

back to top