alt

ক্যাম্পাস

জাবির সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে কি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, জানতে চায় ইউজিসি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : শনিবার, ০৪ মার্চ ২০২৩

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষক পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মাহমুদুর রহমান জনি’র বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পদক্ষেপ জানতে চেয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন(ইউজিসি)।

গত ১ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (চুক্তিভিত্তিক) রহিমা কানিজ বরাবর ইউজিসি’র পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের উপ-পরিচালক মৌলি আজাদ কর্তৃক এ পত্র পাঠানো হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন বিরোধী অভিযোগ সেলের আহ্বায়কেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।

পত্রে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ এবং একটি জাতীয় দৈনিকের বরাতে দিয়ে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ এন্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মাহমুদুর রহমান জনি বিভাগের একাধিক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন, ভুক্তভোগী ছাত্রীদের শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন এবং জোর করে দায়মুক্তিপত্র আদায় করেছেন। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কি ব্যবস্থা নিয়েছেন কমিশনকে তা পত্র পাওয়ার পর সাত কার্যদিবসের মধ্যে পত্রযোগে এবং ইমেইলে অবহিত করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

পত্রের সত্যতা নিশ্চিত করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের উপ-পরিচালক মৌলি আজাদ বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় কি ব্যবস্থা নিয়েছে আমরা সেটা জানতে চেয়েছি। এক সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়েছে। চিঠি আসলে তারপর আমরা বিবেচনা করবো।

এর আগে, ২০২২ এর নভেম্বর মাসে পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের ৪২তম ব্যাচের ছাত্রী ও সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষিকা আনিকা বুশরা বৈচির সঙ্গে মাহমুদুর রহমান জনির অফিসকক্ষে তোলা অন্তরঙ্গ একটি সেলফি ফাঁস হয়। পরে ছবিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোর দেওয়ালে পোস্টারিং হওয়ার পর ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একাধিক শিক্ষার্থী যৌন নিপীড়নের অভিযোগ জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের সাবেক এক ছাত্রী বলেন, শিক্ষক বানানোর প্রলোভন দেখিয়ে আমাকে কুপ্রস্তাব দিয়েছিল জনি। আমি তার কুপ্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করি। পরে আমার যোগ্যতা ও পদ খালি স্বত্বেও আমাকে শিক্ষক হিসেবে নেওয়া হয়নি। উপরন্তু যাকে নেওয়া হয়েছে তার সঙ্গে জনির অন্তরঙ্গ ছবি ফাঁস হয়েছে। কিন্তু তার চেয়েও যোগ্য প্রার্থী ছিল।

এছাড়া, গত জানুয়ারি মাসে আবারও একই বিভাগের আরেক ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে জনির পক্ষে ‘দায়মুক্তি’ পত্র লেখানোর অভিযোগ ওঠে। এসব ঘটনার জেরে জনির বিচারের দাবিতে আন্দোলন করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একাংশ। পরবর্তীতে নানা টালবাহানার পর এ বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে গত ৩১ জানুয়ারির মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। তবে,তদন্ত কমিটি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন দাবি করলেও সিন্ডিকেটের আলোচ্যসূচিতে ছিল না প্রতিবেদনটি।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগে নিয়োগ পাওয়া এই মাহমুদুর রহমান জনি ২০১২ সালে জাবি ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন।

ছবি

জবিতে বসবাস করা কর্মচারীদের আবাসস্থল ত্যাগের নির্দেশ

ছবি

উদ্ভাবন ছাড়া টেকসই উন্নয়ন সম্ভব নয়- ঢাবি উপাচার্য

ছবি

জবির নতুন সহকারী প্রক্টরের দায়িত্বে দেওয়ান বদরুল

ছবি

জবির মসজিদে মধ্যরাতে ঘুমন্ত নারী, ইমামকে সাময়িক অব্যাহতি ও তদন্ত কমিটি

ছবি

ঢাকায় ৮ম নগর সংলাপ মঙ্গলবার

ছবি

অবন্তিকার আত্মহত্যা: অভিযুক্ত শিক্ষক দ্বীন ইসলাম ফিরতে চান ক্লাসে

ছবি

জবিতে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করছে ‘বাঁধন’

ছবি

মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেরাও যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছে: সাদেকা হালিম

ছবি

ক্যান্সার আক্রান্ত জবি অধ্যাপককে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

ছবি

টিউশনের প্রলোভন দেখিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতারণা

ছবি

১১তম পরিবেশ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন রাবি

ছবি

যাদের প্রিয় কিছু নেই, তাদের জীবন অন্তঃসারশূন্য: জবি উপাচার্য

পেনশন স্কিম বাতিলের দাবিতে কর্মবিরতিসহ কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি ঢাবি শিক্ষক সমিতির

ছবি

জাবিতে স্বেচ্ছাচারিতা ও অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে প্রভোস্ট কক্ষে তালা

৩.৬৫ পেয়ে তৃতীয় হলেন জবির সেই অবন্তিকা

ছবি

বশেমুরকৃবিতে কৃষিতে রিমোট সেন্সিং ও জিআইএস এর ব্যবহার বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

বারিতে ক্যানসার কোষ কালচার বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত

ছবি

গাজীপুরে ডুয়েট শিক্ষকদের মৌন মিছিল, প্রতিবাদ সভা

ছবি

বশেমুরকৃবি ভেটেরিনারি টিচিং হসপিটালে ইয়ং ডক্টরস লার্নিং প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

ছবি

কৃষ্ণচূড়ার আগুন রঙ্গে সেজেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

ছবি

বিএআরআই বিজ্ঞানীদের নতুন প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

জাবির সঙ্গে এনআইএলএমআরসি’র সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত

ছবি

দক্ষতা অর্জন করতে হবে, শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের

জাবিতে ইভটিজিংয়ের মিথ্যা অভিযোগ করায় ছাত্রীকে জরিমানা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিন নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ

ছবি

রাবিতে প্রথম বারের মতো বিএসসিএফ ডিভিশনাল অ্যাস্ট্রো ক্যাম্প ১৭ মে

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হেনস্থার ঘটনায় বাস আটক

ছবি

স্টামফোর্ডে বিশ্ববিদ্যালয়ে “সাংবাদিকতায় নিউ মিডিয়ার ব্যবহার” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

ছবি

এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সাথে ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ছবি

পরিবর্তন হলো জবির একমাত্র ছাত্রী হলের নাম

ছবি

জবিতে ব্যান্ড মিউজিক এসোসিয়েশনের নেতৃত্বে ফয়সাল-আরাবি

ছবি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আর্থিক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতের নির্দেশ উপাচার্যের

ছবি

দেড় মাস পর পরীক্ষায় বসলেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা

ছবি

নতুন শিক্ষাবর্ষের ক্লাস জুলাইয়ে শুরু করতে চায় জবি

ছবি

দেশ সেরা“শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনী উদ্যোগ” পুরস্কার পেয়েছে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ

ছবি

গাজায় গণহত্যা বন্ধের দাবিসহ ৩ দাবিতে ঢাবিতে মানব পতাকা প্রদর্শন ও সমাবেশ

tab

ক্যাম্পাস

জাবির সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে কি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, জানতে চায় ইউজিসি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

শনিবার, ০৪ মার্চ ২০২৩

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষক পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মাহমুদুর রহমান জনি’র বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পদক্ষেপ জানতে চেয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন(ইউজিসি)।

গত ১ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (চুক্তিভিত্তিক) রহিমা কানিজ বরাবর ইউজিসি’র পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের উপ-পরিচালক মৌলি আজাদ কর্তৃক এ পত্র পাঠানো হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন বিরোধী অভিযোগ সেলের আহ্বায়কেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।

পত্রে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ এবং একটি জাতীয় দৈনিকের বরাতে দিয়ে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ এন্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের সহকারি অধ্যাপক মাহমুদুর রহমান জনি বিভাগের একাধিক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন, ভুক্তভোগী ছাত্রীদের শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন এবং জোর করে দায়মুক্তিপত্র আদায় করেছেন। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কি ব্যবস্থা নিয়েছেন কমিশনকে তা পত্র পাওয়ার পর সাত কার্যদিবসের মধ্যে পত্রযোগে এবং ইমেইলে অবহিত করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

পত্রের সত্যতা নিশ্চিত করে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের উপ-পরিচালক মৌলি আজাদ বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় কি ব্যবস্থা নিয়েছে আমরা সেটা জানতে চেয়েছি। এক সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়েছে। চিঠি আসলে তারপর আমরা বিবেচনা করবো।

এর আগে, ২০২২ এর নভেম্বর মাসে পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের ৪২তম ব্যাচের ছাত্রী ও সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষিকা আনিকা বুশরা বৈচির সঙ্গে মাহমুদুর রহমান জনির অফিসকক্ষে তোলা অন্তরঙ্গ একটি সেলফি ফাঁস হয়। পরে ছবিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোর দেওয়ালে পোস্টারিং হওয়ার পর ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একাধিক শিক্ষার্থী যৌন নিপীড়নের অভিযোগ জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের সাবেক এক ছাত্রী বলেন, শিক্ষক বানানোর প্রলোভন দেখিয়ে আমাকে কুপ্রস্তাব দিয়েছিল জনি। আমি তার কুপ্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করি। পরে আমার যোগ্যতা ও পদ খালি স্বত্বেও আমাকে শিক্ষক হিসেবে নেওয়া হয়নি। উপরন্তু যাকে নেওয়া হয়েছে তার সঙ্গে জনির অন্তরঙ্গ ছবি ফাঁস হয়েছে। কিন্তু তার চেয়েও যোগ্য প্রার্থী ছিল।

এছাড়া, গত জানুয়ারি মাসে আবারও একই বিভাগের আরেক ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে জনির পক্ষে ‘দায়মুক্তি’ পত্র লেখানোর অভিযোগ ওঠে। এসব ঘটনার জেরে জনির বিচারের দাবিতে আন্দোলন করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একাংশ। পরবর্তীতে নানা টালবাহানার পর এ বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিকে গত ৩১ জানুয়ারির মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। তবে,তদন্ত কমিটি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন দাবি করলেও সিন্ডিকেটের আলোচ্যসূচিতে ছিল না প্রতিবেদনটি।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগে নিয়োগ পাওয়া এই মাহমুদুর রহমান জনি ২০১২ সালে জাবি ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন।

back to top