alt

ক্যাম্পাস

চবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে খাবারের দাম বৃদ্ধি প্রত্যাহার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে ডাইনিংয়ে খাবারের দাম ১০ টাকা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) প্রশাসন। শুক্রবার (২৪ মার্চ) রাতে এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

গত বৃহস্পতিবার প্রতিটি হল থেকে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে খাবারের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। যেখানে খাবারের দাম ১০ টাকা বাড়িয়ে ৩৫ টাকা নির্ধারণ করে হল প্রশাসন। পাশাপাশি সেহরির খাবারের দাম ধরা হয় ৬০ টাকা যা আগে ছিল ৫০ টাকা। এমন সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ হন শিক্ষার্থীরা।

দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে শুক্রবার (২৪ মার্চ) বিকেল ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বুদ্ধিজীবী চত্বরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা। পরে প্রক্টর বরাবর স্মারকলিপিও জমা দেন তারা। শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদের পরিপ্রেক্ষিতে এদিন রাতে প্রশাসনের জরুরি বৈঠক বসে। সেখানে খাবারের দাম আগের মতো রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সহকারী প্রক্টর সৌরভ সাহা জয় বলেন, এখন থেকে আগের দামেই সেহেরি এবং রাতের খাবার পাওয়া যাবে। ২৫ টাকায় রাতের খাবার এবং ৫০ টাকায় সেহরির খাবার খেতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। তাদের কথা বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আশা করি সবাই এক্ষেত্রে সহায়তা করবেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, চবিতে মোট হল রয়েছে ১৪টি। এর মধ্যে ৩টি হল উদ্বোধনের অপেক্ষায় আছে। বাকি ১১টি হলে কয়েক হাজার শিক্ষার্থী থাকেন। যাদের খাবারের জন্য একমাত্র ভরসা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাইনিং। চবির এসব আবাসিক হলে খাবারের দাম কয়েক দফায় বৃদ্ধি পেলেও বাড়েনি খাবারের মান। ২০২১ সালে খাবারের দাম ২০ টাকা থেকে ৫ টাকা বৃদ্ধি করা হয়। শিক্ষার্থীরা তখন প্রতিবাদ করলে বলা হয় খাবারের মান বাড়ানো হবে। কিন্তু খাবারের মান বৃদ্ধির কোন কার্যক্রম এখনো পরিলক্ষিত হয়নি বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের। মাছ ও মাংসের ছোট টুকরো, পাতলা ডাল দেওয়ার পরেও পকেটের দিকে তাকিয়ে অধিকাংশ শিক্ষার্থী ডাইনিং এ খাবার খেতে বাধ্য হন।

অন্যদিকে ডাইনিং ম্যানেজারদের দাবি, শিক্ষার্থীদের জন্য সীমিত মূল্যে খাবারের ব্যবস্থা করতে গিয়ে স্টাফদের বেতন, ডাইনিং সামগ্রী, গ্যাস-বিদ্যুৎ বিল ভর্তুকি হিসেবে কর্তৃপক্ষকে বহন করতে হয়। বাজারে জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় হল প্রভোস্টদের কাছে কয়েকবার তারা খাবারের দাম বৃদ্ধির দাবি জানান। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে হলে খাবারের দাম বাড়ানো হয়।

ছবি

যাদের প্রিয় কিছু নেই, তাদের জীবন অন্তঃসারশূন্য: জবি উপাচার্য

পেনশন স্কিম বাতিলের দাবিতে কর্মবিরতিসহ কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি ঢাবি শিক্ষক সমিতির

ছবি

জাবিতে স্বেচ্ছাচারিতা ও অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে প্রভোস্ট কক্ষে তালা

৩.৬৫ পেয়ে তৃতীয় হলেন জবির সেই অবন্তিকা

ছবি

বশেমুরকৃবিতে কৃষিতে রিমোট সেন্সিং ও জিআইএস এর ব্যবহার বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

বারিতে ক্যানসার কোষ কালচার বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত

ছবি

গাজীপুরে ডুয়েট শিক্ষকদের মৌন মিছিল, প্রতিবাদ সভা

ছবি

বশেমুরকৃবি ভেটেরিনারি টিচিং হসপিটালে ইয়ং ডক্টরস লার্নিং প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

ছবি

কৃষ্ণচূড়ার আগুন রঙ্গে সেজেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

ছবি

বিএআরআই বিজ্ঞানীদের নতুন প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

ছবি

জাবির সঙ্গে এনআইএলএমআরসি’র সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত

ছবি

দক্ষতা অর্জন করতে হবে, শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের

জাবিতে ইভটিজিংয়ের মিথ্যা অভিযোগ করায় ছাত্রীকে জরিমানা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিন নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ

ছবি

রাবিতে প্রথম বারের মতো বিএসসিএফ ডিভিশনাল অ্যাস্ট্রো ক্যাম্প ১৭ মে

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হেনস্থার ঘটনায় বাস আটক

ছবি

স্টামফোর্ডে বিশ্ববিদ্যালয়ে “সাংবাদিকতায় নিউ মিডিয়ার ব্যবহার” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

ছবি

এক্সিম ব্যাংক কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সাথে ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ছবি

পরিবর্তন হলো জবির একমাত্র ছাত্রী হলের নাম

ছবি

জবিতে ব্যান্ড মিউজিক এসোসিয়েশনের নেতৃত্বে ফয়সাল-আরাবি

ছবি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আর্থিক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতের নির্দেশ উপাচার্যের

ছবি

দেড় মাস পর পরীক্ষায় বসলেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা

ছবি

নতুন শিক্ষাবর্ষের ক্লাস জুলাইয়ে শুরু করতে চায় জবি

ছবি

দেশ সেরা“শ্রেষ্ঠ উদ্ভাবনী উদ্যোগ” পুরস্কার পেয়েছে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ

ছবি

গাজায় গণহত্যা বন্ধের দাবিসহ ৩ দাবিতে ঢাবিতে মানব পতাকা প্রদর্শন ও সমাবেশ

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে নবীন শিক্ষার্থীদের প্রবেশিকা অনুষ্ঠান সম্পন্ন

উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে টানা তৃতীয়দিনের মত অবস্থান কর্মসূচীতে কুবি শিক্ষকরা

ছবি

ঢাবিতে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় কোড সামুরাই হ্যাকাথন শুরু শুক্রবার

যৌন হয়রানির দায়ে ঢাবির ২ অধ্যাপককে অব্যাহতি, থিসিস জালিয়াতির ঘটনা তদন্তে কমিটি

ছবি

ডিন পদ ফিরে পাচ্ছেন ঢাবি অধ্যাপক রহমত উল্লাহ

ছবি

চায়না্থর আনহুই একাডেমি প্রতিনিধি দলের বারি পরিদর্শন

ছবি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম গ্রাজুয়েট রিসার্চ কনফারেন্স অনুষ্ঠিত

তথ্য অধিকারের মাধ্যমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হয়েছে -সাদেকা হালিম

ছবি

রাবির সাংবাদিকতা বিভাগের নতুন সভাপতি অধ্যাপক সাজ্জাদ বকুল

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের শিক্ষার্থীদের সাথে সংহতি জানিয়ে ঢাবিতে ফিলিস্তিনের পক্ষে বিক্ষোভ

ছবি

রাবির ক্যান্টিন পরিচালকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

tab

ক্যাম্পাস

চবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে খাবারের দাম বৃদ্ধি প্রত্যাহার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

শনিবার, ২৫ মার্চ ২০২৩

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে ডাইনিংয়ে খাবারের দাম ১০ টাকা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) প্রশাসন। শুক্রবার (২৪ মার্চ) রাতে এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

গত বৃহস্পতিবার প্রতিটি হল থেকে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে খাবারের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। যেখানে খাবারের দাম ১০ টাকা বাড়িয়ে ৩৫ টাকা নির্ধারণ করে হল প্রশাসন। পাশাপাশি সেহরির খাবারের দাম ধরা হয় ৬০ টাকা যা আগে ছিল ৫০ টাকা। এমন সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ হন শিক্ষার্থীরা।

দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে শুক্রবার (২৪ মার্চ) বিকেল ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বুদ্ধিজীবী চত্বরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা। পরে প্রক্টর বরাবর স্মারকলিপিও জমা দেন তারা। শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদের পরিপ্রেক্ষিতে এদিন রাতে প্রশাসনের জরুরি বৈঠক বসে। সেখানে খাবারের দাম আগের মতো রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সহকারী প্রক্টর সৌরভ সাহা জয় বলেন, এখন থেকে আগের দামেই সেহেরি এবং রাতের খাবার পাওয়া যাবে। ২৫ টাকায় রাতের খাবার এবং ৫০ টাকায় সেহরির খাবার খেতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। তাদের কথা বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আশা করি সবাই এক্ষেত্রে সহায়তা করবেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, চবিতে মোট হল রয়েছে ১৪টি। এর মধ্যে ৩টি হল উদ্বোধনের অপেক্ষায় আছে। বাকি ১১টি হলে কয়েক হাজার শিক্ষার্থী থাকেন। যাদের খাবারের জন্য একমাত্র ভরসা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাইনিং। চবির এসব আবাসিক হলে খাবারের দাম কয়েক দফায় বৃদ্ধি পেলেও বাড়েনি খাবারের মান। ২০২১ সালে খাবারের দাম ২০ টাকা থেকে ৫ টাকা বৃদ্ধি করা হয়। শিক্ষার্থীরা তখন প্রতিবাদ করলে বলা হয় খাবারের মান বাড়ানো হবে। কিন্তু খাবারের মান বৃদ্ধির কোন কার্যক্রম এখনো পরিলক্ষিত হয়নি বলে অভিযোগ শিক্ষার্থীদের। মাছ ও মাংসের ছোট টুকরো, পাতলা ডাল দেওয়ার পরেও পকেটের দিকে তাকিয়ে অধিকাংশ শিক্ষার্থী ডাইনিং এ খাবার খেতে বাধ্য হন।

অন্যদিকে ডাইনিং ম্যানেজারদের দাবি, শিক্ষার্থীদের জন্য সীমিত মূল্যে খাবারের ব্যবস্থা করতে গিয়ে স্টাফদের বেতন, ডাইনিং সামগ্রী, গ্যাস-বিদ্যুৎ বিল ভর্তুকি হিসেবে কর্তৃপক্ষকে বহন করতে হয়। বাজারে জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় হল প্রভোস্টদের কাছে কয়েকবার তারা খাবারের দাম বৃদ্ধির দাবি জানান। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে হলে খাবারের দাম বাড়ানো হয়।

back to top