alt

নগর-মহানগর

পুতিন ইউক্রেনে থেমে থাকবেন না, হুঁশিয়ারি বাইডেনের

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : রোববার, ০৯ জুন ২০২৪

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ইউক্রেনে সর্বাত্মক আগ্রাসন শুরু করে রাশিয়া। এরপর দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে এই সংঘাত চলছে। হাজারও মানুষের প্রাণহানি হলেও সংঘাত বন্ধের কোনও আভাস এখনও নেই।

এমন অবস্থায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, পুতিন কেবল ইউক্রেনে থেমে থাকবেন না। অন্যদিকে রুশ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে চলমান লড়াইয়ে ইউক্রেনকে সমর্থন অব্যাহত রাখার কথা পুনর্ব্যক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্স।

রোববার (৯ জুন) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফ্রান্সের রাজধানীতে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইউক্রেনের প্রতি সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র এবং ফ্রান্স।

শনিবার প্যারিসের প্রেসিডেন্সিয়াল এলিসি প্যালেসে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। সেখানে বাইডেন সতর্ক করে বলেন, ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনে ‘থেমে থাকবেন না’।

অপরদিকে ইউরোপের প্রতি প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিশ্বস্ততাকে স্বাগত জানিয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

ফ্রান্সে নিজের রাষ্ট্রীয় সফরের সময় বাইডেন বলেন, ‘সমস্ত ইউরোপ হুমকির সম্মুখীন হবে, আমরা এটি হতে দেব না। যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনের পাশে দৃঢ়ভাবে দাঁড়িয়ে আছে। আমি আবারও বলছি, আমরা (ইউক্রেনকে ফেলে) চলে যাবো না।’

এরপর প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ সাংবাদিকদের সামনে বাইডেনকে বলেন: ‘আমি আপনাকে ধন্যবাদ জানাই মিস্টার প্রেসিডেন্ট। বিশ্বের এক নম্বর শক্তিধর দেশের প্রেসিডেন্ট হয়েও আপনি অংশীদারদের প্রতি বিশ্বস্ত এবং আপনি ইউরোপীয়দের পছন্দ করেন ও সম্মান করেন।’

মার্কিন এই প্রেসিডেন্ট গত বুধবার থেকে ফ্রান্সে রয়েছেন। এরপর শুক্রবার বাইডেন এবং ম্যাক্রোঁ উভয়েই প্যারিসে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সাথে দেখা করেন এবং ইউক্রেনের প্রতি সমর্থনের প্রতিশ্রুতি দেন।

শনিবার হোয়াইট হাউস থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতি অনুযায়ী, ফরাসি ও মার্কিন এই দুই নেতা বলেছেন- রাশিয়ার যুদ্ধে আটলান্টিকজুড়ে বিস্তৃত নিরাপত্তা ঝুঁকি রয়েছে বলে তারা একমত হয়েছেন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র এবং ফ্রান্স উভয় দেশই ‘ইউক্রেনের জন্য রাজনৈতিক, নিরাপত্তা, মানবিক এবং অর্থনৈতিক সহায়তা অব্যাহত রাখার’ বিষয়ে তাদের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছে।

মন্ত্রীর বাসার লিফটে কর্মকর্তাকে ‘মারধর’, শাহবাগ থানায় মামলা

ছবি

ঈদযাত্রায় সড়কে যানবাহনের চাপ, ধীরগতি

ছবি

পুলিশকে স্বাধীনভাবে তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে : ডিএমপি

ছবি

কোরবানির বর্জ্য অপসারণে প্রস্তুত ঢাকার দুই সিটি

ছবি

বসুন্ধরায় এসি বিস্ফোরণ: দগ্ধ চারজনের তিনজনেরই মারা গেছেন

ছবি

ফাঁকা বাজারেও একই দাম

ছবি

কোরবানির পশুতে ‘ভরে’ গেছে হাট, ‘জমেনি’ বিক্রি

ছবি

মেট্রোরেলে ছিনতাইয়ের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

ছবি

ঈদের পর নতুন সূচিতে চলবে মেট্রোরেল

ছবি

বসুন্ধরায় এসি বিস্ফোরণ: তিন বছরের এক শিশুর মৃত্যু

ছবি

দোষী সাব্যস্ত হলে ড. ইউনূসের যাবজ্জীবনও হতে পারে : দুদক আইনজীবী

ছবি

কোরবানির পশুর বর্জ্য ৬ ঘণ্টায় সরাবে ডিএনিসিসি : মেয়র

ছবি

২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণ : মেয়র তাপস

ছবি

গণমাধ্যমের ভূমিকা বিষয়ক সেমিনারে ‘নেই’ সাংবাদিক

ছবি

দুর্ঘটনা ও বিমানবন্দরে প্রবেশে গাড়ির চাপ, সড়কে তীব্র যানজট

ছবি

প্রতিরক্ষা খাতে বাংলাদেশকে সহযোগিতা কর‌তে চায় ইইউ

ছবি

মনিপুরের মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তা দলের ওপর বিদ্রোহীদের হামলা

রাজধানীতে মাদকসহ গ্রেপ্তার ৩২

ছবি

স্থগিত ১৯ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে

ছবি

ঢাকার ফিলিস্তিন দূতাবাসের সামনে সহকর্মীর গুলিতে পুলিশ নিহত

ছবি

কোরবানি সামনে রেখে রাজধানীতে সক্রিয় জাল নোট চক্র

ছবি

পানি ও জ্বালানির মূল্য সমন্বয়ের আহবান

ছবি

হানিফ ফ্লাইওভারে মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যুবক নিহত

ছবি

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ২২

ছবি

র‌্যাবের মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব নিলেন হারুন

ছবি

স্থানান্তরিত হচ্ছে শাহবাগ থানা

ছবি

নগর দরিদ্রদের জন্য রাজউকের কোন পরিকল্পনা নেই : অধ্যাপক নজরুল ইসলাম

ছবি

ভাটারায় জাপান প্রবাসী যুবকের মরদেহ উদ্ধার

ছবি

এমপি আনার হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেপ্তারে ইন্টারপোলকে চিঠি দিয়েছে পুলিশ

ছবি

গার্মেন্টস শ্রমিকদের টিসিবির কার্ড দেয়ার সুপারিশ

ছবি

এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের শেয়ার হস্তান্তরে স্থিতাবস্থার মেয়াদ বাড়লো

ছবি

বাড্ডায় গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ, নিহত ১

ছবি

শাহজালাল বিমানবন্দরে ২ কেজি সোনা উদ্ধার, কেবিন ক্রু গ্রেপ্তার

ঢাকার ১৫ শতাংশ বাড়িতে পাওয়া গেছে এডিস মশার লার্ভা

ছবি

ঢাকা, চট্টগ্রামে ঝড়-বৃষ্টি-জলাবদ্ধতা, দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ

ছবি

সাবেক আইজিপি বেনজীরের আরও সম্পদ জব্দের নির্দেশ: আদালত

tab

নগর-মহানগর

পুতিন ইউক্রেনে থেমে থাকবেন না, হুঁশিয়ারি বাইডেনের

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

রোববার, ০৯ জুন ২০২৪

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ইউক্রেনে সর্বাত্মক আগ্রাসন শুরু করে রাশিয়া। এরপর দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে এই সংঘাত চলছে। হাজারও মানুষের প্রাণহানি হলেও সংঘাত বন্ধের কোনও আভাস এখনও নেই।

এমন অবস্থায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, পুতিন কেবল ইউক্রেনে থেমে থাকবেন না। অন্যদিকে রুশ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে চলমান লড়াইয়ে ইউক্রেনকে সমর্থন অব্যাহত রাখার কথা পুনর্ব্যক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্স।

রোববার (৯ জুন) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফ্রান্সের রাজধানীতে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইউক্রেনের প্রতি সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্র এবং ফ্রান্স।

শনিবার প্যারিসের প্রেসিডেন্সিয়াল এলিসি প্যালেসে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। সেখানে বাইডেন সতর্ক করে বলেন, ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনে ‘থেমে থাকবেন না’।

অপরদিকে ইউরোপের প্রতি প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিশ্বস্ততাকে স্বাগত জানিয়েছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

ফ্রান্সে নিজের রাষ্ট্রীয় সফরের সময় বাইডেন বলেন, ‘সমস্ত ইউরোপ হুমকির সম্মুখীন হবে, আমরা এটি হতে দেব না। যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনের পাশে দৃঢ়ভাবে দাঁড়িয়ে আছে। আমি আবারও বলছি, আমরা (ইউক্রেনকে ফেলে) চলে যাবো না।’

এরপর প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ সাংবাদিকদের সামনে বাইডেনকে বলেন: ‘আমি আপনাকে ধন্যবাদ জানাই মিস্টার প্রেসিডেন্ট। বিশ্বের এক নম্বর শক্তিধর দেশের প্রেসিডেন্ট হয়েও আপনি অংশীদারদের প্রতি বিশ্বস্ত এবং আপনি ইউরোপীয়দের পছন্দ করেন ও সম্মান করেন।’

মার্কিন এই প্রেসিডেন্ট গত বুধবার থেকে ফ্রান্সে রয়েছেন। এরপর শুক্রবার বাইডেন এবং ম্যাক্রোঁ উভয়েই প্যারিসে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সাথে দেখা করেন এবং ইউক্রেনের প্রতি সমর্থনের প্রতিশ্রুতি দেন।

শনিবার হোয়াইট হাউস থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতি অনুযায়ী, ফরাসি ও মার্কিন এই দুই নেতা বলেছেন- রাশিয়ার যুদ্ধে আটলান্টিকজুড়ে বিস্তৃত নিরাপত্তা ঝুঁকি রয়েছে বলে তারা একমত হয়েছেন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র এবং ফ্রান্স উভয় দেশই ‘ইউক্রেনের জন্য রাজনৈতিক, নিরাপত্তা, মানবিক এবং অর্থনৈতিক সহায়তা অব্যাহত রাখার’ বিষয়ে তাদের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেছে।

back to top