alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

ঢাকা ব্যাংকের ভল্ট থেকে চার কোটি টাকা উধাও

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : শনিবার, ১৯ জুন ২০২১
image

ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখার ভল্ট থেকে ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকা উধাও হওয়ায় ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ভল্টের দায়িত্বে থাকা দুই কর্মকর্তাকে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তারা হলো ভল্ট ইনচার্জ রিফাতুল হক (৩২) ও এমরান আহমেদ (৪৫)। গতকাল সকালে বংশাল থানার ওসি তদন্ত মো. রেজাউল এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখার ভল্ট থেকে ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকা উধাওয়ের ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আমাদের কাছে দুইজনকে সোপর্দ করেছেন। তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে একটি মামলা হবে। মামলাটি দুদকে চলে যাবে এবং আসামিদেরও আমরা দুদকে হস্তান্তর করব। বিষয়টি দুদক তদন্ত করে দেখবে।

লালবাগ বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. জসিম উদ্দিন মোল্লা বলেন, ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখা ম্যানেজার আবু বক্কর সিদ্দিক তাদের এই দুই কর্মকর্তাকে থানায় সোপর্দ করেছেন। তার অভিযোগ, অডিটের মাধ্যমে তারা জানতে পেরেছেন ব্যাংকের ভল্ট থেকে ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকা এই দুই কর্মকর্তা আত্মসাৎ করেছেন। আমরা আটক দুই কর্মকর্তাকে ৫৪ ধারায় আদালতে পাঠিয়েছি। আইনগত যে প্রক্রিয়া আছে, সেটা আমরা এখন করছি।

এদিকে গ্রেপ্তার দুই কর্মকর্তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। গতকাল তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর বংশাল থানার সাব-ইন্সপেক্টর প্রদীপ কুমার সরকার তাদের ৫৪ ধারায় আটক দেখিয়ে কারাগারে রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্র্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম মাসুদুর রহমান তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

আবেদনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, আসামিরা ব্যাংকের ভল্টের টাকার দায়িত্বে ছিলেন। ভল্টের চাবি তাদের কাছেই ছিল। গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকের অডিট টিম অডিট করার সময় ভল্টে থাকা ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকার হিসাবে গড়মিল পান। ব্যাংকের ম্যানেজার আবু বক্কর সিদ্দিকের কাছে অডিট টিম টাকা গড়মিলের স্টেটমেন্ট দাখিল করে। তখন আবু বক্কর সিদ্দিক অডিট টিমের স্টেটমেন্টের ভিত্তিতে আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। আসামিরা তাৎক্ষণিকভাবে টাকা আত্মসাতের কথা স্বীকার করেন।

আবেদনে আরও বলা হয়, ব্যাংকের ম্যানেজার তখন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে অডিট টিমের সহায়তায় আসামিদের আটক করেন। আসামিদের থানায় হাজির করে আবু বক্কর সিদ্দিক বংশাল ওসি বরাবর অভিযোগ দায়ের করেন। ওসি অভিযোগটি পর্যালোচনা করে দেখতে পান ঘটনাটি পেনাল কোডের ৪০৯ ধারার অপরাধ। যার তদন্ত ক্ষমতা দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) শিডিউলভুক্ত।

এ বিষয়ে ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এমরানুল হক বলেন, গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকের শাখায় আমাদের ইন্টারনাল অডিট হয়। এরপরই টাকার অঙ্কে অসঙ্গতি দেখা যায়। ক্যাশ কম পাওয়ায় আবারও ইনভেস্টিগেশন করা হয়। পৌনে চার কোটি টাকার মতো কম ছিল। এরপর দায়িত্বে থাকা ক্যাশ-ইনচার্জের কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রাথমিকভাবে ক্যাশ সরিয়ে ফেলার বিষয়টি স্বীকার করেন। এ কাজটি তিনি একাই করেছেন বলে জানিয়েছেন ক্যাশ-ইনচার্জ রিফাজুল হক। কিজন্য এই টাকা সরিয়েছেন তা এখনও তিনি জানাননি।

তিনি জানান, পরবর্তীতে আমরা নিয়ম অনুযায়ী লিগ্যাল প্রসেসে ব্যবস্থা নিয়েছি। যেহেতু দু’জন দায়িত্বে ছিলেন তাই ক্যাশ-ইনচার্জ ও ম্যানেজার (অপারেশন) দু’জনকে পুলিশে সোপর্দ করেছি। এখন সংশ্লিষ্ট সংস্থা তদন্ত করে বলতে পারবে কীভাবে ও কিজন্য এ টাকা সরানো হয়েছে। তিনি আরও জানান, গত বৃহস্পতিবার বিষয়টি ধরা পড়েছে। এখন দেখতে হবে কতদিনে টাকা সরিয়েছে। এজন্য কয়েকদিন সময় লাগবে। আমরা আইনের হাতে দিয়েছি, পাশাপাশি নিজস্ব একটি তদন্ত হবে। এরপর পুরো ঘটনাটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে পারব। এখন পর্যন্ত প্রায় ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকার মতো সরানো হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। তদন্ত করে বিস্তারিত জানাতে পারব।

ছবি

শুল্কমুক্ত পণ্য খোলাবাজারে বিক্রি, গ্রেপ্তার ১১

ছবি

হেলেনা জাহাঙ্গীরকে ছেড়ে দেওয়ার আহ্বান সেফুদার

ছবি

মিথ্যাচার, অপপ্রচারের অভিযোগে হেলেনা জাহাঙ্গীর গ্রেফতার

ছবি

হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় পাওয়া মদ-ক্যাসিনো নিয়ে যা বললেন তার মেয়ে

ছবি

দেশে ফেরার সময় বাংলাদেশি নারীকে ক্যাম্পে ধর্ষণ, বিএসএফ সদস্য গ্রেফতার

ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে র‌্যাব

ছবি

মুনিয়ার ‘আত্মহত্যায় প্ররোচনা’ মামলা: নিয়মিত আদালত চালু হলে পুলিশের প্রতিবেদনের ওপর শুনানি

ছবি

প্রেমিকাকে হত্যার পর মরদেহের ওপর যা লিখে গেলেন প্রেমিক

চাঁদাবাজির মামলায় ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

ছবি

দুর্নীতি মামলায় ওসি প্রদীপ দম্পতির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

ছবি

বিমানে নানা কৌশলে ঢাকায় আসছে ইয়াবা

ছবি

সুবর্ণচরে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ

ছবি

ফতুল্লায় যুবক খুন, ছুরিসহ আটক ১

ছবি

পদ্মা সেতুর পিলারে ফেরির ধাক্কা দেয়া সেই মাস্টার আটক

হাসপাতালে করোনা রোগীর ছুরিকাঘাতে দুই নার্স ও ওয়ার্ডবয় আহত

ট্রলার ভাড়া বিবাদে বৃদ্ধকে হত্যা

শৈলকুপায় জমি বিবাদে গৃহবধূ নির্যাতন, বাইক ভাংচুর-টাকা লুট

ছবি

মুনিয়ার ‘আত্নহত্যা’: বসুন্ধরার আনভীরকে অব্যাহতি দিয়ে পুলিশের প্রতিবেদন

ছবি

রূপগঞ্জে আগুন: হাসেম ও তার বাকি দুই ছেলের জামিন

গোমস্তাপুরে অস্ত্রসহ আটক ১

আশুলিয়ায় শিশু ধর্ষণ মামলা

ছবি

কক্সবাজারে আশু আলী বাহিনীর প্রধান আশু আলী নিহত

ছবি

হরিদেবপুরে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তার

ভেড়ামারায় শিশুকে ধর্ষণ অভিযোগে গ্রেপ্তার ১

রূপগঞ্জে পুলিশ পরিচয়ে অপহরণ ও মুক্তিপণ মামলা নেয়নি পুলিশ

ছবি

ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

ছবি

টেকনাফে র‌্যাবের সাথে গোলাগুলিতে রোহিঙ্গা ডাকাত নিহত

ছবি

গরুর হাটে ব্যবসায়ীকে মারধর করে ৮ লাখ টাকা লুটে নেওয়ার অভিযোগ

ছবি

বগুড়ায় চাঞ্চল্যকর গৃহবধুকে গণধর্ষণ ঘটনার প্রধান আসামী রাব্বিসহ ৪জন গ্রেফতার

ছবি

কাশিমপুর কারাগারে জেএমবি সদস্যের ফাঁসি কার্যকর

ছবি

কুষ্টিয়ায় বিষ দিয়ে কৃষকের দুটি গরু হত্যা

গোদাগাড়ীতে জমি বিবাদে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা

চেকপোস্ট বসিয়ে ছিনতাই করত ওরা

৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণ ও হত্যা

ছবি

২২ বছর সাজা খেটে বেরিয়েই ফের হত্যাচেষ্টা

স্ত্রী-সন্তানকে হত্যা করে মাটিচাপা

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

ঢাকা ব্যাংকের ভল্ট থেকে চার কোটি টাকা উধাও

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

শনিবার, ১৯ জুন ২০২১

ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখার ভল্ট থেকে ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকা উধাও হওয়ায় ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ভল্টের দায়িত্বে থাকা দুই কর্মকর্তাকে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তারা হলো ভল্ট ইনচার্জ রিফাতুল হক (৩২) ও এমরান আহমেদ (৪৫)। গতকাল সকালে বংশাল থানার ওসি তদন্ত মো. রেজাউল এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখার ভল্ট থেকে ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকা উধাওয়ের ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ আমাদের কাছে দুইজনকে সোপর্দ করেছেন। তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে একটি মামলা হবে। মামলাটি দুদকে চলে যাবে এবং আসামিদেরও আমরা দুদকে হস্তান্তর করব। বিষয়টি দুদক তদন্ত করে দেখবে।

লালবাগ বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. জসিম উদ্দিন মোল্লা বলেন, ঢাকা ব্যাংকের বংশাল শাখা ম্যানেজার আবু বক্কর সিদ্দিক তাদের এই দুই কর্মকর্তাকে থানায় সোপর্দ করেছেন। তার অভিযোগ, অডিটের মাধ্যমে তারা জানতে পেরেছেন ব্যাংকের ভল্ট থেকে ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকা এই দুই কর্মকর্তা আত্মসাৎ করেছেন। আমরা আটক দুই কর্মকর্তাকে ৫৪ ধারায় আদালতে পাঠিয়েছি। আইনগত যে প্রক্রিয়া আছে, সেটা আমরা এখন করছি।

এদিকে গ্রেপ্তার দুই কর্মকর্তাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। গতকাল তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর বংশাল থানার সাব-ইন্সপেক্টর প্রদীপ কুমার সরকার তাদের ৫৪ ধারায় আটক দেখিয়ে কারাগারে রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্র্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম মাসুদুর রহমান তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

আবেদনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, আসামিরা ব্যাংকের ভল্টের টাকার দায়িত্বে ছিলেন। ভল্টের চাবি তাদের কাছেই ছিল। গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকের অডিট টিম অডিট করার সময় ভল্টে থাকা ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকার হিসাবে গড়মিল পান। ব্যাংকের ম্যানেজার আবু বক্কর সিদ্দিকের কাছে অডিট টিম টাকা গড়মিলের স্টেটমেন্ট দাখিল করে। তখন আবু বক্কর সিদ্দিক অডিট টিমের স্টেটমেন্টের ভিত্তিতে আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ করেন। আসামিরা তাৎক্ষণিকভাবে টাকা আত্মসাতের কথা স্বীকার করেন।

আবেদনে আরও বলা হয়, ব্যাংকের ম্যানেজার তখন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে অডিট টিমের সহায়তায় আসামিদের আটক করেন। আসামিদের থানায় হাজির করে আবু বক্কর সিদ্দিক বংশাল ওসি বরাবর অভিযোগ দায়ের করেন। ওসি অভিযোগটি পর্যালোচনা করে দেখতে পান ঘটনাটি পেনাল কোডের ৪০৯ ধারার অপরাধ। যার তদন্ত ক্ষমতা দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) শিডিউলভুক্ত।

এ বিষয়ে ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এমরানুল হক বলেন, গত বৃহস্পতিবার ব্যাংকের শাখায় আমাদের ইন্টারনাল অডিট হয়। এরপরই টাকার অঙ্কে অসঙ্গতি দেখা যায়। ক্যাশ কম পাওয়ায় আবারও ইনভেস্টিগেশন করা হয়। পৌনে চার কোটি টাকার মতো কম ছিল। এরপর দায়িত্বে থাকা ক্যাশ-ইনচার্জের কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রাথমিকভাবে ক্যাশ সরিয়ে ফেলার বিষয়টি স্বীকার করেন। এ কাজটি তিনি একাই করেছেন বলে জানিয়েছেন ক্যাশ-ইনচার্জ রিফাজুল হক। কিজন্য এই টাকা সরিয়েছেন তা এখনও তিনি জানাননি।

তিনি জানান, পরবর্তীতে আমরা নিয়ম অনুযায়ী লিগ্যাল প্রসেসে ব্যবস্থা নিয়েছি। যেহেতু দু’জন দায়িত্বে ছিলেন তাই ক্যাশ-ইনচার্জ ও ম্যানেজার (অপারেশন) দু’জনকে পুলিশে সোপর্দ করেছি। এখন সংশ্লিষ্ট সংস্থা তদন্ত করে বলতে পারবে কীভাবে ও কিজন্য এ টাকা সরানো হয়েছে। তিনি আরও জানান, গত বৃহস্পতিবার বিষয়টি ধরা পড়েছে। এখন দেখতে হবে কতদিনে টাকা সরিয়েছে। এজন্য কয়েকদিন সময় লাগবে। আমরা আইনের হাতে দিয়েছি, পাশাপাশি নিজস্ব একটি তদন্ত হবে। এরপর পুরো ঘটনাটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে পারব। এখন পর্যন্ত প্রায় ৩ কোটি ৭৭ লাখ ৬৬ হাজার টাকার মতো সরানো হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। তদন্ত করে বিস্তারিত জানাতে পারব।

back to top