alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

পীরগজ্ঞে যৌতুক না দেয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা : স্বামীর মৃত্যুদন্ড

লিয়াকত আলী বাদল, রংপুর : বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৩

দীর্ঘ ১৫ বছর পর রংপুরের পীরগজ্ঞে ১৫ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে না পাওয়ায় স্ত্রী তানজিনা বেগমকে পিটিয়ে নৃশংস ভাবে হত্যা করে লাশ বাড়ির কাছে ধান ক্ষেতে ফেলে রাখার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ঘাতক স্বামী আবু সাঈদকে দোষি সাব্যস্ত করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ বৃহসপতিবার দুপুরে রংপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত ৩ এর বিচারক আলী হোসেন এ রায় প্রদান করেছেন। রায় ঘোষনার আগে থেকে আসামী জামিনে মুক্তি পেয়ে পলাতক থাকায় তার অনুপস্থিতিতেই রায় ঘোষনা করেছেন বিচারক।

মামলার বিবরনে জানা গেছে ২০ বছর আগে রংপুরের পীরগজ্ঞ উপজেলার অনন্তরামপুর গ্রামের গরীব দীনমজুর তাজিম উদ্দিনের কন্যা তানজিমা খাতুনের সাথে একই উপজেলার পার্শ্ববর্তী পীরগড় গ্রামের আজিম উদ্দিনের ছেলে আবু সাঈদের সাথে বিয়ে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই ২৫ হাজার যৌতুক দাবি করে আসছিলো স্বামী আবু সাঈদ। এ জন্য তাকে প্রায়শই নির্যাতন করতো। পরে তানজিমার বাবা তাদের শেষ সম্বল গাভী বিক্রি করে ১০ হাজার টাকা প্রদান করে স্বামী আবু সাঈদকে। কিন্তুৃ বাকী ১৫ হাজার টাকা না দেয়ায় তাকে মারধর করতো পাষন্ড স্বামী। ঘটনার কিছুদিন আগে স্বামী আবু সাঈদ তাসকিরা বেগম নামে এক নারীকে বিয়ে করে বাড়িতে নিয়ে আসে। এ নিয়ে নিহত তানজিনা বেগম প্রতিবাদ করলে তাকে আবারো নির্যাতন করে স্বামী আবু সাঈদ। গত ২০০৭ সালের ৮ ফ্রেরুয়ারী তারিখে স্বামী সাঈদ তার স্ত্রী তানুজিনাকে বাবার বাড়ি থেকে ১৫ হাজার টাকা যৌতুক আনার জন্য চাপ দিলে তার বাবা গরীব অসহায় টাকা দিতে পারবেনা বলে জানালে নব বিবাহিতা স্ত্রী তাসকিরা বেগমের সহায়তায় স্বামী আবু সাঈদ তার স্ত্রী তানজিনা বেগমকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে নৃশংস ভাবে হত্যা করে। এর পর তার লাশ বাড়ির অদুরে একটি ধান ক্ষেতে ফেলে রাখে স্বামী সাঈদ। এ ঘটনায় নিহত তানসজিনা বেগমের বাবা তাজিম উদ্দিন বাদী হয়ে পীরগজ্ঞ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েঢর করে। তদন্ত শেষে পুলিশ আসামী আবু সাঈদ ও তার নব বিবাহিতা স্ত্রী তাসকিরা বেগমের নামে আদালতে চার্জসীট দাখিল করে। মামলায় ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা শেষে বিজ্ঞ বিচারক আসামী আবু সাঈদকে দোষি সাব্যস্ত করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দেয়। অপর আসামী তাসকিরা বেগমকে বেকসুর খালাস প্রদান করে। রায় ঘোষনার আদালত বলেন আসামী সাঈদ এর আগে ১৬ টি বিয়ে করেছে নিহত তানজিনা বেগম তার ১৭ তম স্ত্রী আর তাসকিরা বেগম তার ১৮ তম স্ত্রী। আসামী এভাবেই ১৮টি বিয়ে করেছে বিয়ে করে যৌতুক নেয়া এবং বিয়ে করা তার পেশা ও নেশায় পরিনত হয়েছিলো। আদালত তার পর্যবেক্ষনে বলেন আসামীর একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদন্ড হওয়া উচিত বলে আদালত মনে করে। সে কারে ন মৃত্যুদন্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে সেই সাথে ৫ হাজার টাকা জরিমানারও আদেশ দেয়া হয়েছে।

সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা কারী বিশেষ পিপি তাইজুর রহমান লাইজু এ্যাডভোকেট বলেন এ রায়ে তারা সন্তোষ প্রকাশ করছে সেই সাথে আসামীকে দ্রুত গ্রেফতার করে সাজা কার্যকর করার ব্যবস্থা নেবে। রায় ঘোষনার সময় আসামী পক্ষের কোন আইনজিবী উপস্থিত না থাকায় তাদের বক্তব্য জানা যায়নি।

সখীপুরে দিনে নারী পথচারীর টাকা ছিনতাই

ছবি

নকল বিল পাঠিয়ে ব্যাংকের টাকা আত্মসাৎ,গ্রেপ্তার

বিমানবন্দরে অবৈধভাবে আনা স্বর্ণ কেনাবেচা চক্র আটক, স্বর্ণলংকার উদ্ধার

ছবি

প্রতারিত হয়ে নিজেই শুরু করেন প্রতারণা

ছবি

র‌্যাব হেফাজতে সুলতানার মৃত্যু: নথি অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ে

ছবি

ঢাকা মেডিকেলে চুরির অভিযোগে প্রকৌশলী আটক

ছবি

টেকনাফে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণে ফিরেছে ৩ জন

ছবি

অস্ত্র মামলায় সাহেদের জামিন প্রশ্নের আদেশ মঙ্গলবার

ছবি

চাঁদার দাবিতে ব্যবসায়ীকে মেরে ফেলার হুমকি ঢাবি ছাত্রলীগ নেতার

ছবি

দেশে ৫ বছরে দুর্নীতিবাজদের ৬৪১৭ কোটি টাকা জরিমানা

ছবি

ডোপ টেস্টে চাকরিচ্যুত ১১৬ মাদকাসক্ত পুলিশ

ছবি

মোবাইল ছিনতাই ও চুরি : মামলা না নিয়ে নেয়া হচ্ছে জিডি

সিলেটে বাবার হাতে ছেলে খুন

গ্রাম জুড়ে শোকের মাতম, খুনিরা গ্রেপ্তার না হওয়ায় সহপাঠীদের বিক্ষোভ

৫০ পুলিশের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা

ছবি

বাউফলে সিনিয়র জুনিয়র দ্বন্দে দশম শ্রেনির দুই সহপঠী খুন

সখীপুরে স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থী ধর্ষণে অন্ত:সত্বা : তিন সন্তানের জনকে গ্রফতার

ছবি

রবিউল ইসলাম ওরফে আরাভ খান যৌন ব্যবসায় জড়িত ছিলেন

ছবি

রাষ্ট্রপতির প্রজ্ঞাপন স্থগিতের আবেদন চেম্বার আদালতেও খারিজ

ছবি

প্রতারণা মামলায় হেলেনা জাহাঙ্গীরের ২ বছরের কারাদণ্ড

ছবি

আরাভ খানের বিরুদ্ধে রেড নোটিশ জারি

ছবি

অসুস্থ খালেদা, কয়লা খনি দুর্নীতির অভিযোগ গঠন পেছালো

ছবি

প্রশ্নফাঁসের দায়ে সেই বুয়েট শিক্ষক কারাগারে

ছবি

দুবাই পালানোর আগে আরাভের ঠিকানা ছিল পশ্চিমবঙ্গের কন্দর্পপুর

ছবি

নাইকো দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার বিচার শুরু

ছবি

নকল হচ্ছে ক্যানসারের ওষুধ, ৫ অভিযুক্তের স্বীকারোক্তি

ছবি

ডাচ-বাংলা ব্যাংকের টাকা লুটের ঘটনায় দু’জনের দায় স্বীকার

ছবি

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে মাদ্রাসায় হামলা, সুপার ও দপ্তরীসহ আহত ৪

ছবি

লাইভে এসে মাহি মিথ্যা বলেছেন: মোল্যা নজরুল

ছবি

আরাভ খানের পেছনে কে?

ছবি

জীবনে কাউকে ‘চড়ও’ মাড়েনি, দাবি পুলিশ হত্যাকাণ্ডে জড়িত আরাভ খানের

ছবি

বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিন হত্যা: বান্ধবী বুশরার স্থায়ী জামিন

ছবি

ঢাকায় পুলিশ খুনের আসামি যেভাবে দুবাইয়ের আরাভ খান

ছবি

চাকরি ফেরত পাবে না বহিষ্কৃত দুদক কর্মকর্তা শরীফ

স্ত্রীসহ পুলিশ সদস্য ও ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল

ছবি

সীমা অক্সিজেন কারখানার পরিচালকের রিমান্ড আবেদন

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

পীরগজ্ঞে যৌতুক না দেয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা : স্বামীর মৃত্যুদন্ড

লিয়াকত আলী বাদল, রংপুর

বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২৩

দীর্ঘ ১৫ বছর পর রংপুরের পীরগজ্ঞে ১৫ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে না পাওয়ায় স্ত্রী তানজিনা বেগমকে পিটিয়ে নৃশংস ভাবে হত্যা করে লাশ বাড়ির কাছে ধান ক্ষেতে ফেলে রাখার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ঘাতক স্বামী আবু সাঈদকে দোষি সাব্যস্ত করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ বৃহসপতিবার দুপুরে রংপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত ৩ এর বিচারক আলী হোসেন এ রায় প্রদান করেছেন। রায় ঘোষনার আগে থেকে আসামী জামিনে মুক্তি পেয়ে পলাতক থাকায় তার অনুপস্থিতিতেই রায় ঘোষনা করেছেন বিচারক।

মামলার বিবরনে জানা গেছে ২০ বছর আগে রংপুরের পীরগজ্ঞ উপজেলার অনন্তরামপুর গ্রামের গরীব দীনমজুর তাজিম উদ্দিনের কন্যা তানজিমা খাতুনের সাথে একই উপজেলার পার্শ্ববর্তী পীরগড় গ্রামের আজিম উদ্দিনের ছেলে আবু সাঈদের সাথে বিয়ে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই ২৫ হাজার যৌতুক দাবি করে আসছিলো স্বামী আবু সাঈদ। এ জন্য তাকে প্রায়শই নির্যাতন করতো। পরে তানজিমার বাবা তাদের শেষ সম্বল গাভী বিক্রি করে ১০ হাজার টাকা প্রদান করে স্বামী আবু সাঈদকে। কিন্তুৃ বাকী ১৫ হাজার টাকা না দেয়ায় তাকে মারধর করতো পাষন্ড স্বামী। ঘটনার কিছুদিন আগে স্বামী আবু সাঈদ তাসকিরা বেগম নামে এক নারীকে বিয়ে করে বাড়িতে নিয়ে আসে। এ নিয়ে নিহত তানজিনা বেগম প্রতিবাদ করলে তাকে আবারো নির্যাতন করে স্বামী আবু সাঈদ। গত ২০০৭ সালের ৮ ফ্রেরুয়ারী তারিখে স্বামী সাঈদ তার স্ত্রী তানুজিনাকে বাবার বাড়ি থেকে ১৫ হাজার টাকা যৌতুক আনার জন্য চাপ দিলে তার বাবা গরীব অসহায় টাকা দিতে পারবেনা বলে জানালে নব বিবাহিতা স্ত্রী তাসকিরা বেগমের সহায়তায় স্বামী আবু সাঈদ তার স্ত্রী তানজিনা বেগমকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে নৃশংস ভাবে হত্যা করে। এর পর তার লাশ বাড়ির অদুরে একটি ধান ক্ষেতে ফেলে রাখে স্বামী সাঈদ। এ ঘটনায় নিহত তানসজিনা বেগমের বাবা তাজিম উদ্দিন বাদী হয়ে পীরগজ্ঞ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়েঢর করে। তদন্ত শেষে পুলিশ আসামী আবু সাঈদ ও তার নব বিবাহিতা স্ত্রী তাসকিরা বেগমের নামে আদালতে চার্জসীট দাখিল করে। মামলায় ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা শেষে বিজ্ঞ বিচারক আসামী আবু সাঈদকে দোষি সাব্যস্ত করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দেয়। অপর আসামী তাসকিরা বেগমকে বেকসুর খালাস প্রদান করে। রায় ঘোষনার আদালত বলেন আসামী সাঈদ এর আগে ১৬ টি বিয়ে করেছে নিহত তানজিনা বেগম তার ১৭ তম স্ত্রী আর তাসকিরা বেগম তার ১৮ তম স্ত্রী। আসামী এভাবেই ১৮টি বিয়ে করেছে বিয়ে করে যৌতুক নেয়া এবং বিয়ে করা তার পেশা ও নেশায় পরিনত হয়েছিলো। আদালত তার পর্যবেক্ষনে বলেন আসামীর একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদন্ড হওয়া উচিত বলে আদালত মনে করে। সে কারে ন মৃত্যুদন্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে সেই সাথে ৫ হাজার টাকা জরিমানারও আদেশ দেয়া হয়েছে।

সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা কারী বিশেষ পিপি তাইজুর রহমান লাইজু এ্যাডভোকেট বলেন এ রায়ে তারা সন্তোষ প্রকাশ করছে সেই সাথে আসামীকে দ্রুত গ্রেফতার করে সাজা কার্যকর করার ব্যবস্থা নেবে। রায় ঘোষনার সময় আসামী পক্ষের কোন আইনজিবী উপস্থিত না থাকায় তাদের বক্তব্য জানা যায়নি।

back to top