alt

সংস্কৃতি

‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা’

সিলেটে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সংসদের উদ্যোগে দুটি স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

প্রতিনিধি, সিলেট : সোমবার, ১০ জুলাই ২০২৩

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: এহছানে এলাহী বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি প্রতিষ্ঠান। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কথা বললে শেষ হবে না। ঘণ্টার পর ঘণ্টা কথা বলা যাবে।

রোববার রাতে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা ইনস্টিটিউট ও মুক্তাক্ষর আয়োজিত সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’র জন্মশতবার্ষিকী ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সংসদের উদ্যোগে দুটি আন্তর্জাতিক স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে এমন আয়োজন সত্যিই প্রশংসনীয়। জাতির পিতাকে নিয়ে দুটি আন্তর্জাতিক স্মারকগ্রন্থ প্রকাশ বঙ্গবন্ধুকে আরও বেশি জানতে সহযোগিতা করবে। এখানে বাংলাদেশ ও ভারতের অনেক নামি-দামি লেখকের লেখা রয়েছে। যার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে নতুন প্রজন্ম জানতে পারবে। আন্তর্জাতিক স্মারকগ্রন্থ প্রকাশের জন্য তিনি ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সংসদের সভাপতি, সম্পাদকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যে সুসম্পর্ক বিদ্যমান রয়েছে তা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। আর এ ধরণের প্রোগ্রাম দু’দেশের সম্পর্ক সুদৃঢ় করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আগামীতেও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যত প্রোগ্রাম করবেন সেই অনুষ্ঠানে আমাকে আমন্ত্রণ করলে আমি থাকার চেষ্টা করব।

তিনি বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস সবার সম্মুখে তুলে ধরে বলেন, ১৯২০ সালে বঙ্গবন্ধুর জন্ম থেকে শুরু ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে হবে।তিনি বলেন, আমরা আজ যা চিন্তা করি বঙ্গবন্ধু অনেক আগেই সে সব বিষয়ে কথা বলেছেন। আমরা আজ দেশের যে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করি তা বঙ্গবন্ধুর চিন্তার ফসল। কিন্তু ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে নিশৃংসভাবে হত্যা করে দেশের অগ্রযাত্রাকে রুখে দেওয়ার অপচেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ মধ্যম আয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

সিলেট মেট্রোপলিটন ল’কলেজের অধ্যক্ষ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান ড.এম শহীদুল ইসলাম এডভোকেটের সভাপতিত্বে ও আন্তর্জাতিক রবীন্দ্র চর্চা কেন্দ্র সিলেটের সভাপতি এডভোকেট মামুন হোসেন ও আন্তর্জাতিক রবীন্দ্র চর্চা কেন্দ্র সিলেটের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক রনদ্বীপ চৌধুরী লিংকনের সঞ্চালনায় ১ম পর্বের আলোচনা সভায় অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ও উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার সিলেট নিরাজ কুমার জয়সওয়াল। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ভারতীয় সহকারী হাই কমিশন সিলেট এর সেকেন্ড সেক্রেটারি (প্রেস,ইনফরমেশন, কালচার এন্ড এডুকেশন) শ্রী মানস কুমার মোস্তাফি, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন ইসলাম কামাল, ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সংসদের সভাপতি ড.দেবব্রত রায়, সম্পাদক ড.মুজাহিদুর রহমান, ত্রিপুরার বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অমিত ভৌমিক, জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাজেদা রওশন শ্যামলী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক এবং লেখক ও কলামিস্ট অমিতাভ চক্রবর্ত্তী রনি। অনুষ্ঠানে পবিত্র কুরআন থেকে তেলওয়াত ও গীতা পাঠ করেন ১২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মানিক মিয়া এবং স্কলার্সহোম স্কুলের শিক্ষার্থী দেবজ্যোতি আচার্য্য শায়ন। অনুষ্ঠানের শুরুতে দুই দেশের জাতীয় সঙ্গীত, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রচিত গানের ভিডিও প্রদর্শনী ও নৃত্য এবং আবৃত্তি পরিবেশন করা হয়। অতিথিদের উত্তরীয় পরিয়ে সম্মাননা ক্রেস্টও প্রদান করা হয়।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ভারতের ২৫ জন স্বনামধন্য শিল্পী আবৃত্তি, নৃত্য ও সঙ্গীত পরিবেশন করেন। বাংলাদেশের শিল্পীরাও অংশগ্রহণ করেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আবৃত্তি প্রশিক্ষক বিমল কর, ত্রিপুরা আগরতলার জনপ্রিয় উপস্থাপিকা সুনন্দা দেবনাথ ও প্রিয়শ্রী কর পিউ। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ড.নাজরা চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য এডভোকেট মোহাম্মদ জাহিদ সারওয়ার সবুজ, খলিল আহমদ, আবুল মহসিন চৌধুরী মাসুদ, উপদেষ্টা আব্দুল মালিক সুজন, কানাই দত্ত, প্রভাষক মিন্টু চন্দ্র দাস, প্রভাষক লিয়াকত আলী, সতেন্দ্র দাস তালুকদার, যুবলীগ নেতা সামন্ত ধর, এসডি সুমেল, নসু ভৌমিক, পারমিতা হালদার, শাহ বোরহান, লোকনাথ রায় সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

ছবি

পাবলিশহার এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলাদেশের মিতিয়া ওসমান

ছবি

চট্টগ্রামে শান্তিপূর্ণ ও উৎসব মুখর পরিবেশে বর্ষ বরন সম্পন্ন

ছবি

জামালপুরে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত

ছবি

বনাঢ্য নানান আয়োজনে বিভাগীয় নগরী রংপুরে পালিত হচ্ছে পহেলা বৈশাখ

ছবি

আজ চৈত্র সংক্রান্তি

ছবি

বর্ষবরণে সময়ের বিধি-নিষেধ মানবে না সাংস্কৃতিক জোট

ছবি

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার গুণীজন সংবর্ধনা

ছবি

স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্নযাত্রায় সকল প্রতিষ্ঠানকে কাজ করতে হবে : ড. কামাল চৌধুরী

ছবি

এলাকাবাসীর সঙ্গে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ

জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদের নতুন কমিটি, ড. সনজীদা খাতুন সভাপতি, ড. আতিউর রহমান নির্বাহী সভাপতি,লিলি ইসলাম সাধারণ সম্পাদক

ছবি

এবার বইমেলায় ৬০ কোটি টাকার বই বিক্রি

ছবি

আজ শেষ হচ্ছে মহান একুশের বইমেলা, বিক্রি বেড়েছে শেষ মুহুর্তে

ছবি

আগামী বছর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইমেলার জায়গা বরাদ্দ নাওদিতে পারে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়

ছবি

বইমেলা, মেয়াদ বাড়ায় খুশি সবাই

ছবি

বইমেলায় ফ্রান্স প্রবাসী কাজী এনায়েত উল্লাহর দুই বই

ছবি

নারী লেখকদের বই কম, বিক্রিও কম

ছবি

বইমেলায় বিদায়ের সুর

ছবি

শিশুদের আনন্দ উচ্ছ্বাসে জমজমাট বইমেলার শিশু প্রহর

ছবি

বইমেলায় শিশুদের চোখে মুখে ছিল আনন্দ উচ্ছ্বাস

ছবি

বই মেলায় খুদে লেখকদের গল্প সংকলন ‘কিশোর রূপাবলি’

ছবি

`বঙ্গবন্ধুর প্রত্যাশিত উন্নত শিরের বাঙালি জাতি চাই’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

ছবি

বইমেলায় সরোজ মেহেদীর ‘চেনা নগরে অচিন সময়ে’

ছবি

বইমেলায় মাহবুবুর রহমান তুহিনের ‘চেকবই’

বইমেলায় প্রকাশিত হলো সাংবাদিক মনিরুজ্জামান উজ্জ্বলের ‘যাপিত জীবনের গল্প’

ছবি

সমাজসেবায় একুশে পদকঃ এখনও ফেরি করে দই বিক্রি করেন জিয়াউল হক

ছবি

বইমেলায় পন্নী নিয়োগীর নতুন গ্রল্পগ্রন্থ আতশবাজি

ছবি

ভাষার শক্তি জাতীয়তাবাদী শক্তিকে সুদৃঢ় করে: উপাচার্য ড. মশিউর রহমান

ছবি

রুবেলের গ্রন্থ শিশির ঝরা কবিতা

ঢাবিতে পাঁচ দিনব্যাপী ‘আমার ভাষার চলচ্চিত্র’ উৎসব শুরু

ছবি

সোনারগাঁয়ে লোকজ উৎসবে খেলাঘরের নাচ-গান পরিবেশন

ছবি

বাংলা একাডেমি পুরস্কার ফেরত দিলেন জাকির তালুকদার

ছবি

রংতুলির মাধ্যমে নিরাপদ সড়কের দাবি শিশুদের

ছবি

জাতীয় প্রেস ক্লাবে পিঠা উৎসব ও লোকগানের আসর

ফরিদপুরে ২ ফেব্রূয়ারি থেকে ঐতিহ্যবাহী জসীম পল্লী মেলা

ছবি

লেনিন উপন্যাসের প্রকাশনা উৎসব

ছবি

ঢাবিতে ৭ম নন-ফিকশন বইমেলার উদ্বোধন

tab

সংস্কৃতি

‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা’

সিলেটে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সংসদের উদ্যোগে দুটি স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

প্রতিনিধি, সিলেট

সোমবার, ১০ জুলাই ২০২৩

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: এহছানে এলাহী বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি প্রতিষ্ঠান। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কথা বললে শেষ হবে না। ঘণ্টার পর ঘণ্টা কথা বলা যাবে।

রোববার রাতে জেলা পরিষদ মিলনায়তনে মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা ইনস্টিটিউট ও মুক্তাক্ষর আয়োজিত সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’র জন্মশতবার্ষিকী ও মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সংসদের উদ্যোগে দুটি আন্তর্জাতিক স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে এমন আয়োজন সত্যিই প্রশংসনীয়। জাতির পিতাকে নিয়ে দুটি আন্তর্জাতিক স্মারকগ্রন্থ প্রকাশ বঙ্গবন্ধুকে আরও বেশি জানতে সহযোগিতা করবে। এখানে বাংলাদেশ ও ভারতের অনেক নামি-দামি লেখকের লেখা রয়েছে। যার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে নতুন প্রজন্ম জানতে পারবে। আন্তর্জাতিক স্মারকগ্রন্থ প্রকাশের জন্য তিনি ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সংসদের সভাপতি, সম্পাদকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যে সুসম্পর্ক বিদ্যমান রয়েছে তা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। আর এ ধরণের প্রোগ্রাম দু’দেশের সম্পর্ক সুদৃঢ় করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আগামীতেও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যত প্রোগ্রাম করবেন সেই অনুষ্ঠানে আমাকে আমন্ত্রণ করলে আমি থাকার চেষ্টা করব।

তিনি বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস সবার সম্মুখে তুলে ধরে বলেন, ১৯২০ সালে বঙ্গবন্ধুর জন্ম থেকে শুরু ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময়ের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে হবে।তিনি বলেন, আমরা আজ যা চিন্তা করি বঙ্গবন্ধু অনেক আগেই সে সব বিষয়ে কথা বলেছেন। আমরা আজ দেশের যে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করি তা বঙ্গবন্ধুর চিন্তার ফসল। কিন্তু ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে নিশৃংসভাবে হত্যা করে দেশের অগ্রযাত্রাকে রুখে দেওয়ার অপচেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ মধ্যম আয়ের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

সিলেট মেট্রোপলিটন ল’কলেজের অধ্যক্ষ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা ইনস্টিটিউটের চেয়ারম্যান ড.এম শহীদুল ইসলাম এডভোকেটের সভাপতিত্বে ও আন্তর্জাতিক রবীন্দ্র চর্চা কেন্দ্র সিলেটের সভাপতি এডভোকেট মামুন হোসেন ও আন্তর্জাতিক রবীন্দ্র চর্চা কেন্দ্র সিলেটের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক রনদ্বীপ চৌধুরী লিংকনের সঞ্চালনায় ১ম পর্বের আলোচনা সভায় অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ও উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার সিলেট নিরাজ কুমার জয়সওয়াল। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ভারতীয় সহকারী হাই কমিশন সিলেট এর সেকেন্ড সেক্রেটারি (প্রেস,ইনফরমেশন, কালচার এন্ড এডুকেশন) শ্রী মানস কুমার মোস্তাফি, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন ইসলাম কামাল, ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী সংসদের সভাপতি ড.দেবব্রত রায়, সম্পাদক ড.মুজাহিদুর রহমান, ত্রিপুরার বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অমিত ভৌমিক, জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাজেদা রওশন শ্যামলী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক এবং লেখক ও কলামিস্ট অমিতাভ চক্রবর্ত্তী রনি। অনুষ্ঠানে পবিত্র কুরআন থেকে তেলওয়াত ও গীতা পাঠ করেন ১২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মানিক মিয়া এবং স্কলার্সহোম স্কুলের শিক্ষার্থী দেবজ্যোতি আচার্য্য শায়ন। অনুষ্ঠানের শুরুতে দুই দেশের জাতীয় সঙ্গীত, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রচিত গানের ভিডিও প্রদর্শনী ও নৃত্য এবং আবৃত্তি পরিবেশন করা হয়। অতিথিদের উত্তরীয় পরিয়ে সম্মাননা ক্রেস্টও প্রদান করা হয়।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে পরিবেশিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ভারতের ২৫ জন স্বনামধন্য শিল্পী আবৃত্তি, নৃত্য ও সঙ্গীত পরিবেশন করেন। বাংলাদেশের শিল্পীরাও অংশগ্রহণ করেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আবৃত্তি প্রশিক্ষক বিমল কর, ত্রিপুরা আগরতলার জনপ্রিয় উপস্থাপিকা সুনন্দা দেবনাথ ও প্রিয়শ্রী কর পিউ। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ড.নাজরা চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য এডভোকেট মোহাম্মদ জাহিদ সারওয়ার সবুজ, খলিল আহমদ, আবুল মহসিন চৌধুরী মাসুদ, উপদেষ্টা আব্দুল মালিক সুজন, কানাই দত্ত, প্রভাষক মিন্টু চন্দ্র দাস, প্রভাষক লিয়াকত আলী, সতেন্দ্র দাস তালুকদার, যুবলীগ নেতা সামন্ত ধর, এসডি সুমেল, নসু ভৌমিক, পারমিতা হালদার, শাহ বোরহান, লোকনাথ রায় সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

back to top