alt

সংস্কৃতি

বাউল-ফকিরদের ওপর নির্যাতন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বদের প্রতিবাদ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : মঙ্গলবার, ০২ জুলাই ২০২৪

গত ২৬ জুন সকালে দুর্বৃত্তরা লালন অনুসারী চায়না বেগমের বাড়ি-ঘর ভাঙচুর করে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি করেছে। এমনকি রাতের আঁধারে সেখানে তাকে পেলে হত্যা করা হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় দেশের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন প্রতিবাদ ও নিন্দা জানায়। এবার দেশের বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা প্রতিবাদ জানিয়ে গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন।

১ জুলাই গণমাধ্যমে পাঠানো এ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বিভিন্ন সময়ে আমরা লক্ষ্য করি যে বাউল, ফকির, সাধকদের মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া, তাদের ঘর-বাড়ি ও বাদ্যযন্ত্র ভাঙচুর করা, তাদের বিতাড়িত করা, সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করাসহ বিভিন্ন রকমের আগ্রাসন ঘটে। বাউল, ফকির, বয়াতি, লালন অনুসারী এবং স্বভাবকবিদের ওপর আগ্রাসন ও নির্যাতন মধ্যযুগে, ব্রিটিশ ও পাকিস্তানি শাসনামলে ছিল, কিন্তু স্বাধীন বাংলাদেশে মানবতাবাদী এ মানুষদের ওপর নির্যাতন বা আগ্রাসনের ঘটনা মোটেও কাম্য নয়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, মধ্যযুগে মুসলিম ও হিন্দু উভয় সম্প্রদায়ের মধ্যে বাউল-ফকিরদের ব্যাপক প্রভাব ছিল। তারা সাধারণত সমাজের প্রান্তিক মানুষদের মধ্যে থেকে উঠে আসতেন এবং তাদের জীবনযাত্রা ও দর্শনের মাধ্যমে সমাজে শান্তি, মানবতা ও প্রেমের বার্তা প্রচার করতেন। ব্রিটিশ সরকার তাদের কার্যক্রম বিপ্লবী ও বিদ্রোহী হিসেবে দেখত এবং তাদের দমন করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করত। স্বাধীনতার পরেও বাউল-ফকিরদের ওপর নির্যাতনের বেশ কিছু ঘটনা ঘটে।

লালন অনুসারী চায়না বেগমের বাড়ি-ঘর ভাঙচুর ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে দাবি করা হয়, বাউল, ফকির, বয়াতি ও লালন অনুসারীদের নিরাপত্তার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ, তাদের ওপর যে কোনো আক্রমণ বা নির্যাতনের দ্রুত বিচার ও শাস্তি প্রদান নিশ্চিত করা। তাদের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে বাধা না দিয়ে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা প্রদান।পাশাপাশি সচেতনতা বৃদ্ধির দাবি করে আরও বলা হয়- সাধারণ জনগণের মধ্যে বাউল, ফকির, বয়াতি ও লালন অনুসারীদের সংস্কৃতি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।

বিবৃতিতে সম্মতি প্রকাশ করা সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বদের মধ্য রয়েছেন কুমার বিশ্বজিৎ (সংগীত শিল্পী), প্রিন্স মাহমুদ (সংগীতজ্ঞ), মাকসুদুল হক (সংগীতশিল্পী, মাকসুদ ও ঢাকা), শারমিন লাকী (আবৃত্তিশিল্পী), বাপ্পা মজুমদার (সংগীতশিল্পী, দলছুট), মনোজ প্রামাণিক (অভিনেতা ও শিক্ষক), মোস্তফা সরয়ার ফারুকী (চলচ্চিত্র নির্মাতা), রাহুল আনন্দ (শিল্পী, জলের গান), শফিক তুহিন (গীতিকার, সুরকার, সংগীত শিল্পী), মানস চৌধুরী (শিক্ষক ও সাহিত্যিক), কিশোর দাশ (সংগীত শিল্পী), জয় শাহরিয়ার (সংগীতশিল্পী), আহমেদ হাসান সানি (সংগীতশিল্পী), আলতাফ শাহনেওয়াজ (সাহিত্যিক), আরিফুর রহমান (চলচ্চিত্র নির্মাতা), আরমীন মূসা (সংগীতশিল্পী), উন্মেষ রায় (শিক্ষক), কনক আদিত্য (শিল্পী), কে পি রাজিব (সংগীতশিল্পী), কৃষ্ণেন্দু চট্টোপাধ্যায় (চলচ্চিত্র নির্মাতা), গৌতম কে শুভ (সংগীত গবেষক), জর্জ লিংকন ডি কস্টা (সংগীতশিল্পী, আর্টসেল), জিয়াউর রহমান (সংগীতশিল্পী, শিরোনামহীন), জুয়েল কলিন্দ (কবি), রাশেদ জামান (চিত্রগ্রাহক), রেজাউল করিম লিমন (সংগীতশিল্পী), শঙ্খ দাশগুপ্ত (চলচ্চিত্র নির্মাতা), শবনম ফেরদৌসী (চলচ্চিত্র নির্মাতা), শর্মি হোসেন (সংগীতশিল্পী), শহীদ মাহমুদ জঙ্গী (গীতিকবি), শাহরিয়ার শাওন (শিল্পী), শেখ মনিরুল আলম টিপু (সংগীতশিল্পী, ওয়্যারফেজ), শিবু কুমার শীল (সংগীতশিল্পী, মেঘদল) প্রমুখ।

ছবি

কুমিল্লা শাখায় কাব্যকথার নবিন-প্রবীণ কবি সাহিত্যিকের মিলনমেলা

ছবি

গ্যালারী কায়ার ২০ তম প্রষ্ঠিাবার্ষিকীতে বিশেষ প্রদর্শনী

ছবি

দৃকে চলছে বাংলাদেশ প্রেস ফটো প্রদর্শনী ২০২৪

ছবি

লা গ্যালারিতে চলছে ‘গল্পের বাস্তবতা’ শীর্ষক একক চিত্র প্রদর্শনী

ছবি

অ্যানিমেশন ফিল্ম খোকা এর প্রিমিয়ার শো অনুষ্ঠিত

ছবি

স্মৃতি সংরক্ষণে ৫ দফা দাবি

ছবি

রাজশাহীতে দু’দিনব্যাপী হাসান আজিজুল হক সাহিত্য উৎসব শুরু

ছবি

জাতীয় জাদুঘরে ‘কলের গান: সেকাল-একাল’ শীর্ষক প্রদর্শনী

শুক্রবার থেকে ৩ দিনব্যাপী চতুর্থ জাতীয় গণসঙ্গীত উৎসব

ছবি

‘রোড টু বালুরঘাট’, মুক্তিযুদ্ধে শরণার্থীদের চিত্র প্রদর্শন

ছবি

পাবলিশহার এক্সেলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলাদেশের মিতিয়া ওসমান

ছবি

চট্টগ্রামে শান্তিপূর্ণ ও উৎসব মুখর পরিবেশে বর্ষ বরন সম্পন্ন

ছবি

জামালপুরে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত

ছবি

বনাঢ্য নানান আয়োজনে বিভাগীয় নগরী রংপুরে পালিত হচ্ছে পহেলা বৈশাখ

ছবি

আজ চৈত্র সংক্রান্তি

ছবি

বর্ষবরণে সময়ের বিধি-নিষেধ মানবে না সাংস্কৃতিক জোট

ছবি

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার গুণীজন সংবর্ধনা

ছবি

স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্নযাত্রায় সকল প্রতিষ্ঠানকে কাজ করতে হবে : ড. কামাল চৌধুরী

ছবি

এলাকাবাসীর সঙ্গে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ

জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদের নতুন কমিটি, ড. সনজীদা খাতুন সভাপতি, ড. আতিউর রহমান নির্বাহী সভাপতি,লিলি ইসলাম সাধারণ সম্পাদক

ছবি

এবার বইমেলায় ৬০ কোটি টাকার বই বিক্রি

ছবি

আজ শেষ হচ্ছে মহান একুশের বইমেলা, বিক্রি বেড়েছে শেষ মুহুর্তে

ছবি

আগামী বছর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইমেলার জায়গা বরাদ্দ নাওদিতে পারে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়

ছবি

বইমেলা, মেয়াদ বাড়ায় খুশি সবাই

ছবি

বইমেলায় ফ্রান্স প্রবাসী কাজী এনায়েত উল্লাহর দুই বই

ছবি

নারী লেখকদের বই কম, বিক্রিও কম

ছবি

বইমেলায় বিদায়ের সুর

ছবি

শিশুদের আনন্দ উচ্ছ্বাসে জমজমাট বইমেলার শিশু প্রহর

ছবি

বইমেলায় শিশুদের চোখে মুখে ছিল আনন্দ উচ্ছ্বাস

ছবি

বই মেলায় খুদে লেখকদের গল্প সংকলন ‘কিশোর রূপাবলি’

ছবি

`বঙ্গবন্ধুর প্রত্যাশিত উন্নত শিরের বাঙালি জাতি চাই’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

ছবি

বইমেলায় সরোজ মেহেদীর ‘চেনা নগরে অচিন সময়ে’

ছবি

বইমেলায় মাহবুবুর রহমান তুহিনের ‘চেকবই’

বইমেলায় প্রকাশিত হলো সাংবাদিক মনিরুজ্জামান উজ্জ্বলের ‘যাপিত জীবনের গল্প’

ছবি

সমাজসেবায় একুশে পদকঃ এখনও ফেরি করে দই বিক্রি করেন জিয়াউল হক

ছবি

বইমেলায় পন্নী নিয়োগীর নতুন গ্রল্পগ্রন্থ আতশবাজি

tab

সংস্কৃতি

বাউল-ফকিরদের ওপর নির্যাতন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বদের প্রতিবাদ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

মঙ্গলবার, ০২ জুলাই ২০২৪

গত ২৬ জুন সকালে দুর্বৃত্তরা লালন অনুসারী চায়না বেগমের বাড়ি-ঘর ভাঙচুর করে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি করেছে। এমনকি রাতের আঁধারে সেখানে তাকে পেলে হত্যা করা হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় দেশের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন প্রতিবাদ ও নিন্দা জানায়। এবার দেশের বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা প্রতিবাদ জানিয়ে গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন।

১ জুলাই গণমাধ্যমে পাঠানো এ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বিভিন্ন সময়ে আমরা লক্ষ্য করি যে বাউল, ফকির, সাধকদের মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া, তাদের ঘর-বাড়ি ও বাদ্যযন্ত্র ভাঙচুর করা, তাদের বিতাড়িত করা, সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করাসহ বিভিন্ন রকমের আগ্রাসন ঘটে। বাউল, ফকির, বয়াতি, লালন অনুসারী এবং স্বভাবকবিদের ওপর আগ্রাসন ও নির্যাতন মধ্যযুগে, ব্রিটিশ ও পাকিস্তানি শাসনামলে ছিল, কিন্তু স্বাধীন বাংলাদেশে মানবতাবাদী এ মানুষদের ওপর নির্যাতন বা আগ্রাসনের ঘটনা মোটেও কাম্য নয়।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, মধ্যযুগে মুসলিম ও হিন্দু উভয় সম্প্রদায়ের মধ্যে বাউল-ফকিরদের ব্যাপক প্রভাব ছিল। তারা সাধারণত সমাজের প্রান্তিক মানুষদের মধ্যে থেকে উঠে আসতেন এবং তাদের জীবনযাত্রা ও দর্শনের মাধ্যমে সমাজে শান্তি, মানবতা ও প্রেমের বার্তা প্রচার করতেন। ব্রিটিশ সরকার তাদের কার্যক্রম বিপ্লবী ও বিদ্রোহী হিসেবে দেখত এবং তাদের দমন করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করত। স্বাধীনতার পরেও বাউল-ফকিরদের ওপর নির্যাতনের বেশ কিছু ঘটনা ঘটে।

লালন অনুসারী চায়না বেগমের বাড়ি-ঘর ভাঙচুর ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে দাবি করা হয়, বাউল, ফকির, বয়াতি ও লালন অনুসারীদের নিরাপত্তার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ, তাদের ওপর যে কোনো আক্রমণ বা নির্যাতনের দ্রুত বিচার ও শাস্তি প্রদান নিশ্চিত করা। তাদের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে বাধা না দিয়ে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা প্রদান।পাশাপাশি সচেতনতা বৃদ্ধির দাবি করে আরও বলা হয়- সাধারণ জনগণের মধ্যে বাউল, ফকির, বয়াতি ও লালন অনুসারীদের সংস্কৃতি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।

বিবৃতিতে সম্মতি প্রকাশ করা সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বদের মধ্য রয়েছেন কুমার বিশ্বজিৎ (সংগীত শিল্পী), প্রিন্স মাহমুদ (সংগীতজ্ঞ), মাকসুদুল হক (সংগীতশিল্পী, মাকসুদ ও ঢাকা), শারমিন লাকী (আবৃত্তিশিল্পী), বাপ্পা মজুমদার (সংগীতশিল্পী, দলছুট), মনোজ প্রামাণিক (অভিনেতা ও শিক্ষক), মোস্তফা সরয়ার ফারুকী (চলচ্চিত্র নির্মাতা), রাহুল আনন্দ (শিল্পী, জলের গান), শফিক তুহিন (গীতিকার, সুরকার, সংগীত শিল্পী), মানস চৌধুরী (শিক্ষক ও সাহিত্যিক), কিশোর দাশ (সংগীত শিল্পী), জয় শাহরিয়ার (সংগীতশিল্পী), আহমেদ হাসান সানি (সংগীতশিল্পী), আলতাফ শাহনেওয়াজ (সাহিত্যিক), আরিফুর রহমান (চলচ্চিত্র নির্মাতা), আরমীন মূসা (সংগীতশিল্পী), উন্মেষ রায় (শিক্ষক), কনক আদিত্য (শিল্পী), কে পি রাজিব (সংগীতশিল্পী), কৃষ্ণেন্দু চট্টোপাধ্যায় (চলচ্চিত্র নির্মাতা), গৌতম কে শুভ (সংগীত গবেষক), জর্জ লিংকন ডি কস্টা (সংগীতশিল্পী, আর্টসেল), জিয়াউর রহমান (সংগীতশিল্পী, শিরোনামহীন), জুয়েল কলিন্দ (কবি), রাশেদ জামান (চিত্রগ্রাহক), রেজাউল করিম লিমন (সংগীতশিল্পী), শঙ্খ দাশগুপ্ত (চলচ্চিত্র নির্মাতা), শবনম ফেরদৌসী (চলচ্চিত্র নির্মাতা), শর্মি হোসেন (সংগীতশিল্পী), শহীদ মাহমুদ জঙ্গী (গীতিকবি), শাহরিয়ার শাওন (শিল্পী), শেখ মনিরুল আলম টিপু (সংগীতশিল্পী, ওয়্যারফেজ), শিবু কুমার শীল (সংগীতশিল্পী, মেঘদল) প্রমুখ।

back to top