alt

সংস্কৃতি

‘মিডিয়া ব্যস্ত সময় পার করছেন মাসুদুল হাসান শাওন’

সাংস্কৃতিক বার্তা পরিবেশক : বৃহস্পতিবার, ০১ জুলাই ২০২১

কেমন আছেন?

আলহামদুলিল্লাহ সব মিলিয়ে বেশ ভালো।

* মঞ্চ নাটকে কীভাবে এলেন?

মঞ্চ নাটকের প্রতি আমার ভালোবাসা অনেক আগে থেকেই। গাজীপুরে থাকতেই একটা গ্রুপে ব্যাকস্টেজে কাজ করতাম। ঢাকায় এসে ১৯৯২ তে একটা দলে নাটকের কাজ শুরু করি। ১৯৯৭ সালে থিয়েটার স্কুল থেকে প্রশিক্ষণ শেষে নাট্যচক্রে যোগ দেই। সেই থেকে নাট্যচক্রের হয়ে মঞ্চে অভিনয় করে যাচ্ছি। আমার অভিনীত উল্লেখযোগ্য মঞ্চ নাটক হলো— ভদ্দরনোক, লেট দেয়ার বি লাইট, চক সার্কেল, পালাকারের নকশা, হোজা নাসিরুদ্দিন, মেরুদ-ের লড়াই, চাঁনমিয়ার বায়োস্কোপ, নীল দর্পণ, দ-ধর, মানিকজোড় ইত্যাদি।

মিডিয়ায় কীভাবে এলেন?

ইন্টারভিউ এবং রীতিমত ওয়ার্কশপ করে একটা প্যাকেজ নাটকের জন্য সিলেক্ট হই ১৯৯৭ এ। ‘শোন হে লখিন্দর’ নামের বিটিভির নাটকটিতে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করি। ১৯৯৯ সালে আমার লেখা মৌলিক একটি নাটক ‘কামিনী ও কেয়া’ প্রচারিত হয় এটিএন বাংলায়। অভিনয় এবং লেখালেখি একসাথে চালিয়ে যাই।

২০০৭ এ সাইফুল ইসলাম মান্নুর পরিচালনায় ইমদাদুল হক মিলনের ‘প্রিয়’ উপন্যাসের নাট্যরূপ দেই। ধারাবাহিকটির নাম ছিল ‘মা বাবা ভাই বোন’। প্রচারিত হয় সেইসময়ের চ্যানেল ওয়ানে।

২০১০-১১ তে পরিচালক মুরাদ পারভেজ আমাকে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের জনপ্রিয় উপন্যাস ‘মানবজমিন’র নাট্যরূপ দেয়ার অফার দেয়। সেসময় ওই নাটকটিই ছিল আমার মূল টার্নিং পয়েন্ট। নাটকটি নিয়ে প্রচুর কাজ করেছিলাম সেই সময়। ১০৪ পর্বের মানবজমিন নাটকটি প্রচারিত হয় এনটিভিতে। এরপর আরও কিছু ধারাবাহিকে কো-রাইটার হিসেবে লেখার কাজ চালিয়ে যাই। অন্ধ তীরন্দাজ, একা এবং কয়েকজন, রেস্টুরেন্ট ২১, রেডিও জকি এবং কতিপয় গল্প তাদের মধ্যে অন্যতম।

*বর্তমানে কী নিয়ে ব্যস্ত আছেন?

বর্তমানে এটিএন বাংলার জন্য একটি দীর্ঘ ধারাবাহিক লিখছি। এটিএন এর চেয়ারম্যান ড: মাহফুজুর রহমান’র উপন্যাস ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’ অবলম্বনে নাটকটির নাট্যরূপ ও সংলাপ লিখছি আমি। মুরাদ পারভেজের পরিচালনায় ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’ নাটকটি প্রচারিত হচ্ছে এটিএন বাংলায় প্রতি রবি থেকে বৃহস্পতিবার রাত ৯.২০ মিনিটে। শুক্রবার রাত ১০.৫০ মিনিটে নাটকটির শেষ পাঁচ পর্ব একসাথে প্রচারিত হচ্ছে।

* আপনার লেখা নাটক কী কী?

আমার লেখা উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হলো ‘কামিনী ও কেয়া’, ‘মা বাবা ভাই বোন’, ‘মানবজমিন’, ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’। প্রচারের অপেক্ষায় এক ঘণ্টার নাটক কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছোট গল্প থেকে ‘কাদম্বিনী মরিয়া প্রমাণ করিল সে মরে নাই’, মোঁপাসার ছোট গল্প থেকে ‘নেকলেস’, আমার মৌলিক নাটক ‘নতুন এসেছেন রুম নম্বর কত’ অন্যতম।

* মিডিয়াতে কত বছর যাবত কাজ করছেন?

অভিনয় দিয়ে শুরু করে লেখালেখির হিসেব করলে সময়টা ১৯৯৭।

নাটক লেখার পাশাপাশি আমি একজন কথা সাহিত্যিক। ১৯৯২ সালে আমার প্রথম উপন্যাস বের হয়। এ পর্যন্ত ২১ টি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। আসছে বইমেলায় আমার একটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হবে। ১০০০ পর্বের স্মৃতির আল্পনা আঁকি মেগা ধারাবাহিকের সংলাপ ও নাট্যরূপ দিচ্ছি সাথে।

* ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’ ধারাবাহিক নাটক নিয়ে কিছু বলুন?

সময়টা সম্ভবত ২০১৭। এটিএন এর চেয়ারম্যান ড: মাহফুজুর রহমান তাঁর একটি গল্প থেকে আমাকে একটি টেলিফিল্ম লেখার অফার দেন। ‘তবু মনে রেখো’ নামে একটি টেলিফিল্ম লিখে ফেলি। নাটকটি স্যুটিং শুরু হবার আগেই আবার তিনি আমাকে নতুন করে অফার দেন এবং বলেন এটি নিয়ে তিনি ১০০০ পর্বের ধারাবাহিক করতে চান। ইতোমধ্যে তাঁর লেখা উপন্যাসটি প্রকাশিত হয়ে গেছে। নাটকটি পরিচালনার জন্য অফার দেয়া হয় ন্যাশনাল ফিল্ম এওয়ার্ডপ্রাপ্ত মুরাদ পারভেজকে। সেই থেকে নাটকটি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। মুরাদ পারভেজের সূক্ষ্ম পরিচালনায় আমাদের ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’ এখন নিয়মিত প্রচারিত হচ্ছে এটিএন বাংলায়।

গল্পের কাহিনির প্রেক্ষাপট স্বাধীনতাপূর্ব সময়কাল থেকে বর্তমান সময়কাল পর্যন্ত বিস্তৃত। হিন্দু মুসলিমের সৌহার্দপূর্ণ সহাবস্থান, পারিবারিক দ্বন্দ্ব, সংঘাত, হিন্দু মুসলিমের প্রেম ও বিরহ, ব্যক্তিগত জীবনে একজন মানুষের ক্রমউত্থান— সব মিলিয়ে তিন প্রজন্মের গল্প নাটকটিকে একটি ভিন্ন মাত্রা দিয়েছে। নাটকটি দর্শকদের ভালো লাগবে আশা করি।

ছবি

নজরুল সঙ্গীত সংকলন ‘কথার কুসুমে গাঁথা’

ছবি

জাতীয় জাদুঘরে ‘মুনীর চৌধুরী: জীবন দর্শন ও বাংলা ভাষা এবং বাঙালি সংস্কৃতি’ শীর্ষক সেমিনার

ছবি

ঢাবিতে ‘মুজিবশতবর্ষের চেতনায় বাংলাদেশের আগামীর বৌদ্ধ সমাজ’ শীর্ষক আলোচনা

ছবি

বেস্ট ফ্যাশন ব্র্যান্ডের সম্মাননা পেলো ‘ওকোড’

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে শিল্পকর্ম প্রদর্শনী

ছবি

জননী সাহসিকা কবি বেগম সুফিয়া কামালের ২২তম মৃত্যুবার্ষিকী আগামীকাল

ছবি

নগরজীবনে ভিন্ন আমেজ জাগালো নবান্ন উৎসব

আগামী বছর ১ ফেব্রুয়ারি থেকেই বইমেলা

ছবি

কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের জন্মদিন আজ

ছবি

‘নয়ন সমুখে তুমি নাই, নয়নের মাঝখানে নিয়েছ যে ঠাঁই’

ছবি

বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দূরদর্শিতায় বিশ্বনেতারা মুগ্ধ ছিলেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

শামসুর রাহমান দেশীয় এবং পাশ্চাত্য পুরাণের অনন্য ব্যবহারে কবিতাকে তিনি বৈচিত্রপূর্ণ করে তুলেছেন

ছবি

এনামুলের কথা ও সুরে গায়েনের পাঁচটি মৌলিক গান প্রকাশ

ছবি

শেষ হলো লন্ডন বইমেলা

ঐকবদ্ধ হচ্ছে টিভি ও চলচ্চিত্র শিল্পীরা

ছবি

নারীদের স্বাবলম্বি করার চেষ্টায় বিশেষ অনুষ্ঠান

ছবি

পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নতুন বই ‘জাতির উদ্দেশে ভাষণ: শেখ হাসিনা’

ছবি

মুজিববর্ষ উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জে আলোকচিত্র প্রদর্শনী

ছবি

প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নতুন বই ‘শেখ হাসিনা: বিমুগ্ধ বিস্ময়’

ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে গীতিনৃত্য

ছবি

৫ কোটি টাকায় বিক্রি হল রবীন্দ্রনাথের ‘যুগল’

লন্ডনে ২ দিন ব্যাপী লন্ডন বাংলা বইমেলা

বিশ্ব বাংলা সাহিত্য সমাবেশ ৯ ও ১০ অক্টোবর ২০২১

ছবি

অসুস্থ আহমদ রফিকের জন্য রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা চান লেখকরা

উত্তর আমেরিকা বাংলা সাহিত্য পরিষদের উদ্যোগে বিশ্ব বাংলা সাহিত্য সমাবেশ

ছবি

নারায়ণগঞ্জে শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ

ছবি

বিভিন্ন আন্দোলনে শিল্পীদের অবদান মেনে নিয়ে কোনো সরকার তাদের পাশে এসে দাঁড়ায়নি’: নাট্যকার মামুনুর রশিদ

ছবি

চাঁদপুরে রতন দেবনাথের গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

ছবি

খ্যাতিমান সাহিত্যিক বুদ্ধদেব গুহ মারা গেছেন

নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের কাউন্সিল

ছবি

একজন নৃত্যশিল্পী যখন সংগ্রাহক

ছবি

ইসলামী সংগীত প্রেমীকদের কাছে সাড়া ফেলেছে,মাহফুজুল আলম

ছবি

কবীর সুমন শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি

ছবি

সাহিত্যে ওয়ার্ল্ড প্রাইজ ‘গোল্ডেন ঈগল-২০২১’ পেলেন কবি কামরুল ইসলাম

ছবি

রাশেদ খান মেননের আত্মজীবনী প্রকাশিত

ছবি

ওকোডের নতুন হেড অফ অপারেশন এন্ড ইনোভেশন হলেন নাহারিন চৌধুরী

tab

সংস্কৃতি

‘মিডিয়া ব্যস্ত সময় পার করছেন মাসুদুল হাসান শাওন’

সাংস্কৃতিক বার্তা পরিবেশক

বৃহস্পতিবার, ০১ জুলাই ২০২১

কেমন আছেন?

আলহামদুলিল্লাহ সব মিলিয়ে বেশ ভালো।

* মঞ্চ নাটকে কীভাবে এলেন?

মঞ্চ নাটকের প্রতি আমার ভালোবাসা অনেক আগে থেকেই। গাজীপুরে থাকতেই একটা গ্রুপে ব্যাকস্টেজে কাজ করতাম। ঢাকায় এসে ১৯৯২ তে একটা দলে নাটকের কাজ শুরু করি। ১৯৯৭ সালে থিয়েটার স্কুল থেকে প্রশিক্ষণ শেষে নাট্যচক্রে যোগ দেই। সেই থেকে নাট্যচক্রের হয়ে মঞ্চে অভিনয় করে যাচ্ছি। আমার অভিনীত উল্লেখযোগ্য মঞ্চ নাটক হলো— ভদ্দরনোক, লেট দেয়ার বি লাইট, চক সার্কেল, পালাকারের নকশা, হোজা নাসিরুদ্দিন, মেরুদ-ের লড়াই, চাঁনমিয়ার বায়োস্কোপ, নীল দর্পণ, দ-ধর, মানিকজোড় ইত্যাদি।

মিডিয়ায় কীভাবে এলেন?

ইন্টারভিউ এবং রীতিমত ওয়ার্কশপ করে একটা প্যাকেজ নাটকের জন্য সিলেক্ট হই ১৯৯৭ এ। ‘শোন হে লখিন্দর’ নামের বিটিভির নাটকটিতে নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করি। ১৯৯৯ সালে আমার লেখা মৌলিক একটি নাটক ‘কামিনী ও কেয়া’ প্রচারিত হয় এটিএন বাংলায়। অভিনয় এবং লেখালেখি একসাথে চালিয়ে যাই।

২০০৭ এ সাইফুল ইসলাম মান্নুর পরিচালনায় ইমদাদুল হক মিলনের ‘প্রিয়’ উপন্যাসের নাট্যরূপ দেই। ধারাবাহিকটির নাম ছিল ‘মা বাবা ভাই বোন’। প্রচারিত হয় সেইসময়ের চ্যানেল ওয়ানে।

২০১০-১১ তে পরিচালক মুরাদ পারভেজ আমাকে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের জনপ্রিয় উপন্যাস ‘মানবজমিন’র নাট্যরূপ দেয়ার অফার দেয়। সেসময় ওই নাটকটিই ছিল আমার মূল টার্নিং পয়েন্ট। নাটকটি নিয়ে প্রচুর কাজ করেছিলাম সেই সময়। ১০৪ পর্বের মানবজমিন নাটকটি প্রচারিত হয় এনটিভিতে। এরপর আরও কিছু ধারাবাহিকে কো-রাইটার হিসেবে লেখার কাজ চালিয়ে যাই। অন্ধ তীরন্দাজ, একা এবং কয়েকজন, রেস্টুরেন্ট ২১, রেডিও জকি এবং কতিপয় গল্প তাদের মধ্যে অন্যতম।

*বর্তমানে কী নিয়ে ব্যস্ত আছেন?

বর্তমানে এটিএন বাংলার জন্য একটি দীর্ঘ ধারাবাহিক লিখছি। এটিএন এর চেয়ারম্যান ড: মাহফুজুর রহমান’র উপন্যাস ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’ অবলম্বনে নাটকটির নাট্যরূপ ও সংলাপ লিখছি আমি। মুরাদ পারভেজের পরিচালনায় ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’ নাটকটি প্রচারিত হচ্ছে এটিএন বাংলায় প্রতি রবি থেকে বৃহস্পতিবার রাত ৯.২০ মিনিটে। শুক্রবার রাত ১০.৫০ মিনিটে নাটকটির শেষ পাঁচ পর্ব একসাথে প্রচারিত হচ্ছে।

* আপনার লেখা নাটক কী কী?

আমার লেখা উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হলো ‘কামিনী ও কেয়া’, ‘মা বাবা ভাই বোন’, ‘মানবজমিন’, ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’। প্রচারের অপেক্ষায় এক ঘণ্টার নাটক কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছোট গল্প থেকে ‘কাদম্বিনী মরিয়া প্রমাণ করিল সে মরে নাই’, মোঁপাসার ছোট গল্প থেকে ‘নেকলেস’, আমার মৌলিক নাটক ‘নতুন এসেছেন রুম নম্বর কত’ অন্যতম।

* মিডিয়াতে কত বছর যাবত কাজ করছেন?

অভিনয় দিয়ে শুরু করে লেখালেখির হিসেব করলে সময়টা ১৯৯৭।

নাটক লেখার পাশাপাশি আমি একজন কথা সাহিত্যিক। ১৯৯২ সালে আমার প্রথম উপন্যাস বের হয়। এ পর্যন্ত ২১ টি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। আসছে বইমেলায় আমার একটি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হবে। ১০০০ পর্বের স্মৃতির আল্পনা আঁকি মেগা ধারাবাহিকের সংলাপ ও নাট্যরূপ দিচ্ছি সাথে।

* ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’ ধারাবাহিক নাটক নিয়ে কিছু বলুন?

সময়টা সম্ভবত ২০১৭। এটিএন এর চেয়ারম্যান ড: মাহফুজুর রহমান তাঁর একটি গল্প থেকে আমাকে একটি টেলিফিল্ম লেখার অফার দেন। ‘তবু মনে রেখো’ নামে একটি টেলিফিল্ম লিখে ফেলি। নাটকটি স্যুটিং শুরু হবার আগেই আবার তিনি আমাকে নতুন করে অফার দেন এবং বলেন এটি নিয়ে তিনি ১০০০ পর্বের ধারাবাহিক করতে চান। ইতোমধ্যে তাঁর লেখা উপন্যাসটি প্রকাশিত হয়ে গেছে। নাটকটি পরিচালনার জন্য অফার দেয়া হয় ন্যাশনাল ফিল্ম এওয়ার্ডপ্রাপ্ত মুরাদ পারভেজকে। সেই থেকে নাটকটি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। মুরাদ পারভেজের সূক্ষ্ম পরিচালনায় আমাদের ‘স্মৃতির আল্পনা আঁকি’ এখন নিয়মিত প্রচারিত হচ্ছে এটিএন বাংলায়।

গল্পের কাহিনির প্রেক্ষাপট স্বাধীনতাপূর্ব সময়কাল থেকে বর্তমান সময়কাল পর্যন্ত বিস্তৃত। হিন্দু মুসলিমের সৌহার্দপূর্ণ সহাবস্থান, পারিবারিক দ্বন্দ্ব, সংঘাত, হিন্দু মুসলিমের প্রেম ও বিরহ, ব্যক্তিগত জীবনে একজন মানুষের ক্রমউত্থান— সব মিলিয়ে তিন প্রজন্মের গল্প নাটকটিকে একটি ভিন্ন মাত্রা দিয়েছে। নাটকটি দর্শকদের ভালো লাগবে আশা করি।

back to top