alt

রাজনীতি

ওবায়দুল কাদের বললেন ‘জনগণের কষ্টের কথা চিন্তা করে শেখ হাসিনা ঘুমাতে পারেন না’

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘শেখ হাসিনা আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় পান না। আজকে মানুষ কষ্টে আছে। সাধারণ মানুষ, স্বল্প আয়ের মানুষ কষ্টে আছে। শেখ হাসিনার রাতের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। তিনি জনগণের কষ্টের কথা চিন্তা করে ঘুমাতে পারেন না। ৭৫ এর পর শেখ হাসিনার মতো সৎ মানুষ বাংলাদেশর রাজনীতিতে আর আসেননি। আমরা ভাগ্যবান শেখ হাসিনার মতো নেতা পেয়েছি।’

সোমবার দুপুর ১২টায় দিনাজপুর গোর-এ-শহীদ বড় মাঠে দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও দিনাজপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘১৫ ফেব্রুয়ারি মার্কা নির্বাচন এ দেশে আর হবে না। সুষ্ঠু ভোট হবে। ভয় পাবেন না। পৃথিবীর অন্যান্য দেশে যেভাবে ভোট হয়, সেভাবে হবে। নির্বাচনে আসল দায়িত্বে থাকবে নির্বাচন কমিশন (ইসি), শেখ হাসিনা রুটিন দায়িত্ব পালন করবেন। ইসির অধীনেই একটা নিরপেক্ষ ভোট হবে।’

এর আগে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শাহজাহান খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ, নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন, সভাপতিমণ্ডলীর সাবেক সদস্য সতীশ চন্দ্র রায় প্রমুখ।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আপনারা উসকানি দেবেন না। মারামারি করবেন না। উসকানি দিলে কিন্তু খবর আছে। আওয়ামী লীগের কর্মীরা মাঠ ছেড়ে দেয়নি। সতর্ক পাহারায় থেকে দেখবে কে কী করে। আপনারা আমাদের ওপরে হামলা করবেন আর আমরা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ললিপপ খাব, এটা কি হয়?’

১০ ডিসেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য বিএনপির সমাবেশ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘পরিবহন নেতাদের আমরা কখনো বলিনি পরিবহন ধর্মঘট করে বিএনপির সমাবেশে বাধাগ্রস্ত করতে। পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের আবারও বলতে চাই, ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশ ঘিরে কোনো ধর্মঘট করা যাবে না। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পরিবহন চলাচলে কোনো প্রকারের বাধা দেওয়া হবে না।’ এর সঙ্গে তিনি যুক্ত করেন, ‘ছাত্রলীগকে ভয় পাবেন না। শেখ হাসিনার নির্দেশে একজন ছাত্রলীগ কর্মীও সমাবেশের আশপাশে যাবে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শেখ হাসিনা আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় পান না। আজকে মানুষ কষ্টে আছে। সাধারণ মানুষ, স্বল্প আয়ের মানুষ কষ্টে আছে। শেখ হাসিনার রাতের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। তিনি জনগণের কষ্টের কথা চিন্তা করে ঘুমাতে পারেন না। ৭৫ এর পর শেখ হাসিনার মতো সৎ মানুষ বাংলাদেশর রাজনীতিতে আর আসেননি। আমরা ভাগ্যবান শেখ হাসিনার মতো নেতা পেয়েছি।’

আওয়ামী লীগের কর্মীদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দুর্দিনের নেতাদের ভুলে যাবেন না। দুর্দিনকে ভুলে গেলে নিজেরাই নিজেদের ভুলে যাবেন। যখন আপনি তাদের অবস্থানে যাবেন, তখন আপনাকে পরবর্তী প্রজন্ম ভুলে যাবে। অপরকে সম্মান জানানোর চর্চা রাখতে হবে। আজকে যিনিই নেতা নির্বাচিত হবেন, তাঁর সঙ্গে মিলে আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করতে কাজ করতে হবে। নিজেদের মধ্যে কোনো বিভেদ রাখা যাবে না।’

দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০১২ সালের ২৩ ডিসেম্বর। প্রায় ১০ বছর পরে আজ সম্মেলন হচ্ছে। প্রথম অধিবেশন শেষ। দ্বিতীয় অধিবেশনে নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দের নাম ঘোষণা করার কথা রয়েছে

ছবি

জাতীয় নির্বাচনে ২০০ আসনে প্রার্থী বাছাই প্রস্তুত বিএনপি

ছবি

পালায় কে? আ’লীগ না : শেখ হাসিনা

তত্ত্বাবধায়ক সরকার ফেরাতে বিশিষ্টজনদের কথা বলার আহ্বান ফখরুলের

ছবি

আওয়ামী লীগ নেতারা মুখে এক, কাজে আরেকঃ ফখরুল

ছবি

খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় আসছেন নেতাকর্মীরা

ছবি

ক্ষমতাসীনেরা পালানোর পথ পাবে না: ফখরুল

ছবি

একটি মৃত ইস্যু নিয়ে বিএনপি মাঠে নামার চেষ্টা করছে : শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

বিএনপির পদযাত্রা নয়, মরণযাত্রা শুরু হয়ে গেছে : কাদের

ছবি

ধর্ম যার যার দেশটা আমাদের সবার-চীফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী

ছবি

বিএনপি পিছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় আসার দিবাস্বপ্ন দেখছে : এনামুল হক শামীম

ছবি

চলমান আন্দোলনের যৌথ রূপরেখার ঘোষণা আসছে

ছবি

বিএনপির আন্দোলন চলে রিমোট কন্ট্রোলে অদৃশ্য নির্দেশে : কাদের

ছবি

আন্দোলন নস্যাৎ করতে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করবে সরকার: ফখরুল

ছবি

বিএনপিকে অচল গাড়ির সঙ্গে তুলনা করলেন হাছান মাহমুদ

ছবি

বিএনপি ও তার দোসররা আজগুবি যত খবর ছড়াচ্ছে: কাদের

ছবি

কিবরিয়া হত্যার ১৮ বছর : বারবার পেছায় মামলার তারিখ

ছবি

টাঙ্গাইলে একটি ভোটও চুরি করতে পারবেন না, প্রধান মন্ত্রীকে কাদের সিদ্দিকী

ছবি

হারিছ চৌধুরীর মেয়েকে ‘গলা টিপে হত্যার’ হুমকি, থানায় অভিযোগ

ছবি

বিএনপির নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

ছবি

আ’লীগ বাঙালির সংস্কৃতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে : ফখরুল

ছবি

এবার সরকারকে যেতে হবে: মির্জা ফখরুল

আগামী এক মাসের মধ্যে এই সরকার বিদায় হবে: শামসুজ্জামান দুদু

জামালপুরে `গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষ্যে বিএনপির সমাবেশ অনুষ্ঠিত

ছবি

৪ ফেব্রুয়ারি দেশব্যাপী বিক্ষোভ-সমাবেশ করবে গণতন্ত্র মঞ্চ

ছবি

খেলা শুরু হলে বিএনপির আন্দোলন ভেস্তে যাবে : কাদের

ছবি

পরিকল্পিতভাবে শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করছে সরকার: বিএনপি

ছবি

ইশরাকের ওপর হামলা : মামলার বাদী গ্রেপ্তার

বিএনপি গণতন্ত্র ও নির্বাচন ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে : কাদের

জনগণের উত্তাল তরঙ্গে আওয়ামী লীগ সরকার ভেসে যাবে : ফখরুল

ছবি

আ.লীগ জাতীয় সংসদকে একদলীয় ক্লাবে পরিণত করেছে : মির্জা ফখরুল

ছবি

বিএনপি কার্যালয়ে ভাঙচুর: ডিবির হারুনসহ ১০ জনের নামের মামলা খারিজ করল আদালত

ছবি

জামিন পেলেন বিএনপি নেতা ইশরাক

ছবি

বিএনপির নেতৃত্বের পতন চায় দেশের জনগণ : ওবায়দুল কাদের

ছবি

গরিব আরও গরিব হচ্ছে আর আওয়ামী লীগের নেতারা ফুলেফেঁপে বড় হচ্ছে : ফখরুল

ছবি

বিএনপি দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আনার ‘ষড়যন্ত্র’ করছে : কাদের

ছবি

জাহাঙ্গীরের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করলো আ’লীগ

tab

রাজনীতি

ওবায়দুল কাদের বললেন ‘জনগণের কষ্টের কথা চিন্তা করে শেখ হাসিনা ঘুমাতে পারেন না’

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘শেখ হাসিনা আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় পান না। আজকে মানুষ কষ্টে আছে। সাধারণ মানুষ, স্বল্প আয়ের মানুষ কষ্টে আছে। শেখ হাসিনার রাতের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। তিনি জনগণের কষ্টের কথা চিন্তা করে ঘুমাতে পারেন না। ৭৫ এর পর শেখ হাসিনার মতো সৎ মানুষ বাংলাদেশর রাজনীতিতে আর আসেননি। আমরা ভাগ্যবান শেখ হাসিনার মতো নেতা পেয়েছি।’

সোমবার দুপুর ১২টায় দিনাজপুর গোর-এ-শহীদ বড় মাঠে দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও দিনাজপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘১৫ ফেব্রুয়ারি মার্কা নির্বাচন এ দেশে আর হবে না। সুষ্ঠু ভোট হবে। ভয় পাবেন না। পৃথিবীর অন্যান্য দেশে যেভাবে ভোট হয়, সেভাবে হবে। নির্বাচনে আসল দায়িত্বে থাকবে নির্বাচন কমিশন (ইসি), শেখ হাসিনা রুটিন দায়িত্ব পালন করবেন। ইসির অধীনেই একটা নিরপেক্ষ ভোট হবে।’

এর আগে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শাহজাহান খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ, নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন, সভাপতিমণ্ডলীর সাবেক সদস্য সতীশ চন্দ্র রায় প্রমুখ।

বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আপনারা উসকানি দেবেন না। মারামারি করবেন না। উসকানি দিলে কিন্তু খবর আছে। আওয়ামী লীগের কর্মীরা মাঠ ছেড়ে দেয়নি। সতর্ক পাহারায় থেকে দেখবে কে কী করে। আপনারা আমাদের ওপরে হামলা করবেন আর আমরা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ললিপপ খাব, এটা কি হয়?’

১০ ডিসেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য বিএনপির সমাবেশ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘পরিবহন নেতাদের আমরা কখনো বলিনি পরিবহন ধর্মঘট করে বিএনপির সমাবেশে বাধাগ্রস্ত করতে। পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের আবারও বলতে চাই, ১০ ডিসেম্বর বিএনপির সমাবেশ ঘিরে কোনো ধর্মঘট করা যাবে না। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পরিবহন চলাচলে কোনো প্রকারের বাধা দেওয়া হবে না।’ এর সঙ্গে তিনি যুক্ত করেন, ‘ছাত্রলীগকে ভয় পাবেন না। শেখ হাসিনার নির্দেশে একজন ছাত্রলীগ কর্মীও সমাবেশের আশপাশে যাবে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শেখ হাসিনা আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় পান না। আজকে মানুষ কষ্টে আছে। সাধারণ মানুষ, স্বল্প আয়ের মানুষ কষ্টে আছে। শেখ হাসিনার রাতের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। তিনি জনগণের কষ্টের কথা চিন্তা করে ঘুমাতে পারেন না। ৭৫ এর পর শেখ হাসিনার মতো সৎ মানুষ বাংলাদেশর রাজনীতিতে আর আসেননি। আমরা ভাগ্যবান শেখ হাসিনার মতো নেতা পেয়েছি।’

আওয়ামী লীগের কর্মীদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দুর্দিনের নেতাদের ভুলে যাবেন না। দুর্দিনকে ভুলে গেলে নিজেরাই নিজেদের ভুলে যাবেন। যখন আপনি তাদের অবস্থানে যাবেন, তখন আপনাকে পরবর্তী প্রজন্ম ভুলে যাবে। অপরকে সম্মান জানানোর চর্চা রাখতে হবে। আজকে যিনিই নেতা নির্বাচিত হবেন, তাঁর সঙ্গে মিলে আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করতে কাজ করতে হবে। নিজেদের মধ্যে কোনো বিভেদ রাখা যাবে না।’

দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০১২ সালের ২৩ ডিসেম্বর। প্রায় ১০ বছর পরে আজ সম্মেলন হচ্ছে। প্রথম অধিবেশন শেষ। দ্বিতীয় অধিবেশনে নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দের নাম ঘোষণা করার কথা রয়েছে

back to top