alt

ক্যাম্পাস

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনার ডাক পেলেন জাবি অধ্যাপক

জাবি প্রতিনিধি : শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০২৩

হার্ভার্ড ইউনির্ভাসিটির ভিজিটিং স্কলার (পোস্ট-ডক্টরাল ফেলো) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক, তরুণ রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ড. মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম। তিনি হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েদারহেড সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স-এ আগামী বছরের জানুয়ারিতে ভিজিটিং স্কলার (পোস্ট-ডক্টোরাল ফেলো) হিসেবে যোগদান করবেন।

হার্ভার্ডে মর্যাদাবান ফেলোশিপ অর্জনের প্রতিক্রিয়ায় ড. তারিকুল তাঁর অনুভূতি ব্যক্ত করে সংবাদকে বলেন, আমার এই সাফল্যের জন্য প্রথমেই মহান আল্লাহ তায়ালার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি প্রত্যাশা করি যে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠদান এবং গবেষণার অভিজ্ঞতা আমার দক্ষতা এবং সক্ষমতা আরও বৃদ্ধি করবে এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা ও গবেষণায় উৎকর্ষতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে।

অধ্যাপনা সম্পর্কে তিনি বলেন, শুরু থেকে আমার স্বপ্ন ছিল একজন ভালো শিক্ষক হওয়া। একজন শিক্ষক হিসেবে প্রত্যাশা, আমি যেন শিক্ষার্থীদের জীবনে একটি পরিবর্তন আনতে পারি এবং তাদের আত্মবিশ্বাস,সামর্থ্য ও সৃজনশীলতা সমৃদ্ধ করতে আমি যেন একটি উৎস হতে পারি। আমার বড় প্রাপ্তির মধ্যে বলা যায় আমি জাহাঙ্গীরনগরে পড়াশোনা করে অক্সফোর্ড, কেমব্রিজ, সোয়ার্স এবং বর্তমানে হার্ভাডের সাথে সম্পৃক্ত হয়েছি। সেখানে পোস্ট ডক্টোরাল ফেলো, ভিজিটিং প্রফেসর হিসেবে আমন্ত্রণও পেয়েছি। আগামী বছরের জানুয়ারিতে হয়তো হার্ভাডে থাকবো। তবে আমি চাই খুব অল্প সময়ের মধ্যে সেখানকার জ্ঞান-প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষিত হয়ে আমি আমার দেশের শিক্ষার্থীদের তা দিতে পারি।

তিনি আরো বলেন, আমার বড় প্রাপ্তি হচ্ছে আমার ফাইন্ডিংসগুলো আমি নিয়মিত লিখে যাচ্ছি,ছড়িয়ে দিচ্ছি। ইতোমধ্যে আমার ৩টি বই প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া পত্র-পত্রিকায় অসংখ্য লিখালিখি ত আছেই। তবে আমি বলবো আমার এই জার্নি কেবল শুরু। এই পথ এখনও অনেক বাকি। তাই শিক্ষক হিসেবে আমি কতটুকু সফল বা কতটুকু অর্জন করেছি, তার হিসেব এখনই সম্ভব না। তবে আমি আমার এই প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। আমি এতেই সন্তুষ্ট যে আমি আমার প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে পারছি।

২০১৪ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদানের পূর্বে ড. তারিকুল সাত বছরের বেশি সময় জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি (ইউএনডিপি)-তে কর্মরত ছিলেন। শিক্ষা ও গবেষণার অংশ হিসেবে তিনি বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে রিসোর্স পারসন হিসেবে যুক্ত রয়েছেন।

এছাড়া তিনি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন পত্রিকা এবং জার্নালে নিয়মিত তার গবেষণা ও সাম্প্রতিক বিষয়সমূহ নিয়ে লেখালেখি করে যাচ্ছেন। তার সম্পাদিত বই, ‌‘হিউম্যান সিকিউরিটি, পিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট: সাউথ এশিয়ান পারস্পেক্টিভ’, যা ভারত থেকে প্রকাশিত হয়।

এছাড়াও তাঁর দুটি উল্লেখযোগ্য পাঠ্যপুস্তক, ‘দুর্যোগ, সুশাসন এবং উন্নয়ন: বাংলাদেশ প্রেক্ষিত’ (স্প্রিঞ্জার) এবং ‘বাংলাদেশে স্থানীয় সরকার: সমসাময়িক সমস্যা এবং চ্যালেঞ্জ’ (রুটলেজ) থেকে প্রকাশিত হয়েছে। ড. ইসলাম অক্সফোর্ড, কেমব্রিজ এবং স্কুল অফ ওরিয়েন্টাল অ্যান্ড আফ্রিকান স্টাডিজ (SOAS) থেকে একাধিক মর্যাদাপূর্ণ ফেলোশিপ (পোস্ট ডক্টোরাল ফেলো, ভিজিটিং স্কলার এবং ভিজিটিং রিসার্চার) ইতোমধ্যে সফলভাবে সম্পন্ন করেছেন।

ড. তারিকুল কলাম লেখক হিসেবে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সুপরিচিত। তিনি দি ডেইলি স্টার, দি ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, দি বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড, যুগান্তর এবং নেপালের খবরহাবে নিয়মিত কলাম লেখেন। শিক্ষা ও গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় বিখ্যাত ‘হায়ার এডুকেশন ডাইজেস্ট’ থেকে ‘সেরা উদীয়মান স্কলার’ এবং নেপালের একটি জাতীয় দৈনিক থেকে ২০২১ সালের ‘সেরা লেখক’ হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেন।

আজ শুরু হলো জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিযুদ্ধ, আসন প্রতি লড়বে ১০৮ জন

ছবি

জবি শিক্ষকদের রুমে লুকিয়ে চিঠি, আটকের পর জানা গেল হিযবুত তাহরীর সদস্য

ছবি

জবিতে শহীদ দিবস উপলক্ষ্যে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

রাবির হল প্রাধ্যক্ষকে ছাত্রলীগ নেতার হুমকি, কক্ষ সিলগালা

ছবি

জবির প্রক্টরিয়াল বডিতে নতুন দুই মুখ

ছবি

পাঁচ দফা দাবিতে জাবিতে নিপীড়নবিরোধী মঞ্চের মশাল মিছিল

ছবি

জবির নতুন প্রক্টর অধ্যাপক জাহাঙ্গীর

ছবি

জবি ছাত্রলীগের মারামারির দুই মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ২১ মার্চ

ছবি

রাবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় শিক্ষক দিবস পালিত

ছবি

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি মুছে ফেলার প্রতিবাদে দ্বিতীয় দিনেও আমরণ অনশনে জাবির ২ ছাত্রলীগ নেতা

ছবি

জবিতে জাতীয় স্নাতক গণিত অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত

ছবি

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি মুছে ফেলার প্রতিবাদে ছাত্রলীগ নেতার আমরণ অনশন

ছবি

জবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, আহত অন্তত ১০

ছবি

জবিতে সরস্বতী পূজায় নারী পুরোহিত

ঢাবিতে ক্যান্টিন মালিকের দাড়ি ছিঁড়ে ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

ছবি

৩৬ পূজামণ্ডপে হবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে সরস্বতী পূজা

ঢাবি সাংবাদিকের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণের জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইলেন দুই ছাত্রলীগ নেতা

ছবি

জাবিতে পাঁচ দফা দাবিতে প্রতীকী অবরোধ

ঢাবি অধ্যাপকের বিরুদ্ধে যৌন ইঙ্গিতপূর্ণ কথা ও গোপন ক্যামেরায় ছাত্রীকে নজরদারির অভিযোগ

ছবি

দিনব্যাপী নানা আয়োজনে উন্মুক্ত লাইব্রেরির দ্বিতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

ছবি

শিক্ষার্থীদের মনোজগতে মানবিক বাংলাদেশ সৃষ্টির আগ্রহ তৈরি করা জরুরি: উপাচার্য মশিউর রহমান

মোটরসাইকেলের হর্ন না শুনায় শিক্ষার্থীকে জবি ছাত্রলীগ নেতার মারধর

ছবি

আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় জুডোতে স্বর্ণপদক পেলেন জবি শিক্ষার্থী ইমন

ছবি

জবি চলচ্চিত্র সংসদের নেতৃত্বে সৈকত-রিক

ছবি

জবিতে পঞ্চম আবৃত্তি উৎসব অনুষ্ঠিত

ছবি

জাবিতে ধর্ষণের প্রতিবাদের নতুন প্ল্যাটফর্ম ‘নিপীড়নবিরোধী মঞ্চ’

ছবি

অবৈধভাবে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের ৫ দিনের মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ

ছবি

জবির প্রক্টরিয়াল বডিতে বড় পরিবর্তন

জাবিতে ধর্ষণের ঘটনায় ৬ জনের সনদ স্থগিত, বহিষ্কৃত ৩

ছবি

জাবিতে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, ঢাবিতে বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ

ছবি

নিজস্ব পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার দাবি জবি নীলদলের

ছবি

জাবিতে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ, ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক ৪

জাবিতে শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদ বিজয়ী

ছবি

এশিয়াটিক সোসাইটির সদস্য হলেন জবি উপাচার্য সাদেকা হালিম

ছবি

রাবির নির্মাণাধীন হলের ছাদ ধসে আহত ১০ শ্রমিক

ছবি

রাবি শিক্ষককে অতর্কিত হামলা ও হত্যাচেষ্টার প্রতিবাদে শিক্ষক সমিতির তিন দিনের আলটিমেটাম

tab

ক্যাম্পাস

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনার ডাক পেলেন জাবি অধ্যাপক

জাবি প্রতিনিধি

শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০২৩

হার্ভার্ড ইউনির্ভাসিটির ভিজিটিং স্কলার (পোস্ট-ডক্টরাল ফেলো) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক, তরুণ রাষ্ট্রবিজ্ঞানী ড. মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম। তিনি হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েদারহেড সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স-এ আগামী বছরের জানুয়ারিতে ভিজিটিং স্কলার (পোস্ট-ডক্টোরাল ফেলো) হিসেবে যোগদান করবেন।

হার্ভার্ডে মর্যাদাবান ফেলোশিপ অর্জনের প্রতিক্রিয়ায় ড. তারিকুল তাঁর অনুভূতি ব্যক্ত করে সংবাদকে বলেন, আমার এই সাফল্যের জন্য প্রথমেই মহান আল্লাহ তায়ালার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি প্রত্যাশা করি যে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠদান এবং গবেষণার অভিজ্ঞতা আমার দক্ষতা এবং সক্ষমতা আরও বৃদ্ধি করবে এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা ও গবেষণায় উৎকর্ষতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে।

অধ্যাপনা সম্পর্কে তিনি বলেন, শুরু থেকে আমার স্বপ্ন ছিল একজন ভালো শিক্ষক হওয়া। একজন শিক্ষক হিসেবে প্রত্যাশা, আমি যেন শিক্ষার্থীদের জীবনে একটি পরিবর্তন আনতে পারি এবং তাদের আত্মবিশ্বাস,সামর্থ্য ও সৃজনশীলতা সমৃদ্ধ করতে আমি যেন একটি উৎস হতে পারি। আমার বড় প্রাপ্তির মধ্যে বলা যায় আমি জাহাঙ্গীরনগরে পড়াশোনা করে অক্সফোর্ড, কেমব্রিজ, সোয়ার্স এবং বর্তমানে হার্ভাডের সাথে সম্পৃক্ত হয়েছি। সেখানে পোস্ট ডক্টোরাল ফেলো, ভিজিটিং প্রফেসর হিসেবে আমন্ত্রণও পেয়েছি। আগামী বছরের জানুয়ারিতে হয়তো হার্ভাডে থাকবো। তবে আমি চাই খুব অল্প সময়ের মধ্যে সেখানকার জ্ঞান-প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষিত হয়ে আমি আমার দেশের শিক্ষার্থীদের তা দিতে পারি।

তিনি আরো বলেন, আমার বড় প্রাপ্তি হচ্ছে আমার ফাইন্ডিংসগুলো আমি নিয়মিত লিখে যাচ্ছি,ছড়িয়ে দিচ্ছি। ইতোমধ্যে আমার ৩টি বই প্রকাশিত হয়েছে। এছাড়া পত্র-পত্রিকায় অসংখ্য লিখালিখি ত আছেই। তবে আমি বলবো আমার এই জার্নি কেবল শুরু। এই পথ এখনও অনেক বাকি। তাই শিক্ষক হিসেবে আমি কতটুকু সফল বা কতটুকু অর্জন করেছি, তার হিসেব এখনই সম্ভব না। তবে আমি আমার এই প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। আমি এতেই সন্তুষ্ট যে আমি আমার প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে পারছি।

২০১৪ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদানের পূর্বে ড. তারিকুল সাত বছরের বেশি সময় জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি (ইউএনডিপি)-তে কর্মরত ছিলেন। শিক্ষা ও গবেষণার অংশ হিসেবে তিনি বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে রিসোর্স পারসন হিসেবে যুক্ত রয়েছেন।

এছাড়া তিনি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন পত্রিকা এবং জার্নালে নিয়মিত তার গবেষণা ও সাম্প্রতিক বিষয়সমূহ নিয়ে লেখালেখি করে যাচ্ছেন। তার সম্পাদিত বই, ‌‘হিউম্যান সিকিউরিটি, পিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট: সাউথ এশিয়ান পারস্পেক্টিভ’, যা ভারত থেকে প্রকাশিত হয়।

এছাড়াও তাঁর দুটি উল্লেখযোগ্য পাঠ্যপুস্তক, ‘দুর্যোগ, সুশাসন এবং উন্নয়ন: বাংলাদেশ প্রেক্ষিত’ (স্প্রিঞ্জার) এবং ‘বাংলাদেশে স্থানীয় সরকার: সমসাময়িক সমস্যা এবং চ্যালেঞ্জ’ (রুটলেজ) থেকে প্রকাশিত হয়েছে। ড. ইসলাম অক্সফোর্ড, কেমব্রিজ এবং স্কুল অফ ওরিয়েন্টাল অ্যান্ড আফ্রিকান স্টাডিজ (SOAS) থেকে একাধিক মর্যাদাপূর্ণ ফেলোশিপ (পোস্ট ডক্টোরাল ফেলো, ভিজিটিং স্কলার এবং ভিজিটিং রিসার্চার) ইতোমধ্যে সফলভাবে সম্পন্ন করেছেন।

ড. তারিকুল কলাম লেখক হিসেবে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সুপরিচিত। তিনি দি ডেইলি স্টার, দি ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, দি বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড, যুগান্তর এবং নেপালের খবরহাবে নিয়মিত কলাম লেখেন। শিক্ষা ও গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় বিখ্যাত ‘হায়ার এডুকেশন ডাইজেস্ট’ থেকে ‘সেরা উদীয়মান স্কলার’ এবং নেপালের একটি জাতীয় দৈনিক থেকে ২০২১ সালের ‘সেরা লেখক’ হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেন।

back to top